জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী ন্যান্সির ‘আমি ছুঁয়ে দিলেই’ গানের পারফর্ম করেছেন অভিনত্রেী ও মডেল সুজানা জাফর। মিউজিক ভিডিওটি পরিচালনা করেছেন তানিম রহমান অংশু। বান্দরবানের নীলগিরিতে ভিডিওটির শুটিং হয়েছে। গত পরশু ইউটিউবে গানটি ছাড়া হয়েছে। ইতিমধ্যে, প্রায় সাড়ে তিন হাজার দর্শক ভিডিওটি উপভোগ করেছেন। সুজানা জানালেন, ‘গানটি রিলিজের পর থেকেই প্রচুর ফোন, এসএমএস পাচ্ছি। অনেকেই ভালো প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। বছরের শেষ মিউজিক ভিডিওটা দর্শকদের এতোটা ভালো লাগবে কল্পনাও করিনি। আমি অভিভূত। উল্লেখ্য, বছরের মাঝামাঝিতে ‘আমি ছুঁইয়ে দিলেই’ শিরোনামে মিক্সড অ্যালবামটি প্রকাশ হয়েছে। এতে ন্যান্সির পাশাপাশি গান করেছেন সামিনা চৌধুরী, ফাহমিদা নবী, শাকিলা জাফর, কনক চাঁপা। অ্যালবামে মোটা সাতটি গান রয়েছে। 
 দেখুন গানটির মিউজিক ভিডিও


ভারতের মোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান কার্বন প্রযুক্তি বাজারে নিয়ে এলো ২জিবির ফোন মাত্র ৬ হাজার ৭৯০ রুপিতে। ভ্যাট ও ট্যাক্স ছাড়া বাংলাদেশি টাকায় ৮ হাজার টাকা। ফোনটির মডেল টাইটানিয়াম এস২০৫।
ডুয়েল সিম সমৃদ্ধ এই মোবাইলের ডিসপ্লে ৫ ইঞ্চি এইচডি। আইপিএস ডিসপ্লের রেজুলেশন ৭২০x ১২৮০ পিক্সেল। এতে রয়েছে কোয়াড কোর ১.২ গিগাহার্জের প্রসেসর। ফোনটির বিল্ট ইন মেমোরি ১৬ জিবি। মাইক্রো এসডি কার্ডের সাহায্যে এর মেমোরি ৩২ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। এটি অ্যানড্রয়েড ললিপপ ৫.১ ভার্সন দ্বারা পরিচালিত। 
টাইটানিয়াম ফোনটির রিয়ার ক্যামেরা ৮ মেগা পিক্সেলের। সেলফি প্রেমীদের জন্য রয়েছে ৩.২ মেগা পিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা। 
সারাদিন ব্যাকআপের জন্য এতে ২২০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার পার আওয়ারের ব্যাটারি রয়েছে।


কখনো মাঠে থেকে, কখনো দেখেছেন মাঠের বাইরে বসে। নিজের দেখা ২০১৫ সালের ক্রিকেট থেকে মাশরাফি বিন মুর্তজা খুঁজে নিয়েছেন বাংলাদেশ দলের সেরা ৫ পারফরম্যান্স...
তামিম-ইমরুলের যুগলবন্দী
পাকিস্তানের বিপক্ষে খুলনা টেস্টে তামিম-ইমরুলের ৩১২ রানের জুটি। টেস্টে বিশ্ব রেকর্ড, সে কারণেই এটাকে আমি আলাদা করেই ২০১৫ সালে বাংলাদেশের সেরা পারফরম্যান্স বলব। আলাদা করে শুধু তামিমের ডাবল সেঞ্চুরির কথা বলতে পারতাম, কিন্তু আমি মনে করি ইমরুলেরও ওই জুটিতে সমান অবদান ছিল।
অ্যাডিলেডে রুবেলের ম্যাচজয়ী বোলিং
বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে রুবেলের ৪ উইকেট। ম্যাচের শেষ পর্যায়ে সম্ভাবনার পাল্লা ইংল্যান্ডের দিকেই বেশি ঝুলে ছিল তখন। রুবেল সেই ম্যাচটাই আমাদের দিকে ঘুরিয়ে দেয়। মনে আছে সাকিব ওর কাছে গিয়ে বলেছিল, ‘এই ওভারটা করে তুই হিরো হয়ে যেতে পারিস।’ পরে আমি গিয়ে বলি, ‘তুই আউট করার জন্য বল কর। তাতে যদি রান হয়েও যায়, হয়ে যাক।’ রুবেল রান বাঁচানোর চেষ্টা করলে হয়তো ওই ম্যাচ আমরা হেরে যেতাম।
মাহমুদউল্লাহর দুই শতক
এর পরেরটাও বিশ্বকাপের পারফরম্যান্স। মাহমুদউল্লাহর পর পর দুই সেঞ্চুরি। বিশ্বকাপে এর আগে বাংলাদেশের হয়ে কেউ সেঞ্চুরি করেনি, এটা এর বড় কারণ। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৮ রানে ২ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর বল অনেক সুইং করছিল। ওই পরিস্থিতিতে উইকেটে গিয়ে মাহমুদউল্লাহ শুধু টিকেই থাকেনি, সমানে রান করে গেছে। সৌম্য ছোট ইনিংসেও তাকে ভালো সাহায্য করেছিল, তবে মাহমুদউল্লাহ সেদিন অনেক বেশি ভালো খেলেছে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অনেক চাপের মধ্যে ব্যাটিং করে সেঞ্চুরি করে। দলের চেহারা ওখানেই বদলে যায়।
‘ভয়ংকর’ মুস্তাফিজ
ভারতের বিপক্ষে পর পর দুই ওয়ানডেতে মুস্তাফিজের ১১ উইকেট নেওয়া। ও যে এত ভয়ংকর বোলার সেটা এর আগে কেউ চিন্তাই করেনি। মুস্তাফিজের বল দেখার পর সবার ভাবনা অন্যরকম হওয়াই স্বাভাবিক। কিন্তু ওই সময় ও ছিল একেবারেই নতুন। ভারতের মতো ব্যাটিং অর্ডারের বিপক্ষে সে এত নির্ভার হয়ে বোলিং করতে পারবে, সেটা কেউ আশাই করেনি। ভারতকে আমরা সিরিজ হারিয়েছি এবং একই সঙ্গে মুস্তাফিজের মতো একজন বোলার পেয়েছি। দুটোই বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য বড় অর্জন। বিশ্ব ক্রিকেটে আগে থেকেই অনেক বোলার কাটার দেয়। কিন্তু মুস্তাফিজের মতো এত কার্যকর কাটার দিতে আর কাউকে দেখিনি। ওর বল বাউন্সও করে, সুইংও করে। প্রায় প্রতিটা বলেই ব্যাটসম্যানের আউট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এই স্কিল আর কারও নেই। আগামী ১০-১৫ বছরে বাংলাদেশের ক্রিকেটকে অনেক কিছু দেওয়ার আছে মুস্তাফিজের।
‘অনন্য’ সৌম্য
দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে সৌম্য সরকারের পারফরম্যান্স। প্রথম ম্যাচে হেরে যাওয়ার পরও শেষ দুই ম্যাচে সৌম্যর ব্যাটেই আমাদের জয় সহজ হয়েছে, আমরা সিরিজ জিতেছি। এর আগে পাকিস্তানের বিপক্ষেও সে সেঞ্চুরি করেছে। তবু আমি দক্ষিণ আফ্রিকার বোলিং আক্রমণের বিপক্ষে ওই দুটি ইনিংসকেই এগিয়ে রাখব। দুই ইনিংসই সে যেরকম প্রভাব বিস্তার করে খেলেছে, পুরো দলের জন্যই সেটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল।

 
ঘুম প্রতিটা প্রানীর জন্যেই গুরুত্বপূর্ন। বিজ্ঞানিরা এখনো ঘুমের প্রক্রিয়াটা পুরোপুরি বের করতে পারেন নাই, কিন্তু আমরা সবাই এই প্রতিদিনের কার্যবিধি সম্পর্কে জানি। প্রতিটি স্তন্যপায়ী প্রানী, সরীসৃ্প, উভচর, পাখি, মাছ সবাইকেই ঘুমাতে হয়। আজকে ঘুমের ১৩ টি তথ্য আপনাদের দিব যা হয়ত আপনারা জানতেন না। ১। আপনি যখন ঘুমান তখন আপনার শরিরে কি হয় তা জানেন?
আপনার ব্রেইন শক্তি লাভ করে
আপনার শরিরের নষ্ট হওয়া সেল গুলো নিজে নিজে ঠিক হয়
আপনার শরীর গুরুত্বপূর্ন হরমন মুক্ত করে
২। বয়স অনুপাতে আপনার ভিন্ন ধরনের ঘুম দরকার।
বাচ্চাদের – ১৬ ঘন্টা
৩ থেকে ১২ বছর – ১০ ঘন্টা
১৩ থেকে ১৮ বছর – ১০ ঘন্টা
১৯ থেকে ৫৫ বছর – ৮ ঘন্টা
৬৫ বছরের উপরে – ৬ ঘন্টা
৩। পুরুষ তার স্বপ্নে অন্য পুরুষ কে দেখে ৭০% সময়, কিন্তু নারী তার স্বপ্নে পুরুষ এবং নারী উভয়কেই সমান সময় দেখে।
৪। আমরা স্বপ্নে তাদের ই দেখি যাদের মুখ আমাদের পরিচিত। তবে যার মুখ আপনি প্রতিদিন দেখেন না তাকেও আপনি স্বপ্নে দেখেন।
৫। প্যারাসমনিয়া একটা ঘুমের রোগ যা আপনাকে ঘুমের মধ্যে অস্বাভাবিক কাজ করায়। এই রোগের কারনে সংঘটিত হওয়া অপরাধ সমূহ
ঘুমের মধ্যে গাড়ী চালানো
ভূল চেক লেখা
হত্যা
শিশু নির্যাতন
ধর্ষন
৬। ১২% মানুষ সাদা কালো তে স্বপ্ন দেখে। এই রেট আরো বারতে পারে, কিন্তু রঙ্গীন টেলিভিশন স্বপ্নকে রঙ্গীন করতে সাহাজ্য করেছে।
৭। স্বপ্ন একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া, যে মানুষ স্বপ্ন দেখে না সে অস্বাভাবিক।
৮। ঘুমের পোজিশন আপনার পারসনালিটি বহন করে।
a . ফেটাল স্টাইল : এই আদলে ৪১% মানুষ ঘুমায়। সাধারনত এরা বদমেজাজী হয় তবে এদের মন অনেক বড় হয়।
b. লগ স্টাইল : ১৫ % মানুষ এইভাবে ঘুমায়। এরা সাধারনত সামাজীক উরনচন্ডি হয়।
c. দ্যা ইয়ারর্নার স্টাইল : ১৫ % মানুষ এভাবে ঘুমায়। এরা সাধারণ ভাবে চলে কিন্তু ভেতরে ভেতরে সন্দেহজনক।
d. সোলজার স্টাইল : ৮% এভাবে ঘুমায়। সাধারনত সংরক্ষিত মানসিকতার হয়
e. ফ্রি ফল : ৭% মানুষ এভাবে ঘুমায়। এরা খুম আমুদে হয়।
f. স্টারফিশ স্টাইল : ৫ % মানুষ এভাবে ঘুমায়। এরা সাধারনত খুব ভালো শ্রোতা হয়।
৯। প্রতি ৪ জন বিবাহিত দম্পত্তির মধ্যে ১টি দম্পত্তি আলাদা খাটে ঘুমায়।
১০। ব্রিটিশ সৈন্য রাই প্রথম একটি উপায় আবিষ্কার করে একতানা ৩৬ ঘন্টা না ঘুমিয়ে থাকার। যখন ক্লান্তি অনুভব করতো, তখন তারা একটা স্পেশাল মুখঢাকনি ব্যাবহার করতো যা সূর্যের আলোর তিব্রতা বাড়িয়ে দিত এবং তাদের জাগিয়ে তুলতো।
১১। স্তন্যপায়ী প্রানিদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঘুমায় :
কোয়ালাস : দিনে ২২ ঘন্টা ঘুমায়
ব্রাউন ব্যাট : দিনে ১৯.৯ ঘন্টা ঘুমায়
প্যানগোলিন্স : এরা দিনে ১৮ ঘন্টা ঘুমায়
সব চেয়ে কম ঘুমায় এমন স্তন্যপায়ী প্রানী :
গিরাফেস : ১.৯ ঘন্টা ঘুমায় দিনে। ঘুমের সময় ৫-১০ মিনিট।
রো হরিন : ৩.০৯ ঘন্টা ঘুমায় দিনে
এশিয়াটিক এলিফেন্ট : ৩.১ ঘন্টা ঘুমায় দিনে
১২। ডলফিন যখন ঘুমায়, তখন তার ব্রেইন এর অর্ধেক বন্ধ থাকে। বাকি অর্ধেক তাকে শ্বাস নিতে সাহাজ্য করে।
১৩। আপনি না খেয়ে মরবেন না কিন্তু না ঘুমিয়ে মরবেন। ২ সপ্তাহ না খেয়ে থাকতে পারবেন কিন্তু ১০ দিন না ঘুমালে মারা পড়বেন।



