১১০ বিলিয়ন ডলারের গেম


বেসিস আয়োজিত ‘গেমস ডেভেলপমেন্ট: অপরচুনিটি ফর ফিউচার বাংলাদেশ’ শীর্ষক কর্মশালায় শতাধিক প্রশিক্ষণার্থী অংশ নেন।বর্তমানে বিশ্বব্যাপী গেমের বাজার ১১০ বিলিয়ন ডলারেরও বেশি। বিশাল এই বাজারে প্রবেশের জন্য কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশি কোম্পানিগুলো কাজ করে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে সাড়াজাগানো বেশ কিছু গেম তৈরি করেছে বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানগুলো। বাংলাদেশি ডেভেলপারদের তৈরি এসব গেম কয়েক মিলিয়ন ডাউনলোডের রেকর্ডও রয়েছে। সম্ভাবনাময় এই বাজারে বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ ও করণীয় সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরতে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) আয়োজিত বিশেষ কর্মশালায় বক্তারা এসব কথা বলেন। 
গতকাল শনিবার বেসিস অডিটোরিয়ামে ‘গেমস ডেভেলপমেন্ট: অপরচুনিটি ফর ফিউচার বাংলাদেশ’ শীর্ষক এই কর্মশালার সহযোগিতায় ছিল বেসিসের মোবাইল অ্যাপস, গেমস অ্যান্ড ভাস-সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি ও মোবাইল মানডে। কর্মশালায় আলোচক হিসেবে ছিলেন ম্যাসিভস্টার স্টুডিও লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী এস এম মাহাবুব আলম, ট্যাপস্টার ইন্টার‍্যাক্টিভ সফটওয়্যার লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী এ কে এম মাসুদ ও স্কাই ট্যাপারের টেকনিক্যাল প্রধান শফিউর রহমান।
কর্মশালায় বক্তারা বলেন, গেম ও গেম অ্যাপ তৈরিতে বাংলাদেশের অনেক সম্ভাবনা রয়েছে। এ খাতের উন্নয়নের মাধ্যমে আমাদের জনবল ও বেকার জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে। শিক্ষার্থীরাও প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সম্ভাবনাময় এই খাতে ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন। 
কর্মশালায় বাংলাদেশের গেম উন্নয়ন খাতের লক্ষ্য, বেসিক গেমিং, গেম ডেভেলপম্যান্ট, অ্যানিমেশন, সাউন্ড এফেক্ট, পোস্ট এফেক্টসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করা হয়। কর্মশালায় শতাধিক অংশগ্রহণকারী গেম তৈরি সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা, আইডিয়া তৈরি থেকে এর উন্নয়ন সম্পর্কে ধারণা পান।