ভালোবাসা দিবসের উপহার

 
ফেব্রুয়ারির চৌদ্দ তারিখ বিশ্বব্যাপী পালিত হয় বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। আর কোনো দিবস মানেই বিশেষ আয়োজন। আর ভালোবাসা দিবস আবাল-বৃদ্ধ-বণিতা সকলের জন্য হলেও তরুণ-তরুণীদের জন্য খুব আকাঙ্ক্ষিত একটি দিন। এদিন সবাই চান নিজেকে প্রিয়জনের কাছে বিশেষভাবে উপস্থাপন করতে। আর উপহার ছাড়া একটা বিশেষদিন ভাবাই যায় না। তাই কাছের মানুষটিকে চমকে দেওয়ার মত কয়েকটি উপহারের নমুনা আপনাদের জানাচ্ছি, দেখুনতো পছন্দ হয় কিনা!

লাল গোলাপভালোবাসা মানেই লাল গোলাপ। তাই উপহার যা ই হোক না কেন লাল গোলাপ যেন থাকে। যদি কিছু নাও দেন একগুচ্ছ লাল গোলাপ দিয়ে দিন। কিংবা দিতে পারেন প্রিয়জনের পছন্দের কোন ফুল।
চকলেট
উপহার হিসেবে চকলেট বেশ জনপ্রিয়। তাই প্রিয় মানুষটিকে চকলেট উপহার দিতে পারেন। বেছে নিতে পারেন হৃদয় আকৃতির চকলেট।
বই
বই হচ্ছে শ্রেষ্ঠ উপহার। তার ওপর চলছে বইমেলা। তাই পছন্দের মানুষের প্রিয় লেখকের বই উপহার হিসেবে বেছে নিতে পারেন। আর বাড়তি চমক দিতে বইয়ে সংগ্রহ করতে পারেন সেই লেখকের অটোগ্রাফ।
গহনা!
কি গহনা একটু বেশি দামি হয়ে যাচ্ছে! এখন গোল্ড প্লেটেড গহনার বেশ প্রচলন। বেশ সাশ্রয়ী ও দেখতেও সুন্দর। পছন্দসই একটা আংটি উপহার হিসেবে মন্দ হবেনা! কিংবা অন্য কোন গহনাও পছন্দ করতে পারেন। হতে পারে লকেট, পায়েল, ব্রেসলেট ইত্যাদি।
ঘড়ি বা পার্স
ফ্যাশনেবল ঘড়িও হতে পারে উপহারের অনুষঙ্গ। তাই কিনতে পারেন ঘড়ি। ওয়ালেট বা পার্স উপহার দিলেও বেশ ভালো হবে। দিতে পারেন পছন্দের ব্রান্ডের পারফিউম। প্রয়োজনীয়তাও যেমন মিটবে আবার প্রিয়জনের ছোঁয়াও থাকলো।
আরো কিছু
এছাড়া আরো আছে বিভিন্ন রকমের শোপিচ, মগ (মগে দু’জনের ছবিও লাগিয়ে নিতে পারেন), ফটোফ্রেম (ফটোফ্রেমে লাগিয়ে দিতে পারেন দু’জনের বিশেষ মুহূর্তের একটা ছবি), হৃদয় আকৃতির মোমবািত, কার্ড, ডায়েরি, কলম চাবির রিং ইত্যাদি।
আসলে উপহার হিসেবে ভালোবেসে আপনি আপনার প্রিয়জনকে যা দিবেন তাই শ্রেষ্ঠ উপহার। ও হ্যাঁ তাকে ভালোবাসি কথাটা বলতে ভুলবেন না কিন্তু। যদি বলতে না পারেন অন্তত লিখে দিন।