১৭ এপ্রিল পর্যন্ত বায়োমেট্রিকে নিবন্ধিত সিম ৬ কোটি ৩৪ লাখ



১৭ এপ্রিল পর্যন্ত ৬ কোটি ৩৪ লাখ ৬৪ হাজার ৪৮১টি সিমকার্ড সফলভাবে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে পুন:নিবন্ধন করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত বিদম্যান গ্রাহকের ৪৮ শতাংশ সিমকার্ড পুন:নিবন্ধ সম্পনস্ন করেছেন।



বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান ড.শাহজাহান মাহমুদ সমকালকে জানিয়েছেন, আদালতের রায়ে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবল্পব্দন বৈধ ঘোষণার পর নিবন্ধনে হার দ্রুত বাড়ছে।

সূত্র জানায়, সিমকার্ড নিবন্ধনের জন্য ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত মোট ৭ কোটি ৪০ লাখ ৮৭ হাজার ৬১৪ জন গ্রাহক সিমকার্ড পুন:নিবন্ধনের জন্য অপারেটরদের গ্রাহক সেবা কেন্দ্র ও রিটেইলার পয়েন্টে যান। এর মধ্যে  ৬ কোটি ৩৪ লাখ ৬৪ হাজার ৪৮১টি সিমকার্ড সফলভাবে পুন:নিবন্ধন সম্পন্ন হয়েছে।

বাকী ১ কোটি ৬৬ লাখ ২ হাজার ১৯৪ জনের নিবন্ধন সফলভাবে সম্পন্ন করা যায়নি। অর্থাৎ, ৮৬ শতাংশ ক্ষেত্রে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিমকার্ড পুন:বিন্ধন সফল হয়েছে, ১৪ শতাংশ ক্ষেত্রে হয়নি।

মূলত, জাতীয় পরিচয় পত্র সার্ভারে রক্ষিত আঙুলের ছাপের সঙ্গে মিল না পাওয়া যায় এই গ্রাহকদের পুন:নিবন্ধন না হওয়ার মূল কারণ। অনেকে অন্যের জাতীয় পরিচয় পত্র নিয়ে পুন:নিবন্ধন করতে আসার কারনেই পুন:নিবন্ধন করতে পারেননি। কারণ পুন:নিবন্ধনের জন্য নিজের জাতীয় পরিচয়পত্রই সঙ্গে নিয়ে আসতে হয়।

এপ্রিল পর্যন্ত সিমকার্ড পুন:নিবন্ধনের তথ্য থেকে দেখা যায়, গ্রামীণ ফোনের ৩ কোটি ২৩  লাখ ৪ হাজার ১০৯ জন, বাংলালিংকের ১ কোটি ৭৫ লঅখ ৫৫ হাজার ৫৩৬ জন, রবি’র ৯৭ লাখ ৩৯ হাজার ২৭৬ জন, এয়ারটেলের ৩৬ লাখ ১৪ হাজার ৫৬ জন, টেলিটকের ২০ লাখ ৬ হাজার ৪৯৩ জন এবং সিটিসেলের ৪৫ হাজার ২১ জন  গ্রাহকের বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিমকার্ড পুন:নিবন্ধন সফল হয়েছে।