বিদায় মুহূর্তে ২০১৫ সাল। এখন শুধু গেল বছরে কি হয়েছে তা মিলিয়ে দেখার সময়! পৃথিবীতে সব মাধ্যমেই এসব নিয়েই চলছে এখন পুরোদমে হিসেব নিকেষ। বলিউডও তার ব্যতিক্রম নয়। চলতি বছরে সর্বামোট বলিউডে এ বছর মুক্তি পেয়েছে ১০৯টি ছবি। এরমধ্যে ছবিগুলোকে বিভিন্নভাগে ভাগ করেছেন সিনেমা বোদ্ধারা। মান ও গুণের দিক থেকে বিচার বিশ্লেষণ করে অনেকেই অনেকভাবে তালিকা তৈরি করেছেন। সিনেমা বোদ্ধাদের দেয়া রেটিংয়ের উপর নির্ভর করে কেউ চলতি বছরের সেরা সিনেমার তালিকা করছেন, আবার কেউ বাণিজ্যসফল ছবিগুলোকেই সেরা বলে চিহ্নিত করছেন। যদিও বলিউডও এগিয়ে রাখছে বক্স অফিসে ব্যবসাসফল ছবিগুলোকেই। সেই হিসেবে ২০১৫ সালকে বলিউডের জন্য রীতিমত লক্ষীই বলা চলে। কারণ এই বছরে তাদের বেশকিছু সিনেমা বক্স অফিসে রীতিমত ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। যা এর আগে খুব একটা দেখা যায়নি।   
‘বলিউড মুভি রিভিউজ’ অবলম্বনে এখানে চলতি বছরে বক্স অফিসে হিট করা ব্যবসাসফল দশটি সিনেমার তালিকা দেয়া হল, কিন্তু এগুলো কোনোভাবেই চলতি বছরের সেরা সিনেমা নয়।     
বজরঙ্গি ভাইজান:
 চলতি বছরে মুক্তি পাওয়া ব্যবসাসফল ছবি হিসেবে সেরা দশের শীর্ষস্থানে আছে সালমান খান অভিনীত ছবি ‘বজরঙ্গি বাইজান’। বছরের মাঝামাঝিতে ছবিটি সিনেমা হলে মুক্তি পায়। জুলাইয়ে ঈদ উপলক্ষে মুক্তি পাওয়া কবির খান পরিচালিত ছবিটি মুক্তির তৃতীয় দিনেই ১০০ কোটি রুপি আয় করে ইতিহাস সৃষ্টি করে। এ পর্যন্ত শুধু ভারতের বক্স অফিসেই ছবিটি আয় করেছে ৩১৮ কোটি। 
প্রেম রতন ধন পায়ো:
সুপারস্টার অভিনেতা সালমান খানের ‘বজরঙ্গি ভাইজান’-এর পর ফের তারই অভিনীত আরেক ছবি ‘প্রেম রতন ধন পায়ো’ মুক্তি পায় গত নভেম্বরে। মুক্তির প্রথম সপ্তাহেই রেকর্ড করে ছবিটি। মাত্র একমাসেই শুধু ভারতে ছবিটি ১৯০ কোটি রুপি আয় করে ২০১৫ সালের ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় দ্বিতীয়স্থানে উঠে আসে। পিআরডিপি ছবিটি পরিচালনা করেন প্রখ্যাত নির্মাতা সুরজ বারজাত্য। ছবিতে প্রথমবার সোনম কাপুরকে সালমা খানের নায়িকা হিসেবে দেখা যায়। এর আগে সোনমের ‘সাওয়ারিয়া’ ছবিতে অথিতিশিল্পী হিসেবে ছিলেন সালমান।
তনু ওয়েডস মনু রিটার্নস:
বলিউডের ইতিহাসে অন্যতম একটি ছবি ‘তনু ওয়েডস মনু’র সিক্যুয়াল তনু ‘ওয়েডস মনু রিটার্নস’। নায়ক নির্ভর বলিউডি ছবি থেকে বের হয়ে নারীকে কেন্দ্র করে ছবি বলিউডে হতে পারে, এবং সেই ছবি বক্স অফিসে হিট করতে পারে এটা প্রথমবার ‘তনু ওয়েডস মনু’ দেখিয়ে দিলো। আর এইজন্য ছবিটির সিক্যুয়াল নির্মাণ করেন প্রখ্যাত নির্মাতা আনন্দ এল রায়। কঙ্গনা রানাউতকে ঘিরে ছবিটির কাহিনী গড়ে উঠে। চলতি বছরের মে মাসে মুক্তি পাওয়া ছবিটি আয় করেছে ১৪৮ কোটি রুপি।
দিলওয়ালে:
 রোহিত শেঠির নির্মাণে ‘দিলওয়ালে’ মুক্তি পেয়েছে চলতি বছরের ডিসেম্বরের আঠারো তারিখে। বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খান ও কাজল অভিনীত ছবিটি মুক্তির প্রথম সপ্তাহেই আয় করেছে একশো কোটি রুপি। সমালোচকদের প্রশংসা না পেলেও ছবিটি এখনও বক্স অফিসে ব্যবসা করেই চলেছে। দীর্ঘ পাঁচ বছর পর শাহরুখ-কাজল জুটিবদ্ধ হওয়ার দরুন এবং শাহরুখের ব্যক্তিগত প্রভাবের কারণেই ছবিটি ‘বাজে’ মার্কা পেয়েও এখন পর্যন্ত শুধু ভারতেই আয় করেছে ১১৮ কোটি রুপি। চলতি বছরের সেরা দশ ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় তাই দিলওয়ালের অবস্থান চার নম্বরে।
বাজিরাও মাস্তানি:
এই বছরের আলোচিত ছবিগুলোর একটি বাজিরাও মাস্তানি। এর প্রধান কারণ ছবিটি দেবদাস, রামলীলার মতো বিখ্যাত ছবির নির্মাতা সঞ্জয় লীলা বানসালি। তারউপর ছবিটি একইদিনে শাহরুখ-কাজল অভিনীত ‘দিলওয়ালে’র সাথে একই দিনে মুক্তি পায়। চলতি মাসের ১৮ তারিখে মুক্তি পাওয়া দীপিকা পাডুকোন, রনবীর সিং এবং প্রিয়াঙ্কা চোপড়া অভিনীত ঐতিহাসিক কাহিনী নির্ভর ছবিটি মুক্তির প্রথম সপ্তাহে ভালো ব্যবসা করতে না পারলেও দ্বিতীয় সপ্তাহে উঠে আসে আলোচনায়। সিনেমা আলোচকদের প্রশংসা পেলেও খুব একটা ভালো শুরু করেনি ছবিটি। কিন্তু দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে রোহিতের দিলওয়ালেকে হারিয়ে দুর্দান্ত দাপট নিয়ে ফিরে এসেছে ‘মাস্তানি’। এখন পর্যন্ত শুধু ভারতেই ছবিটি আয় করেছে ১১৭ কোটি। আর ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় আছে পাঁচ নম্বরে, দিলওয়ালের ঠিক পরেই। তবে ধারণা করা হচ্ছে বানসালির বাজিরাও মাস্তানি শেষ পর্যন্ত সালমান খানের প্রেম রতন ধন পায়ো’র সাথে টেক্কা দিবে!
বাহুবলী:
ভারতীয় সিনেমার ইতিহাসে অন্যতম প্রভাবশালী এক চলচ্চিত্র এস এস রাজামউলের ‘বাহুবলী’। ছবিটি তামিল ও তেলেগুতে দুর্দান্ত ব্যবসা করেছে। আঞ্চলিক ছবিগুলোকে বলিউডের তালিকায় না ফেলা হলেও ‘বাহুবলী’ ছবিটি একই সাথে হিন্দিতেও মুক্তি পায়। আর মুক্তি পেয়ে শুধু ভারতের অন্যান্য রাজ্যে শুধু নয়, বলিউডের বক্স অফিসেও আঘাত হানে। ভারতে সব মিলিয়ে চারশো কোটির উপরে ব্যবসা করলেও শুধু বলিউডের বক্স অফিসে আঘাত করে নিজের জুলিতে ভরে নেয় ১১১ কোটি রুপি। আর এই আয় নিয়েই বলিউডের সেরা দশ ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় প্রবেশ করে প্রভাসের ‘বাহুবলী’।
এবিসিডি ২:
এবিসি, ‘এনিবডি ক্যান ডান্স’। ছবিটি মুক্তির পর দারুণ ব্যবসা করলে ছবিটির সিক্যুয়াল নির্মাণে উদ্যুত হয় নির্মাতা রিমু ডি’সুজা। তারই ফলশ্রতিতে এ বছরের শুরুতেই সিনেমা হলে মুক্তি পায় ‘আশিকি ২’ খ্যাতি পাওয়া অভিনেত্রী শ্রদ্ধা কাপুর ও স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার খ্যাত অভিনেতা বরুন ধাওয়ান। ছবি মুক্তির আগে গানগুলো ব্যাপক জনপ্রিয়তা পাওয়ায় ছবিটিও বক্স অফিসে হিট করে। বছরের শুরতেই ছবিটি একশো কোটি রুপি আয় করে বেশ আলোচনার জন্ম দেয়। এ পর্যন্ত ‘এবিসিডি ২’ আয় করেছে ১০৬ কোটি রুপি। শীর্ষ দশ ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় ৭ নম্বরে।
ওয়েলকাম ব্যাক:
চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে মুক্তি পায় তারকা বহুল ছবি ‘ওয়েলকাম ব্যাক’। জন আব্রাহাম, নানা পাটেকার, শ্রুতি হাসান, পরেশ রাওয়াল, ডিম্পল কাপাডিয়া, অনিল কাপুর এবং নাসিরউদ্দিন শাহ অভিনীত ছবিটি মুক্তির পরেই বেশ আলোচনার সৃষ্টি করে। কমেডি ধাচের এই ছবিটিও বক্স অফিসে ভালো সাড়া এনে দিতে সমর্থ হয়। এ পর্যন্ত ছবিটি ৯৭ কোটি রুপি আয় করে অষ্টম অবস্থানে জায়গা করে নিয়েছে।
গাব্বার ইজ ব্যাক:
চলতি বছরের মাঝামাঝিতে মুক্তি পায় অ্যাকশন ও কমেডি ধাচের হিরো অক্ষয় কুমার অভিনীত ছবি ‘গাব্বার ইজ ব্যাক’। সমাজের অসঙ্গতি আর অন্যায়কে রুখে দেয়ার সামাজিক জাগরণমূলক ছবি ‘গাব্বার ইজ ব্যাক’। চলতি বছরের মে মাসে মুক্তি পেয়েছে নির্মাতা কৃষের এই ছবি। ছবিটির প্রযোজক ছিলেন মেধাবী নির্মাতা সঞ্জয় লীলা বানসালি। ভিন্ন মেজাজে অক্ষয় কুমারকে দাঁড় করিয়ে দেয়া ‘গাব্বার ইজ ব্যাক’ এ পর্যন্ত বক্স অফিসে আয় করেছে ৮৫ কোটি রুপি। আছে ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় নয় নম্বরে।
বেবি:
চলতি বছরের শুরতেই বলিউডে মুক্তি পায় অক্ষয় কুমার অভিনীত ছবি ‘বেবি’। বছরের শুরতেই ছবিটি বেশ আলোচনারও জন্ম দেয়। নিরজ পান্ডের পরিচালনায় ক্রাইম, অ্যাকশন, থ্রিলে ভরপুর ‘বেবি’ ছবিটি ৮২ কোটি রুপি আয় করে চলতি বছরের ব্যবসাসফল শীর্ষ দশে জায়গা করে নিয়েছে।



