Lucky-went-to-hospital-to-see-the-culture-akhandake 

 

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি সকাল থেকেই নানা গুঞ্জন উঠেছে কিংবদন্তী সংগীতশিল্পী-মুক্তিযোদ্ধা লাকী আখন্দ আর বেঁচে নেই। কিন্তু না তিনি এখনও জীবিত আছেন। তবে তার জীবন এখন সংকটাপন্ন। মৃত্যুর সঙ্গে রীতিমতো যুদ্ধ করছেন তিনি।


তার অবস্থা সংকটাপন্ন দেখে এখন অনেকেই তাকে দেখতে হাসপাতাল যাচ্ছেন। তার মধ্যে গতকালই গিয়েছিলেন তথ্য মন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ও ঢাকা উত্তরের মেয়র আনিসুল হক। এবার গতরাতে হাসপাতালে গিয়েছিলেন সংস্কৃতমন্ত্রী আসাদুজ্জমান নূর।

লাকী আখন্দের সঙ্গে কথা বলেছেন তিনি। কথা বলার এক পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে একটি ধন্যবাদ পৌঁছে দিতে বলেন লাকী। কারণ প্রথম যখন তার ক্যান্সার ধরা পড়ে তখন প্রধানমন্ত্রী নিজে হাসপাতালে দেখতে গিয়েছিলেন তাকে। এছাড়াও মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরের সঙ্গে অনেক কথাই বলেন লাকী আখন্দ।

তারপর মন্ত্রী লাকী আখন্দের একটি ছবিতে নিজের মনের কথা লিখেন। আর এসব তথ্য হাসপাতাল থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সবার সঙ্গে শেয়ার করেছেন মিডিয়া কর্মী ও লাকী আখন্দের ঘনিষ্ঠজন এরশাদুল হক টিংকু।

শাহরুখ খান এই মুহূর্তে ব্যস্ত আছেন ইমতিয়াজ আলির ‘দ্য রিং’ ছবির কাজে। এই ছবিতে তিনি রোমান্স করবেন আনুশকা শর্মার সঙ্গে। কিন্তু এই ছবির কাজ শেষে তিনি এই প্রজন্মের আরও দুই জনপ্রিয় নায়িকার বিপরীতে অভিনয় করতে যাচ্ছেন। বিদেশি গণমাধ্যম সূত্র বলছে, দীপিকা পাড়ুকোন এবং ক্যাটরিনা কাইফ একই ছবিতে অভিনয় করবেন কিং খানের সঙ্গে। 

 

বামন বা স্বল্প দৈর্ঘ্যের মানুষকে নিয়ে ছবি করতে চলেছেন ‘তনু ওয়েডস মনু’ পরিচালক আনন্দ এল রাই। তার আসন্ন ছবিতে শাহরুখের সঙ্গে কাজ করতে চলেছেন দীপিকা ও ক্যাটরিনা। দু’জনেই চান শাহরুখের সঙ্গে কাজ করতে। শুধুমাত্র সেই কারণে একসঙ্গে কাজ করতে রাজি হয়েছেন রণবীর কাপুরের দুই প্রাক্তন প্রেমিকা।

দীপিকা পাড়ুকোন, শাহরুখ খান এবং ক্যাটরিনা কাইফ। 

এতদিন সেই চরিত্র দুটিতে আলিয়া ভাট ও সোনম কাপুরের নাম শোনা গেলেও এখন জানা যাচ্ছে ক্যাটরিনা আর দীপিকাকেই চূড়ান্ত করেছেন পরিচালক। দুই নায়িকা চরিত্রই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও একে অপরের থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন।

শোনা যায়, ক্যাটরিনার জন্যই নাকি রণবীরের সঙ্গে দীপিকার সম্পর্কে ভাঙন ধরেছিল। মুখে কিছু না বললেও এই কারণেই দু’জনের সম্পর্ক খুব একটা ভালো নয়। রণবীরের সঙ্গে শেষ পর্যন্ত কারও সম্পর্কই টেকেনি। তবে দীপিকা-ক্যাটরিনার ঠান্ডা যুদ্ধটা রয়ে গেছে। কিন্তু শাহরুখ খান এবং আনন্দ এল রাইয়ের জুটির ছবিকে তারা আর এড়াতে পারলেন না বলেই মনে হচ্ছে। শিগগিরই এই ছবির চূড়ান্ত ঘোষণা হবে। সামনের মাস থেকে শুরু হবে শুটিং।

The-fruit-berry-to-stay-healthy 


আপনি যদি স্ট্রবেরি, ব্লুবেরি, জাম জাতীয় ফল খেতে পছন্দ করেন, তাহলে আপনার জন্য রয়েছে সুসংবাদ। সাম্প্রতিক এক গবেষণার তথ্য অনুসারে, বেরি জাতীয় এই ফলগুলো বিশ্বের অধিক পুষ্টিকর খাদ্যের মধ্যে অন্যতম। গবেষণার বরাতে এ তথ্য জানা গেলেও আমরা প্রায় সবাই জানি যে, প্রাকৃতিক ফল স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী এবং এর তেমন কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। তাহলে প্রশ্ন হচ্ছে ঠিক কী কারণে ‘বেরি’ জাতীয় ফলকে বিশ্বের অন্যতম অধিক পুষ্টিকর খাদ্য তালিকায় ধরা হচ্ছে। চলুন এক নজরে জেনে নেই ‘বেরি’ জাতীয় ফলের উপকারীতা-


১. বেরি জাতীয় ফলগুলোতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস থাকে বলেই জানিয়েছেন গবেষকরা। আর এই অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস মানবদেহের কোষের ক্ষতি করতে পারে এমন উপাদান থেকে মানবদেহকে রক্ষা করে। শুধু তাই নয়, বেরি জাতীয় ফলগুলোর এই উপাদানটি মানবদেহের কোষকে সুস্থ রাখে এবং সম্পূর্ণ স্বাস্থ্যের উন্নতি সাধন করে।

২. বেরি জাতীয় ফলগুলোতে অ্যানথোসায়োনেনস নামের অন্য আরেকটি উপাদান রয়েছে যা মানবদেহের রক্তের ইনসুলিন ভারসাম্য ঠিক রাখে ও রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রন করে এবং ডায়াবেটিসের ঝুঁকি হ্রাস করে।

৩. প্রাকৃতিক আঁশের অন্যতম একটি ভাণ্ডার হচ্ছে বেরি জাতীয় ফল। যে বেরি জাতীয় ফলগুলোতে এই উপাদান থাকে তা গ্রহণ করলে হজমশক্তি ঠিক থাকে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য আশংকা থাকে না।

৪. যেহেতু বেরিতে আঁশ জাতীয় উপাদান বেশি থাকে, তাই এগুলো আর্টারিস থেকে উচ্চমাত্রার কোলেস্টোরেল কমাতে সাহায্য করে এবং উচ্চমাত্রার কোলেস্টোরেল স্বাভাবিক মাত্রায় নিয়ে আসে।

৫. বেরি জাতীয় ফলে যে উপাদানগুলো বেশি থাকে, সেগুলোর একটি হচ্ছে ভিটামিন সি। আর এই ভিটামিন সি এবং বেরি জাতীয় ফলের অন্যতম উপাদানগুলো মানবদেহের প্রতিটি কোষকে আরও শক্তিশালী করে তোলে, যাতে করে সেগুলো রোগ প্রতিরোধে আরও বেশি সক্ষম হয়ে উঠে।

৬. বেরি’তে কিছু এমন অ্যান্টিঅক্সিওডেন্ট থাকে যেগুলোতে ‘অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামাটরি’ উপাদান বিদ্যমান। এই উপাদানগুলো শরীরের ব্যথা কমাতে এবং ক্ষেত্রবিশেষে মানুষকে সুস্থ্য করে তুলতে সাহায্য করে।

৭. বেরি জাতীয় ফলে যেহেতু অ্যান্টিঅ্যাক্সিওডেন্ট পরিমাণে বেশি থাকে এবং সেগুলো কোষ মাত্রায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে, সেহেতু এই জাতীয় ফলগুলো বেশ কিছু সংখ্যক ক্যান্সারের ঝুঁকিও কমিয়ে দেয় বলেই জানিয়েছেন গবেষকরা।

Excellent-design-of-the-LG-G-6-Open 

 দক্ষিণ কোরিয়ান প্রতিষ্ঠান এলজি তাদের ফ্ল্যাগশিপ ফোন জি৬ উন্মোচন করেছে। স্পেনের মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে উন্মুক্ত হওয়া এই স্মার্টফোনটির চমৎকার ডিজাইন খুব সহজেই গ্রাহকদের নজর কাড়বে। 


ডিভাইসটি প্রতিষ্ঠানটির পানিরোধক প্রথম ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইস। ৫.৭ ইঞ্চি ডিসপ্লের ফোনটির ডিসপ্লতে রয়েছে গরিলা গ্লাস ৪ প্রযুক্তি। এ ছাড়া কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮২১ প্রসেসর, ৪ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ এবং ৬৪ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরি সংস্করণে পাওয়া যাবে এই ফোন।

ছবি তোলার জন্য ফোনটির পিছনে রয়েছে ফ্ল্যাশসহ ১৬ এবং ৮ মেগাপিক্সেল ডুয়েল ক্যামেরা এবং সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। অ্যান্ড্রয়েড ৭.০ ন্যুগাট চালিত এই ফোন কালো, সাদা এবং আইস প্লাটিনাম রঙে পাওয়া যাবে।

প্রসঙ্গত, ফোনটি কোরিয়ার বাজারে ১০ মার্চ থেকে পাওয়া যাবে। শুরুতে দাম হবে ৭৯৬ মার্কিন ডলার।

Samsung-has-unveiled-a-new-VR-headset-Touch-kantrolarasaha 

 সাউথ কোরিয়ান প্রতিষ্ঠান স্যামসাং স্পেনের বার্সেলোনায় অনুষ্ঠিত মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে নতুন ভিআর হেডসেট উন্মোচন করেছে। আর প্রথমবারের মতো প্রতিষ্ঠানটি এই হেডসেটের সাথে একটি টাচ কন্ট্রোলারও উন্মুক্ত করেছে।


২০১৪ সালে হেডসেটটির প্রথম সংস্করণ উন্মোচন করা হয়। আর এখন এই ডিভাইসের উন্নত সংস্করণ উন্মোচন করেছে প্রতিষ্ঠানটি। নতুন এই ডিভাইসের টাচ কন্ট্রোলার হাতে রাখা যাবে এবং এ কন্ট্রোলারটি দিয়ে হেডসেটের সিস্টেম নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন গ্রাহকরা। তবে গিয়ার ভিআর হেডসেটে এইচটিসি ভাইভ বা অকুলাস রিফট এর মতো টাচ কন্ট্রোলের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণের সুবিধা পাওয়া যাবে না।

নতুন এই ভিআর হেডসেট স্যামসাং গ্যালক্সি এস ৭, এস ৭ এজ, নোট ৫, এস ৬, এস ৬ এজ এবং এস ৬ প্লাসে ব্যবহার করা যাবে। 

