ঢাকায় তাপমাত্রা কমেছে


এবারের বাংলা নববর্ষের সঙ্গে টানা তিন দিনের ছুটি যোগ হয়েছে। এই সুযোগে অনেকে গেছেন ঢাকার বাইরে। এ জন্য আজ বৃহস্পতিবার পয়লা বৈশাখে রাজধানীর রাজপথ অন্যান্য দিনের চেয়ে তুলনামূলক ফাঁকা। তবে কয়েক দিনের রোদ তাতানো আকাশ কিছুটা যেন বদলে গেছে। সকালে মৃদু মেঘলা ভাব ছিল। ফুরফুরে বাতাসও বয়ে গেছে। এতে ভ্যাপসা ভাবটা কমে যাওয়ায় রাজধানীর মানুষ কিছুটা হলেও স্বস্তি অনুভব করেছে।
আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, গতকালের চেয়ে আজ বৃহস্পতিবার সকালে তাপমাত্রা খানিকটা কম ছিল। রাজধানী ঢাকায় গতকাল বুধবার সকাল নয়টায় তাপমাত্রা ছিল ৩১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা আজ সকালে ছিল ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কিছুটা বেশি। এক ঘণ্টা পর আজ সকাল ১০টার দিকে তাপমাত্রা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩২ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে গরমও বেড়ে যায়।
তবে আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, গতকালের চেয়ে আজ ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা কমেছে। গতকাল ঢাকায় তাপমাত্রা ছিল ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আজকের তাপমাত্রা ৩৬ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে সারা দেশের মধ্যে গতকাল সাতক্ষীরায় তাপমাত্রা ছিল ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, আজকে সেটি হয়েছে ৩৭ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে চুয়াডাঙ্গায় আজ সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৯ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। আজ ঢাকার আশপাশে ময়মনসিংহ ও টাঙ্গাইলে সামান্য বৃষ্টি হয়েছে। রাতে ঢাকা ও সিলেটে বৃষ্টি হতে পারে বলে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে।
গরম যা-ই থাকুক না কেন, সিলেটে ২৪ ঘণ্টার হিসাবে আজ সকাল ছয়টার দিকে বৃষ্টি হয়েছে ৩২ মিলিমিটার। আগের দিন এর পরিমাণ ছিল ১৫ মিলিমিটার।
আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ প্রথম আলোকে বলেন, সিলেটে বৃষ্টি হচ্ছে। এ ছাড়া দখিনা বাতাস বইছে। এর সঙ্গে দক্ষিণ দিক থেকে মেঘও আসছে। সব মিলিয়ে বৃষ্টির একটা ক্ষেত্র তৈরি হচ্ছে। দুই-তিন দিনের মধ্যে এই বৃষ্টি হতে পারে।