 দেশজুড়ে গ্রাহকদের জন্য আরো বিস্তৃত ও মানসম্মত ডাটা সেবা প্রদান করতে ওয়াই-ফাই ইন্টারনেট চালু করবে মোবাইল ফোন অপারেটর রবি। এ পদক্ষেপ বাস্তবায়নে রবিকে প্রযুক্তিগত সহায়তা প্রদান করবে দেশের অন্যতম ইন্টারনেট সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান অ্যাকসেসটেল।

প্রাথমিকভাবে ওয়াইফাই সেবাটি শুধু দেশের প্রধান প্রধান মেট্রোপলিটন শহরগুলোতে চালু করা হবে। পরবর্তীতে ধাপে ধাপে সারা দেশে ছড়িয়ে দেয়া হবে সেবাটি।

গত ২৭ ডিসেম্বর রাজধানীতে রবি কর্পোরেট অফিসে রবি’র প্রধান অপারেটিং কর্মকর্তা মাহতাব উদ্দিন আহমেদ ও অ্যাকসেসটেল’র প্র্ধান নির্বাহী কর্মকর্তা জেইন ওমর নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এ বিষয়ে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, সরকার ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার যে উদ্যোগ হাতে নিয়েছে এ পদক্ষেপ তার সাথেই সামঞ্জস্যপূর্ণ। অন্যদিকে এই সেবা চালুর মাধ্যমে মোবাইল ফোন ডাটায় শীর্ষ অপারেটর হওয়ার লক্ষ্যে আরো একধাপ এগিয়ে গেল রবি। উচ্চগতির ও সাশ্রয়ী মূল্যের ইন্টারনেট সেবার জন্য ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটানোর লক্ষ্যে থ্রিজি সেবার প্রসার ঘটিয়ে যাচ্ছে রবি। ওয়াই-ফাই সেবাটি সে পদক্ষেপে এক নতুন মাত্রা যোগ করবে।

ওয়াই-ফাই সেবা সম্পর্কে রবি’র সিওও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণে সরকারের লক্ষ্য বাস্তবায়নে রবি সবসময়ই সহায়ক ভূমিকা পালন করছে। অ্যাকসেসটেল’র সাথে গৃহীত এ পদক্ষেপের ফলে গ্রাহকরা নিজেদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা, তথ্য জানা ও ক্ষমতায়নের আরো সুযোগ গ্রহণ করতে পারবেন। আমরা বিশ্বাস করি ভবিষ্যতে সবাই ইন্টারনেট ভিত্তিক যে সমাজের স্বপ্ন দেখছে তার শুরু এখানেই। আমরা ভবিষ্যতের সেই শক্তির দ্বারা বাংলাদেশের মানুষের ক্ষমতায়নে প্রতিনিয়ত ভূমিকা রেখে যাব।’

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে রবি’র মার্কেট অপারেশনের এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট জ্যঁ-মিশেল আরনড শানুট, কর্পোরেট স্ট্রাটেজি’র ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. ইফতেখারুল ইসলাম, জেনারেল ম্যানেজার মোহাম্মদ মশিউর রহমান ও ম্যানেজার মো. তোফাজ্জল হোসেন এবং অ্যাকসেসটেল’র হেড অব মার্কেটিং রাহাত খান উপস্থিত ছিলেন।

 
গ্রামীণফোন গ্রাহকদের জন্য সহজ ডট কম টিকেট ক্রয়ের উপর ‘মাথা নষ্ট অফার ২’ শিরোনামের এক্সক্লুসিভ ডিসকাউন্ট অফার ঘোষণা করেছে। আগামি ২৭ ডিসেম্বর থেকে একটি গ্রামীণফোন নম্বর থেকে শুধুমাত্র প্রথমবার টিকিট কিনতে গেলে এ এক্সক্লুসিভ ডিসকাউন্ট পাওয়া যাবে। অফারটি পাওয়া যাবে আগামি ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত।

কো-ব্র্যান্ডেড ওয়েব পোর্টাল www.shohoz.com/grameenphone -এ ভিজিট করে, সহজ ডট কমের কল সেন্টার নম্বর ১৬৩৭৪-এ কল করে কিংবা সহজ এর সহযোগী প্রতিষ্ঠানে গিয়ে গ্রাহকরা বাস টিকিট ক্রয়ের ক্ষেত্রে পাবেন ৩০০ টাকা ডিসকাউন্ট।

প্রয়োজনীয় তথ্য সরবরাহ করলে এসএমএস এর মাধ্যমে সহজ ডট কম থেকে ডিসকাউন্ট কুপন কোড আসবে। সহজ ডট কমের অন্যান্য শর্ত এ ডিসকাউন্ট অফারটিতে প্রযোজ্য হবে।

এসম্পর্কে গ্রামীণফোনের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা ইয়াসির আজমান বলেন, ‘গ্রামীণফোন নতুন নতুন ডিজিটাল সেবার প্রতি খুবই গুরুত্ব দিচ্ছে। অনলাইন টিকিট ক্রয় এখন আর কল্পনা না, বরং সবাইকে এর ব্যবহারে আগ্রহী হতে হবে। আকর্ষণীয় এই অফারের মাধ্যমে গ্রামীণফোন গ্রাহকরা অনলাইন ক্রয়ের ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ হবে।’

সহজ ডট কমের প্রতিষ্ঠাতা ব্যবস্থাপনা পরিচালক মালিহা কাদির বলেন, ‘নতুন এই অফারটির চালু করতে আমরা অধীর অপেক্ষায় আছি। গ্রামীণফোন গ্রাহকদের জন্য আমরা এ অফারটির নাম দিয়েছি ‘মাথা নষ্ট অফার ২’। গত নভেম্বর মাসে ‘মাথা নষ্ট অফার ১’-এর ব্যাপক সাড়া পাওয়া আমরা দ্বিতীয়বার এটি চালু করছি যাতে করে গ্রামীণফোন গ্রাহকরা বিশেষ এ সুবিধার মাধ্যমে সহজ.কম ওয়েবসাইট ব্যবহার করে। যাতায়াত করতে বাস টিকিট ক্রয় একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ আর গ্রামীণফোন গ্রাহকরা ৩০০ টাকা ডিসকাউন্ট পাওয়ার মাধ্যমে লাভবান হবে বলে আমি মনে করি।’

একজন কাস্টমার ডিসকাউন্টে একসঙ্গে সর্বোচ্চ দুটি টিকিট কিনতে পারবে। উল্লেখ্য, প্রথম ৫০০০ টিকিটের ক্ষেত্রে এই এক্সক্লুসিভ ডিসকাউন্ট অফার প্রযোজ্য।

২৯ ডিসেম্বর থেকে সিলেটে শুরু হওয়া ‘বিসিএস আইসিটি এক্সপো ২০১৫’ মেলায় বিশ্বের খ্যাত নামা ‘আসুস’ ও ‘লেনোভো’ ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ এবং রাপু, গোল্ডেনফিল্ড, এডাটা, পান্ডা, টোটোলিংক ও হান্টকি ব্র্যান্ডের কম্পিউটার এক্সেসোরিজ নিয়ে অংশগ্রহন করছে বাংলাদেশের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি শিল্পের অন্যতম পরিবেশক গ্লোবাল ব্র্যান্ড (প্রা:) লিমিটেড। পাচঁদিন ব্যাপি আয়োজন করা হয়েছে এই আইটি মেলা।


















মেলা উপলক্ষ্যে আসুস ও লেনেভোর পক্ষ থেকে রয়েছে বিশেষ অফার। আসুসের রয়েছে আকর্ষণীয় “উইন্টার জ্যাকেট অফার”। যে কোন আসুস ল্যাপটপ কিনে ক্রেতারা পাবেন স্টাইলিশ উইন্টার জ্যাকেট।

লেনেভোর পক্ষ্য থেকে রয়েছে ‘নিউ ইয়ার ফেসটিভ্যাল ’শীর্ষক বিশেষ অফার। এই অফারের আওতায় লেনোভো ল্যাপটপ বা অল-ইন-ওয়ান পিসি ক্রয়ে ক্রেতারা পাচ্ছেন একটি স্ক্র্যাচ কার্ড। স্ক্র্যাচ কার্ডের মাধ্যমে ক্রেতারা পেতে পারেন ট্যাবলেট পিসি, এলিডি টিভি, স্মার্টফোন, টাচ্ মোবাইল ফোন, পেনড্রাইভ, ব্রাদার প্রিন্টার, পান্ডা ইন্টারনেট সিকিউরিটি, মাউস বা টি-শার্ট।

এছাড়াও হান্টকির পক্ষ্য থেকে রয়েছে ‘নিউ ইয়ার গিফট’ শীর্ষক বিশেষ অফার । হান্টকির পন্য ক্রয়ে ক্রেতারা পাচ্ছেন একটি স্ক্র্যাচ কার্ড। স্ক্র্যাচ কার্ডের মাধ্যমে ক্রেতারা পেতে পারেন স্মার্টফোন, সেলফি স্টিক, টি-শার্ট এবং আরোও আকর্ষণীয় সব উপহার। গ্লোবাল ব্র্যান্ড (প্রা:) লিমিটেড ক্রেতাদের কাছ থেকে ব্যাপক সাড়া পাবার আশা প্রকাশ করছে।

বিশ্বের জনপ্রিয় প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা এসারের পাচটি নতুন মডেলের মনিটর বাজারে নিয়ে এসেছে প্রতিষ্ঠানটির বাংলাদেশ পরিবেশক এক্সিকিউটিভ টেকনোলজিস লিমিটেড।




২২ ইঞ্চি স্ক্রীনের এসার জি২২৭এইচকিউএল মনিটরটিতে রয়েছে সম্পূর্ণ এইচডি (১৯২০X১০৮০) রেজ্যুলেশন, এইচডিএমআই এবং ভিজিএ ইনপুটের সুব্যবস্থা। মনিটরটির সর্বোচ্চ মূল্য নির্ধারন করা হয়েছে মাত্র ১১ হাজার ৮০০ টাকা।

এছাড়াও ১৫.৬ ইঞ্চি সাইজের এসার পি১৬৬এইচকিউএল মনিটরটিতে রয়েছে ১০০,০০০,০০০:১ কনট্রাস্ট রেশিও। যা গ্রাহকদের দেবে চমৎকার স্ক্রিন পারফরমেন্সের নিশ্চয়তা। এই মনিটরটির মূল্য নির্ধারন করা হয়েছে মাত্র ৬ হাজার টাকা।

গুগলের মেইল পরিসেবা জিমেইলে আসা ই-মেইলের প্রতিউত্তর জানাবে ‘স্মার্ট রিপ্লাই’ফিচার। সম্প্রতি জিমেইল এই ফিচারটি আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করেছে।




গতকাল থেকে জিমেইল ব্যবহারকারীদের জন্য চালু হয়েছে ‘স্মার্ট রিপ্লাই’ সুবিধা। আরও দ্রুত ই-মেইল ব্যবহারের বিষয়টি নিশ্চিত করতে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা এ সুবিধাটি ব্যবহারের সুযোগ পেয়ে পাচ্ছেন।

এবার সে সুবিধাটিই ই-মেইলের জন্য চালু করা হলো। দ্রুত কোনো বিষয়ে রিপ্লাই দেওয়ার ক্ষেত্রে এ কাজটি করতে পারবেন ব্যবহারকারীরা। এ সুবিধাটি বর্তমানে জিমেইলের ইনবক্স অ্যাপে পাওয়া যাচ্ছে।

‘স্মার্ট রিপ্লাই’ সুবিধায় যে ই-মেইল আসবে তার সারমর্ম বুঝে সে অনুযায়ী একাধিক সংক্ষিপ্ত বার্তা দেখাবে। সেখান থেকে ব্যবহারকারী তাৎক্ষণিকভাবে দ্রুত একটি নির্বাচন করে সেটিও চাইলে রিপ্লাই করতে পারেন, আবার চাইলে তার সঙ্গে কিছু যোগ করেও দিতে পারেন।

