দেয়ালে কম্পিউটারের বিবর্তন

মেলা উপলক্ষে কম্পিউটার সিটিতে তথ্যপ্রযুক্তি ইতিহাসভিত্তি দেয়ালচিত্র দেখছেন কয়েকজন দর্শক l খালেদ সরকার
কম্পিউটার প্রযুক্তি কতই না বদলে দিয়েছে বিশ্বকে! এ বদলে যাওয়ার বয়স এখনো শতক পেরোয়নি। এ গল্পটা শুরু হতে পারে ১৯৩৯ সাল থেকে। সে বছর উইলিয়াম রেডিংটন হিউলেট এবং ডেভিড প্যাকার্ড যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার পালো আল্টোর গ্যারেজে প্রতিষ্ঠা করেন তাঁদের কোম্পানি এইচপি। প্রতিষ্ঠানটির প্রথম পণ্য শব্দ পরীক্ষার যন্ত্র (অডিও অসিলেটর) এইচপি-২০০এ বাজারে এলে জনপ্রিয়তা পায়। এরপর ১৯৫৩ সালে আইবিএম বাজারে আনে ডিফেন্স ক্যালকুলেটর। ১৯৭০ সালে চালু হয় ই-মেইল সেবা। পরের বছর ইনটেল প্রসেসর বানালে প্রযুক্তির জগতে যোগ হয় নতুন মাত্রা। এরপর শুধুই এগিয়েছে কম্পিউটার প্রযুক্তির যাত্রা। তথ্যপ্রযুক্তি-যাত্রার (১৯৩৯-২০১১) গল্পটি দেখা যাবে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বিসিএস কম্পিউটার সিটি প্রাঙ্গণে।

সিটিআইটি ২০১৬ নামের মেলা উপলক্ষে তথ্যপ্রযুক্তির বিবর্তন তুলে ধরা হয়েছে ৮৭ ফুট দৈর্ঘ্যের দেয়ালচিত্রে। এতে বাদ পড়েনি জিমি কার্টারের সময়কার হোয়াইট হাউসে কম্পিউটার প্রবেশের কথাও। আর মাইক্রোসফট, অ্যাপল কিংবা গুগলের ইতিহাস তো আছেই। বিসিএস কম্পিউটার সিটির সভাপতি আহমেদ হাসান বলেন, ‘মেলায় আসা দর্শক-ক্রেতাদের কম্পিউটার প্রযুক্তির ইতিহাস জানানোর একটা চেষ্টা করা হয়েছে এ দেয়ালচিত্রের মাধ্যমে। পরবর্তী সময়ে নানা বিষয়ে টাইমলাইন থাকবে এখানে।’
দেশের সবচেয়ে বড় এই কম্পিউটার বাজারে এখন চলছে তাদের বার্ষিক কম্পিউটার মেলা। ১৮ জানুয়ারি শুরু হওয়া এ মেলা শেষ হচ্ছে আজ রোববার। মেলার ষষ্ঠ দিনে গতকাল শনিবার কম্পিউটার সিটি ঘুরে দেখা যায়, ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়। নতুন পণ্য এবং মূল্য ছাড়ের জন্যই মূলত ক্রেতারা মেলায় আসছেন। আর নানা রকম আয়োজন তাঁদের জন্য বাড়তি পাওয়া।

সিটিআইটি মেলার সমন্বয়ক মুজিবুর রহমান বলেন, ‘শুক্রবার থেকে আশানুরূপ বিক্রি হচ্ছে। বেড়েছে জনসমাগমও। আশা করি, মেলার শেষ দিনেও এটি অব্যাহত থাকবে।’

ডিজিটাল শিক্ষা শিশুদের অধিকার—স্লোগানে এ মেলা চতুর্দশবারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে। মেলা আয়োজনে সহযোগিতা করছে এইচপি, আসুস, এসার, গিগাবাইট, হিটাচি, ডেল, ট্রেন্ড মাইক্রো ও আরমা গার্ডেন। শেষ দিনে আজও মেলা সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।