ঘরেই তৈরি করুন সুস্বাদু বাটার বন

ছেলেবেলায় মায়ের কাছে বাটার বনের বায়নার কথা মনে আছে? বেশিরভাগ সময়েই মা উত্তর দিতেন- “ক্রিম ভালো না, পেট ব্যথা করবে” ইত্যাদি আরও কত কী! তবে সেই দিন এবার ফুরোলো। একদম অল্প সময়ে নিজের বাড়িতেই তৈরি করে ফেলতে পারবেন দারুণ মজার বাটার বন। ছেলেমেয়েরা তো বটেই, খুশি হবে বড়রাও। আর ঘরে তৈরি বলে বলাই বাহুল্য যে অনেকটাই স্বাস্থ্যকর।

Create-a-delicious-butter-forest-home


আসুন, জেনে নেই চমৎকার রেসিপিটি।

উপকরণ
সাড়ে ৪ কাপ ময়দা, ৪ চা চামচ শুকনো ইস্ট (বা ২৮ গ্রাম এর প্যাকেট), ১ কাপ দুধ, ৩/৪ কাপ পানি, ১/৪ কাপ মার্জারিন বা ১/৪ কাপ মাখন বা ১/৪ কাপ তেল, ১/৩-১/২ কাপ সাদা চিনি, ১/২ চা চামচ লবণ, ডিম এর কুসুম ২ টি ( সামান্য তেল আর পানি দিয়ে ফেটে নিতে হবে )

প্রণালী
প্রথমে কুসুম গরম পানিতে ইস্ট ভিজাতে হবে। এরপর তেল বাদে সব এক সঙ্গে নিয়ে ভালো ভাবে মাখাতে হবে।

খামির বা ডো তৈরি হয়ে গেলে মাখন/তেল দিয়ে আরো একবার ভালোভাবে মথে ঢেকে রাখতে হবে ৪ থেকে ৬ ঘন্টা। হালকা গরম জায়গায়।

এরপর খামিরটা যখন ফুলে উঠবে তখন আরো একবার মাখিয়ে নিন।

লম্বা বাটার বন আকৃতির রুটি তৈরি করে বেকিং ট্রে-তে হালকা তেল মাখিয়ে তার ওপরে সাজান। ওপরে খাঁজকাটা ডিজাইনের জন্য ব্লেড দিয়ে হালকা করে চিড়ে নিন। আবার ৩০ মিনিট উষ্ণ জায়গায় রেখে দিন।

রুটি ফুলে উঠলে উপরে ডিম এর প্রলেপ দিয়ে ১৬০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় প্রি হিট করা ওভেনে ৩০ মিনিট বেক করতে হবে। হয়ে গেলে নামিয়ে ঠাণ্ডা করতে হবে।
(অনেক সময় অনেক ওভেন ভেদে তাপমাত্রা ওঠা নামা করে। সেই ক্ষেত্রে বেক-এর সময় ও ৩ থেকে ৪ মিনিট আগে পরে হতে পারে।)

ক্রিম তৈরি
২০০ গ্রাম এর বাটার, আইসিং সুগার ৪ টেবিল চামচ, লিকুইড দুধ ১ টেবিল চামচ
সব একত্রে নিয়ে ভালো ভাবে বিট করে নিতে হবে। এর পর রুটির মাঝ বরাবর কেটে ক্রিম দিতে হবে। তৈরী হয়ে গেল মজাদার বাটার বন।

                                                                                                                              -শাম্মী আখতার

ছেলেবেলায় মায়ের কাছে বাটার বনের বায়নার কথা মনে আছে? বেশিরভাগ সময়েই মা উত্তর দিতেন- “ক্রিম ভালো না, পেট ব্যথা করবে” ইত্যাদি আরও কত কী! তবে সেই দিন এবার ফুরোলো। একদম অল্প সময়ে নিজের বাড়িতেই তৈরি করে ফেলতে পারবেন দারুণ মজার বাটার বন। ছেলেমেয়েরা তো বটেই, খুশি হবে বড়রাও। আর ঘরে তৈরি বলে বলাই বাহুল্য যে অনেকটাই স্বাস্থ্যকর।