ভাসমান হাসপাতালে ‘স্যাটমেড’

২ মার্চ থেকে দেশে যাত্রা শুরু করবে কৃত্রিম উপগ্রহের (স্যাটেলাইট) মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবা দেওয়ার ব্যবস্থা ‘স্যাটমেড’। মূলত উন্নয়নশীল দেশগুলোর জনস্বাস্থ্য, বিশেষ করে দুর্গম ও বিচ্ছিন্ন অঞ্চলের মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতেই তিনটি ভাসমান হাসপাতালে মেরিটাইম ভিস্যাট স্থাপন করবে ফ্রেন্ডশিপ ভাসমান হাসপাতাল। এগুলো হলো লাইফবয় ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল, এমিরেটস ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল এবং রংধনু ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতাল। গতকাল শনিবার রাজধানীর ডেইলি স্টার ভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ফ্রেন্ডশিপের নির্বাহী পরিচালক রুনা খান। স্কয়ার ইনফরমেটিকস লিমিটেডের কারিগরি সহযোগিতায় স্যাটমেড চালু করছে ফ্রেন্ডশিপ ও সোসাইটি ইউরোপিয়ান ডি স্যাটেলাইট (এসইএস)।
সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন এসইএসের গভর্নমেন্ট সলিউশনস ডিপ্লয়মেন্টের জ্যেষ্ঠ বিশ্লেষক মারিয়া মাতিও ইবারা। এ সময় তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রত্যন্ত চর এলাকার প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর কাছে স্বাস্থ্যসেবা সহজে পৌঁছে দিতে ই-হেলথ ফ্রেন্ডশিপকে আরও কার্যকর করবে।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, স্যাটমেড চিকিৎসকদের সঙ্গে যোগাযোগ করার পাশাপাশি চিকিৎসা বিজ্ঞানের দক্ষতা বিনিময় করতে পারে এবং মেডিকেল ই-লার্নিং ও ই-টিচিংয়ের জন্য সরঞ্জাম সমর্থন করে। এটি উন্মুক্ত, সহজ ও সাশ্রয়ী সমাধান, যা কৃত্রিম উপগ্রহভিত্তিক এসইএসের ই-কার্যক্রমের আধুনিক উদ্ভাবন।
আগামী ১ থেকে ৫ মার্চ মেরিটাইম ভিস্যাট স্থাপন করা হবে।