প্রসঙ্গত, সবাইকে আশাহত করে এবারের মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে স্যামসাং কোনো স্মার্টফোন উন্মুক্ত করেনি। প্রতিষ্ঠানটি আগামী ২৯ মার্চ তাদের ফ্ল্যাগশিপ ফোন গ্যালাক্সি এস৮ উন্মুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছে।

In-2018-two-tourists-going-to-the-moon-spesaeksa 

মার্কিন বেসরকারি মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান স্পেসএক্স জানিয়েছে, চাঁদের মাটিতে যেতে আগ্রহীরা ইতোমধ্যে একটি উল্লেখযোগ্য পরিমাণ অর্থ জমা দিয়েছেন। চলতি বছরের শেষদিকে ভ্রমণকারীদের ফিটনেস পরীক্ষা ও প্রশিক্ষণ দেওয়া শুরু হবে।


প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী ইলোন মাস্ক জানান, এটি গত ৪৫ বছরের মধ্যে মহাশূন্যের গভীরে পর্যটক প্রেরণ মানব ইতিহাসে বড় ধরণের সংযোজন হয়ে থাকবে। তবে মাস্ক চাঁদের মাটিতে হাটতে যাওয়া পর্যটকদের পরিচয় প্রকাশ করেননি। কিন্তু তিনি মজা করে বলেন, ‘তারা হলিউডের কেউ নন।’

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা এই ভ্রমণকে সম্ভব করতে সর্বাত্মক সহায়তা করছে বলেও জানান মাস্ক। আর সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০১৮ সালের দ্বিতীয়ার্ধে এই দুইজন পর্যটক নিয়ে স্পেসএক্স চাঁদে যাত্রা শুরু করবে।

প্রসঙ্গত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৭০ সালের পর চাঁদে আর কোনো মহাকাশচারী পাঠায়নি।

বাঙালির একুশের ফেব্রুয়ারির চেতনা ও অহংকার তরুণ প্রজন্ম ও স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের কাছে তুলে ধরতে রাইজ আপ ল্যাবস তৈরি করেছে ‘১৯৫২’ নামে নতুন একটি অ্যাপ।


Augmented-riyelitite-195-App 

২ টাকার নোটকে কেন্দ্র করে অগমেন্টেড রিয়েলিটি প্রযুক্তিতে তৈরি এই অ্যাপ ভাষা আন্দোলনের সচিত্র বর্ণনা একটি এনিমেশনের মধ্য দিয়ে ফুটিয়ে তুলবে।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বাংলাদেশ শিশু একাডেমীতে অনুষ্ঠিত "ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা-২০১৭"তে  অ্যাপটির আনুষ্ঠানিক উন্মোচন করেছেন।

টাকাকে কেন্দ্র করে ভাষা আন্দোলনের বর্ণনার এরূপ অ্যাপ্লিকেশন আগে কেউ তৈরি করেনি। তাই এ ধরণের চিন্তাকে স্বাগত জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, ১৯৫২ অ্যাপটি সম্পূর্ণ নতুন এবং তরুণ প্রজন্মকে ভাষা আন্দোলনের শিক্ষা প্রদানের উদ্ভাবনী একটি চেতনা। অ্যাপটির মাধ্যমে দেশের ১ লাখ ৭০ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪ কোটি ২৭ লাখ শিক্ষার্থীর কাছে বাংলাদেশের ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস এবং ঐতিহ্য তুলে ধরা সম্ভব।

একুশের চেতনা এবং ভাষা শহীদদের মাতৃভাষার জন্য আত্মত্যাগের মহিমার দুঃসাহসী রূপ ছোটো বড় সকলের কাছে তুলে ধরার লক্ষ্যে অ্যাপটি তৈরি করা হয়েছে।

৫২’র দিনে সংঘটিত ভাষা আন্দোলনে তৎকালীন পাকিস্তানি সরকারের বাঙালির মাতৃভাষা কেঁড়ে নেয়ার ষড়যন্ত্রকে ব্যর্থ করতে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে মিছিল বের করেন ছাত্র-জনতা। এতে পুলিশ তাদের উপর গুলি ছুঁড়লে সালাম, বরকত, রফিক, জব্বারসহ নাম না জানা অনেকে শহীদ হন। ভাষা শহীদদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে স্থাপন করা হয় শহীদ মিনার।

পরবর্তীতে ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর UNESCO-এর ৩০তম দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে দিনটিকে ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। ভাষা আন্দোলনের আরও বিস্তারিত তথ্য এনিমেশনের মাধ্যমে ব্যাখ্যা করা হয়েছে “১৯৫২” অ্যাপটিতে।

উদ্যোগটি সম্পর্কে রাইজ আপ ল্যাবস এর প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী কর্মকর্তা এরশাদুল হক বলেন, অগমেন্টেড রিয়েলিটিতে তৈরি “১৯৫২”-অ্যাপটি ব্যবহারের মধ্য দিয়ে ভাষা আন্দোলনের ঘটনা এবং তাৎপর্য নতুন করে মানুষের নিকট পৌঁছাবে।

অ্যাপটি গুগল প্লে স্টোর থেকে বিনামূল্যে ডাউনলোড করা যাচ্ছে। www.riseuplabs.com-এই সাইটটিতে ভিজিট করেও ডাউনলোড করা যাবে।

অ্যাপ ডাউনলোড লিংক: https://play.google.com/store/apps/details?id=com.riseuplabs.february1952

অ্যাপ অফিসিয়াল সাইট    : http://www.riseuplabs.com/download-games/1952/
অ্যাপ ইউটিউব ভিডিও    : https://youtu.be/TxAaL6Zepv8

Instagram-album-Facilities

ব্যবহারকারীদের জন্য নতুন একটি সুবিধা যোগ করেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রাম। এই সুবিধার আওতায় গ্রাহকরা এখন থেকে একসঙ্গে ১০টি ছবি বা ভিডিও শেয়ার করতে পারবেন। মূলত বন্ধুদের সঙ্গে নিজের অনুভূতি আরও ভালোভাবে প্রকাশ করার সুযোগ দিতেই ফিচারটি যোগ করা হয়েছে। এই ফিচারটি অনেকটা অ্যালবামের মতো কাজ করবে। এতে যোগ করা ছবিগুলো একে একে দেখতে পারবেন অন্যরা।


নতুন এ ফিচার সম্পর্কে ইনস্টাগ্রাম কর্তৃপক্ষ জানায়, এখন আর নির্দিষ্ট একটি ছবি বাছাই করতে হবে না। আপনার পছন্দের মুহূর্তের বেশ কয়েকটি ছবি বা ভিডিও একসঙ্গে শেয়ার করতে পারবেন। যা নিশ্চয়ই ইনস্টাগ্রামের মাসিক ৬০ কোটি ব্যবহারকারীকে সন্তুষ্ট করতে পারবে।

ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীরা নিউজফিডে গেলেই ছবি পোস্ট করার একটি অপশন দেখতে পাবেন। যেখান থেকে একাধিক ছবি নির্বাচন করা যাবে। ব্যবহারকারীরা আলাদাভাবে ১০টি ছবি ও ভিডিও সম্পাদনা করতে পারবেন অথবা একটি ফিল্টার দিয়েও সবগুলো ছবি ও ভিডিও একসঙ্গে সম্পাদনা করা যাবে। এছাড়া ছবি ও ভিডিওগুলোর ক্রমবিন্যাস পরিবর্তন এবং বন্ধুদের আলাদাভাবে ট্যাগ করার সুযোগও থাকবে এতে।

বর্তমানে পরীক্ষামূলকভাবে নির্দিষ্ট কিছু জায়গায় সুবিধাটি চালু করা হয়েছে। তবে শিগগিরই ফিচারটি বিশ্বে আইওএস ও অ্যান্ড্রয়েড প্ল্যাটফর্মের জন্য উন্মুক্ত করা হবে।

এই যে মামা এই দিকে, ভর্তা আছে, ডিম ভাজি আছে...’- দুপুর হতে না হতেই এমন হাঁকডাকে সরব হয়ে ওঠে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলা। হরেক রকম ভর্তা সাজিয়ে বসেন দোকানিরা। কী নেই সেই ভর্তা উৎসবে! বাদাম ভর্তা, ইলিশ মাছ ভর্তা, রুই মাছ ভর্তা, মরিচ ভর্তা, চিকেন ভর্তা, কালো জিরা ভর্তা, শুঁটকি ভর্তা, আলু ভর্তা, পেঁপে ভর্তা, ডাল ভর্তা, সরিষা ভর্তা, ধনে পাতা ভর্তা, শিম ভর্তা, লইটা শুঁটকিসহ আরও অনেক ধরনের ভর্তা খেতে পারবেন একদম টাটকা।


JU-eat-mashed
 
বেলা বাড়ার সাথে সাথে বাড়তে থাকে ক্যাম্পাসের ছাত্র-ছাত্রীর ভিড়। দূরদূরান্ত থেকেও অনেকে ছুটে আসেন ভর্তার স্বাদ চেখে দেখতে। ভর্তার পাশাপাশি পাওয়া যায় বিরিয়ানি, তেহারি, খিচুড়ি, খাসির মাংস ও মগজ, গরুর  মাংস, হাঁসের মাংস, মুরগির মাংস, রুই মাছ, ইলিশ মাছ, বোয়াল মাছ, পুঁটি মাছ, চাপিলা মাছ, শিং মাছ, বেলে মাছ, কাতলা মাছ, পাঙ্গাস মাছ, কালি বাউস মাছ, গজার মাছ ও তেলাপিয়া মাছ। 

বটতলাতে প্রায় ২৫টিরও বেশি খাবারের দোকান রয়েছে। জানতে চেয়েছিলাম, কত রকমের খাবার তৈরি হয়। সুজন হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টের মালিক সুজনের কাছে জানান, ছুটির দিনে অন্যান্য দিনের তুলনায় সবচেয়ে বেশি খাবার  রান্না করা হয়। প্রায় ৪০ ধরনের আইটেম থাকে ছুটির দিন! আর সাধারণ দিনে প্রায় ৩০ রকমের খাবার তৈরি হয়।

ভর্তার পাশাপাশি মিলবে অন্যান্য খাবারও  
ভর্তার পাশাপাশি মিলবে অন্যান্য খাবারও
নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী অদিতি ফেরদৌস এসেছিলেন জাহাঙ্গীরনগরের বটতলার ঐতিহ্যবাহী ভর্তা খেতে। তিনি জানান, অনেক প্রশংসা শুনেই তাই বন্ধুরা সবাই মিলে এসেছেন এখানে। সাভার থেকে আসা এক বেসরকারি ব্যাংক কর্মকর্তা জানান, সপ্তাহে বেশ কয়েকবার এখানে এসে ভর্তা কিনে নিয়ে  যান তিনি। ক্যাম্পাসের আবাসিক ছাত্র ছাত্রীরা হলের ক্যান্টিনের পাশাপাশি প্রায়ই খাবার খেতে আসেন এ বটতলায়। ‘আমরা প্রায় তিনবেলাই এখানে খেতে আসি’- বলছিলেন নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আশিক।
গভীর রাত পর্যন্ত জমজমাট থাকে জাহাঙ্গীরনগরের বটতলা। সময় করে একদিন আপনিও ঢুঁ মেরে আসতে পারেন ভর্তার রাজ্য থেকে!

