হার্ট অ্যাটাক যখন ঝুঁকিপূর্ণ

হার্ট অ্যাটাক! শরীরের অন্যতম ভাইটাল অরগান হার্টের রক্তনালীতে রক্ত চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়া বা রক্তনালী সরু হওয়ার কারণে রক্ত চলাচলে বাঁধা সৃষ্টি হওয়ায় মূলত হার্ট অ্যাটাকের সৃষ্টি হতে পারে। 
 
আর এ ক্ষেত্রে রক্তের কোলেস্টেরল হার্ট অ্যাটাকের জন্য প্রধানত দায়ী। কারণ যার রক্তে যত বেশি পরিমাণ কোলেস্টেরল থাকে তার হার্টের রক্তনালীতে কোলেস্টেরল জমে প্ল্যাক তৈরি হয় তত বেশি। আর এই প্ল্যাক হচ্ছে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ‘ডিপোজিশন অব কোলেস্টেরল অ্যাট দ্য আর্টারিয়াল ওয়াল’ অর্থাত্ হার্টের করনারী ধমনীর ভিতরের দেয়ালে চর্বি জমে যাওয়া। আমেরিকান হার্ট এসোসিয়েশনের মতে যার হার্টের রক্তনালীতে চর্বি বেশি জমবে তার আকস্মিক হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি তত বেশি। 
 
তাই হার্ট অ্যাটাকের হাত থেকে নিজেকে রক্ষার জন্য অবশ্যই রক্তের কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। তবে কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে খাদ্য নিয়ন্ত্রণ ও ব্যায়াম সবচেয়ে ভাল পন্থা।