গুগলের ইন্টেলিজেন্স প্রযুক্তি যে বার্তাই পাবে, সেটির অর্থ বুঝে প্রয়োজনীয় তিনটি সংক্ষিপ্ত বার্তা দেখাবে। ব্যবহারকারী যেটি প্রয়োজন মনে করেন সেটি দ্রুত আকারে রিপ্লাইয়ের ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারবেন।

কয়েকবার ব্যবহারকারী এ সেবা ব্যবহারের পর তাদের পছন্দ অনুসারে বার্তা দেখাবে গুগলের এ ইন্টেলিজেন্স প্রযুক্তি। ইনবক্স অ্যাপের পরবর্তী হালনাগাদে নতুন এ সুবিধাটি যুক্ত হবে বলে জানিয়েছে গুগল। বিবিসি ও জিমেইল ব্লগ।

গুগলের মেইল পরিসেবা জিমেইলে আসা ই-মেইলের প্রতিউত্তর জানাবে ‘স্মার্ট রিপ্লাই’ফিচার। সম্প্রতি জিমেইল এই ফিচারটি আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করেছে।
gmail-undoগতকাল থেকে জিমেইল ব্যবহারকারীদের জন্য চালু হয়েছে ‘স্মার্ট রিপ্লাই’ সুবিধা। আরও দ্রুত ই-মেইল ব্যবহারের বিষয়টি নিশ্চিত করতে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা এ সুবিধাটি ব্যবহারের সুযোগ পেয়ে পাচ্ছেন।
এবার সে সুবিধাটিই ই-মেইলের জন্য চালু করা হলো। দ্রুত কোনো বিষয়ে রিপ্লাই দেওয়ার ক্ষেত্রে এ কাজটি করতে পারবেন ব্যবহারকারীরা। এ সুবিধাটি বর্তমানে জিমেইলের ইনবক্স অ্যাপে পাওয়া যাচ্ছে।
‘স্মার্ট রিপ্লাই’ সুবিধায় যে ই-মেইল আসবে তার সারমর্ম বুঝে সে অনুযায়ী একাধিক সংক্ষিপ্ত বার্তা দেখাবে। সেখান থেকে ব্যবহারকারী তাৎক্ষণিকভাবে দ্রুত একটি নির্বাচন করে সেটিও চাইলে রিপ্লাই করতে পারেন, আবার চাইলে তার সঙ্গে কিছু যোগ করেও দিতে পারেন।
gmailগুগলের ইন্টেলিজেন্স প্রযুক্তি যে বার্তাই পাবে, সেটির অর্থ বুঝে প্রয়োজনীয় তিনটি সংক্ষিপ্ত বার্তা দেখাবে। ব্যবহারকারী যেটি প্রয়োজন মনে করেন সেটি দ্রুত আকারে রিপ্লাইয়ের ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারবেন।
কয়েকবার ব্যবহারকারী এ সেবা ব্যবহারের পর তাদের পছন্দ অনুসারে বার্তা দেখাবে গুগলের এ ইন্টেলিজেন্স প্রযুক্তি। ইনবক্স অ্যাপের পরবর্তী হালনাগাদে নতুন এ সুবিধাটি যুক্ত হবে বলে জানিয়েছে গুগল। বিবিসি ও জিমেইল ব্লগ।
- See more at: http://corporatenews.com.bd/%e0%a6%87-%e0%a6%ae%e0%a7%87%e0%a6%87%e0%a6%b2%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%b8%e0%a7%8d%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%b0%e0%a7%8d%e0%a6%9f-%e0%a6%b0%e0%a6%bf%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b2%e0%a6%be%e0%a6%87.html#sthash.c0D1Ll4J.dpuf

নতুন বছর আসতে চলেছে। সবাই একে বরণ করে নিতে মুখিয়ে আছেন। তবে একে শুধু আনন্দ উদযাপনের মধ্য দিয়ে স্বাগত জানালেই চলবে না। নতুন সময়ের সঙ্গে আপনার জীবনেরও পরিবর্তন আসা জরুরি। বিশেষজ্ঞরা জানান, পুরনো বছরের সঙ্গে জীবনের বেশ কিছু বিষয় বাদ দেওয়া উচিত। হাফিংটন পোস্টের প্রতিবেদনে জেনে নিন এদের কথা।
১. ডায়েট : গোট বছরই হয়তো বিশেষ ডায়েটে চক্করে পড়েছিলেন। আসলে ভেতর ও বাইরে থেকে সুস্থ থাকতে খাবারের ভূমিকাই প্রধান। কিন্তু তা তালিকার মধ্যে আটকে রাখলে চলবে না। নতুন বছরে পুরনো তালিকা বাদ দিন এবং স্বাস্থ্যকর যেকোনো খাবার উপভোগ করুন।
২. ধ্বংসপ্রায় সম্পর্ক : যে সম্পর্ক প্রায় শেষ হতে চলেছে একে আর নতুন বছর পর্যন্ত নিয়ে যাওয়ার দরকার নেই। যে তরী ডুবতে চলেছে, তাকে ত্যাগ করুন।
৩. চলতি ট্রেন্ড : আমরা সবাই ট্রেন্ডের সঙ্গে ভেসে যাই। ফেসবুকের প্রোফাইল ছবি থেকে শুরু করে পোশাক পর্যন্ত বছরের প্রচলিত ট্রেন্ড অনুযায়ী রক্ষা করতে চাই। কিন্তু নতুন বছরের শুরুতে পুরনো ট্রেন্ড বাদ দিন। নতুন কিছু করুন।
৪. চেষ্টা করতে ভয় : অনেক কিছুই করতে ভয় করে। এই ভয়ে হয়তো পুরনো বছরে অনেক কিছুই করেননি। কিন্তু নতুন বছর উপলক্ষে নতুন সাহসে কাজটি করার চেষ্টা করুন। দেখুন কি হয়।
৫. 'আমি জানি না' : নতুন বছর থেকে এ কথাটি বলা বাদ দিন। এ কথায় আত্মবিশ্বাস কমে আসে। অন্যের চোখে আপনার ব্যক্তিত্ম হেয়প্রতিপন্ন হবে।
৬. নিজের সীমবদ্ধতা বিশ্বাস করা : সবারই সীমাবদ্ধতা রয়েছে। নিজের সীমাবদ্ধতা সম্পর্কে ধারণা থাকা দরকার। কিন্তু নতুন বছর উপলক্ষে নিজেকে নতুন করে চিন্তা করুন। বেশ কিছু সীমাবদ্ধতাকে অস্বীকার করার চেষ্টা করে দেখুন কি হয়।
৭. নিজেকে ঘৃণা করা : আয়নার দিকে তাকিয়ে নিজের খুঁতগুলো বের করার অভ্যাস বাদ দিন। নিজের প্রতি বাজে ধারণা ত্যাগ করুন।
৮. সাবেক কিছু : যেকোনো জিনিস হতে পারে যা ব্যবহার করেন না, তা ফেলে দিন। সাবেক প্রেমিক বা প্রেমিকাসহ যেকোনো সাবেক জিনিস নতুন বছরে পুরোপুরি ত্যাগ করুন। যেটার প্রতি আগ্রহ আছে তার দিকে এগিয়ে যান।
৯. খেদ : মনে অনেক ক্ষোভ ও কষ্ট থাকতে পারে। পুরনো কোনো বিষয়ের প্রতি খেদ রাখবেন না। এমন কিছু থাকলে নতুন বছরের শুরুতে এ থেকে মুক্তি নিন।

আইফোন ব্যবহার করছেন! তাহলে চোখ রাখুন নিচের অ্যাপসগুলির উপর।এতে আপনার দৃষ্টিশক্তি বাড়বে কিনা জানা নেই তবে আইফোনের দৃষ্টিশক্তি বাড়বে।
তাহলে একটু জেনে নিন, কোন কোন অ্যাপস থাকা উচিত।
১. গুগল ফটো- গুগল ফটোতে আপনার ছবি আর্কাইভ করে রাখলে খুব সহজেই খুঁজে পাবেন। এছাড়াও পচ্ছন্দের ছবি অ্যালবাম করুন। জিফ ফাইল তৈরি করে বন্ধুর সঙ্গে শেয়ার করুন। আর কী!
২. ফোরস্কোয়ার- খেতে ভালবাসেন! ভিন শহরে গিয়ে একটু অপ্রস্তুতে পড়েছেন ভাল রেস্টুরেন্ট খুঁজতে গিয়ে। চিন্তা নেই আইফোনে ফোরস্কোয়ার ডাউনলোড করে রাখুন। আর বড় বড় দেশে সিনোরিটার জন্য খুঁজে ফেলুন পচ্ছন্দসই রেস্টুরেন্ট।
৩. ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার- ফোন আছে ফেসবুক নেই। মানুষ আছে হার্ট নেই। ব্যাপারটা একই। ফোনে প্রাণ আনতে ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার তো দরকার। আইফোনও রাখুন।
৪. ভেনমো- যদি থাকে ভেনমো অ্যাপস আপনার আইফোনে তাহলে রথ দেখা কলা বেচা দুটোই হতে পারে। ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট কানেক্ট করে পাঠাতে খুব সহজে টাকা বিনিময় করতে পারেন। বন্ধুর বার্থডে পার্টি থেকে গার্লফ্রেন্ডের গিফ্ট সবই ভেনমো দিয়ে সারতে পারেন। সঙ্গে এক্সট্রা ভিডিও গিফ্ট।
৫. ওয়ান পাসওয়ার্ড (1password)- গোপন রাখুন গোপন কথা। আইফোন থাকলে অবশ্যই ডাউনলোড করুন ওয়ান পাসওয়ার্ড। ফাইল সিকিউর রাখতে বেস্ট অ্যাপ ওয়ান পাসওয়ার্ড।


মোটা চশমাধারী কোনো ব্যক্তি যদি গম্ভীরমুখে আপনাকে বলে, ৮০০ বছর আগেও পৃথিবীতে মুঠোফোন ছিল, তখন কী ভাববেন আপনি? হয় হেসেই উড়িয়ে দেবেন, নয় ভাববেন, লোকটার মাথা খারাপ হয়ে গেল না কি। যা-ই ভাবুন, প্রত্নতাত্ত্বিকরা এমনই একটি মুঠোফোন আবিষ্কার করেছেন, যেটির বয়স আটশো বছরের বেশি।
সম্প্রতি খননকার্য চালাতে গিয়ে অস্ট্রিয়া থেকে এই মুঠোফোনের খোঁজ পেয়েছেন প্রত্নতাত্ত্বিকরা। মুঠোফোনটির গায়ে রয়েছে সুমেরীয় লিখনশৈলী, যা কীলকাকার বর্ণমালা নামে পরিচিত।
একটি ইউটিউব চ্যানেলে সদ্য আবিষ্কৃত প্রাচীন সেই ফোনের ফসিলের ভিডিও আপলোড করে লেখা হয়েছে, ‘এটা কী? উন্নত সভ্যতার নিদর্শন?’ এই আবিষ্কারের দৌলতে সায়েন্স ফিকশনের টাইম মেশিনকেও সত্য বলেই মনে করা হচ্ছে।  
ফোনের গায়ের সুমেরীয় লেখা প্রত্নতাত্ত্বিকদের কৌতূহল বাড়িয়েছে। কারণ, অনেক বছর আগেই কীলকাকার এই বর্ণমালা অবলুপ্ত হয়ে যায়। প্রাচীন মেসোপটেমিয়ায় এই হরফ দেখা গিয়েছিল। 
অস্ট্রিয়ার গবেষকদের ধারণা, ফোনটি ১৩০০ শতকের। বর্তমান ইরান ও ইরাকের লিপির সঙ্গে তারা অনেকও মিলও খুঁজে পেয়েছেন। তবে এটি মোবাইল ফোনই, না কি অন্য কোনো ডিভাইস, তা নিয়ে অবশ্য ধোঁয়াশাই রয়ে গেছে গবেষকদের মধ্যে। 
এই নিয়ে হইচই করছেন ইউএফও (আন-আইডেন্টিফাইড ফ্লাই অবজেক্ট) খোঁজকারীরাও, যারা মনে করেন প্রাচীন সভ্যতার সঙ্গে এলিয়েনদের যোগাযোগ ছিল। ভিনগ্রহের বাসিন্দারা এই পৃথিবীতেও আসত। তাদের হাতে ছিল এই প্রযুক্তি। হয়ত নিদর্শন হিসেবে তারা রেখে গেছেন পৃথিবীবাসীর জন্য।


