শুক্রবার বাজারে উন্মুক্ত হবে ‘এইচটিসি ১০’

‘এইচটিসি ১০’ নিয়ে চলা সকল জল্পনাকল্পনার অবসান হল গত ১২ এপ্রিল কারণ বহুল প্রত্যাশিত এই ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন একযুগে এই ১২ এপ্রিল  নিউইয়র্ক, লন্ডন ও তাইপে’তে উন্মোচন করেছে এইচটিসি কর্তৃপক্ষ। তবে মঙ্গলবারে উন্মোচন করা হলেও আগামী শুক্রবার থেকে বাজারে পাওয়া যাবে ফোনটি।
তথ্যমতে, সাদা, কালো, সোনালী এবং সাদাকালো –এই চার রঙে উন্মোচন করা হবে এইচটিসি’র ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইসটি। মেটাল ইউনিবডির নকশাযুক্ত ফোনটি ৪জি সমর্থণ করে। ৩,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারীসমৃদ্ধ স্মার্টফোনটিতে উন্নতমানের শব্দ প্রদানের জন্য এইচটিসি বুম সাউন্ড হাই-ফাই এডিশন সাথে ডলবি অডিও প্রযুক্তি যুক্ত করা হয়েছে। স্মার্টফোনটিতে ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট যুক্ত করা হয়েছে। স্মার্টফোনটির নিচের বেজেল অঞ্চলে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার সংযুক্ত করা হয়েছে।
৪জিবি র‌্যামযুক্ত কোয়ালকমের নতুন স্ন্যাপড্রাগন ৮২০ প্রসেসর সমৃদ্ধ ফোনটির বিক্রয়মূল্য রাখা হয়েছে ৬৯৯ মার্কিন ডলার। ৩২ ও ৬৪জিবি অভ্যন্তরীন স্টোরেজসহ মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে সর্বোচ্চ ২ টেরাবাইট স্টোরেজ ব্যবহার করা যাবে। এলজি এবং স্যামসাংয়ের পর নতুন ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন হিসেবে বাজারে আত্মপ্রকাশ করল এইচটিসি ১০। ৪জিবি র‌্যামযুক্ত কোয়ালকমের নতুন স্ন্যাপড্রাগন ৮২০ প্রসেসর সমৃদ্ধ ফোনটির বিক্রয়মূল্য রাখা হয়েছে ৬৯৯ মার্কিন ডলার। ৩২ ও ৬৪জিবি অভ্যন্তরীন স্টোরেজসহ মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে সর্বোচ্চ ২ টেরাবাইট স্টোরেজ ব্যবহার করা যাবে।
তবে ভারতের মতো কয়েকটি বাজারে মডেলটির ‘লাইফস্টাইল’ সংস্করণটি ছাড়তে পারে এইচটিসি। এ সংস্করণে ১.৮ গিগাহার্জ ৬৪-বিট অক্টা-কোর স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর থাকবে।
গরিলা গ্লাস সুরক্ষাসহ ৫.২ ইঞ্চি কিউএইচডি সুপার এলসিডি ৫ ডিসপ্লেযুক্ত স্মার্টফোনটিতে ২৫৬০*১৪৪০ পিক্সেল রেজ্যুলেশন আছে। অ্যান্ড্রয়েড ৬.০ মার্শম্যালো ও এইচটিসির নিজস্ব ইউজার ইন্টারফেসের সম্মিলনে চালিত স্মার্টফোনটির পিছনে ও সামনে যথাক্রমে ১২ ও ৫ মেগাপিক্সেল আল্ট্রাপিক্সেল ক্যামেরা বিদ্যমান।
ধারণা করা হচ্ছে গ্যালাক্সি এস৭ এবং এলজি জি৫ ফোন দুটির সাথে পাল্লা দিয়ে সময় ও কঠোর পরিশ্রম করে তৈরি করেছে এইচটিসি কর্মকর্তারা ।