২০১৫ সালে বলিউডের ব্যবসাসফল দশ সিনেমা



বিদায় মুহূর্তে ২০১৫ সাল। এখন শুধু গেল বছরে কি হয়েছে তা মিলিয়ে দেখার সময়! পৃথিবীতে সব মাধ্যমেই এসব নিয়েই চলছে এখন পুরোদমে হিসেব নিকেষ। বলিউডও তার ব্যতিক্রম নয়। চলতি বছরে সর্বামোট বলিউডে এ বছর মুক্তি পেয়েছে ১০৯টি ছবি। এরমধ্যে ছবিগুলোকে বিভিন্নভাগে ভাগ করেছেন সিনেমা বোদ্ধারা। মান ও গুণের দিক থেকে বিচার বিশ্লেষণ করে অনেকেই অনেকভাবে তালিকা তৈরি করেছেন। সিনেমা বোদ্ধাদের দেয়া রেটিংয়ের উপর নির্ভর করে কেউ চলতি বছরের সেরা সিনেমার তালিকা করছেন, আবার কেউ বাণিজ্যসফল ছবিগুলোকেই সেরা বলে চিহ্নিত করছেন। যদিও বলিউডও এগিয়ে রাখছে বক্স অফিসে ব্যবসাসফল ছবিগুলোকেই। সেই হিসেবে ২০১৫ সালকে বলিউডের জন্য রীতিমত লক্ষীই বলা চলে। কারণ এই বছরে তাদের বেশকিছু সিনেমা বক্স অফিসে রীতিমত ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। যা এর আগে খুব একটা দেখা যায়নি।   
‘বলিউড মুভি রিভিউজ’ অবলম্বনে এখানে চলতি বছরে বক্স অফিসে হিট করা ব্যবসাসফল দশটি সিনেমার তালিকা দেয়া হল, কিন্তু এগুলো কোনোভাবেই চলতি বছরের সেরা সিনেমা নয়।     
বজরঙ্গি ভাইজান:
 চলতি বছরে মুক্তি পাওয়া ব্যবসাসফল ছবি হিসেবে সেরা দশের শীর্ষস্থানে আছে সালমান খান অভিনীত ছবি ‘বজরঙ্গি বাইজান’। বছরের মাঝামাঝিতে ছবিটি সিনেমা হলে মুক্তি পায়। জুলাইয়ে ঈদ উপলক্ষে মুক্তি পাওয়া কবির খান পরিচালিত ছবিটি মুক্তির তৃতীয় দিনেই ১০০ কোটি রুপি আয় করে ইতিহাস সৃষ্টি করে। এ পর্যন্ত শুধু ভারতের বক্স অফিসেই ছবিটি আয় করেছে ৩১৮ কোটি। 
প্রেম রতন ধন পায়ো:
সুপারস্টার অভিনেতা সালমান খানের ‘বজরঙ্গি ভাইজান’-এর পর ফের তারই অভিনীত আরেক ছবি ‘প্রেম রতন ধন পায়ো’ মুক্তি পায় গত নভেম্বরে। মুক্তির প্রথম সপ্তাহেই রেকর্ড করে ছবিটি। মাত্র একমাসেই শুধু ভারতে ছবিটি ১৯০ কোটি রুপি আয় করে ২০১৫ সালের ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় দ্বিতীয়স্থানে উঠে আসে। পিআরডিপি ছবিটি পরিচালনা করেন প্রখ্যাত নির্মাতা সুরজ বারজাত্য। ছবিতে প্রথমবার সোনম কাপুরকে সালমা খানের নায়িকা হিসেবে দেখা যায়। এর আগে সোনমের ‘সাওয়ারিয়া’ ছবিতে অথিতিশিল্পী হিসেবে ছিলেন সালমান।
তনু ওয়েডস মনু রিটার্নস:
বলিউডের ইতিহাসে অন্যতম একটি ছবি ‘তনু ওয়েডস মনু’র সিক্যুয়াল তনু ‘ওয়েডস মনু রিটার্নস’। নায়ক নির্ভর বলিউডি ছবি থেকে বের হয়ে নারীকে কেন্দ্র করে ছবি বলিউডে হতে পারে, এবং সেই ছবি বক্স অফিসে হিট করতে পারে এটা প্রথমবার ‘তনু ওয়েডস মনু’ দেখিয়ে দিলো। আর এইজন্য ছবিটির সিক্যুয়াল নির্মাণ করেন প্রখ্যাত নির্মাতা আনন্দ এল রায়। কঙ্গনা রানাউতকে ঘিরে ছবিটির কাহিনী গড়ে উঠে। চলতি বছরের মে মাসে মুক্তি পাওয়া ছবিটি আয় করেছে ১৪৮ কোটি রুপি।
দিলওয়ালে:
 রোহিত শেঠির নির্মাণে ‘দিলওয়ালে’ মুক্তি পেয়েছে চলতি বছরের ডিসেম্বরের আঠারো তারিখে। বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খান ও কাজল অভিনীত ছবিটি মুক্তির প্রথম সপ্তাহেই আয় করেছে একশো কোটি রুপি। সমালোচকদের প্রশংসা না পেলেও ছবিটি এখনও বক্স অফিসে ব্যবসা করেই চলেছে। দীর্ঘ পাঁচ বছর পর শাহরুখ-কাজল জুটিবদ্ধ হওয়ার দরুন এবং শাহরুখের ব্যক্তিগত প্রভাবের কারণেই ছবিটি ‘বাজে’ মার্কা পেয়েও এখন পর্যন্ত শুধু ভারতেই আয় করেছে ১১৮ কোটি রুপি। চলতি বছরের সেরা দশ ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় তাই দিলওয়ালের অবস্থান চার নম্বরে।
বাজিরাও মাস্তানি:
এই বছরের আলোচিত ছবিগুলোর একটি বাজিরাও মাস্তানি। এর প্রধান কারণ ছবিটি দেবদাস, রামলীলার মতো বিখ্যাত ছবির নির্মাতা সঞ্জয় লীলা বানসালি। তারউপর ছবিটি একইদিনে শাহরুখ-কাজল অভিনীত ‘দিলওয়ালে’র সাথে একই দিনে মুক্তি পায়। চলতি মাসের ১৮ তারিখে মুক্তি পাওয়া দীপিকা পাডুকোন, রনবীর সিং এবং প্রিয়াঙ্কা চোপড়া অভিনীত ঐতিহাসিক কাহিনী নির্ভর ছবিটি মুক্তির প্রথম সপ্তাহে ভালো ব্যবসা করতে না পারলেও দ্বিতীয় সপ্তাহে উঠে আসে আলোচনায়। সিনেমা আলোচকদের প্রশংসা পেলেও খুব একটা ভালো শুরু করেনি ছবিটি। কিন্তু দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে রোহিতের দিলওয়ালেকে হারিয়ে দুর্দান্ত দাপট নিয়ে ফিরে এসেছে ‘মাস্তানি’। এখন পর্যন্ত শুধু ভারতেই ছবিটি আয় করেছে ১১৭ কোটি। আর ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় আছে পাঁচ নম্বরে, দিলওয়ালের ঠিক পরেই। তবে ধারণা করা হচ্ছে বানসালির বাজিরাও মাস্তানি শেষ পর্যন্ত সালমান খানের প্রেম রতন ধন পায়ো’র সাথে টেক্কা দিবে!