মোবাইল ফোনে দিনে ৫০০ টাকার বেশি রিচার্জ করতে পারবে না প্রিপেইড গ্রাহকরা। সর্বোচ্চ রিচার্জের এ সীমা কার্যকর করতে সেল ফোন কোম্পানিগুলোকে নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।
এজন্য ২০০৮ সালের এ সংক্রান্ত নির্দেশনা সংশোধন করে মঙ্গলবার মোবাইল অপারেটরদের কাছে চিঠি দিয়েছে সংস্থাটি। তবে পোস্ট পেইড গ্রাহকদের বিষয়ে কোনো সীমা বলা হয়নি। চিঠিটি বিটিআরসি পরিচালক ( সিস্টেম অ্যান্ড সার্ভিসেস) লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ জুলফিকার স্বাক্ষরিত।
তবে এ নিয়ে অপারেটরদের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্তটির বিষয়ে বিরুপ মনোভাব দেখা দিয়েছে। তারা বলছেন, ইন্টারেনেট ডেটা ও ভয়েসের কিছু প্যাকেজে এ ৫০০ টাকার বেশি রিচার্জ করা লাগে। এ ক্ষেত্রে গ্রাহকেরা সমস্যায় পড়তে পারেন। এ নির্দেশনা ডেটা প্যাকেজের জন্য প্রযোজ্য কিনা এ সম্পর্কে চিঠিতে স্পষ্ট করে কিছু বলা নেই।
এ নির্দেশনার যৌক্তিকতার বিষয়ে চিঠিতে উল্লেখ না থাকলেও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সূত্রে জানা গেছে, অবৈধ ভিওআইপি বন্ধে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
সূত্র জানিয়েছে, গত ২১ অক্টোবর ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় পরিদর্শনকালে জয় অবৈধ কলের লাগাম টেনে ধরতে সিমের রিচার্জ মাত্রার একটা সীমা নির্ধারণের পরামর্শ দেন। 
উল্লেখ্য, সম্প্রতি অবৈধ পথে বিদেশ থেকে কল যাওয়া-আসার পরিমাণ বেড়ে গেছে । বিটিআরসির তথ্যমতে, জুনে যেখানে বৈধভাবে গড়ে প্রতিদিন ১২ কোটি মিনিট আন্তর্জাতিক কল এসেছে, এখন তা কমে ৯ কোটির নিচে নেমেছে। 
চিঠিতে বলা হয়েছে, প্রিপেইড গ্রাহরা দিনে ৩০০ টাকা ও মাসে এক হাজার টাকার বেশি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন না । আগের নির্দেশনায় দিনে ট্রান্সফারের সীমা ছিল ছিল ১০০ টাকা। প্রিপেইড গ্রাহকেরা সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকার ব্যালেন্স রাখতে পারবেন।
বর্তমানে মোবাইল গ্রাহকের মধ্যে ৯৮ শতাংশের বেশি প্রি-পেইড গ্রাহক । আর দেশের ইন্টারনেট গ্রাহকদের মধ্যে ৯৭ শতাংশ মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার করেন।  
বিটিআরসি’র হিসাবে গত নভেম্বর শেষ নাগাদ দেশে ছয়টি মোবাইল অপারেটরের মোট গ্রাহক ১৩ কোটি ৩১ লাখ ৬৩ হাজার। আর ইন্টারনেট সংখ্যা পাঁচ কোটি ৩৯ লাখ ৪১ হাজার। এর মধ্যে ৫ কোটি ১৪ লাখ ৬৮ হাজার মোবাইল ইন্টারনেটের গ্রাহক ।



পৃথিবীর সেরা পাঁচ শতাধিক নতুন উদ্যোগের মধ্যে সেরা দশ নির্বাচন করেছে বিশ্বখ্যাত ম্যাগাজিন ফোর্বসের স্টার্টআপ সহায়তাকারী প্রতিষ্ঠান ‘ওয়াই কম্বিনেটর’। আর এই বিশ্বসেরা দশ নতুন উদ্যোগের তালিকায় নয় নম্বরে রয়েছে বাংলাদেশের গ্রোসারি শপ চালডাল ডটকম।
বাংলাদেশের জনগণকে এক দোকানে নিত্য প্রয়োজনীয় সব পণ্য পাওয়ার সুবিধা দিচ্ছে চালডাল। প্রতিষ্ঠানটির আছে তিনটি ওয়্যারহাউজে ৪ হাজার এর বেশি পণ্য। প্রতিদিন গড়ে ৪০০ কাস্টমারদের কাছে পণ্য পৌঁছে দিচ্ছে এই ই-কমার্স মার্কেটপ্লেস। আর পণ্য পৌঁছে দিতে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানটি সময় নিয়ে থাকে এক ঘণ্টা। এসব দিক বিবেচনায় বিশ্বখ্যাত প্রতিষ্ঠান ‘ওয়াই কম্বিনেটর’ এর ২০১৫ সামিটে বিশ্বসেরা ৫০০ স্টার্টআপের র্যাং কিংয়ে ৯ম স্থান দখল করেছে চালডাল।
ওয়াসিম আলিম, তেজাস বিশ্বনাথ ও জিয়া আশরাফ ২০১৩ সালে বাংলাদেশের মানুষদের উন্নত অনলাইন সুবিধা দেওয়ার উদ্দেশ্যে চালডাল ডটকম প্রতিষ্ঠা করেন।
তারা জানান, বিশ্বসেরা ‘ওয়াই কম্বিনেটর’ প্রকাশিত বিশ্বসেরা নতুন উদ্যোগের তালিকায় চালডালের নাম দেখে তারা আরও বেশি উদ্যমী হয়ে উঠেছেন। তারা চান ঢাকার প্রতিটি অঞ্চলের পাশাপাশি দেশের ব্যস্ত শহরগুলোতেও চালডালের ওয়্যারহাউজ প্রতিষ্ঠা করার মাধ্যমে সারাদেশের মানুষদের নিত্য প্রয়োজনীয় সব ধরনের পণ্যের হোম ডেলিভারি সুবিধা দিতে।




বিশ্বের জনপ্রিয় প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এইচটিসি চীনের বাজারে অবমুক্ত করেছে ৫.৫ ইঞ্চি পর্দার নতুন স্মার্টফোন ‘এইচটিসি ওয়ান এক্স৯’। যার সম্পূর্ণ বহিরাবরণ হবে ধাতব নির্মিত। স্মার্টফোনটির মূল্য নির্ধারিত হয়েছে ৩৭০ ডলার।

সম্প্রতি সংবাদ সংস্থা দ্যা টাইমস অব ইন্ডিয়া এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। জানা গেছে, এইচটিসির জনপ্রিয় স্মার্টফোন এ৯ এর আপডেট হচ্ছে নতুন এই স্মার্টফোনটি।

৫.৫ ইঞ্চি এইচডি ডিসপ্লের ‘এইচটিসি ওয়ান এক্স৯’ স্মার্টফোনটি অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম চালিত হবে। এর অভ্যন্তরে থাকছে মিডিয়াটেক হিলিও এক্স১০ অক্টা-কোর প্রসেসর এবং ৩ গেগাবাইট র‌্যাম।

এছাড়াও থাকছে ৩২ জিবি অভ্যন্তরীন মেমোরি সুবিধা, যা আরও ৩২ জিবি মাইক্রোস এসডি কার্ড সমর্থন করবে। ছবি এবং ভিডিও ধারনকারীদের জন্য থাকছে বিশেষ সেন্সর সমৃদ্ধ ১৩ মেগা পিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা, যা দিয়ে ৪কে ভিডিও ধারনা করা যাবে।

আল্ট্রা মেগা পিক্সেল প্রযুক্তির ৫ মেগা পিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা রয়েছে, যা দিয়ে হাই ডেফিনেশনের সেলফি তোলা যাবে। স্মার্টফোনটিতে থাকছে ৩,০০০ এমএএইচ ব্যাটারি। আরও রয়েছে ২জি, ৩জি, ৪জি নেটওয়ার্ক সমর্থন, ওয়াই- ফাই, ব্লুটুথ ৪.১ এবং মাইক্রো ইউএসবি ব্যবস্থা।

তবে স্মার্টফোনটি কবে নাগাদ বিক্রি শুরু হবে এবং অ্যান্ড্রয়েডের কোন অপারেটিং সিস্টেমে আসবে সেসম্পর্কে কিছুই জানা যায়নি।


ষষ্ঠ প্রজন্মের প্রসেসর সমৃদ্ধ আসুসের নতুন জেনবুক বাজারে অবমুক্ত করেছে দেশে আসুসের একমাত্র পরিবেশক গ্লোবাল ব্র্যান্ড প্রাইভেট লিমিটেড। আসুস ইউএক্স ৩০৩ মডেলের নতুন এই জেনবুককে পূর্বের ডিভাইসগুলোর তুলনায় আরো পাতলা, হালকা, অধিক কার্যক্ষম করা হয়েছে।

উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেম চালিত ষষ্ঠ প্রজন্মের প্রসেসর সমৃদ্ধ এই জেনবুকটি স্বতঃস্ফুর্তভাবে মাল্টি টাস্ক করতে সক্ষম। অর্থাৎ এই জেনবুকের সাহায্যে সহজেই এক সঙ্গে একাধিক কাজ করা যাবে এবং যেকোন অ্যাপ্লিকেশন দ্রুততার সাথে আরম্ভ করতে পারে এটি।

এর ১৩.৩ ইঞ্চি আইপিএস ফুল এইচডি এলিডি ডিসপ্লে দিবে স্বচ্ছ ও প্রাণবন্ত ভিডিও চিত্র দেখার অনুভূতি। জেনবুকটির সনিক মাস্টার প্রযুক্তি সম্পন্ন অডিও’র সাহায্যে স্পষ্ট শব্দ শোনার অনুভূতি।

ইউএক্স ৩০৩ ইউবি জেনবুকটিতে রয়েছে ষষ্ঠ প্রজন্মের ২.৫০ গিগাহার্জ সমৃদ্ধ ইন্টেল কোরআই-৭ প্রসেসর, ৮ জিবি র‌্যাম, ১ টেরাবাইট হার্ডডিস্ক। এ ছাড়াও উন্নত পার্ফমেন্স নিশ্চিত করতে রয়েছে ২ জিবি এনভিডিয়া জিফোর্স ৯৪০ এম ভিডিও গ্রাফিক্স।

নেটওয়ার্কিংয়ের জন্য থাকছে ওয়াইফাই, ব্লুটুথ, ডব্লিউএলএএন এবং এইচডি ক্যামেরা। থ্রিসেল পলিমার ব্যাটারি সহ জেনবুকটির ওজন মাত্র ১.৪৫ কেজি।

২ বছর ওয়ারেন্টিসহ এই জেনবুকটির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৮৭ হাজার টাকা।



বিশ্বে সবথেকে জনপ্রিয় প্রযুক্তি পণ্য স্মার্টফোন। বর্তমান সময়ের প্রায় সকল মোবাইল ব্যবহারকারীর হাতে থাকে একটি স্মার্টফোন। প্রযুক্তির আধুনিকায়নে এই স্মার্টফোনে যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন ফিচার।

তবে ফোনে এতো ফিচার উপভোগে প্রয়োজন পর্যাপ্ত চার্জ ধারনক্ষম ব্যাটারি। কিন্তু বর্তমানে যেসকল স্মার্টফোন রয়েছে তাতে টানা ভিডিও কল, ব্রাউজিং কিংবা ভিডিও দেখলেই ঘন্টা খানেকের মধ্যে শেষ হয়ে আসে ব্যাটারি।

স্মার্টফোনের এই চার্জ স্বল্পতা দূর করে ব্যবহারকারীর জন্য নতুন শক্তিশালী ব্যাটারি তৈরি করছে প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান সনি। সম্প্রতি জাপান ভিত্তিক এই প্রতিষ্ঠানটি সাধারণ ব্যাটারির তুলনায় ৪০ শতাংশ বেশি ক্ষমতাধর ব্যাটারি বানানোর ঘোষণা দিয়েছে।

