২৫১ রুপির ফোন শতাব্দীর সেরা কেলেঙ্কারি


ভারতের আলোচিত ২৫১ রুপির মুঠোফোন ‘ফ্রিডম ২৫১’ বিক্রির পরিকল্পনাকে প্রতারণা বলে আখ্যায়িত করেছেন দেশটির কংগ্রেস দলীয় সাংসদ প্রমোদ তিওয়ারি। শুক্রবার রাজ্যসভায় বিজেপি নেতাদের উপস্থিতিতে ফোনটির বিষয়ে তীব্র আপত্তি জানিয়ে তিনি একে ‘শতাব্দীর সবচেয়ে বড় কেলেঙ্কারি’ বলে মন্তব্য করেন।
তিওয়ারি অভিযোগ করে বলেন, ’আমি সুনির্দিষ্ট অভিযোগ করছি। এ সরকার বড় একটি কেলেঙ্কারি করছে। বিজেপির আমলে শতাব্দীর সবচেয়ে বড় কেলেঙ্কারির ঘটনাটি ঘটবে। এ পণ্যটি উদ্বোধনের সময় বিজেপি নেতারা উপস্থিত ছিলেন। কেলেঙ্কারির সঙ্গে তারা যুক্ত। তারা মেক ইন ইন্ডিয়া কথা বলে মেক ইন ফ্রড করছে।’
২৫১ রুপিতে মানুষের হাতে স্মার্টফোন তুলে দেয়ার বিষয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন কংগ্রেসের এই সাংসদ। তিনি দাবি করেন, ইতিমধ্যে ছয় কোটি ফরমায়েশ পেয়েছে এই ফোন কোম্পানিটি। ২৫১ রুপি করে হলেও শত শত কোটি টাকা তারা সংগ্রহ করেছে। তিওয়ারি বলেন, এই ফোনটি তৈরির খরচ এক হাজার ৪০০ রুপি হবে বলে এর পরিচালক স্বীকার করলেও তারা কীভাবে মাত্র ২৫১ রুপিতে তা বিক্রি করবে, তা আসলেই আশ্চর্যের বিষয়।
তিনি প্রশ্ন তোলেন, ২৫১ রুপিতে যদি স্মার্টফোন পাওয়া যায়, তবে অন্য প্রতিষ্ঠানগুলো কেন ২০ থেকে ৩০ হাজার রুপিতে ফোন বিক্রি করছে। হয় এতে কোনো গলদ আছে বা ওই ফোন কোম্পানিগুলোর কোনো গলদ আছে। সরকারকে এর উত্তর দিতে হবে। 
ভারতের নয়ডাভিত্তিক উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান রিংগিং বেল ফ্রিডম ২৫১ নামে ২৫১ রুপি দামের ফোন তৈরির ঘোষণা দেয়, যাতে সরকারের সমর্থন আছে বলে তারা দাবি করে।
উল্লেখ্য, ভারতের মোবাইল ফোন প্রস্তুতকারী কোম্পানি রিঙ্গিং বেলস কোম্পানি ২৫১ রুপিতে স্মার্টফোন ফ্রিডম-২৫১ তৈরি করেছে। কয়েকদিন আগেই ব্যাপক প্রচারণার মধ্য দিয়ে এটি বাজারে ছাড়া হয়। সস্তা এই ফোন কিনতে কোম্পানির ওয়েবসাইটে সেকেন্ডে ছয় লাখ আবেদন জমা পড়তে শুরু করলে নিবন্ধন সাময়িকভাবে।