সকালের নাস্তা হোক কিংবা বিকেলের স্ন্যাক্স, অথবা বাচ্চাদের টিফিন বা অফিসের লাঞ্চে স্যান্ডউইচ খাবারটি বেশ প্রচলিত। বাচ্চাদের টিফিন নিয়ে মায়েদের চিন্তার শেষ নেই। ঝটপট টিফিন হিসেবে তৈরি করে দিতে পারেন দইয়ের এই স্যান্ডউইচটি। স্বাস্থ্যকর এই খাবারটি খেতে পছন্দ করবে যে কেউ। চলতে পারে অফিসের হালকা লাঞ্চেও। 

উপকরণ:
৩/৪ কাপ ঘন টকদই (গ্রিক ইয়োগার্ট) 
১/৪ কাপ মেয়নিজ
১/২ চা চামচ গোলমরিচের গুঁড়ো 
১/৪ কাপ গাজর কুচি
লবণ
১/৪ কাপ বাঁধাকপি কুচি
১/৪ কাপ ক্যাপসিকাম কুচি
১/২ চা চামচ আদা কুচি
১/৪ কাপ কর্ন
৬ টুকরো পাউরুটি
২ চা চামচ মাখন
১ চা চামচ তিল
প্রণালী:
১। একটি পাত্রে ঘন টকদই,  মেয়নিজ দিয়ে ভালো করে মেশান।
২। এরপর এতে গোল মরিচের গুঁড়ো, লবণ, গাজর কুচি, বাঁধাকপি কুচি, ক্যাপসিকাম কুচি, কর্ন, আদা কুচি দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন।
৩। এবার পাউরুটির দুইপাশ কেটে নিন।  পাউরুটির মাঝে টকদইয়ের মিশ্রণটি দিয়ে সমান করে ছড়িয়ে দিন। এর উপর আরেকটি পাউরুটি দিয়ে ঢেকে দিন।
৪। প্যান বা তাওয়ায় মাখন দিয়ে দিন। মাখন গলে আসলে এতে কিছু তিল দিয়ে দিন। এর উপর পাউরুটি  হাত দিয়ে নাড়ুন। পাউরুটির একপাশে মাখন এবং তিল লেগে  যাওয়া পর্যন্ত (ভিডিও অনুযায়ী) নাড়তে থাকুন।  
৫। এরপর আবার মাখন এবং তিল দিয়ে দিন। এর উপর পাউরুটির অন্যপাশ  দিয়ে নাড়ুন।
৬। ব্যস তৈরি হয়ে গেলো দই স্যান্ডউইচ। হুটহাট অতিথি বলুন কিংবা বাচ্চাদের টিফিনে ঝটপট তৈরি করে পারেন দই স্যান্ডউইচ। পুরো রেসিপিটি দেখে নিন ভিডিওতে।



গতবছরের সেপ্টেম্বরে ফোন ডিজাইন ও উৎপাদন বন্ধের ঘোষণা দিয়ে কানাডিয়ান প্রতিষ্ঠান ব্ল্যাকবেরি টিসিএল করপোরেশনের সঙ্গে অংশিদারিত্বের চুক্তি করেছে। সেই চুক্তির পর টিসিএল প্রথম ব্ল্যাকবেরি 'কিওয়ান' ফোন উন্মুক্ত করেছে। 

আগে ‘মারকারি’ কোড নেম নামে অভিহিত এ ফোনে ফিজিক্যাল কি-বোর্ডের পাশাপাশি টাচস্ক্রিন ডিসপ্লেও থাকবে বলে সংবাদমাধ্যম এ খবর দিয়েছে। 

এ ফোনের ফিচারে রয়েছে ৪.৫ ইঞ্চি আইপিএস ডিসপ্লে। অ্যান্ড্রয়েড নুগ্যাট ভিত্তিক মিড-রেঞ্জ প্রসেসর এবং কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬২৫। ফোনটিতে ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইনবিল্ট স্টোরেজ রয়েছে।

তবে স্টোরেজ ২ টেরাবাইট পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। ছবি তোলার জন্য আছে ১২ মেগাপিক্সেল সেন্সর এবং সেলফির জন্য ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরা। 

ব্যাকআপের জন্য ফোনটিতে দেওয়া হয়েছে ৩ হাজার ৫০৫ এমএএইচ ব্যাটারি। প্রতিষ্ঠানটির দাবি, ব্ল্যাকবেরি স্মার্টফোনে এটাই প্রথম সবচেয়ে বেশি ব্যাকআপ দিবে। এছাড়া ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি যুক্ত করা হয়েছে এই ফোনে। 

'কিওয়ান' ফোনটি কয়েকটি নির্বাচিত অঞ্চলের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছে। ইউরোপ এবং আমেরিকার বাজারে ফোনটি এপ্রিলের শুরুর দিকেই পাওয়া যাবে। আর দাম ধরা হয়েছে ৫৪৯ মার্কিন ডলার। 

প্রসঙ্গত, টিসিএল অ্যালকাটেল ফোনের প্রস্তুতকারক এবং সাশ্রয়ী টিভি উৎপাদনকারী হিসেবে বহুল পরিচিত। এর আগে ব্ল্যাকবেরি ফোনের ডিজাইন ও উৎপাদন বাদ দিয়ে সিকিউরিটি সফটওয়্যার নিয়ে কাজ করবে বলে জানিয়েছিল। 

সূত্র: রয়টার্স, এনডিটিভি, টাইমস অব ইন্ডিয়া



গরুর মাংস কম-বেশি সব মানুষই খেতে পছন্দ করেন। আর এই মাংস দিয়ে তৈরির যে কোনো খাবারই খেতে দারুণ লাগে। গরুর মাংসের সম্পূর্ণ ভিন্নধর্মী একটি খাবার হলো বিফ রোল। মাংসের ভিন্ন কিছু রান্না করতে চাইলে তৈরি করতে পারেন এই খাবারটি। বিফ রোলের সম্পূর্ণ রেসিপিটি জেনে নেয়া যাক।

উপকরণ:

৪৩৫ গ্রাম গরুর মাংসের কিমা

২৮ গ্রাম ধনেপাতা বা পার্সলি পাতা কুচি

১টি পেঁয়াজ কুচি

১/৪ কাপ ব্রেড ক্রাম্বস

১টি আলু

২টি গাজর

১টি ক্যাপসিকাম

২ টেবিল চামচ টমেটোর পেস্ট

তেল

লবণ

গোলমরিচের গুঁড়ো

হলুদ গুঁড়ো

কাঁচা মরিচ কুচি

প্রণালী:

১। গরুর কিমা, ধনেপাতা কুচি, পেঁয়াজ কুচি একসাথে ভাল করে মিশিয়ে নিন।

২। এরসাথে লবণ, গোল মরিচের গুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো দিয়ে দিন।

৩। এরপর এতে ব্রেড ক্রাম্বস দিয়ে আবার ভাল করে মেশান।

৪। মাংসের পাত্রটি প্লাস্টিকের প্যাকেট দিয়ে ঢেকে ফ্রিজে আধা ঘন্টার জন্য রেখে দিন।

৫। আলু এবং গাজর সিদ্ধ করে লম্বা করে কেটে নিন।

৬। মাংসের কিমা একটি প্লাস্টিকের প্যাকেটের উপর রেখে রুটির মত বেলে নিন।

৭। মাংসের ভিতর গাজর, আলু সিদ্ধ সামান্য গোল মরিচ গুঁড়ো (ইচ্ছা) দিয়ে দিন।

৮। এবার প্লাস্টিকের প্যাকটি রোল করে পেঁচিয়ে ফেলুন।

৯। প্যানে তেল গরম হয়ে এলে মাংসের রোলটি দিয়ে দিন।

১০। একটি পাত্রে টমেটোর পেস্ট, হলুদ গুড়ো গরম পানির সাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন।

১১। একটি প্যানে ক্যাপসিকাম গোল করে কাটা, হালকা ভাজা মাংসের রোল, তারওপর টমেটোর পেস্ট দিয়ে দিন।

১২। ঢাকনা দিয়ে ঢেকে মাঝারি আঁচে ৩০-৩৫ মিনিট রান্না করুন। 

১৩। ব্যস তৈরি হয়ে গেল বিফ রোল। ভিন্ন স্বাদের এই খাবারের রেসিপিটি দেখে নিন ভিডিওতে।


স্পেনের বার্সেলোনায় অনুষ্ঠিত মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে চীনের প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে নতুন ফ্ল্যাগশিপ ফোন হুয়াওয়ে পি১০ উন্মুক্ত করেছে। স্যামসাং ও অ্যাপলের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা এই প্রতিষ্ঠানটি সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীদের কথা মাথায় রেখেই ফোনটি উন্মুক্ত করেছে।
দুটি সংস্করণে আগামী মাস থেকেই এই ফোন বাজারে আসবে। রেগুলার পি১০ ফোনে থাকবে ৫.১ ইঞ্চি ডিসপ্লে এবং পি১০ প্লাসের থাকবে ৫.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে। এই ফোনের সুপারচার্জ প্রযুক্তি ৯০ মিনিট চার্জে ফুল ব্যাটারি চার্জ হবে।
এছাড়াও এই ফোনের ফিচারে রয়েছে ডুয়েল লেন্স ক্যামেরা, একটি ১২ মেগাপিক্সেল এবং একটি ২০ মেগাপিক্সেল সেন্সর। পি৯ ফোনের সঙ্গে এই ফোনের কিছু ফিচারে পার্থক্য রয়েছে। এরমধ্যে পি১০ এ ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারটি সামনের দিকে দেওয়া হয়েছে। ৪ জিবি র‍্যাম, ৬৪ জিবি স্টোরেজের এই ফোন আটটি রঙে পাওয়া যাবে। আর দাম ৬৪ জিবি পি১০ ৬৮৫ ডলার এবং পি১০ প্লাস ৭৪৪ ডলার। 
হুয়াওয়ের আলোচিত এই ফোন দুটি অ্যান্ড্রয়েড ন্যুগাট অপারেটিং সিস্টেমে চলবে। 


এক যুগ পর বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকা নোকিয়া ৩৩১০ ফোনটি উন্মুক্ত করেছে এইচএমডি গ্লোবাল।
২৬ ফেব্রুয়ারি রোববার স্পেনের বার্সেলোনায় মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস টেক শো'র আগে এক অনুষ্ঠানে এই ফোনটি উন্মোচন করল প্রতিষ্ঠানটি। 
নতুনভাবে ফিরলেও ফোনটিতে পুরনো ভাব বজায় রাখতে তেমন পরিবর্তন আসেনি। তবে ২.৪ ইঞ্চি রঙিন ডিসপ্লে থাকছে এই ফোনে। এ ছাড়া  ২ মেগাপিক্সেলের সিঙ্গেল ক্যামেরাযুক্ত এই ফোনে সবচেয়ে বড় আকর্ষণ হলো এর ব্যাটারি। কারণ এই ব্যাটারি একবার চার্জ দিয়ে ফোনটি চালানো যাবে এক মাস।
এ ছাড়া এস ৩০ প্লাস অপারেটিং সিস্টেমের এই ফোনটিতে ২.৫ জি কানেকটিভিটি ব্যবহার করা যাবে। ৩৩১০ মডেলের ফোনটির দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ৫১.৭৫ ডলার যা বাংলাদেশি টাকায় ৪ হাজার ১৪০ টাকা। ৩৩১০ মডেল ছাড়াও নোকিয়া ৩, নোকিয়া ৫ ও নোকিয়া ৬ ফোন উন্মুক্ত করা হয়েছে ওই অনুষ্ঠানে। 
প্রসঙ্গত, ২০০৫ সালের পর নকিয়া ৩৩১০ ফোনটি আর বাজারজাত করেনি। এর আগে প্রতিষ্ঠানটি এই ফোনের ১২৬ মিলিয়ন হ্যান্ডসেট উৎপাদন করেছিল।  



