অ্যাপলের নতুন ম্যাকবুক, দারুণ কিন্তু....


মার্কিন প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপল সম্প্রতি সম্পূর্ণ নতুন মডেলের ম্যাকবুক বাজারে এনেছে। নতুন এ ম্যাকবুকে রয়েছে বেশ কিছু আকর্ষণীয় রঙের সমাহার, যার মধ্যে রয়েছে পিংকও। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে বিজনেস ইনসাইডার।
ম্যাকবুকের এ নতুন মডেলটিতে আগের মডেলের দুর্বলতাগুলো দূর করা সম্ভব হয়েছে বলে জানিয়েছে অ্যাপল। এছাড়া এতে ব্যবহৃত হয়েছে আগের তুলনায় উন্নতমানের প্রসেসর, দ্রুতগতির র‌্যাম ও উন্নতমানের গ্রাফক্স। এতে নতুন ম্যাকবুকের পারফর্মেন্স যেমন বাড়বে তেমন কাজও সহজ হয়ে আসবে বলে দাবি অ্যাপলের। ২০১৫ সালে ম্যাকবুক বেশ কয়েকটি সাধারণ কাজ করতেও দুর্বলতার পরিচয় দিয়েছিল। একসঙ্গে বেশ কয়েকটা ক্রোম ট্যাব খোলার অসুবিধা ও অন্যান্য কয়েকটা অ্যাপ চালানোর সে দুর্বলতাগুলো এবার কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হবে বলে আশাবাদী বিশেষজ্ঞরা। অ্যাপল আগের মডেলগুলোর তুলনায় এবার প্রসেসরসহ অন্যান্য যন্ত্রাংশের মান উন্নত করায় ধারণা করা হচ্ছে এর পারফর্মেন্স যথেষ্ট ভালো হবে।
অ্যাপলের নতুন ম্যাকবুকের গতিশীল প্রসেসর, উন্নত মান ও হালকা-পাতলা ডিজাইনের পরও অনেক বিশেষজ্ঞ একে দামের তুলনায় যথেষ্ট কার্যকর বলে মানতে নারাজ। এর মূল কারণ দাম। নতুন ম্যাকবুকের ১২ ইঞ্চি মডেলের দাম ১,২৯৯ ডলার। এটি একই ধরনের অন্যান্য প্রতিদ্বন্দ্বীদের তুলনায় যথেষ্ট বেশি।
ম্যাকবুকের নতুন ল্যাপটপটির কনফিগারেশন, ওজন ইত্যাদি বিবেচনায় কাছাকাছি বেশ কয়েকটি মডেল রয়েছে। সেসব ল্যাপটপের তুলনায় ম্যাকবুকের দাম বেশি বলেই মনে করছেন বিশ্লেষকরা।
অ্যাপলের ল্যাপটপে প্রচুর উদ্ভাবনী ক্ষমতা ও প্রকৌশল ব্যবহৃত হলেও একই ধরনের কনফিগারেশনের ল্যাপটপকে যদি বিবেচনা করা হয় তাহলে নতুন ক্রোমবুকের দাম বেশি বলেই ধরতে হবে বলে জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। এ তালিকায় রয়েছে অ্যাপলেরও বেশ কিছু মডেল। যেমন ১৩ ইঞ্চি ম্যাকবুক প্রোতে রয়েছে কোর আই৫ প্রসেস। এটি কোর এম প্রসেসরের তুলনায় শক্তিশালী। এছাড়া ১৩ ইঞ্চি ম্যাকবুক এয়ার-এর মূল্য ৯৯৯ ডলার।
বাজারে বর্তমানে উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমচালিত বহু ল্যাপটপ রয়েছে। এগুলো ম্যাকবুকের মতো হালকা ও পাতলা না হলেও উভয়ের পার্থক্য অতি সামান্য। উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেম এগুলোর আকর্ষণ বাড়িয়ে দিয়েছে।
৮০০ ডলার মূল্যে রয়েছে এলজি গ্র্যাম। এটি ২.১৬ পাউন্ড ওজনের। অন্যদিকে ম্যাকবুকের ওজন ২.০৩ পাউন্ড। তবে এটির স্ক্রিন নতুন ম্যাকবুকের চেয়ে এক ইঞ্চি বড় (১৩ ইঞ্চি)। এ মডেলটি কিনলেও পাঁচশ ডলার সাশ্রয় করা সম্ভব।
ল্যাপটপ কেনার ক্ষেত্রে আপনি যদি শুধু স্লিম মডেল চান তাহলে স্যামসাং গ্রালাক্সি ট্যাব প্রো এস দেখতে পারেন। ১২ ইঞ্চি স্ক্রিনের এ মডেলটি মাত্র ০.২৪ ইঞ্চি পুরু, ১.৫ পাউন্ড ওজনের এবং উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমের। এর মূল্য ৯০০ ডলার, যা অ্যাপলের নতুন ম্যাকবুকের তুলনায় ৪০০ ডলার কম।