পাঁচ দিনে জিপি মিউজিকে এক লাখের বেশি নিবন্ধন


আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধনের মাত্র পাঁচ দিনেই এক লাখ ২৫ হাজার গ্রাহক জিপি মিউজিক মোবাইল অ্যাপে নিবন্ধন করেছে। 
২০ মার্চ ডিজিটাল মিউজিক মোবাইল অ্যাপ উন্মোচনের পর এত কম সময়ে রেকর্ড পরিমাণ নিবন্ধন হওয়াকে বিস্ময়কর বলে মনে করছে গ্রামীণফোন। ২৫ হাজারের বেশি স্থানীয় গান নিয়ে চালু হওয়া জিপি মিউজিক বাংলা ভাষায় বিশ্বের সবচেয়ে বড় ডিজিটাল মিউজিক লাইব্রেরি। 
দেশীয় সঙ্গীতপ্রেমীদের কথা মাথায় রেখে বাংলা গানের লাইব্রেরিসমৃদ্ধ জিপি মিউজিক অ্যাপ চালু করে ডিজিটাল মিউজিক প্ল্যাটফর্মের ক্ষেত্রে এগিয়ে থাকার লক্ষ্য নিয়ে কাজ শুরু করল গ্রামীণফোন। 
শীর্ষস্থানীয় সঙ্গীতশিল্পীদের অ্যালবাম ও গান জিপি মিউজিক অ্যাপে পাওয়া যাবে। দেশের সবধরনের সঙ্গীতশিল্পীরা নিজেদের গান ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে সরবরাহের সুযোগ করে দেয়াই অ্যাপটির মূল উদ্দেশ্য। 
এছাড়া মিউজিক পাইরেসি কমানোর ক্ষেত্রে এ ধরনের ডিজিটাল মিউজিক প্ল্যাটফর্ম সঙ্গীতাঙ্গণে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখবে।          
গ্রামীণফোনের প্রধান বিপনণ কর্মকর্তা (সিএমও) ইয়াসির আজমান জিপি মিউজিক সম্পর্কে বলেন, ‘আমরা সবার ডিজিটাল জীবনের সঙ্গী হতে চাই। আমরা বিশ্বাস করি মিউজিকপ্রেমীদের জন্য জিপি মিউজিক বাংলাদেশে সেরা ডিজিটাল মিউজিক প্ল্যাটফর্ম সেবা দিতে পারবে।’ 
আইফোনের আইওএস এবং অ্যানন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমেচালিত সকল ডিভাইসে ব্যবহার করা যাচ জিপি মিউজিক অ্যাপ। অ্যাপ স্টোর ও গুগল প্লে স্টোরে পাওয়া যাচ্ছে ডিজিটাল মিউজিক প্ল্যাটফর্ম জিপি মিউজিক।
এছাড়াও www.gpmusic.co ওয়েবসাইটে গিয়েও অনায়াসে ব্যবহার করা যাবে জিপি মিউজিক সেবা।