বাহুবলী:
ভারতীয় সিনেমার ইতিহাসে অন্যতম প্রভাবশালী এক চলচ্চিত্র এস এস রাজামউলের ‘বাহুবলী’। ছবিটি তামিল ও তেলেগুতে দুর্দান্ত ব্যবসা করেছে। আঞ্চলিক ছবিগুলোকে বলিউডের তালিকায় না ফেলা হলেও ‘বাহুবলী’ ছবিটি একই সাথে হিন্দিতেও মুক্তি পায়। আর মুক্তি পেয়ে শুধু ভারতের অন্যান্য রাজ্যে শুধু নয়, বলিউডের বক্স অফিসেও আঘাত হানে। ভারতে সব মিলিয়ে চারশো কোটির উপরে ব্যবসা করলেও শুধু বলিউডের বক্স অফিসে আঘাত করে নিজের জুলিতে ভরে নেয় ১১১ কোটি রুপি। আর এই আয় নিয়েই বলিউডের সেরা দশ ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় প্রবেশ করে প্রভাসের ‘বাহুবলী’।
এবিসিডি ২:
এবিসি, ‘এনিবডি ক্যান ডান্স’। ছবিটি মুক্তির পর দারুণ ব্যবসা করলে ছবিটির সিক্যুয়াল নির্মাণে উদ্যুত হয় নির্মাতা রিমু ডি’সুজা। তারই ফলশ্রতিতে এ বছরের শুরুতেই সিনেমা হলে মুক্তি পায় ‘আশিকি ২’ খ্যাতি পাওয়া অভিনেত্রী শ্রদ্ধা কাপুর ও স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার খ্যাত অভিনেতা বরুন ধাওয়ান। ছবি মুক্তির আগে গানগুলো ব্যাপক জনপ্রিয়তা পাওয়ায় ছবিটিও বক্স অফিসে হিট করে। বছরের শুরতেই ছবিটি একশো কোটি রুপি আয় করে বেশ আলোচনার জন্ম দেয়। এ পর্যন্ত ‘এবিসিডি ২’ আয় করেছে ১০৬ কোটি রুপি। শীর্ষ দশ ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় ৭ নম্বরে।
ওয়েলকাম ব্যাক:
চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে মুক্তি পায় তারকা বহুল ছবি ‘ওয়েলকাম ব্যাক’। জন আব্রাহাম, নানা পাটেকার, শ্রুতি হাসান, পরেশ রাওয়াল, ডিম্পল কাপাডিয়া, অনিল কাপুর এবং নাসিরউদ্দিন শাহ অভিনীত ছবিটি মুক্তির পরেই বেশ আলোচনার সৃষ্টি করে। কমেডি ধাচের এই ছবিটিও বক্স অফিসে ভালো সাড়া এনে দিতে সমর্থ হয়। এ পর্যন্ত ছবিটি ৯৭ কোটি রুপি আয় করে অষ্টম অবস্থানে জায়গা করে নিয়েছে।
গাব্বার ইজ ব্যাক:
চলতি বছরের মাঝামাঝিতে মুক্তি পায় অ্যাকশন ও কমেডি ধাচের হিরো অক্ষয় কুমার অভিনীত ছবি ‘গাব্বার ইজ ব্যাক’। সমাজের অসঙ্গতি আর অন্যায়কে রুখে দেয়ার সামাজিক জাগরণমূলক ছবি ‘গাব্বার ইজ ব্যাক’। চলতি বছরের মে মাসে মুক্তি পেয়েছে নির্মাতা কৃষের এই ছবি। ছবিটির প্রযোজক ছিলেন মেধাবী নির্মাতা সঞ্জয় লীলা বানসালি। ভিন্ন মেজাজে অক্ষয় কুমারকে দাঁড় করিয়ে দেয়া ‘গাব্বার ইজ ব্যাক’ এ পর্যন্ত বক্স অফিসে আয় করেছে ৮৫ কোটি রুপি। আছে ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় নয় নম্বরে।
বেবি:
চলতি বছরের শুরতেই বলিউডে মুক্তি পায় অক্ষয় কুমার অভিনীত ছবি ‘বেবি’। বছরের শুরতেই ছবিটি বেশ আলোচনারও জন্ম দেয়। নিরজ পান্ডের পরিচালনায় ক্রাইম, অ্যাকশন, থ্রিলে ভরপুর ‘বেবি’ ছবিটি ৮২ কোটি রুপি আয় করে চলতি বছরের ব্যবসাসফল শীর্ষ দশে জায়গা করে নিয়েছে।