৮৯তম অস্কার মার্কিন মুলুকের লস অ্যাঞ্জেলসের হলিউড অ্যান্ড হাইল্যান্ড সেন্টারের ডলবি থিয়েটারে অনুষ্ঠিত হলেও সারা বিশ্বের সিনেমা প্রেমিদের চোখ এখন টেলিভিশনের পর্দায়। কারণ সরাসরি প্রচারিত হয়েছে অস্কার পুরস্কার প্রদান। পুরো অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করছেন উপস্থাপক জিমি কিমেল। 

দেখে নিন শেষ পর্যন্ত কার হাতে উঠল বিশ্বসেরা সম্মাননা-

সেরা চলচ্চিত্র- মুনলাইট

সেরা অভিনেতা- কেসেই অ্যাফলেক (ম্যানচেস্টার বাই দ্য সি)

সেরা অভিনেত্রী- এমা স্টোন (লা লা ল্যান্ড)

সেরা চলচ্চিত্র পরিচালক- ডেমিয়েন শেজেল (লা লা ল্যান্ড)

সেরা বিদেশি চলচ্চিত্র- দ্য সেলসম্যান (ইরান)

সেরা সহ অভিনেতা- মাহেরশালা আলি (মুনলাইট)

সেরা সহ অভিনেত্রী- ভিয়োলা ডেভিস (ফেনসেস)

সেরা অ্যানিমেটেড ফিচার ফিল্ম- জুটোপিয়া

সেরা অ্যানিমেটেড শর্ট ফিল্ম- পিপার

সেরা শর্ট ফিল্ম- সিং

সেরা তথ্যচিত্র (শর্ট)- দ্য হোয়াইট হেলমেটস

সেরা প্রোডাকশন ডিজাইন- লা লা ল্যান্ড

সেরা ভিজ্যুয়াল ইফেক্ট- দ্য জঙ্গল বুক

সেরা মিউজিক (অরিজিনাল স্কোর)- জাস্টিন হারউইটজ্ (লা লা ল্যান্ড)

সেরা মিউজিক(অরিজিনাল সং)- সিটি অফ স্টারস- লা লা ল্যান্ড

সেরা অ্যাডপটেড স্ক্রিন প্লে- মুনলাইট। 

সেরা অরিজিনাল স্ক্রিন প্লে- ম্যানচেস্টার বাই দ্য সি

সেরা এডিটিং- হ্যাকশ রিজ

সেরা সিনেমাটোগ্রাফি: লাইনাস স্যান্ডগ্রেন (লা লা ল্যান্ড)

সেরা পোশাক ডিজাইন- কোলিন অ্যাটউড (ফ্যান্টাস্টিক বিস্টস্ আন্ড হোয়্যার টু ফাইন্ড দেম)

সেরা মেকআপ অ্যান্ড হেয়ার স্টাইলিং- সুইসাইড স্কোয়াড

সেরা তথ্যচিত্র- ওজে: মেড ইন অ্যামেরিকা

সেরা সাউন্ড এডিটিং- অ্যারাইভাল

সেরা সাউন্ড মিক্সিং- হ্যাকশ রিজ

অস্কারের ৮৯ তম আসরের মনোনয়ন তালিকা ঘোষণা করা হয় গত ২৪ জানুয়ারি। অস্কারের ওয়েবসাইট ও ইউটিউব চ্যানেলে ধারণকৃত ভিডিওর মাধ্যমে মনোনয়ন তালিকা ঘোষণা করা হয়। ভিডিওটির চিত্রায়ণ হয়েছে লস অ্যাঞ্জেলেস, নিউইয়র্ক, শিকাগো, টরন্টো, লন্ডন ও টোকিওতে।

এই আয়োজন এবিসি নেটওয়ার্কের মাধ্যমে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়েছে বিশ্বের ২২৫টিরও বেশি দেশে। হলিউডের জমকালো আসরের রেড কার্পেটে এবার নিয়ে দ্বিতীয়বার পা রাখলেন বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।



খাবারদাবারের ব্যাপারে বেশ সচেতন। এরপরও অনেকে অল্প কাজ করলেই ক্লান্ত হয়ে পড়েন৷ এমনকি সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরও যেন দূর হতে চায় না শরীরের ক্লান্তি৷ পুষ্টিকর খাবার খাওয়া হচ্ছে, নিয়মিত বিশ্রাম—সবকিছুই হয়তো ঠিক আছে, এরপরও এ অবস্থা কেন? এর কারণ খুঁজে পান না অনেকে৷ এ ব্যাপারে অ্যাপোলো হাসপাতালের প্রধান পুষ্টিবিদ তামান্না চৌধুরী জানালেন, নিয়ম না মেনে খাওয়াই এর মূল কারণ৷

১. দেখা যায়, সারা দিন পুষ্টিকর ভালো ভালো খাবার খাচ্ছেন, কিন্তু ব্যস্ততার কারণে সকালের খাবারটা বাদ পড়ে যাচ্ছে খাবার তালিকা থেকে৷ এটাই মূলত শরীরে ক্লান্তি ভর করার মূল কারণ৷

২. রাতে ঘুমানোর কারণে দীর্ঘ সময় শরীর কোনো খাবার পায় না৷ এ জন্য সকালে না খাওয়া হলে দুর্বল হয়ে পড়ে শরীর৷ তাই দিনের অন্য সময় যতই ভালো খাবার খাওয়া হোক না কেন, শরীরের এই দুর্বলতা কিছুতেই কাটতে চায় না৷

৩. এ ছাড়া সকালে খাওয়া হয়নি দেখে অন্য বেলায় বেশি বেশি করে খাবার খাওয়াও শরীর ক্লান্ত করে তোলে। কারণ, রাতে ঘুমানোর পর থেকে সকাল পর্যন্ত অনেকটা সময় দেহযন্ত্র বিশ্রাম নেয়৷ যে কারণে অন্য বেলায় বেশি করে খাওয়ার ফলে খাবার হজম করতে গিয়ে অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলো ক্লান্ত হয়ে পড়ে৷ যার প্রভাব পড়ে শরীরে৷

৪. ডায়েটের নামে খাবার থেকে কার্বোহাইড্রেট বাদ দেওয়া একেবারে ঠিক নয়৷ কারণ, যাঁরা নিয়মিত ভাত অথবা কার্বোহাইড্রেট-জাতীয় খাবার খেয়ে অভ্যস্ত, তাঁরা যখন হঠাৎ খাদ্যতালিকা থেকে এসব খাবার বাদ দেন, তখন স্বাভাবিকভাবেই শরীর তা মেনে নিতে পারে না, যা শরীর ক্লান্ত হওয়ার আরেকটা কারণ৷ তাই নিয়মিত একটা নির্দিষ্ট পরিমাণে প্রতিদিন কার্বোহাইড্রেটসমৃদ্ধ খাবার খেতে হবে৷

৫. শরীর ক্লান্ত লাগছে ভেবে বেশি বেশি চা-কফি খাওয়াও কিন্তু একেবারেই ঠিক নয়৷ কারণ, এই পানীয়গুলো শরীরের ক্লান্তি তো দূর করেই না, বরং শরীরের ক্লান্তি-বিষণ্নতা আরও বাড়িয়ে তোলে৷ তাই শরীরের ক্লান্তি ভাব দূর করতে নিয়ম মেনে তো খেতে হবেই, এর পাশাপাশি নিয়মিত হালকা শরীরচর্চা, হাঁটাহাঁটি শরীরকে ফুরফুরে করে তুলতে সহায়তা করবে৷

Turkey-s-most-popular-food-pogaka-does-not-make-it-home

 ছোটখাট ক্ষুধা মেটাতে বনরুটির জুড়ি নেই। বাজারে বিভিন্ন স্বাদের বনরুটি কিনতে পাওয়া যায়। কোনটি মিষ্টি আবার কোনটি নোনতা। আলু দিয়ে তৈরি বনরুটি তুরস্কের বেশ জনপ্রিয় একটি খাবার। ফুল আকৃতির এই সুন্দর বনটি চাইলে আপনি নিজেও ঘরে তৈরি করে নিতে পারেন। কীভাবে? জেনে নিন এর রেসিপিটি।


উপকরণ:


ডো তৈরির জন্য:

১০০ গ্রাম মাখন

১/২ কাপ তেল

২টি ডিম

১/২ গ্লাস দুধ

১ টেবিল চামচ বেকিং পাউডার

১ চা চামচ লবণ

৪ কাপ ময়দা

পুররের জন্য:

৩টি ছোট আলু সিদ্ধ

১টি পেঁয়াজ

তেল

১ চা চামচ লবণ

১/২ চা চামচ গোল মরিচের গুঁড়ো

কালোজিরা

ডিমের কুসুম

প্রণালী:


১। একটি প্যানে তেল গরম করে এতে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে দিন।

২। পেঁয়াজ নরম হয়ে এলে এতে সিদ্ধ আলু (ম্যাশ করা), লবণ, গোল মরিচের গুঁড়ো এবং লাল শুকনো মরিচের গুঁড়ো দিয়ে দিন।

৩। কিছুক্ষণ চুলায় রেখে নামিয়ে ফেলুন।

৪। আরেকটি পাত্রে মাখন, ডিম, দুধ, তেল, লবণ, ময়দা, বেকিং পাউডার একসাথে ভাল করে মিশিয়ে ডো তৈরি করে নিন।

৫। ডোটি নরম না হওয়া পর্যন্ত ময়ান করুন।

৬। এবার ডো থেকে ডিমের আকৃতির সমান লেচী করে এতে আলুর পুর দিয়ে পুরির মত তৈরি করে নিন।

৭। একটি ছুড়ি দিয়ে চারপাশে (ভিডিও অনুযায়ী) কিছুটা পার্থক্য রেখে কাটুন। যেন দেখতে ফুল আকৃতির হয়।

৮। এবার ওভেন ট্রেতে এই ফুলগুলো রাখুন তার উপর ডিমের কুসুম ব্রাশ করে দিন। তারউপর কিছু পরিমাণ কালোজিরা ছিটিয়ে দিন।

৯। এরপর ২০০ ডিগ্রী সেলসিয়াস (৪০০ ফারেনহাইট) প্রি হিট করা ওভেনে বেক করতে দিন।

১০। ২৫ মিনিট পর বাদামী রং হয়ে এলে নামিয়ে ফেলুন। সম্পূর্ণ রেসিপিটি দেখে নিন ভিডিওতে।

