কৌশলে বাঁচবে স্মার্টফোনের চার্জ

স্মার্টফোন দিয়ে নানা কাজ করা হয়। এই যেমন ইন্টারনেট ব্রাউজ করা, গেইম খেলা, ছবি তোলা, বই পড়া, গান শোনা বা ভিডিও দেখা। এতে ডিভাইসের চার্জ দ্রুত ফুরিয়ে যায়। ব্যাপারটা স্বাভাবিক হলেও ব্যবহারকারীরা এতে মহা বিরক্ত হয়ে থাকেন।
এছাড়া বর্তমানে স্মার্টফোনে উন্নতমানের গ্রাফিক্স চিটসেট ও প্রসেসর ব্যবহার করা হচ্ছে। কিন্তু এর তুলনায় ভালো ব্যাকআপ সুবিধার ব্যাটারি ব্যবহার করা হচ্ছে না। এতে ডিভাইস সচল রাখাতেই ব্যয় হচ্ছে অধিক চার্জ। আর এর ফলে অনাকাঙ্ক্ষিত ঝামেলায় পরছেন অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস অপারেটিং সিস্টেম নির্ভর স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা।
তবে যখন তখন স্মার্টফোনের চার্জ ফুরিয়ে যাওয়ার ঝামেলা থেকেও বাঁচার উপায় আছে। এর জন্য জানতে হবে বেশ কিছু কৌশল। আর এসব কৌশলই তুলে আনা হল এই প্রতিবেদনে-

phone betary

চার্জ-খেকো অ্যাপ রিমুভ করা
স্মার্টফোনে নানান অ্যাপ্লিকেশন রাখতে পছন্দ করেন ব্যবহারকারীরা। বর্তমান অ্যাপ বাজারে বিভিন্ন ধরন ও কাজের অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে। তবে এর সবই যে স্মার্টফোনের জন্য উপকারী তাও নয়। অনেক অ্যাপ থাকে যা স্মার্টফোন জন্য সরাসরি ক্ষতিকর। আবার এমন কিছু অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে যা স্মার্টফোনের ব্যাকগ্রাউন্ডে অন হয়ে থাকে এবং ডিভাইসের চার্জ গায়েব করে ফেলে। সেজন্য অধিক চার্জ ব্যয় করে এমন অ্যাপ্লিকেশন রিমুভ করে দেয়া যেতে পারে। এতে চার্জ নিয়ে ঝামেলায় পরতে হবে না।
উজ্জ্বলতা কমিয়ে রাখা
স্মার্টফোনের চার্জ বাঁচানোর জন্য এর উজ্জ্বলতা কমিয়ে রাখা উচিত। এক্ষেত্রে ডিভাইসের অটো ব্রাইটনেস ফিচার অ্যাক্টিভ করে রাখা যেতে পারে, যা প্রয়োজনের মুহূর্তে স্বয়ংক্রিয়ভাবে উজ্জ্বলতা বাড়াবে, আবার অপ্রয়োজনের মুহূর্তে স্বয়ংক্রিয়ভাবে উজ্জ্বলতা কমাবে।




phone betary

জিপিএস বন্ধ
জিপিএস বন্ধ রাখলে স্মার্টফোনের চার্জ অধিক সময় থাকবে। অনেক অ্যাপ্লিকেশন আছে, যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে জিপিএস চালু রাখে। সে সব অ্যাপ্লিকেশন চিহ্নিত করে তা রিমুভ করা যেতে পারে বা সেটিংসে গিয়ে জিপিএস ফিচারটি বন্ধ করা যেতে পারে।
লো পাওয়ার মোড ব্যবহার
অধিক সময় ব্যাটারির ব্যাকআপ দিতে অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে রয়েছে লো পাওয়ার মোড। এই ফিচার ব্যাটারির চার্জ ২০ শতাংশ নিচে চলে আসলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ওয়াইফাই, জিপিএস, ইন্টারনেট ডাটা বন্ধ করে দেয়। এতে শেষ মুহূর্তেও কিছু পরিমাণ চার্জ অবশিষ্ট থাকবে, যা প্রয়োজনে বিপদ থেকে রক্ষা করে।
আপডেট বন্ধ রাখা
স্মার্টফোনের সেটিংসে গিয়ে বিভিন্ন অ্যাপের স্বয়ংক্রিয় আপডেট সুবিধা বন্ধ করে দেয়া যেতে পারে। স্বয়ংক্রিয় আপডেট একই সাথে ইন্টারনেট ডেটা এবং চার্জ দুটোই নষ্ট করে।