বিশেষ অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে BLACK iz Ltd. এর স্কলারশিপ প্রাপ্ত স্টুডেন্টের সার্টিফিকেট প্রদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হল

১৭ নং ওয়ার্ডের কমিশনার সালাউদ্দিন আহমেদ ঢালী

BLACK iz Limited এর স্কলারশিপ প্রাপ্ত প্রথম ২৫ জন শিক্ষার্থীকে সার্টিফিকেট প্রদান অনুষ্ঠান এবং নতুন স্কলারশিপ উদ্বোধন হয়ে গেলো আজ । প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা দক্ষিন সিটি কর্পোরেশনের ১৭ নং ওয়ার্ডের কমিশনার সালাউদ্দিন আহমেদ ঢালী, ম্যাবস কম্পিউটারের ম্যানেজিং ডিরেক্টর তামিমা শামস মিতুয়া এবং BLACK iz Limited এর ম্যানেজমেন্টের অনেকেই । 

১৭ নং ওয়ার্ডের কমিশনার সালাউদ্দিন আহমেদ ঢালী
১৭ নং ওয়ার্ডের কমিশনার সালাউদ্দিন আহমেদ ঢালী
এই সম্পূর্ণ ফ্রি স্কলারশিপ প্রোগ্রামটি ৮ মাসের । স্কলারশিপ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা মোট ১০ টি বিষয়ের কোর্স সম্পূর্ণ করেছেন ।  এর মধ্যে, ওয়েব দিজাইন, অ্যাডভানস সারছ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, গ্রাফিক্স দিজাইন, ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট, থিম ডেভেলপমেন্ট, অ্যাডভানস পিএইচপি, ফ্রিল্যান্সিং অ্যান্ড আউটসোরসিং ফাউন্ডেসন অন্যতম । 


অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ঢাকা দক্ষিন সিটি কর্পোরেশনের ১৭ নং ওয়ার্ডের কমিশনার সালাউদ্দিন আহমেদ ঢালী বলেন, বর্তমান বাংলাদেশ সরকার তথ্য প্রজুক্তি এবং ফ্রিল্যন্সিং খাত কে অনেক গুরুত্তের সাথে দেখছে ।  BLACK iz Ltd. বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে একটি বড় ধরণের আইটি টিম, যারা বাংলাদেশ ডিজিটাল করণে অনেক বড় ভূমিকা রাখছে। তাদের মত নিবেদিত এবং পরিশ্রমি দল আমাদের দেশকে অতি দ্রুতই আইসিটির স্বপ্নচূড়ায় নিয়ে যাবে বলে আমি আশা করি।  আমার দেখা দেশের এবং দশের জন্য অন্যতম নিবেদিত প্রাণ একটি টিম হচ্ছে BLACK iz Ltd.। আমি অতি কাছ থেকে দেখেছি, দেশের বেকার যুবকদের কিভাবে তারা ফ্রি আইটি প্রশিক্ষণের মধ্য দিয়ে আয়ের পথ দেখিয়েছে।  আমি আশা করছি তারা অতি সহজেই তাদের লক্ষ্যে পৌছাতে পারবে ।

ম্যাবস কম্পিউটারের ম্যানেজিং ডিরেক্টর তামিমা শামস মিতুয়া বলেন, সময়টা তথ্য প্রজুক্তির, এখন যারাই এই খাতকে গুরুত্তের সাথে নিবে তারাই সফল হবে । BLACK iz Ltd. এর দক্ষতা আমাকে মুগ্ধ করেছে । আশা করছি তারা এমন জনকল্যান মূলক কাজ অব্যহত রাখবে । 



বাংলাদেশের তথ্য প্রজুক্তি খাত এগিয়ে যাচ্ছে এক অসামান্য গতিতে । আর সেই অগ্রযাত্রার সাথে তাল মিলিয়ে চলতে হলে তথ্য প্রজুক্তিতে সবার স্কিল ডেভেলপ করটা অনেক জরুরি । ইতিমধ্যেই তথ্যপ্রযুক্তি খাতের পরবর্তী গন্তব্যস্থল হিসেবে বাংলাদেশকে গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করা হচ্ছে। আর সেই বিষয় গুলো মাথায় রেখেই BLACK iz Limited এই সামান্য উদ্যোগ, বলছিলেন মোহাম্মাদ মেহেদি আবদুল্লাহ সিইও BLACK iz Limited

প্রতিষ্ঠানটির সিওও ইমতিয়াজ বিন আহমেদ বলছিলেন, দেশের সবচেয়ে সম্ভাবনাময় খাত এখন তথ্য প্রজুক্তি এবং ফ্রিল্যান্সিং । আমাদের অসম্ভব ভালো লাগছে এই খাতে সামান্য হলেও অবদান রাখতে পেরে ।   যে ২৫ জন সম্পূর্ণ ফ্রি স্কলারশিপ প্রাপ্ত স্টুডেন্ট আজ স্কলারশিপ পেলো তাদের অনেকেই  তথ্য প্রজুক্তি এবং ফ্রিল্যান্সিং খাতে সফলতার সাথে কাজ করছে । এবং আজকে যে নতুন স্কলারশিপের ঘোষণা দেয়া হল এখান থেকেও অনেক সফল ফিল্যান্সার এবং প্রজুক্তি বিশেষজ্ঞ বেরিয়ে আশবে বলে আশা করছি ।

BLACK iz Ltd. এর হেড অফ আইটি আহমাদউল্লাহ মুক্ত  বলেন, আমাদের এই স্কলারশিপ প্রোগ্রাম রেগুলারলি চলবে । আশা আছে এই বার স্টুডেন্টের সংখ্যা দিগুন করার। আপনদের সহযোগিতা থাকলে অবশ্যই সম্ভব ।