30-billion-a-year-on-Reaction 



সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক গত বছর পোস্টে ‘রিঅ্যাকশন’ ফিচারটি চালু করেছিল। আর এক বছরের মাথায় ব্যবহারকারীদের পোস্টে প্রায় ৩০ হাজার কোটি ‘রিঅ্যাকশন’ এর রেকর্ড হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।


ফেসবুকের পক্ষ থেকে জানানো হয়, প্রায় ৩০ হাজার কোটি ‘রিঅ্যাকশন’ এর মধ্যে প্রায় ১৭৯ কোটিরও বেশি ব্যবহারকারীই কেবল ‘লাভ রিঅ্যাকশন’ ব্যবহার করেছে।

ফেসবুক এক বিবৃতিতে জানায়, ‘এক বছর আগেও আমরা বন্ধুদের পোস্টে কেবল ‘লাইক’ ছাড়া অন্য কিছু দিতে পারতাম না। এখন ১৮০ কোটিরও বেশি ব্যবহারকারী তাদের মনোভাব আগের চেয়ে বেশি স্বচ্ছন্দে প্রকাশ করতে পারছেন।’

প্রতিষ্ঠানটি আরও জানায়, ২০১৬ সালের বড়দিনে ‘লাভ রিঅ্যাকশন’ সর্বাধিকবার ব্যবহৃত হয়েছে। ‘রিঅ্যাকশন’ ব্যবহারকারী দেশের তালিকায় শীর্ষস্থানে রয়েছে মেক্সিকো, আর যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান অষ্টম স্থানে।

প্রসঙ্গত, ফেসবুক ২০১৬ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি ব্যবহারকারীদের পোস্টে ‘লাইক’ বাটনের সঙ্গে নতুনভাবে ‘লাভ’, ‘হাহা’, ‘ওয়াও’, ‘স্যাড’ এবং ‘অ্যাংরি’ ইমোটিকন যুক্ত করে।

Microsoft-is-going-to-launch-cyber-security-center-in-Mexico 



সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফট মেক্সিকোতে একটি সাইবার নিরাপত্তা কেন্দ্র চালুর ঘোষণা দিয়েছে। আর এই কেন্দ্র মেক্সিকো এবং অন্যান্য ল্যাটিন আমেরিকান দেশে নাগরিকদের সাইবার নিরাপত্তা বাড়াতে সহায়তার পাশাপাশি সাইবার অপরাধের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সরকারকে সহায়তা করবে।


মাইক্রোসফট মেক্সিকোর মহাব্যবস্থাপক জর্জ সিলভা বলেন, ‘এই সাইবার নিরাপত্তা কেন্দ্র চালুর মাধ্যমে আমরা গ্রাহকদের সাইবার আক্রমণ আর নিরাপত্তা ঝুঁকির সুরক্ষা দিতে যাচ্ছি। একইসঙ্গে ঝুঁকিগুলো শনাক্ত করে সমাধানও দিতে যাচ্ছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই কেন্দ্র চালুর মাধ্যমে আমরা মাইক্রোসফটের নিরাপত্তা সেবা গ্রাহকদের আরও কাছাকাছি নিয়ে আসছি।’

এই কেন্দ্র মেক্সিকো এবং ল্যাটিন আমেরিকার যেকোনো জায়গার সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞদের মাইক্রোসফটের বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে একযোগে সাইবার অপরাধের বিরুদ্ধে কাজ করতে সাহায্য করবে।

Best-Picture-Oscar-unprecedented-announcement-name-wrong 


বলা যায়, এটি অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডস বা অস্কারের ইতিহাসে নজিরবিহীন ভুল। ৮৯তম অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের সেরা ছবি ‘মুনলাইট’ হলেও প্রথমে ভুলক্রমে ঘোষণা করা হয় ‘লা লা ল্যান্ড’-এর নাম! বিশ্বজুড়ে সোরগোল ফেলে দেওয়া এই ভুল করেছেন হলিউডের দুই বর্ষীয়ান অভিনয়শিল্পী ওয়ারেন বিটি ও ফেই ডুনাওয়ে। 


অন্যান্য বিভাগের বিজয়ীর মতো সেরা চলচ্চিত্রের নামও ছিল সোনালি রঙা খামে। সেটা খুলে ফেই ডুনাওয়ে ‘লা লা ল্যান্ড’-এর নাম ঘোষণা করেন। পাশেই ছিলেন ওয়ারেন বিটি। আনন্দে উদ্বেল হয়ে মঞ্চে হাজির হন ‘লা লা ল্যান্ড’ বাহিনী। কিন্তু এর প্রযোজক জর্ডান হরউইৎজ খামে দেখেন ‘মুনলাইট’-এর নাম লেখা! তাই তিনি ভুল শোধরানোর জন্য সেটা সবাইকে দেখালেন। ‘মুনলাইট’ শিবির মঞ্চে আসার পর এর পরিচালক ব্যারি জেনকিন্সকে জড়িয়ে ধরেন জর্ডান।

আদতে দুই তারকাকে দেওয়াই হয়েছিল ভুল খাম! সেটা খুলতেই পড়তে বিব্রতবোধ করছিলেন বিটি। কারণ তাতে লেখা ছিল— এমা স্টোন, লা লা ল্যান্ড। তাই ডুনাওয়েকে ঘোষণা করতে বলেন তিনি। পরে মাইক্রোফোনের সামনে এসে বিটি বলেন, ‘কী হয়েছিল বলছি। খামটা খুলতেই দেখলাম তাতে লেখা ‘এমা স্টোন, লা লা ল্যান্ড’। এ কারণে ডুনাওয়ে ও অতিথিদের দিকে অনেকক্ষণ তাকিয়ে ছিলাম। কে কি ভেবেছে জানি না, তবে আমি মোটেও মজা করছিলাম না। ‘মুনলাইট’ই সেরা ছবি।”

স্টেজে ‘মুনলাইটের’ প্রত্যাবর্তন

যুক্তরাষ্ট্রের লসঅ্যাঞ্জেলসে হলিউড অ্যান্ড হাইল্যান্ড সেন্টারের ডলবি থিয়েটারে বাংলাদেশ সময় সোমবার ভোর সাড়ে ৬টায় শুরু হয় ৮৯তম অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডস অনুষ্ঠান। কে জানতো শেষে গিয়ে এমন একটা গোলমাল বাঁধবে! এমন নজিরবিহীন ভুলের কারণে তীব্র প্রতিক্রিয়া চলছে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে। কারণ অস্কারে এমন ভুল আগে কখনও দেখা যায়নি।

এদিকে রেকর্ডসংখ্যক ১৪টি বিভাগে মনোনীত সংগীতনির্ভর প্রেমের চলচ্চিত্র ‘লা লা ল্যান্ড’ সর্বাধিক ছয়টি বিভাগে অস্কার জিতেছে। এ ছবিতে উচ্চাকাঙ্ক্ষী অভিনেত্রীর ভূমিকায় দারুণ অভিনয়ের সুবাদে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন এমা স্টোন। এটি নির্মাণের স্বীকৃতিস্বরূপ ডেমিয়েন শেজেল হয়েছেন সেরা পরিচালক।

চোখের জল সামলাতে পারেননি এমা

সেরা অভিনেতার পুরস্কার পেয়েছেন ক্যাসি অ্যাফ্লেক। ‘ম্যানচেস্টার বাই দ্য সি’ ছবিতে মৃত বড় ভাইয়ের ছেলের কঠোর অভিভাবক চরিত্রে অনবদ্য অভিনয়ের সুবাদে এই সম্মান পেলেন তিনি।

তবে ডেনজেল ওয়াশিংটনের সেরা অভিনেতা সম্ভাবনা ছিল বেশি। ‘ফেন্সেস’ ছবিতে দারুণ অভিনয় করেছেন তিনি। অবশ্য এ ছবির জন্য সেরা পার্শ্বঅভিনেত্রী হয়েছেন ভায়োলা ডেভিস।

সেরা ছবিসহ ‘মুনলাইট’ জিতেছে তিনটি পুরস্কার। এ ছবির জন্য মাহারশালা আলি হয়েছেন সেরা পার্শ্বঅভিনেতা। অ্যাডাপ্টেড চিত্রনাট্য পুরস্কারও গেছে এর পরিচালক ব্যারি জেনকিন্সের হাতে।

ইরানি পরিচালক আসগর ফারহাদির ‘দ্য সেলসম্যান’ সেরা বিদেশি ভাষার ছবির পুরস্কার পেয়েছে। তবে মুসলিম সাতটি দেশের ওপর আমেরিকার ভিসা নিষিদ্ধ করায় সশরীরে তিনি এটি গ্রহণ করতে আসেননি।

অ্যাফ্লেকের অভিব্যক্তি

Color-festival-attire
গ্রামীণ ইউনিক্লোতে চলছে বিভিন্ন রং ও ডিজাইনের পোশাকের কালার ফেস্ট ক্যাম্পেইন। এই ক্যাম্পেইন এর আওতায় পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন কালারের সংমিশ্রণে ও ডিজাইনে বিভিন্ন কালারফুল কালেকশন। জীবনকে রাঙিয়ে দিতে পোশাক এর সাথে মানুষের মনেও নতুনত্ব কে ফুটিয়ে তুলতে গ্রামীণ ইউনিক্লো নিয়ে এসেছে এই কালারফেস্ট উৎসব । কালারফেস্ট উৎসবে বিভিন্ন কামিজ নিয়ে এসেছে ১৬৯০টাকায় এবং ছেলেদের শার্ট ৯৯০টাকা থেকে শুরু করে ১৪৯০টাকার মধ্যে। গ্রাফিক টি-শার্ট ৪৯০ টাকা থেকে ৬৯০ টাকার মধ্যে। মেয়েদের পালাজ্জো ৭৯০ টাকায় ও লেগিংস পাওয়া যাচ্ছে ৩৫০ টাকায়। ছেলেদের কালার জিনস পাওয়া যাচ্ছে ১৫৯০ টাকায়। এছাড়াও থাকছে বিভিন্ন পোশাকের কালেকশন।

Color-festival-attire 
গ্রামীণ ইউনিক্লো এর বর্তমানে ১২টি শাখা আছে। গ্রামীন ইউনিক্লো প্রতিষ্ঠা থেকেই তিনটি উদ্দেশ্যে কাজ করে যাচ্ছে -১. বাংলাদেশের সকল মানুষের মাঝে ব্যতিক্রমি পোশাকের মাধ্যমে আনন্দ ও সন্তুষ্টি প্রদান করা ২. ব্যবসার মাধ্যমে বাংলাদেশের সামাজিক সমস্যাগুলোর সমাধান করা ৩. সামাজিক ব্যবসায় প্রসারের জন্য সকল মুনাফা পুনঃবিনিয়োগ করা।

 

স্টার্চকে খারাপ কার্বোহাইড্রেট হিসেবেই গণ্য করা হয়। কারণ এটি ওজন ও ব্লাড সুগার বৃদ্ধি করে বলে জানেন সবাই। কিন্তু যারা কার্বোহাইড্রেট পছন্দ করেন তারা অনেক স্বাস্থ্য উপকারিতা পেতে পারেন প্রতিরোধী স্টার্চ থেকে, যাকে ভালো শর্করা ও বলা হয়।