জানা গেছে, নতুন ওই ব্যাটারিতে ইলেকট্রোড উপাদান হিসেবে সালফার যৌগ ব্যবহার করা হবে। ফলে প্রচলিত ব্যাটারির তুলনায় ৪০ শতাংশ বেশি সময় ধরে স্মার্টফোনকে বিদ্যুৎ শক্তি যোগাবে ব্যাটারিগুলো।

নভেম্বরে চীনা ইলেকট্রনিকস পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়েই নতুন একটি ব্যাটারি দেখিয়েছে, যা পাঁচ মিনিটে শূন্য থেকে ৫০ শতাংশ চার্জ নিতে সক্ষম।

প্রথমে স্মার্টফোন ব্যাটারি হিসেবেই এটি বাজারে আনতে চায় এর নির্মাতারা। এজন্য ২০২০ সালে বাণিজ্যিকভাবে ওই ব্যাটারি বাজারজাত করার আশা করছে প্রতিষ্ঠানটি।



ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে বা নষ্ট ফাইল জমে পেনড্রাইভ অনেক সময় তার কার্যক্ষমতা হারাতে পারে। যার ফলে পেনড্রাইভে ফাইল আদান- প্রদানের সময় রাইট প্রোটেকডেট ম্যাসেজ প্রদর্শন করে থাকে।

format-pendriveএ সমস্যাটি সমাধানে তাই প্রথমে কম্পিউটারটি বন্ধ করে পেনড্রাইভটি নির্ধারিত পোর্টে সংযুক্ত করতে হবে। এখন Turn on বাটন চেপে পরবর্তীতে কয়েকবার F8 বাটন চাপতেই Advanced Boot Option নামক একটি পেজ ওপেন হবে।

সেখানে কমান্ড প্রম্পট থেকে Safe Mode সিলেক্ট করে কিছুক্ষন অপেক্ষা করতে হবে। এবার C:\windows\system32>G: [এখানে G: নিজের ইউএসবি ফ্লাশ ড্রাইভ বা পেনড্রাইভটির নির্ধারিত নামটি নির্দেশ করছে] ঠিকানা লিখে এন্টার চাপতে হবে।

এরপর G:\>format G: লিখে পুনরায় এন্টার চাপতে হবে। এ পর্যায়ে কম্পিউটার সিস্টেম একটি ম্যাসেজে (Y/N) অপশন প্রদর্শন করলে সেখানে (Y) সিলেক্ট করে এন্টার চাপতে হবে।

এখন কিছু সময় অপেক্ষা করতেই পেনড্রাইভটি সম্পূর্ণ ফরমেট হয়ে যাবে। এরপর কম্পিউটারটি স্টার্ট হলে পেনড্রাইভটি safely remove অপশনে চেপে সঠিক ভাবে eject করলেই রাইট প্রোটেকশন সমস্যা আর থাকবে না।



সাধারণ স্বাস্থ্য সচেতন মানুষের কাছে পরিধেয় ট্র্যাকিং প্রযুক্তি ডিভাইস অধিক জনপ্রিয়। এই ধরনের পরিধেয় ডিভাইসের সাহায্যে সহজেই শরীরের বিভিন্ন অংশের কার্যকারিতা পর্যবেক্ষণ করা যায়।

তবে এমন পরিধেয় ট্র্যাকিং ডিভাইস ত্রুটিপূর্ণ বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব নর্থ ক্যারোলিনার গবেষকরা। সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়টির গিলিংস স্কুল অব গ্লোবাল পাবলিক হেলথ্ বিভাগের গবেষকরা এই ধরনের ডিভাইসকে যথেষ্ট ত্রুটিপূর্ণ বলে আখ্যায়িত করেছে।

গবেষকদের মতে, একজন মানুষ যখন স্বাধীন ভাবে হাটে তখন সে কত কদম দিচ্ছেন তা ট্র্যাকিং করে অর্থাৎ গণনা করে পরিধেয় ডিভাইস। তবে প্রকৃতপক্ষে একজন মানুষ যতটা হাটছেন তা সঠিকভাবে পরিমাপে সম্পূর্ণ রূপে ব্যর্থ এই ডিভাইসগুলো।

গবেষণায় আরও জানা গেছে, ডিভাইসগুলো পরিমাপ দেখালেও তা আসলে ভুল। যা আসলে সঠিক সংখ্যার নিকটবর্তীও নয়। আর এই ডিভাইসগুলোর কোনটি সঠিক মানের চেয়ে অনেক বেশি আবার কোনটি অনেক কম দেখায়।

বাংলাদেশের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় ই- কমার্স সাইট ব্র্যানো ডটকমে আজ থেকে শুরু হয়েছে বছরের শেষ ধামাকা অফার। এই অফারে ব্র্যানোর পার্টনার হিসেবে থাকছে আইএফআইসি মোবাইল ব্যাংকিং, অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে ইজিপেওয়ে এবং কোডারসট্রাস্ট। এই অফারটি চলবে আগামীকাল সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত।

branoo-corporateব্র্যানো ডটকম নিয়ে এসেছে বাংলাদেশের মানুষের জন্য এক শপিং ফেস্টিভ্যাল “বছরের শেষ ধামাকা/Branoo Year End Dhamaka” যেখানে আপনি পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন পণ্যের উপর সর্বোচ্চ ৭০% ছাড়।

এছাড়াও ব্র্যানো তার পুরানো গ্রাহকদের মধ্যে শীর্ষ ২০০০ জনকে দেয়া হবে ৫০০ টাকার গিফট ভাউচার যা গ্রাহকরা ১৫০০ টাকার উপরে কেনাকাটা করলে ব্যবহার করতে পারবেন।

বছরের শেষ ধামাকায় আছে পাঁচ হাজারো বেশী পন্যের সমাহার। ডিজাইনার ড্রেস, শাড়ি, ঘড়ি, অরিজিনাল ব্র্যান্ডেড পারফিউম এবং কসমেটিক্স, জুয়েলারি, ইলেক্ট্রনিকসের মধ্যে নানান ব্র্যান্ডের মোবাইল ফোন। সেই সাথে এই ধামাকা ফেস্টিভ্যালের কথা মাথায় রেখে স্টক করা হচ্ছে আরো অতিরিক্ত ২০০০ পণ্য।

এসব পণ্য সরাসরি দুবাই থেকে আগামী কিছুদিনের মধ্যেই চলে আসবে। সেই সাথে আরো ১০০০ মতন পণ্য অন এরাইভ্যাল স্ট্যাটাসে আছে।ব্র্যানো সীমিত সংখ্যাক লোকবল নিয়ে তার অফিসের সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করে সুতরাং এই ফেস্টিভ্যালে ব্র্যানো তার পণ্য ডেলিভারি করবে ২রা জানুয়ারির থেকে। ব্র্যানো তার সকল গ্রাহককে আগে থেকেই এই ডেলিভারির ব্যাপারে অবগত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ব্রানোর ওয়েবসাইট www.branoo.com থেকে সরাসরি ব্রাউজ করে পছন্দের পণ্যটি অর্ডার করা যাবে। এছাড়াও Facebook এর ব্র্যানো পেইজের ( www.facebook.com/branooeshop ) মাধ্যমে ইনবক্স করেও অর্ডার করার ব্যবস্থা রয়েছে।

ব্র্যানোর রয়েছে অনলাইন চ্যাট অপশন সুবিধা যার মাধ্যমে সরাসরি কাস্টমায়ার কেয়ার সার্ভিস এর সাথে চ্যাট করে পছন্দের পন্যটি অর্ডার করা যায়। পণ্য ক্রয় এবং অফার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ফোন করা যাবে +8801786650093, +8801781882888, +8801721108040, +8801721001400 এবং +8801721031001 নাম্বারে।

দেশের ব্যবহারকারীদের আধুনিক স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট কম্পিউটার পরখ করে দেখার ও কেনার সুযোগ করে দিতে নতুন বছরের ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘স্মার্টফোন ও ট্যাব এক্সপো ২০১৬’। তিনদিন ব্যাপি আয়োজিত এই মেলা ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এই মেলা চলবে।



এক্সপো মেকারের আয়োজনে স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট কম্পিউটার নিয়ে দেশে এটা পঞ্চম প্রদর্শনী। এতে বিশ্বখ্যাত সব ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট পাওয়া যাবে। ইতিমধ্যে স্যামসাং, সিম্ফনি, হুয়াওয়ে, এলিট, হেলিও, স্টাইলাস, গোল্ডবার্গ, আসুস, লেনোভো, মাইসেল, টুইনমস, প্রেস্টিজিও, শাওমি, জিওনি, গ্যাজেট গ্যাং সেভেন, মিউজুসহ বিভিন্ন ব্র্যান্ড তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করেছে।

এক্সপো মেকারের হেড অব অপারেশনস নাহিদ হাসনাইন সিদ্দিকী জানান, প্রদর্শনী উপলক্ষে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো বিশেষ ছাড় ও উপহার দেবে। দর্শকরা প্রযুক্তির আধুনিক সব স্মার্ট ডিভাইস যাচাই বাছাই করে দেখতে ও কিনতে পারবেন। থাকছে অন্যান্য আয়োজনও।

‘এসটিই কুইজ কনটেস্ট ২০১৬’ নামক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। এতে বিজয়ীরা স্যামসাং, আসুস জেনফোন ২, এলিট মোবাইল ও হুয়াওয়ের পক্ষ থেকে স্মার্টফোন জিতে নিতে পারবেন।

২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে বিক্রির জন্য বাজারে অবমুক্ত করা হবে দক্ষিণ কোরিয়া ভিত্তিক প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্যামসাংয়ের নির্মিত গ্যালাক্সি পরিবারের নতুন সদস্য এস৭। সারা পৃথিবীতে বিক্রির জন্য ৫০ লাখ গ্যালাক্সি এস৭ স্মার্টফোন তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি।



জানা গেছে, দুই ধরনের ডিসপ্লে সংস্করণে বাজারে আসবে ডিভাইসটি। এর মধ্যে একটি হবে ৫.২ ইঞ্চির ফ্লাট স্ক্রিন সংস্করণ, যার নাম গ্যালাক্সি এস৭। আর অন্যটি হবে ৫.৫ ইঞ্চির কার্ভড ডিসপ্লে সংস্করণ, যার নাম গ্যালাক্সি এস৭ এজ।

গুজব উঠেছে, নতুন এই স্মার্টফোনটিতে ব্যবহৃত হবে ৪কে ডিসপ্লে প্রযুক্তি, লিকুইড কুলিং। ফোনটি চালিত হবে পরবর্তী প্রজন্মের স্ন্যাপড্রাগন ৮২০ প্রসেসরে।

তবে ফোনটিতে আরও কী কী ফিচার পাওয়া যাবে সেসম্পর্কে কোন তথ্য জানা যায়নি।

তবে স্যামসাং পরিকল্পনা নিয়েছে ৩০ লাখ ৩০ হাজার ফ্লাট স্ক্রিনের ফোন এবং ১০ লাখ ৬০ হাজার কার্ভড ডিসপ্লের ফোন তৈরি করার। এসব ফোন ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে বাজারে আসার কথা রয়েছে। যদিও এই সম্পর্কে এখনও কোন তথ্য জানায়নি স্যামসাং।

নতুন বছরে মোবাইল ফোনে অর্থ লেনদেন পরিসেবা চালু করতে যাচ্ছে মাইক্রোম্যাক্স। ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে প্রথমবারের মতো ভারতে এ সেবা চালুর ঘোষণা দিয়েছে দেশটির মোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান।









সম্প্রতি ভারতের সংবাদ সংস্থা জি নিউজিএক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। আর ব্যবহারকারীদের এই সেবা নিশ্চিত করতে ইতোমধ্যে বিভিন্ন ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও ভোক্তা সেবা দেওয়া অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধও হয়েছে মাইক্রোম্যাক্স।

সেবাটি চালুর প্রথম দুই বছরে ১০ শতাংশ ভারতীয়কে মোবাইলে অর্থ লেনদেনের আওতায় আনার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রতিবেদন মতে, মাইক্রোম্যাক্স নির্মিত মোবাইল ফোনে অর্থ লেনদেন সেবার মাধ্যমে যে কোন ধরণের আর্থিক লেনদেন করা যাবে। এ ছাড়াও পণ্য কেনাকাটা সহ রেস্টুরেন্টের বিলও পরিশোধ করা যাবে এই সেবার মাধ্যমে।

