নিবিরু দেখা গেছে, ধ্বংসের পথে পৃথিবী


বছরের শুরু থেকেই একটি বিষয়ে কানাঘুষো চলছে। আর তা হল, পৃথিবীর দিকে নাকি ধেয়ে আসছে সৌরজগতের ১২তম গ্রহ নিবিরু। সুমেরীয় কিংবা মায়ানদের বর্ণিত সেই গ্রহ, বিজ্ঞানীরা বর্তমানে যার নাম দিয়েছে প্ল্যানেট এক্স (Planet X)। সম্প্রতি গ্রহটি আলোচনায় এই কারণে যে, এটি নাকি পৃথিবীকে এ মাসেই অতিক্রম করবে।
অবশ্য মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা বিষয়টি উড়িয়ে দিলেও রুশ বেশ কিছু গণমাধ্যম এমন খবর প্রকাশ করেছে। এমনকি সম্প্রতি এর সপক্ষে মিয়ানমার, জাপান, ইকুয়েডরে ভয়াবহ ভূমিকম্পের বিষয়টিও এক করার চেষ্টা চলছে। বলা হচ্ছে, নিবিরু এগিয়ে আসছে বলেই সভ্যতাকে নাড়িয়ে দেয়ার জন্য ৮ মাত্রার বেশি ভূমিকম্প আমাদের ঠিক সামনেই অপেক্ষা করছে।
বছরের শুরুতেই দাবি উঠেছিল, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে পরপর অন্তত ৫টি ৭ মাত্রার বেশি শক্তিশালী ভূ-কম্পন সংঘটিত হবে। গত বছরে আঘাত হানা নেপালের ভূমিকম্প নাকি এর পূর্বাভাষ ছিল।
বিষয়টি গুজব হলেও মিয়ানমার, জাপান ও ইকুয়েডর মিলিয়ে পৃথিবীতে অল্প সময়ের মধ্যে ৪টি ভয়াবহ ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। নিবিরু বিশ্বাসীদের দাবি অনুযায়ী, আরও একটি শক্তিশালী ভূ-কম্পন বাকি রয়েছে। আর সেটি হলেই পরিষ্কার হবে ৮মাত্রার বেশি ভয়াবহ ভূমিকম্পটি সংঘটিত হতে হয়তো বেশি সময় আর বাকি নেই। 
কিছু সংবাদে এমনও এসেছে, জলবায়ু পরিবর্তনের পেছনে আসলে মানুষের হাত নেই। এটিও পৃথিবীর বিধি, মূলত গ্রহে বড় ধরনের পরিবর্তন আসছে বলে স্বাভাবিকভাবেই প্রকৃতিতে ছন্দপতন ঘটছে। এত কিছুর পরও বিষয়টি উড়িয়ে দিচ্ছেন অনেকেই। তবে নিবিরু বিশ্বাসীরা বলছেন, তাদের কাছে আরও প্রমাণ রয়েছে। আর সেটিই মোক্ষম প্রমাণ।
প্রমাণ হিসেবে ইউটিউবে সম্প্রতি প্রকাশ হওয়া দু’টি ভিডিও’র কথা তারা বলছেন। এর একটি জাপানে ধারণ করা। ভিডিওটি ধারণ করা হয় এপ্রিলের ১৫ তারিখ, দিনটি ছিল শুক্রবার। ক্যামেরায় জাপানের পশ্চিমাকাশে দু’টি রক্তিম লাল সূর্য ধরা পড়ে।
ভিডিওতে সূর্যাস্তের সময় সূর্যের ঠিক পূর্বে খানিক ছোট একটি লাল গোলক দেখা যাচ্ছে। অনেকেই বানোয়াট দাবি করলেও ভিডিওটি পরীক্ষা করে কেউ কেউ বলছেন, এটি নিছক সূর্যের আলোর প্রতিফলন নয়।
ভিডিওলিঙ্ক: https://www.youtube.com/watch?v=pFGh9VVzY8w
অপর ভিডিওটি, পরদিন চীনের হংকং থেকে ধারণ করা। সময় ছিল বেলা ১টা বেজে ৪২ মিনিট। মেঘের আড়ালে থাকলেও সূর্যের ঠিক পূর্বে নিজেকে আড়াল করতে পারেনি নিবিরু।
ভিডিও লিঙ্ক: https://www.youtube.com/watch?v=Bs22Sf-vbcY
এখানেই শেষ নয়, অস্ট্রেলিয়া, ফিলিপাইনসহ বেশ কিছু দেশে নিবিরুকে দেখার দাবি করা হচ্ছে। তবে ভিডিও দুটির মতো এখনও কেউ শক্ত প্রমাণ দেখাতে পারেননি।