নিউ ইয়র্ক সিটির এন অয়াই ইউ স্টেইনহারডট কলেজের  পুষ্টি বিজ্ঞানের ক্লিনিক্যাল অ্যাসিসটেন্ট প্রফেসর লিসা স্যাশন বলেন, এটি আপনার রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা বৃদ্ধি করে না,  কোলেস্টেরলের মাত্রা ঠিক থাকতে সাহায্য করে এবং আপনার পেট ভরা রাখতে ও তৃপ্ত থাকতে সাহায্য করে।

আপনি হয়তো কার্ব- ফ্রি ডায়েটের কথা শুনেছেন। তাই শর্করা গ্রহণ করলে ওজন কমতে সাহায্য করে, রক্তের চিনির মাত্রা স্থিতিশীল রাখে এবং ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাব্য ঝুঁকি কমায় শুনলে আপনি বিস্মিত হবেন বৈ কি! কিন্তু এটি সত্যি এবং এর কারণটিও খুবই সাধারণ। অন্য স্টার্চ এর চেয়ে রেজিস্টেন্ট স্টার্চ (যা পাওয়া যায় অল্প আঁচে রান্না করা ওটস, মটরশুঁটি ইত্যাদিতে) বৃহদান্ত্র এর  উপরের অংশে শক্তিতে পরিণত হয়, যা আপনার ওজন কমতে সাহায্য করে। ইন্ডিয়ানা এর  ওয়েস্ট  লাফায়েট এর পারডু বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টি বিজ্ঞানের বিশিষ্ট অধ্যাপক কনি ওয়েভার বলেন, ‘আমাদের শরীরে যে এনজাইম থাকে তা স্টার্চকে ভেঙ্গে চিনিতে পরিণত করে’।

এ ধরনের কার্বোহাইড্রেটগুলো ধীর গতিতে হজম হয় বলে রক্তের চিনির মাত্রা বৃদ্ধি পায় না। গ্লুকোজ কখনো হজম হয়না, এটি চিনিতে পরিণত হওয়ার পরে রক্তস্রোতে প্রবেশ করে। এ  কারণেই রক্তে চিনির আধিক্যের কারণে অলস অনুভব করবেন না।

প্রতিরোধী স্টার্চ যা পাওয়া যায় – শিম, আস্ত শস্য দানা এবং আলু থেকে, তা  কোলন ক্যান্সার ও ইনফ্লামেটরি বাউয়েল ডিজিজ হওয়াকে প্রতিরোধ করে, যদিও এ বিষয়ে আরো অধিক গবেষণার প্রয়োজন আছে। একটি ছোট গবেষণায় গবেষকেরা ২৩ জন মানুষকে ২ টি দলে ভাগ করেন – একটি দলের সদস্যদের প্রতিদিন ০.৬ পাউন্ড করে লাল মাংস খেতে দেয়া হয় ৪ সপ্তাহের জন্য এবং অন্য দলের সদস্যদের একই পরিমাণ মাংস খেতে দেয়া হয় প্রতিরোধী স্টার্চসহ। যারা শুধু লাল মাংস খেয়েছিলেন তাদের রেক্টাল টিস্যুতে মাইক্রো আরএনএ অণু (জেনেটিক উপাদান) এর  বৃদ্ধি দেখা যায়, যা কোলন ক্যান্সারের সাথে সম্পর্কিত। অন্য দলটিতে যাদের প্রতিরোধী স্টার্চ দেয়া হয়েছিলো তাদের মধ্যে এই অণুর কোন রকমের বৃদ্ধি দেখা যায়না। কিছু গবেষক মনে করেন যে, আমাদের অন্ত্রের ব্যাকটেরিয়াকে পরিবর্তিত করার শক্তিশালী ক্ষমতা আছে প্রতিরোধী স্টার্চ এর যা ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে পারে।

লাল মাংস বেশি পরিমাণে খাওয়া অন্ত্রের খারাপ ব্যাকটেরিয়াকে পরিবর্তন ও ইনফ্লামেশন বৃদ্ধির  সাথে সম্পর্কিত যা কোলন ক্যান্সার হওয়ার কারণ। প্রতিরোধী স্টার্চ এ ধরনের প্রভাবকে উল্টিয়ে দিতে পারে কারণ এটি ডায়াটারি ফাইবারের মত কাজ করে। রেজিস্টেন্ট স্টার্চ শর্ট-চেইন ফ্যাটি এসিডের ভালো উৎস যা কোলনকে স্বাস্থ্যবান রাখতে সাহায্য করে। এটি সহজে বিপাকযোগ্য।

স্যাশন বলেন, লিগিউম জাতীয় সবজি, অল্প আঁচে সময় নিয়ে রান্না করা ওটস, পাস্তা (খুব বেশি নরম নয়) এবং কাঁচা কলা যা সিদ্ধ করার পর ঠান্ডা করে খাওয়া হয়– এগুলো গ্রহণ করার   মাধ্যমে আপনি প্রতিরোধী স্টার্চ গ্রহণের মাত্রা বৃদ্ধি করতে পারেন। স্যাশনের মতে,  তাপ এবং ফুটন্ত পানি খাদ্যে স্বাস্থ্যকর রেজিস্টেন্ট স্টার্চ এর পরিমাণ কমায়।  গরম করার পর ঠান্ডা করলে রেজিস্টেন্ট স্টার্চ এর পরিমাণ পুনরায় বৃদ্ধি পায়।

প্রতিদিন আপনি কী পরিমাণ প্রতিরোধী স্টার্চ গ্রহণ করবেন সে বিষয়ে কোন নির্দেশনা দেয়া হয়নি। তাই আপনার খাদ্যতালিকায় একটু বেশি পরিমাণে গ্রহণ করাটা খারাপ ধারণা নয়। স্যাশন বলেন, স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ করলে আপনি নিজেই ভালো অনুভব করবেন। আপনার খাদ্যতালিকায় মটরশুঁটি যোগ করলেই আপনার ওজন কমবে না কিন্তু অস্বাস্থ্যকর কিছু খাওয়ার পরিবর্তে এটি গ্রহণ করা ভালো।  

Section-of-the-Nokia-3310-resumed 



আইকনিক মডেল ৩৩১০ নিয়ে ফের পথচলা শুরু করছে হ্যান্ডসেটের বাজারে একসময় আধিপত্য বিস্তারকারী নকিয়া। নতুন ফোনটি হবে আরো আকষর্ণীয় ও ব্যবহারবান্ধব।


চীনের একটি সাইট ভি-টেকের বরাত দিয়ে প্রযুক্তি বিষয়ক সংবাদমাধ্যম জানায়, আগের নকিয়া ৩৩১০ হ্যান্ডসেটের মনোক্রোম পর্দার পরিবর্তে নতুন নকিয়া ৩৩১০’র পর্দা হবে রঙিন।

তবে অ্যান্ড্রয়েড নয়, আগের ফিচার ফোনের ঢঙেই চলবে নতুন নকিয়া ৩৩১০। যা হবে আগের ফোনের চেয়ে পাতলা ও হালকা। থাকছে লাল,সবুজ, হলুদ নতুন কয়েকটি রঙ।

আগামী সপ্তাহে বার্সেলোনায় মেবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে (এমডব্লিউসি) হ্যান্ডসেটটি উন্মুক্ত করার কথা রয়েছে। যার মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে পঞ্চাশ পাউন্ড (১ পাউন্ড প্রায় ১০০ টাকা)।

Taxi-service-to-Google 



ইন্টারনেটে অনুসন্ধান সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান গুগল জিপিএসভিত্তিক মোবাইল নেভিগেশন অ্যাপ্লিকেশন ওয়েজ কিনে নিয়েছে এটা পুরোনো খবর। নতুন খবর হলো এর মাধ্যমে তারা এবার কারপুল সেবার বাজারে ভাগ বসাতে চলেছে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও লাতিন আমেরিকার কয়েকটি শহরে এই সেবা সম্প্রসারণ করার পরিকল্পনা করেছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে ওয়ার্ল্ড স্ট্রিট জার্নাল। ইসরায়েল ও সান ফ্র্যান্সিসকো শহরে পরীক্ষামূলকভাবে সফল কার্যক্রম পরিচালনার পরেই প্রতিষ্ঠানটি এই সিদ্ধান্ত নেয়।


উল্লেখ্য, ওয়েজ হলো বিশ্বব্যাপী গাড়ি চালকদের সবচেয়ে বড় প্ল্যাটফর্ম। এ অ্যাপ্লিকেশনটির সাহায্যে রাস্তায় যানজটের অবস্থা সম্পর্কে জানা সম্ভব হয়।

আর এই সিদ্ধান্ত গুগলকে জনপ্রিয় ট্যাক্সি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান উবারের মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। উবার ও লিফট যে ধরনের সেবা দিয়ে থাকে তার থেকে ওয়েজ-এর সেবা খানিকটা ভিন্ন। কেননা, ওয়েজ প্রথাগত ট্যাক্সি সেবা প্রদান করবে না। এর পরিবর্তে তারা চালকদের উৎসাহ দেবে একই অভিমুখী যাত্রীদের তুলে নিতে। যেমন ধরুন, গাড়ির চালক উত্তরা থেকে মহাখালী যাচ্ছেন। এখন কোনও যাত্রী যদি পথিমধ্যে কাকলি বা বনানী যেতে চায়, তাহলে সে তাকে গাড়িতে তুলে নেবে। তবে উত্তরা থেকে মহাখালী যাওয়ার পথে কিংবা অন্য কোনও গন্তব্যে যাওয়ার সময় পথিমধ্যের কোনও গন্তব্যে নিয়মিত যাত্রী মিলবে কিনা, সেটা একটা চ্যালেঞ্জ বলে মানছেন ওয়েজ-এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নোয়াম বারডিন।

শুধু তাই নয়, ভাড়ার ক্ষেত্রেও উবার ও লিফট থেকে আলাদা হবে ওয়েজ। ওয়ার্ল্ড স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদন অনুসারে, ক্যালিফের ওকল্যান্ডের শহরতলী থেকে সান ফ্র্যান্সিসকোর শহরতলী যেতে যেখানে ওয়েজের ভাড়া পড়বে মাত্র ৪.৫০ ডলার! সেখানে উবারপুল এবং লিফটলাইনের ভাড়া যথাক্রমে ১০.৫৭ এবং ১২.৪০ ডলার। তাই ট্যাক্সি সেবার বাজার দখলের লড়াই কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেটাই এখন দেখার পালা।

Samsung-Galaxy-S-8-will-be-released-on-March-9 


দক্ষিণ কোরিয়ান প্রতিষ্ঠান স্যামসাং আগামী ২৯ মার্চ তাদের পরবর্তী ফ্ল্যাগশিপ ফোন গ্যালাক্সি এস৮ যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে উন্মোচন করবে। স্পেনের বার্সেলোনায় মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস শুরুর আগ এক অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানটি এই ঘোষণা দেয়।


একইসঙ্গে প্রতিষ্ঠানটি একটি টিজার ভিডিও প্রকাশ করেছে। আর টিজার ভিডিওটি ইঙ্গিত করে যে ফোনটিতে এজ-টু-এজ ডিসপ্লে থাকবে। এ ছাড়া ধারণা করা হচ্ছে, এস৮ এবং এস৮ প্লাসে আইপি৬৮ ধুলাবালি এবং পানিরোধী হবে।