আগামী বছরের প্রথম প্রান্তিকে ২৫ মিলিয়ন মোবাইলে অর্থ লেনদেন সেবা দেওয়ার লক্ষ্য ঠিক করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এ লক্ষ সামনে রেখে এই সময়ের মধ্যে নতুন নতুন স্মার্টফোন আনারও ঘোষণা দিয়েছে মাইক্রোম্যাক্স।


৭১৬ টাকায় বিমান টিকেট নববর্ষের বিশেষ উপহার। বিমান যাত্রায় যাদের ক্লান্তি নেই তাদের জন্য সুখবর। নতুন বছরের যাত্রীদের নতুন উপহার স্পাইসজেটের। মাত্র ৭১৬ টাকাতেই পাওয়া যাবে এই সংস্থার বিমানের টিকিট। ভারতের অভ্যন্তরীন রুটে যাতায়াতের ক্ষেত্রে এই সুবিধা মিলবে। স্পাইসজেটের এই “হ্যাপি নিউ ইয়ার সেল” চলবে চারদিন। ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যরাত পর্যন্ত টিকিট কাটা যাবে। আগামী বছরের ১৫ জানুয়ারি থেকে ১২ এপ্রিলের মধ্যে যাতায়াতের ক্ষেত্রে এই সুবিধা মিলবে বলে স্পাইসজেটের তরফে জানানো হয়েছে। মাত্র ৭১৬ টাকা থেকে ভাড়া শুরু। তবে, এর উপরে কর ধার্য করা হবে। স্পাইসজেটের ওয়েবসাইট, মোবাইল অ্যাপ, বিভিন্ন ট্র্যাভেল পোর্টাল, ট্র্যাভেল এজেন্টের থেকে এই টিকিট পাওয়া যাবে। তবে দূরত্ব, বিমানের সময়ের উপর টিকিটের দাম এক এক রকমের হবে।


সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের ব্যবহারকারীর সংখ্যা অন্তত চার কোটি। আর পুরো বিশ্বে মিলিয়ন মিলিয়ন মানুষ প্রতিদিন ব্যবহার করে থাকে ফেসবুক। কিন্তু সম্প্রতি ফেসবুকে বিশেষ একটি পোষ্ট ছড়িয়ে পড়েছে। সেই পোষ্ট থেকে ব্যবহারকারীদের সাবধান থাকার পরামর্শ দিয়েছেন ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। পোষ্টটিতে লেখা রয়েছে-‘আপনার, আমার মতো নিয়মিত ফেসবুক ব্যবহারকারীকে ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ ৪.৫ মিলিয়ন ডলার দান করবেন। তাই এই পোস্টটি এখনি কপি করে আপনার প্রোফাইলে শেয়ার করুন এবং আপনার ৫-১০ বন্ধুকে পোস্টটি ট্যাগ করুন। পোস্টটি শেয়ার করা কেবলমাত্র ১ হাজার ফেসবুক ব্যবহারকারী এই বিপুল পরিমান অর্থ পাবেন।’ পোষ্টটি ফেসবুক ব্যবহারকারীরা হুমড়ি খেয়ে পড়েছে এবং পোস্ট শেয়ারে। অনেকেই দ্রুত পোস্টটি শেয়ার করার পাশাপাশি বন্ধুদের ট্যাগ করে চলেছেন। কিন্তু পোস্টটি আসলে গুজব। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তার ব্যবহারকারীদের জন্য এ ধরনের কোনো অফার দেয়নি বলে জানা গেছে। গুজব সৃষ্টিকারী ওই পোস্টে আরো বলা হয়েছে, পোস্টটি শেয়ার করায় এবং সামাজিক যোগাযোগে অবদান রাখায় ফেসবুক তাদের বিশেষ সার্চ ব্যবস্থার মাধ্যমে ১০০০ জনকে নির্বাচিত করে ৪.৫ বিলিয়ন ডলার প্রদান করবে।’ তবে শুধু এই পোস্টটিই নয়, এ ধরনের আরো বেশ কয়েকটি বোকা বানানোর পোস্ট ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে এবং অনেকেই সেগুলোতে বিশ্বাস করে তাতে মেতে রয়েছেন। প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের মতে, ফেসবুকে এসব গুজবমূলক পোস্ট বিশ্বাস করে নিজের প্রোফাইলে শেয়ার এবং বন্ধুদেরকে ট্যাগ করাটা বোকামির পরিচয় হবে।’

জীবনের ব্যস্ততা থেকে কোথায় গেলে মিলবে অবসর? কোথায় গেলে পাওয়া যাবে স্বর্গীয় শান্তি? মানুষ সব সময়ই খুঁজেছে এমন প্রশ্নের উত্তর। ভারতের প্রশ্ন-উত্তর ভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘কিউরার’ কাছেও ছিল এসব প্রশ্ন। এর উত্তরে কিউরার ব্যবহারকারীরা এমন সাতটি স্থানের সন্ধান দিয়েছেন, যা দেখতে রূপকথার গল্পের মতো হলেও আসলে বাস্তব।
জাদুকরী সৌন্দর্যের এই স্থানগুলো হতে পারে ভ্রমণ পিপাসুদের শ্রেষ্ঠ গন্তব্য। স্থানগুলোর বর্ণনা তুলে ধরেছে বিবিসি।  
নেদারল্যান্ডসের চোখ ধাধানো টিউলিপ বাগান
 
নেদারল্যান্ডসের চোখ ধাধানো টিউলিপ বাগান
ছবিই বলে দেয় কতটা অসাধারণ আর মনমুগ্ধকর নেদারল্যান্ডসের টিউলিপ ফুলের এই বাগানটি। এখানে রয়েছে নীল, লাল, গোলাপি আর হলুদের সমাহার। বিচিত্র রঙের সব ফুল। কিউরার এক ব্যবহারকারী একে বলেছেন, ‘মনে হয় বাচ্চাদের বইয়ে আঁকা কোনো চিত্রকর্ম’।  
সাহিত্যে নোবেলজয়ী বিখ্যাত ইংরেজ কবি টি এস ইলিয়টের প্রিয় ফুল ছিল এই টিউলিপ। তবে নেদারল্যান্ডসে টিউলিপ আসার পেছনে রয়েছে একটি ইতিহাস। ১৬ শতকে বাইরের কোনো দেশ থেকে এখানে নিয়ে আসা হয় এই টিউলিপ গাছগুলো। এখানকার সবচেয়ে বেশি টিউলিপের বাগান রয়েছে দেশটির পশ্চিমাঞ্চলের লেইডেন এবং ডেন হেল্ডার শহরের মধ্যবর্তী স্থানে। 
প্রতি বছর ৩০ কোটি টিউলিপ ফোটে নেদারল্যান্ডসে। বছরে ১০ হাজারেরও বেশি পর্যটক আসে এগুলো দেখতে। মার্চ থেকে আগস্ট থেকে ধরা হয় টিউলিপ ফোটার সময়। 
স্পেনের বার্সেলোনা গির্জা
 বার্সেলোনা গির্জা
দেশটির সবচেয়ে নামকরা স্থপতি অ্যান্টনি গোদি নকশা করেছিলেন এই গির্জাটির। ইউনেস্কো ঘোষিত বিশ্বের ঐতিহ্যবাহী স্থাপনাগুলোর মধ্যে এটি একটি। অসাধারণ কারুকার্য খচিত এই স্থাপনাটি নিয়ে আছে অনেক গল্প আর রহস্য।  
১৮৮২ সালে শুরু হয় এটির নির্মাণ কাজ। ১৯২৬ সালে গোদি যখন মারা যায় তখন এটির এক-চতুর্থাংশ কাজ শেষ হয়েছে। এরপর স্পেনের গৃহযুদ্ধের কারণে থেমে থাকে এর কাজ। এখনো শেষ হয়নি একে পূর্ণাঙ্গ রূপ দেয়া। স্থাপত্যবিদরা ২০২৬ সালে গোদির মৃত্যুর শততম বার্ষিকীতে এর কাজ শেষ করবেন বলে জানিয়েছেন। প্রতি বছর বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রায় ৩০ লাখ পর্যটক আসে এই স্থাপনাটি দেখতে। 
ইংল্যান্ডের লাস লেক জেলা
ইংল্যান্ডের লাস লেক
ইংরেজি লাস (lush) শব্দটির অর্থ মাতাল। সত্যিই এখানকার হ্রদগলোর নিখুত সৌন্দর্য যে কাউকে মাতাল করে দেবে। ইংল্যান্ডের উত্তর পশ্চিমাঞ্চলে অবস্থিত এই স্থানটি মূলত হ্রদে ঘেরা জাদুকরী একটি উপত্যকা। দেখতে পটে আঁকা কোনো শিল্পীর শিল্পকর্মের মতো। আসলেই মাতাল করে দেয়। 
প্রতি বছর ১ কোটি ৬০ লাখ পর্যটক আসে এর সৌন্দর্যে মাতাল হতে। এই পুরো এলাকাটি একটি পার্ক। এখানকার সবচেয়ে সুন্দর হ্রদ হচ্ছে লেক ক্রুজ। শহরের বাসিন্দাদের জন্য স্থানটি স্বর্গীয় পরশ বুলিয়ে দিতে পারে।
লেটিসভাটন হ্রদ
লেটিসভাটন হ্রদ
দেখতে বিভ্রান্তিপূর্ণ মনে হলেও প্রকৃতি এটি এমন করেই সাজিয়েছে। নরওয়ের ফারো দ্বীপপুঞ্জে অবস্থিত ৬ কিলোমিটার লম্বা এই স্থানটি পরিচিত বিশ্বের সবচেয়ে আকর্ষণীয় দ্বীপ হ্রদ হিসেবে। এখানকার সবচেয়ে বড় হ্রদ এটি। 
দেখতে সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে কয়েকশ মিটার উঁচু মনে হলেও এটি আসলে ৩০ মিটারের বেশি উঁচু হবে না। তবে সাগরের পানি প্রবেশ করে এই হ্রদটিতে। একটি মধ্যমে একটি আগ্নেয়গিরির সাথে সংযুক্ত এই হ্রদটি। এছাড়াও অনেক কারণেই এই দ্বীপটি আকর্ষণের কেন্দ্র। এখানে আছে অসাধারণ সুন্দর সব পাখি, মনমুগ্ধকরভাবে তৈরি উপকূলীয় বাঁধ আর নানা রঙের ঘাসে সাজানো মাঠ।
নরওয়ের পালপিট রক
পালপিট রক
এটি নরওয়ের আরো একটি মনোহর স্থান। স্থানটি দেখতে অনেকটা ভাষণ দেয়ার ডেস্কের মতো। নিচে স্বচ্ছ পানি আর তার থেকে প্রায় ৬০৪ মিটর উঁচু এই স্থানটি। এর দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থ ২৫ মিটার করে। 
প্রত্নতাত্বিকদের ধারণা এই স্থানটি প্রায় ১০ হাজার বছর আগে বরফযুগে তৈরি হয়েছিল। এখানে গেলে যেকোনো দর্শণার্থী পেতে পারে হলিউডের কোনো অ্যাডভেঞ্চার সিনেমার স্বাদ। তবে পর্যটকদের কিছুটা হতাশ করেছেন ভূতাত্বিকরা। তারা জানিয়েছেন, আর খুব বেশিদিন টিকে থাকবে না নরওয়ের পালপিট রক।
জার্মানির নিউসোয়ানস্টেইন প্রাসাদ
নিউসোয়ানস্টেইন প্রাসাদ
এই প্রাসাদটি দেখে আপনার মনে হতেই পারে, ‘আমি যদি রাজকুমার হতাম, তবে আমার জন্য এমন একটি প্রাসাদ তৈরি করতাম।’
নিউসোয়ানস্টেইনের এই প্রাসাদটি দেখলে সত্যিই মনে হবে, এখানে রূপকথার কোনো রাজা-রানী বাস করে। সিনড্রেলার রাজপ্রাসাদের মতোও মনে হতে পারে এটিকে। এর রোমাঞ্চকর নির্মাণশৈলী দেখে মনে হতে পারে, সুন্দরী কোনো রাজকুমারী এর ভেতর অপেক্ষা করছে আপনার জন্য।  

