প্রতারণার অভিযোগে বাংলালিংক সিইওকে লিগ্যাল নোটিশ

প্রতারণার অভিযোগে মোবাইল অপারেটর বাংলালিংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) এরিক অসকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন গোলাম রব্বানী নামে এক গ্রাহক। আজ বৃহস্পতিবার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে তার পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী জুলফিকার আলী জুনু নোটিশটি পাঠান। বিষয়টি অবগতির জন্য ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব ও বিটিআরসির চেয়ারম্যানকেও নোটিশের কপি পাঠানো হয়েছে।
নোটিশে বলা হয়, ওই গ্রাহক দীর্ঘদিন ধরে বাংলালিংকের একটি অফার ব্যবহার করছিলেন। অফারটি হল-১৯৯ টাকা রিচার্জ করলে এক পয়সা প্রতি সেকেন্ড পালস সুবিধা পাওয়া যাবে। এই অফারের ধারাবাহিকতায় তিনি গত ৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৯ টাকা রিচার্জ করেন। এই রিচার্জের পর একটি ম্যাসেজের মাধ্যমে তাকে অভিনন্দন জানিয়ে বলা হয়, ৯ মার্চ ২০১৬ তারিখের মধ্যে আবার ওই পরিমাণ টাকা রিচার্জ করলে একই সুবিধা অব্যাহত থাকবে।
বাংলালিংকের পাঠানো ওই ম্যাসেজ অনুসারে গ্রাহক গোলাম রব্বানী গত ২৩ ফেব্রুয়ারি আবার ১৯৯ টাকা রিচার্জ করেন। কিন্তু ওইদিন রিচার্জের পর রিচার্জ সাকসেকফুল দেখালেও সংশ্লিষ্ট গ্রাহকের মোবাইলে কোন প্রকার ব্যালেন্স যোগ হয়নি।
বিষয়টি নিয়ে তিনি কাস্টমার সার্ভিসে যোগাযোগ করলে জানানো যে ইতিমধ্যে ওই টাকার বিনিময়ে ইন্টারনেট ডাটার একটি প্যাকেজ চালু করা হয়েছে। ব্যালেন্স রিফান্ডের কোন সুযোগ নেই। নোটিশে আরো বলা হয় দেশের কোটি কোটি মানুষ বাংলালিংকের গ্রাহক। এসব গ্রাহকের অনেকেই হয়তো প্রতারণার শিকার হচ্ছেন।
নোটিশ পাওয়ার ৫ দিনের মধ্যে এই বিষয়ে বাংলালিংক কর্তৃপক্ষকে জবাব দিতে বলা হয়েছে। অন্যাথায় বাংলালিংকের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন অভিযোগকারী গোলাম রব্বানীর আইনজীবী জুলফিকার আলী জুনু।