পাশাপাশি হ্যান্ডসেটটিতে নতুন ভার্চুয়াল সহকারী বিক্সবি থাকতে পারে। এ ছাড়া ফোনের স্পেসিফিকেশনে স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫ প্রসেসরের ৪ জিবি র‍্যাম এবং ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ থাকার থাকার কথা রয়েছে।

What-is-unusual-meal-Beef-Roll-remdhechena-before 


গরুর মাংস কম-বেশি সব মানুষই খেতে পছন্দ করেন। আর এই মাংস দিয়ে তৈরির যে কোনো খাবারই খেতে দারুণ লাগে। গরুর মাংসের সম্পূর্ণ ভিন্নধর্মী একটি খাবার হলো বিফ রোল। মাংসের ভিন্ন কিছু রান্না করতে চাইলে তৈরি করতে পারেন এই খাবারটি। বিফ রোলের সম্পূর্ণ রেসিপিটি জেনে নেয়া যাক।


উপকরণ:


৪৩৫ গ্রাম গরুর মাংসের কিমা

২৮ গ্রাম ধনেপাতা বা পার্সলি পাতা কুচি

১টি পেঁয়াজ কুচি

১/৪ কাপ ব্রেড ক্রাম্বস

১টি আলু

২টি গাজর

১টি ক্যাপসিকাম

২ টেবিল চামচ টমেটোর পেস্ট

তেল

লবণ

গোলমরিচের গুঁড়ো

হলুদ গুঁড়ো

কাঁচা মরিচ কুচি

প্রণালী:


১। গরুর কিমা, ধনেপাতা কুচি, পেঁয়াজ কুচি একসাথে ভাল করে মিশিয়ে নিন।

২। এরসাথে লবণ, গোল মরিচের গুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো দিয়ে দিন।

৩। এরপর এতে ব্রেড ক্রাম্বস দিয়ে আবার ভাল করে মেশান।

৪। মাংসের পাত্রটি প্লাস্টিকের প্যাকেট দিয়ে ঢেকে ফ্রিজে আধা ঘন্টার জন্য রেখে দিন।

৫। আলু এবং গাজর সিদ্ধ করে লম্বা করে কেটে নিন।

৬। মাংসের কিমা একটি প্লাস্টিকের প্যাকেটের উপর রেখে রুটির মত বেলে নিন।

৭। মাংসের ভিতর গাজর, আলু সিদ্ধ সামান্য গোল মরিচ গুঁড়ো (ইচ্ছা) দিয়ে দিন।

৮। এবার প্লাস্টিকের প্যাকটি রোল করে পেঁচিয়ে ফেলুন।

৯। প্যানে তেল গরম হয়ে এলে মাংসের রোলটি দিয়ে দিন।

১০। একটি পাত্রে টমেটোর পেস্ট, হলুদ গুড়ো গরম পানির সাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন।

১১। একটি প্যানে ক্যাপসিকাম গোল করে কাটা, হালকা ভাজা মাংসের রোল, তারওপর টমেটোর পেস্ট দিয়ে দিন।

১২। ঢাকনা দিয়ে ঢেকে মাঝারি আঁচে ৩০-৩৫ মিনিট রান্না করুন।  

১৩। ব্যস তৈরি হয়ে গেল বিফ রোল। ভিন্ন স্বাদের এই খাবারের রেসিপিটি দেখে নিন ভিডিওতে।

গতকাল ২৪ নভেম্বর ব্ল্যাক আইজ লিমিটেডের (BLACK iz Ltd) উদ্যোগে এর নতুন পুরনো কর্মকর্তা, পরিচালক এবং শুভানুধ্যায়ী দের নিয়ে দিন ব্যাপি টুগেদার এবং এমওই সাইনিং প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয় । 


গতকাল ২৪ নভেম্বর ব্ল্যাক আইজ লিমিটেডের (BLACK iz Ltd) উদ্যোগে এর নতুন পুরনো কর্মকর্তা, পরিচালক এবং শুভানুধ্যায়ী দের নিয়ে দিন ব্যাপি টুগেদার এবং এমওই সাইনিং প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয় । এই অনুস্থানকে তারা BLACK iz Ltd এর দিন ব্যাপি কর্পোরেট উৎসব মেলা হিসেবে অবিহিত করেন । এতে দিনের শুরুর থেকেই ব্ল্যাক আইজ লিমিটেড (BLACK iz Ltd) এর ধানমন্ডি অফিসে উপস্থিথ হতে শুরু করেন BLACK iz Ltd. এবং এর অংগ প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তা, কর্মচারীরা । দিনব্যাপি এই কর্পোরেট উৎসব মেলায় উপস্থিথ ছিলেন ইবিজ-নিউজ.কম এর সম্পাদক সহ ঢাকা'র খবর এবং চলমান বার্তা'র সহ সম্পাদক সহ অনেকেই । 

প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত সকল অতিথিদেরকে অনুষ্ঠানে যোগ দেয়া এবং ব্ল্যাক আইজ লিমিটেডের (BLACK iz Ltd) এর সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ জানান । তিনি বলেন,  "আমরা মূলত একটি পরিবার যারা বিভিন্ন অবস্থান থেকে একটি লক্ষের জন্য কাজ করছি । আপনারা পাশে ছিলেন তাই হয়তো এতদূর আসতে পড়েছি, ভবিষ্যতেও আপনাদের সমর্থন ও সহযোগিতা একান্ত ভাবে কামনা করছি। " 

দিন শুরুর বক্তব্যে BLACK iz Ltd এর অপারেশন ডিরেক্টর ইমতিয়াজ বিন আহমেদ বলেন "আমাদের আজকের অনুষ্ঠানের মূল লক্ষ্যই হচ্ছে ঐক্য গড়া, BLACK iz Ltd এর অন্তর্ভুক্ত প্রতিটি কোম্পানি iNEXTerior Bangladesh, BLACK iz IT Institute, BLACK iz IT এবং E-Marketing Analyzer এর সকল কর্মকর্তা, কর্মচারীরা একটি পরিবার এবং একই পরিবার।  মাঝে মাঝেই গেট টুগেদার আমাদের আরও গভীর এবং শক্ত করে তোলে । সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ । একদিন সবাই মিলে অবশ্যই আমারা আমাদের লক্ষ ভেদ করতে পারব " 

এরপরপই আলোচনা শুরু হয় BLACK iz IT এবং iNEXTerior Bangladesh এর মধ্যকার দ্বিপক্ষীয় চুক্তির বিষয়ে। এই চুক্তির আওতায় BLACK iz IT এবং iNEXTerior তিনটি প্রোজেক্ট স্বাক্ষর হয়। উপস্থিত বক্তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন অদূর ভবিষ্যতে BLACK iz IT এবং iNEXTerior বড় ধরনের তিনটি সফল প্রোজেক্ট করবেন, যা সকলের জন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে। 

কর্পোরেট উৎসব মেলায় বিকাল চার'টার পর লোক সমাগম বাড়তে থাকে। রাত প্রায় ১০টা পর্যন্ত চলে কর্পোরেট উৎসব মেলা। ধারাবাহিক ভাবে বিকালের পর থেকে লোক সমাগম বাড়তে থাকে। 
২০১২ সাল থেকে শুরু হয় এই গেট টুগেদার বা কর্পোরেট উৎসব মেলা। কর্পোরেট উৎসব মেলা মূলত BLACK iz Ltd এর সকল কর্মচারি, কর্মকর্তা, ক্লায়েন্ট, ছাত্র-ছাত্রীদের ঘিরেই হয় এবং প্রতিবারের মত BLACK iz Ltd এর প্রধান কার্যলয় ধানমণ্ডিতেই বসে কর্পোরেট উৎসব মেলা।  
আইসিটি খাতের নিত্যনতুন প্রযুক্তি ও প্রযুক্তির পরিবর্তনের সঙ্গে কর্মচারি, কর্মকর্তা, ক্লাইন্ট, ছাত্র-ছাত্রীদের পরিচিত করানই এ প্রদর্শনী আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য। 


গরমের সময় ঘরের শীতাতপ নিয়ন্ত্রণের যন্ত্রটা যতই আপন মনে হোক, ঘুমের সময় এই যন্ত্রের বাতাস স্বাস্থ্যকর নাও হতে পারে। 



সাম্প্রতিক এক গবেষণার ফলাফলে দেখা গেছে, ঘুমের মধ্যে কিংবা অনুভূতিশূন্য বা অচেতন অবস্থায় মানবদেহের উপর সরাসরি জোরে বাতাস দেওয়া হলে হৃদস্পন্দনের হার বেড়ে যেতে পারে। যার ঘুমের উপর প্রভাব ফেলে।

‘এনার্জি অ্যান্ড বিল্ডিংস’ নামক জার্নালে প্রকাশিত এই গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের পর্যবেক্ষণ করে দেখা গেছে- ‘এয়ার কন্ডিশনার’ থেকে গড়ে ০.১৪ মিটার/সেকেন্ড বেগে বায়ু প্রবাহিত হলে ওই ঘরে থাকা মানুষের নড়াচড়া, হৃদস্পন্দন বৃদ্ধি পায় উল্লেখযোগ্য হারে। 

এখান থেকে ধারণা করা যায়, যাদের শারীরিক শক্তি কম কিংবা ঠাণ্ডায় যারা বেশি সংবেদনশীল তাদের ঘুমের উপর ঠাণ্ডা বাতাস নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে।

জাপানের তোয়োহাশি ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজির গবেষকদের মতে, এসির বাতাস ঘুমন্ত অবস্থায় শরীরের উপর বিরুপ প্রভাব ফেলে এবং বাতাসের বেগ ধীর গতির হলেও তা ঘুমের ব্যাঘাত ঘটায়। ফলে ঠাণ্ডা আবহাওয়া একজন ব্যক্তির জন্য আরামদায়ক হলেও এসির বাতাস শরীরের উপর খারাপ প্রভাব ফেলতে পারে। এসির বায়ুর বেগ নিয়ন্ত্রণ সম্পর্কে অবগত না থাকাই এই সমস্যার কারণ বলে গবেষকদের ধারণা।

প্রধান গবেষক অধ্যপক কাজুও সুজুকি ও তাঁর দল এই গবেষণার জন্য দুটি ঘরে এসির বায়ু প্রবাহের বেগ দুইরকম করে রেখে ওই ঘরে অংশগ্রহণকারীদের ঘুমাতে বলেন।

পরে ইলেক্ট্রোএন্সেফালোগ্রাম (ইইজি)’এর মাধ্যমে অংশগ্রহণকারীদের ঘুমের গভীরতা পরিমাপ করা হয়।

দুই ঘরের বাতাস প্রবাহের মাত্রা ছিল ০.১৪ মিটার/সেকেন্ড (সাধারণ এসি) এবং ০.০৪ মিটার/সেকেন্ড (নিয়ন্ত্রিত এসি)। তবে দুটি ঘরের তাপমাত্রা ছিল ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বাতাসের প্রবাহ যে ঘরে বেশি ছিল সে ঘরে অংশগ্রহণকারীরা ঘুম এবং জাগরণের মধ্যে ঠাণ্ডা অনুভব করেছেন বেশি।

