৪ গিগা র‍্যামের জনপ্রিয় ৫ ফোন

প্রযুক্তিতে চলছে বাঁক বদলের খেলা। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নতুন ফিচার যুক্ত হচ্ছে স্মার্টফোনে। কনফিগারেশন উন্নত থেকে উন্নততর হচ্ছে।
এরই ধারাবাহিকতায় র‍্যামের গতিও বাড়ছে। মেগাবাইট থেকে এখন গিগাবাইট গতিতে চলছে র‍্যাম। এক বা দুই গিগাবাইট নয়, এখন পাওয়া যাচ্ছে ৪ গিগাবাইট র‍্যামের ফোন, কয়েকদিন আগেও যা ছিল কল্পনাতীত।
ফোনের র‍্যাম যত বাড়বে স্মার্টফোন ততো বেশি গতিময় হবে। বিশেষ করে গেইমিং ভক্তদের জন্য স্মার্টফোনের অধিক র‍্যাম বেশ গুরুত্বপূর্ণ। বর্তমানে বাজারে থাকা ৪ গিগাবাইট র‍্যামের জনপ্রিয় পাঁচ স্মার্টফোনের কথা জানাতে এ প্রতিবেদন।
oneplus-2
ওয়ানপ্লাস টু
চীনের স্মার্টফোন নিমার্তা ওয়ানপ্লান ইতোমধ্যে স্মার্টফোনের বাজারে বেশ ভালো অবস্থান তৈরি করেছে। উন্নত কনফিগারেশনের ফোন সাশ্রয়ী দামে এনে জনপ্রিয়তা পেয়েছে বেশ।
সেই ধারাবাহিকতায় সর্বশেষ ডিভাইস ওয়ানপ্লাস টুতে ব্যবহার করা হয়েছে ৪ গিগাবাইট র‍্যাম। এতে আরও রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট প্রযুক্তি এবং ইউএসবি টাইপ সি।
৫.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লের এ ফোনে রয়েছে গরিলা গ্লাস প্রযুক্তি। প্রসেসর হিসেবে রয়েছে অক্টাকোর স্ন্যাপ্নড্রাগন ৮১০।
ছবি তোলার জন্য এর পিছনে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সেলফি তোলার জন্য সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। এতে রয়েছে ৩ হাজার ৩০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।
দেশের বাজারে ওয়ানপ্লাস টু এর ১৬ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরি সংস্করণের মূল্য ৩৪ হাজার টাকা এবং ৬৪ গিগাবাইটের মূল্য ৩৮ হাজার টাকা।
আসুস জেনফোন টু
ল্যাপটপের বাজারে সুনাম অর্জনকারী প্রতিষ্ঠান আসুসের তৈরি জেনফোন ২ স্মার্টফোনে রয়েছে ৪ গিগাবাইট র‍্যাম। এতে রয়েছে ২.৩ গিগাহার্টজ ইন্টেল এটম প্রসেসর।
ছবি তোলার জন্য ৫.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লের ফোনটির পেছনে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সেলফির জন্য সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
উন্নত ব্যাকআপ সুবিধা দিতে এতে রয়েছে ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। এতে রয়েছে ৬৪ গিগাবাইট সমর্থিক মাইক্রো এসডি কার্ড স্লট।
স্মার্টফোনটির মূল্য ২৪৯ মার্কিন ডলার। দেশের বাজারে বিক্রি হচ্ছে ২১ হাজার থেকে ২৩ হাজার টাকায়।
স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ফাইভ
দক্ষিণ কোরিয়ার প্রযুক্তি জায়ান্ট স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি নোট ৫ ডিভাইসে ৪ গিগাবাইট র‍্যামের পাশাপাশি রয়েছে ৬৪ বিট ২.১ কোয়ার্ড কোর প্রসেসর।
ছবি তোলার জন্য রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
৫.৭ ইঞ্চি ডিসপ্লের ফ্যাবলেট আকারের ডিভাইসটিতে ব্যবহার করা হয়েছে সুপার অ্যামলয়েড স্ক্রিন। এতে রয়েছে ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। দেশের বাজারে মূল্য ৬৯ হাজার টাকা।
Air Command menu-970-80
জিওমি এমআই নোট প্রো
জিওমি চীনের আরেক স্মার্টফোন নিমার্তা প্রতিষ্ঠান, যা চীনা অ্যাপল নামে খ্যাতি অর্জন করেছে।
প্রতিষ্ঠানটির এমআই নোট প্রো ডিভাইসটিতে রয়েছে ৪ গিগাবাইট র‍্যাম। ফলে দ্রুত ও গতিময়ভাবে কাজের পাশাপাশি গেইম খেলা যাবে অনায়াসে।
৫.৭ ইঞ্চি ডিসপ্লে ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে অক্টাকোর স্ন্যাপড্রাগন ৮১০ প্রসেসর। রয়েছে ৬৪ গিগাবাইট ইন্টারনাল স্টোরেজ।
ছবি তোলার জন্য পিছনে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সামনে রয়েছে ৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
উন্নত ব্যাকআপ সুবিধা দিতে এতে রয়েছে ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। দেশের বাজারে মূল্য ৪০ হাজার টাকা।
Xiaomi-Mi-Note-Pro
লেনেভো কে৮০
লেনভো কে৮০ স্মার্টফোনটি চলতি বছর এপ্রিলে বাজারে আনে প্রতিষ্ঠানটি। ৪ গিগাবাইট র‍্যামের স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ৫.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে ১.৮৩ গিগাহার্টজ প্রসেসর।
ছবি তোলার জন্য পিছনে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
ইন্টারনাল স্টোরেজ সুবিধা দিতে এতে রয়েছে ৬৪ গিগাবাইট মেমোরি। তবে ডিভাইসটিতে মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহারের সুযোগ মিলবে না। কালো, সিলভার, লাল রংয়ের ডিভাইসটির বিক্রি হচ্ছে ২৫ হাজার টাকায়।