১৮৬৯ সাল থেকে এখানে বাস করতেন দেশটির বাভারিয়ার রাজা দ্বিতীয় লুডউইগ। ১৮৮৬ সালে তার মৃত্যুর পর এটি জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়। প্রতি বছর প্রায় ১৩ লাখ দর্শণার্থী আসে এর সৌন্দর্য দেখতে। 
পোল্যান্ডের আয়না ভবন
আয়না ভবন
দেখতে আয়নার ভেতরে দেখা কোনো দৃশ্যের মতো মনে হলেও এটি আসলে বাস্তব। ভবনটি নির্মাণ করা হয়েছে এমনভাবেই। দেখতে আঁকাবাঁকা বা উলট পালট কোনো বাড়ির মতো মনে হতে পারে ৪ হাজার বর্গমিটারের এই ভবনটি। 
এটাও রূপকথার কোনো গল্পের প্রাসাদের মতো। এর নকশাটা এমন যে, যে কেউ হঠাৎ দেখলে ভড়কে যেতে পারেন। প্রতি বছর হাজার হাজার পর্যটক আসেন এটি দেখতে।  জীবনের ব্যস্ততা থেকে কোথায় গেলে মিলবে অবসর? কোথায় গেলে পাওয়া যাবে স্বর্গীয় শান্তি? মানুষ সব সময়ই খুঁজেছে এমন প্রশ্নের উত্তর। ভারতের প্রশ্ন-উত্তর ভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘কিউরার’ কাছেও ছিল এসব প্রশ্ন। এর উত্তরে কিউরার ব্যবহারকারীরা এমন সাতটি স্থানের সন্ধান দিয়েছেন, যা দেখতে রূপকথার গল্পের মতো হলেও আসলে বাস্তব।

এইচটিসি ওয়ান এ৯’ জনপ্রিয়তা পাওয়ায় ‘এইচটিসি ওয়ান এক্স৯’ নামের আরেকটি স্মার্টফোন বাজারে এনেছে তাইওয়ানভিত্তিক প্রযুক্তিপণ্য প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান এইটিসি। সম্প্রতি চীনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম উইবোতে এইচটিসি ওয়ান এ৯ স্মার্টফোনের এই আপগ্রেড সংস্করণের তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।
ডিভাইসটি চীনে ২ হাজার ৩৯৯ ইয়েনে বিক্রি হচ্ছে, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ২৯ হাজার ৭০ টাকা।
এইচটিসি ওয়ান এক্স৯ স্মার্টফোনে ৫.৫ ইঞ্চির ফুল এইচডি ডিসপ্লে রয়েছে। এতে প্রসেসর হিসেবে মিডিয়াটেক হেলিও এক্স ১০ সিরিজের অক্টাকোর চিপসেট এবং অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড মার্শম্যালো ব্যবহার করা হয়েছে।
HTC One X9
৩জিবি র্যা মের এই ফোনে ৩২জিবির ইন্টারনাল স্টোরেজ সুবিধা পাওয়া যাবে, যা মাইক্রোএসডি কার্ড দিয়ে আরও ৩২ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।
ডিভাইসটিতে ভিডিও করা ও ছবি তোলার জন্য ১৩ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা রয়েছে। এই ক্যামেরায় অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন প্রযুক্তি রয়েছে, যা দিয়ে ফোরকে মানের ভিডিও রেকর্ডিং করা যাবে। আর ভিডিও চ্যাট ও সেলফি তোলার জন্য এতে ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা রয়েছে।
দীর্ঘ সময় ব্যাকআপ সুবিধা দেয়ার জন্য ফোনটিতে ৩০০০ মিলিঅ্যাম্পায়ার আওয়ারের ব্যাটারি রয়েছে।
কানেক্টিভিটির দিক থেকে ফোন টুজি, থ্রিজি, ফোরজি, ওয়াইফাই, ব্লুটুথ, মাইক্রোইউএসবি নেটওয়ার্ক সমর্থন করবে।

বাসা-বাড়ি, জমি, ফ্ল্যাট,অফিস, দোকান এমন নানান কিছু খোঁজার সুবিধার্থে পিবাজার নামের একটি অ্যাপ উন্মুক্ত করেছে পিবাজার ডটকম।
এই অ্যাপের সাহায্যে ঘরে বসেই অনলাইনে দেশের সব প্রপার্টি ক্রয়-বিক্রয় এবং ভাড়া দেয়া-নেওয়ার সব তথ্য পাওয়া যাবে। অ্যাপটিতে বাই, রেন্ট, ডেভেলপার ও ফাইন্ড অ্যান্ড এজেন্ট নামের চারটি বিভাগ রয়েছে। এতে আবাসনের খোঁজ, প্রপার্টি ক্রয়-বিক্রয়ের খোঁজ, রিয়েল এস্টেট কোম্পানির তথ্যসহ রয়েছে প্রোপার্টি ক্রয়-বিক্রয় এজেন্টদের খোঁজ।
২০১১ সালে যাত্রা শুরু করা পিবাজারে এখন রয়েছে ৬০ হাজারের অধিক প্রোপার্টি, ২৬ হাজার বাড়িওয়ালা, দেড়
 হাজার রিয়েল এস্টেট কোম্পানি এবং ২০০ প্রোপার্টি এজেন্ট।

pbajar app

পিবাজার ডটকমের প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ শাহীন জানান, পিবাজার এখন দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন প্রোপার্টি বাজার। খুব স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা যাতে ঘরে বসে সহজে কেনাকাটা করতে পারেন সেজন্যই অ্যাপটি তৈরি করা হয়েছে। এর মাধ্যমে ক্রেতা-বিক্রেতা, মালিক ও ভাড়াটিয়ার মধ্যে সংযোগ স্থাপন করা সম্ভব হবে।
অ্যান্ড্রয়েড নির্ভর স্মার্টফোনের জন্য তৈরি অ্যাপসটি গুগল "প্লেস্টোর" থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

ছুটির দিনটাকে আনন্দময় করতে কে না চায়। কিন্তু চাইলেও দিনটাকে আনন্দময় করা যায় না। কারণ, সপ্তাহের এই একটা দিনও দেখা যায় সময় কাটানোর জন্য কোনো বন্ধু বা বান্ধবীকে পাওয়া যাচ্ছে না। যার সাথে যোগাযোগ করা হয় সেই জানায়, ‘সময় নেই’!
এক্ষেত্রে মুশকিল আসান হতে পারে ‘হু’জ ডাউন’ নামের এক মোবাইল অ্যাপ। এটি সহজেই ছুটির দিনের সময় কাটানোর সঙ্গী বা সঙ্গিনী খুঁজে দেবে।
অ্যাপটি অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস ব্যবহারকারীদের জন্য সদ্য উন্মোচন করেছে গুগল।
Google Who's Down for Android, iOS Shows Friends Free to Hang Out
অ্যাপটি ডাউনলোড করে ব্যবহারকারী ছুটিতে আছেন বা ‘ডাউন’ জানালেই তার স্ট্যাটাস জেনে যাবে বন্ধুরা। এই অ্যাপে ছুটিতে থাকার সময়ের ব্যাপ্তিও উল্লেখ করা যাবে। শুধু তাই নয়, বন্ধুদের কেমন সঙ্গ চাইছেন তাও এই অ্যাপের মাধ্যমে জানানো যাবে।
হু’জ ডাউন গুগলপ্লে ও অ্যাপস্টোর থেকে ডাউনলোড করা যাবে। অ্যাপটির অ্যান্ড্রয়েড সংস্করণের ওজন ৫ দশমিক ৭ এমবি এবং আইওএস সংস্করণের ওজন ১৬ দশমিক ২ এমবি।

মার্টফোনের প্রতি আসক্তি কমাতে বিশেষ একটি অ্যাপ এনেছে সাউথ কোরিয়ান একদল বিজ্ঞানী।
অ্যাপটি নাম দেওয়া হয়েছে লক’এন এলওএল। অর্থৎ লক ইউর স্মার্টফোন অ্যান্ড লাফ আউট লাউড।
স্মার্টফোনে আসক্তি কম বেশি সব ব্যবহারকারীদের রয়েছে। একটু ভাবলেই দেখা যাবে ব্যবহারকারীরা শোবার আগে শেষ কাজ হিসেবে যেমন স্মার্টফোন ব্যবহার করে থাকেন তেমনি ঘুম থেকে উঠেই সবার আগে ফোন চেক করেন। অনেকে রাতে কোন কারনে ঘুম থেকে উঠলেও ফোন ব্যবহার করে থাকেন।
smartphone
শুধু তাই নয় অফিসিয়াল গুরুত্বপূর্ণ মিটিং বা সামাজিক কোন অনুষ্ঠানে বেশিরভাগ স্মার্টফোন ব্যবহারকারী কাজ বা আড্ডার পরিবর্তে স্মার্টফোনে সোশ্যাল সাইট বা ইমেইল চেক করে থাকেন।
কোরিয়া অ্যাডভান্সড ইন্সটিটিউট অব সাইন্স অ্যান্ড টেকনোলজি’র (কেএআইএসটি) প্রফেসর ইউচিন লি জানিয়েছেন বিশেষ এই অ্যাপটি তাদের ক্যাম্পাসের ১ হাজার শিক্ষার্থীর স্মার্টফোনের মাধ্যমে এক মাস ধরে পরীক্ষা চালানো হয়েছে। পরে দেখা গেছে এই সময়ে ওই শিক্ষার্থীরা স্মার্টফোন ব্যবহার ছাড়া ১০ হাজার ঘন্টা জমা করেছে।
প্রফেসর ইউচিন লি মনে করেন অ্যাপটি শুধু অফিসিয়াল মিটিং নয় ছুটির সময় পরিবারের সদস্যদের আড্ডার মূহুর্তকে আরো আনন্দময় করে তুলবে।
অ্যাপটি ব্যবহারকারীর স্মার্টফোনকে লক করতে সহায়তা করবে। মিটিং, কনফারেন্স, আলোচনা ও সামাজিক কর্মকান্ডের মধ্যে স্মার্টফোনের ব্যবহার থেকে ব্যবহারকারীকে বিরত রাখবে বিশেষ এই অ্যাপটি।
স্মার্টফোনের বাহ্যিক সংকেত যেমন নোটিফিকেশন অ্যালার্ম ও গ্রুপ চ্যাট অপশনগুলো বন্ধ করে দেবে অ্যাপটি। পাশাপাশি অ্যাপটি স্মার্টফোনের মাধ্যমে একটি নতুন রুম তৈরি করবে। যার মাধ্যমে ব্যবহারকারী মিটিংএ অংশগ্রহণকারী ও বন্ধুদের সঙ্গে যুক্ত হবে। আইডি শেয়ারের মাধ্যমে পুরো গ্রুপটি তখন লক হয়ে যাবে।
এরপর মিটিং এর মধ্য থেকে যদি কেউ ফোন ব্যবহার করে তবে অ্যাপটির কো-লোকেশন রিমাইন্ডার পাশের ব্যবহারকারীকে ফোন ব্যবহারের তথ্য দিয়ে দেবে।
তবে জরুরী ভিত্তিতে মোবাইল ব্যবহারের প্রয়োজন হলে সাময়িকভাবে ৫ মিনিটের জন্য ফোন ব্যবহার করতে পারবেন ব্যবহারকারীরা।

জনপ্রিয় টিভি কার্টুন শো সিসিমপুর নিয়ে এবার মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন চালু হয়েছে। ‘এখানেই সিসিমপুর’ নামের অ্যাপটিতে অনুষ্ঠানটির নানা তথ্য জানা যাবে।
অ্যাপটি সিসিমপুর কোন চ্যানেলে, কবে, কখন প্রচারিত হয় এসব তথ্য জানাবে। পাশাপাশি এই অ্যাপ শিশুদের স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও সচেতনতামূলক নানা ধরনের টিপসও দেবে।
sisimpur
এ ছাড়াও এ অ্যাপে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের গেইমস এবং বই কেনার সুযোগ। অ্যান্ড্রয়েড প্লাটফর্মে নির্মিত ৪.৮ মেগাবাইট সাইজের অ্যাপটি গুগল প্লেস্টোর থেকে ডাউনলোড করা যাবে।
Blogger দ্বারা পরিচালিত.