এই বিশ্বকাপ খেলার সম্ভাবনা আছে তাসকিনের!


আইসিসির কাছে তাসকিন আহমেদের বোলিং নিষেধাজ্ঞা স্থগিতের আবেদন জানিয়েছে বিসিবি। রবিবার দুপুরে গুলশানে নিজের বাসভবনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান বলেছেন, তাসকিনের ব্যাপারে খুব দ্রুত কোনো সুখবর এলেও আসতে পারে। ‘আইসিসির এ রকম সিদ্ধান্ত পাল্টে যাওয়ার ঘটনা আমরা এর আগে দেখিনি। তবে তাসকিনের ব্যাপারে সেটা হলে অবাক হব না। আমি আশাবাদী’—বলেছেন বিসিবি সভাপতি।
নাজমুল হাসান বলেন, আমাদের দুজন বোলারের অ্যাকশন নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। তবে আমরা তাসকিনের রিপোর্টের সঙ্গে পুরোপুরি একমত নই। তাসকিনের যে রিপোর্ট আমরা পেয়েছি সেটা দেখে সন্তুষ্ট হওয়ার কোনো কারণ নেই।
আজ সকালে এ নিয়ে আইসিসির চেয়ারম্যান শশাঙ্ক মনোহর এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডেভ রিচার্ডসনের সঙ্গে মুঠোফোনে কথা বলেছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমার জানা মতে ওনারা ইতিমধ্যেই একটা বিশেষজ্ঞ দল নিয়ে বসেছেন ইস্যুটা দেখার জন্য এবং আমরা অনুরোধ করেছি যত দ্রুত সম্ভব এ সম্পর্কে জানাতে। তারা মিটিং শেষ করেই আমাকে জানাবেন বলে আশা করছি।
এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত অবশ্য আইসিসি থেকে কোনো জবাব আসেনি। তাসকিনের রিপোর্টের বিরুদ্ধে কিছু পাল্টা যুক্তি দিয়ে তাঁর বোলিংয়ের নিষেধাজ্ঞা যত দ্রুত সম্ভব স্থগিতের আবেদন করেছে বিসিবি। সম্ভব হলে সেই স্থগিতাদেশ তারা চায় অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের আগেই। যুক্তিগুলো কী, সেটা জানাতে রাজি না হলেও নাজমুল হাসান বলেছেন, কিছু যুক্তি দিয়ে আমরা দাবি করেছি নিষেধাজ্ঞাটা স্থগিত করা হোক। এটা প্রত্যাহার করতে পারে একমাত্র আইসিসি। নিষেধাজ্ঞা তারা দিয়েছে, প্রত্যাহার করতে হলেও তাদেরই করতে হবে।
স্বাভাবিক নিয়মে অ্যাকশন অবৈধ ঘোষণার সাত দিনের মধ্যে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার বা সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার আবেদন জানানোর নিয়ম। কিন্তু সেটি অনেক দীর্ঘ প্রক্রিয়া বলে আপাতত সে পথে যাচ্ছে না বিসিবি। নাজমুল হাসানের ভাষায়, ওটা অনেক লম্বা প্রক্রিয়া। তবে সে পথে যাওয়ার সময়ও আমাদের হাতে আছে। আমি আগে চেষ্টা করছি সংক্ষিপ্ত প্রক্রিয়ায় তাৎক্ষণিক কিছু করা যায় কি না।
সে ক্ষেত্রে এই বিশ্বকাপেই তাসকিনের ফেরার খুব সামান্য হলেও সম্ভাবনা আছে বলে মনে করেন সভাপতি। সে কারণেই এখনো দলের সঙ্গে রাখা হয়েছে তাসকিনকে।