তবে ঘুমানোর আগে কোনো অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য কোনো পার্থক্য চোখে পড়েনি।

ঘুমানোর সময় এসির বায়ুপ্রবাহ কী রকম থাকা উচিত সে সম্পর্কে উপকারী পরামর্শ দেয় এই গবেষণার ফলাফল।


এই বয়সে আকাশের চাঁদ এনে দেওয়ার মতো রোমান্টিকভাব থাকে না। তার মানে এই নয় যে আপনি বুড়িয়ে গেছেন। 


বয়স ত্রিশ পেরিয়ে যাচ্ছে, তবে এখনও প্রেমের জলে ডুব দেওয়া হল না। বন্ধুমহল, পরিবার সবারই পরামর্শ, সম্পর্ক নিয়ে ছেলেখেলা না করে জলদি জীবনসঙ্গী বেছে নাও। ‘সময় আর স্রোত কারও জন্য অপেক্ষা করে না’— এমন নীতিবাক্য শুনিয়ে যাচ্ছে অনেকেই। এই পরিস্থিতির সঙ্গে হয়ত মিল খুঁজে পাবেন অনেকেই।


সম্পর্কবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে এই বিষয়ের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, অনেকের মতে ঘর বাঁধার স্বপ্ন নিয়ে সম্পর্ক শুরু করার এটাই উপযুক্ত সময়। কারণ এ বয়সে আপনার জীবনের লাগাল আপনার হাতেই।

তবে ত্রিশের কোঠায় প্রেম করতে চাই ভিন্ন কৌশল।

ভেতরের মানুষটা কেমন: বাহ্যিক রূপে মোহে পাগল হয়ে যাওয়ার বয়স আর আপনার নেই। তাই দেখতে হবে তার মন-মানসিকতা, বিশ্বাসযোগ্যতা ও তাকে নিয়ে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা করা যায় কিনা।

যাচাই-বাছাই: ‘যেখানে দেখিবে চাই, উড়াইয়া দেখ তাই’- বয়স ত্রিশের কোঠায় হলে সম্পর্কের ক্ষেত্রে এই প্রবাদটি আপনার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়। তাই কার সঙ্গে সম্পর্ক শুরু করবেন সে বিষয়ে একটু খুঁতখুঁতে হওয়া চাই। আপনার সঙ্গে মিল আছে এমন মানুষগুলোর মধ্য থেকেই কাউকে বেছে নেওয়া ভালো।

নিজের চাহিদা সম্পর্কে জানানো: জীবনের এতটা বছর পার করে, সম্পর্কের প্রতি নিজের চাহিদা নিয়ে পরিষ্কার ধারণা হওয়া উচিত। তাই যার সঙ্গে সম্পর্ক গড়তে যাচ্ছেন তাকেও সে বিষয়ে পরিষ্কার ধারণা দিন।

সাবলম্বিতা: ত্রিশের ঘরে যাদের বয়স তাদের সবাই নিজের পায়ে গুছিয়ে দাঁড়াতে পারে না। আবার সাবলম্বি হলেও সংসার বাঁধার ইচ্ছা নাও থাকতে পারে। তাই সাবলম্বি হওয়াটা যদি আপনার প্রথম পছন্দ হয় কিংবা এখনই সংসারের দায়িত্ব নেওয়ার ইচ্ছা না থাকে তবে সে বিষয়ে স্পষ্টভাষি হতে হবে। আর আপনার চাহিদার সঙ্গে মানানসই কাউকে খুঁজে নিতে হবে।

সম্পর্কের দিকে এগোচ্ছে কী: সম্পর্কের যদি কোনো ভবিষ্যৎ দেখতে না পান তবে মাথায় দিয়ে বসে থাকা চলবে না। তাকে আঁকড়ে পড়ে থাকাও বুদ্ধিমানের কাজ হবে না। যদি অপর পক্ষের আগ্রহ না থাকে তবে একলা চলো রে।


আট প্রান্তিকের মধ্যে সর্বশেষ প্রান্তিকে প্রথমবারের মতো স্যামসাংকে পেছনে ফেলে বিশ্বব্যাপী স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে শীর্ষস্থান দখল করেছে মার্কিন প্রযুক্তি জায়ান্ট অ্যাপল।


বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান গার্টনার-এর সূত্রমতে, ২০১৬ সালের হলিডে সিজনে স্মার্টফোন বিক্রিতে বাজিমাতের মাধ্যমে এই অর্জন করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

সেপ্টেম্বর-ডিসেম্বর প্রান্তিকে বড়দিন, শীতকালীন ছুটিসহ বড় একটি ছুটির সময় যায়। এই সময়কে হলিডে সিজন বলা হয়। সাধারণত এ সময়ই পশ্চিম বিশ্বে মানুষের কেনাকাটার ধুম পড়ে আর ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানগুলোও বছরের সবচেয়ে বেশি ব্যবসায় এই সময়টায় করে থাকে। ২০১৬ সালে এই প্রান্তিকে স্যামসাংয়ের বাজির ঘোড়া ছিল গ্যালাক্সি নোট ৭। কিন্তু বিস্ফোরণ আর অগ্নিঝুঁকির কবলে পড়ে এই স্মার্টফোনটিকে চিরতরে বাজার থেকে সরিয়ে নিতে বাধ্য হয় দক্ষিণ কোরীয় এই ইলেক্ট্রনিক জায়ান্ট। 

গার্টনার-এর হিসাব মতে, এই প্রান্তিকে অ্যাপল প্রায় ৭৭.০৪ মিলিয়ন স্মার্টফোন বিক্রি করেছে আর স্যামসাংয়ের ক্ষেত্রে অংকটা ৭৬.৭৮ মিলিয়ন। সে হিসাবে বিশ্ব স্মার্টফোন বাজারে ১৭.৯ শতাংশ দখলে নিয়েছে অ্যাপল আর স্যামসাংয়ের দখলে আছে ১৭.৮ শতাংশ।

২০১৫ সালে একই প্রান্তিকে বাজারের প্রায় ২১ শতাংশ স্যামসাংয়ের দখলে ছিল বলে জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনবিসি।

অ্যাপল আর স্যামসাং, দুই প্রতিষ্ঠানকেই এই প্রান্তিকে স্মার্টফোন নির্মাতা চীনা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে, অপ্পো আর বিবিকে’র সঙ্গে ক্রমবর্ধমান প্রতিযোগিতার মুখোমুখি হতে হয়েছে। 

গার্টনার-এর গবেষণা পরিচালক আনশুল গুপ্তা বলেন, “বৈশ্বিক স্মার্টফোন বিক্রেতাদের মধ্যে দুই নাম্বার স্থান দখলকারীর সঙ্গে নিজেদের পার্থক্যটা কমাতে যাচ্ছে হুয়াওয়ে।”

এ প্রান্তিকে হুয়াওয়ে প্রায় ৪০.৮ মিলিয়ন ফোন বিক্রি করেছে। চলতি বছর জানুয়ারিতে প্রতিষ্ঠানটিতে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে স্মার্টফোন আনার ঘোষণা আনা দেয়। এর ফলে প্রতিষ্ঠানটি দুই বছরের মধ্যে দ্বিতীয় স্থান দখল করবে বলে আশা করছে, জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক ও ভোক্তা ব্যবসায়ের প্রধান নির্বাহী রিচার্ড ইউ।

গার্টনার-এর তালিকা অনুযায়ী বিশ্ববাজারে শীর্ষে থাকা প্রথম পাঁচ স্মার্টফোন বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানের ক্রম হচ্ছে- অ্যাপল, স্যামসাং, হুয়াওয়ে, অপ্পো, বিবিকে।


নতুন এক ছবি বিশ্লেষণ কৌশলের মাধ্যমে সেলফোনের ছবি ব্যবহার করে রোগবিস্তারি জৈব অণু চিহ্নিত ও শনাক্ত করা যাবে, এক প্রতিবেদনে এমনটাই জানিয়েছে আইএএনএস।


যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অফ সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়া (ইউএসসি) -এর বিজ্ঞানীদের বানানো এই ‘হাইপার-স্পেট্রাল ফাসোর’ বিশ্লেষক বা এইচওয়াইএসপি- এ কোনো ছবি অতিক্রমকালে একবারে অনেকগুলো অণু পর্যবেক্ষণ করা সম্ভব হবে।

ইউএসসি-এর বিজ্ঞানী ফ্রান্সিসকো কাটরেল বলেন, “এ থেকে সময়ের সঙ্গে একাধিক লক্ষ্য পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে জটিল জীবগুলোর মধ্যে আসলে কী ঘটছে তার ভালো দৃশ্য পাওয়া যাবে।” এমনকি একদিন চিকিৎসকরা সেলফোনে ক্ষত চামড়ার ছবি বিশ্লেষণ করে ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি নির্ধারণ করতে এইচওয়াইএসপি ব্যবহার করতে সক্ষম হবেন বলেও জানা গেছে এই গবেষণায়।

এই বিষয়ে নিশ্চিত হতে পরবর্তীতে রোগীকে আরও পরীক্ষা করে উপযুক্তভাবে সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন চিকিৎসকরা। তা ছাড়াও, গবেষকরা ফ্লুরোসেন্ট ইমেজিং ব্যবহার করে কোষে প্রোটিন এবং অন্যান্য অণু খুঁজতে পারেন।

“ক্লিনিকে ডাক্তার এবং বিজ্ঞানীরা এই ফলাফলে আরও আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে দ্রুত তাদের কাজ সম্পাদন করতে সক্ষম হবেন”, নেচার মেথডস- এ প্রকাশিত এই গবেষণায় কারটেল বলেন।

Soon-be-exported-abroad-Wii-Muntasir-Ahmed 



বাংলাদেশের স্থানীয় মোবাইল হ্যান্ডসেট ব্র্যান্ড ‘উই’ দ্বিতীয় বছরে পা দিয়েছে। গত বছর ১৩ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি। নতুন এই ব্র্যান্ড গত এক বছরে দেশজুড়ে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। হ্যান্ডসেটের সাথে গ্রাহকদের জন্য বিনামূল্যে ওয়াইফাই সুবিধা ও ক্লাউড স্টোরেজের কারণে মানুষের কাছে এর গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধি পেয়েছে।  জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির ব্র্যান্ডিং এবং কমিউনিকেশন বিভাগের সহকারি মহাব্যবস্থাপক মুনতাসির আহমেদ।


 উই-এর এক বছর হয়ে গেল। গত এক বছরে আপনাদের অর্জন কী?

মুনতাসির আহমেদ: আমাদের অনেক অর্জন। প্রথম দিন থেকেই বলে এসেছি আমরা অন্যদের থেকে আলাদা। আমরা শুধু বক্স বিক্রি করছি না। বরং আমরা সলিউশন বিক্রি করছি। এই সলিউশনের মধ্যে রয়েছে ফ্রি ওয়াইফাই এবং ক্লাউড বা অতিরিক্ত স্টোরেজ। ২০১৬ সালের মধ্যে আমরা ৯ শত স্থানে ফ্রি ওয়াইফাই সংযুক্ত করতে পেরেছি। এরপরেও আমরা ঢাকার বাইরে অনেক জায়গাতে ফ্রি ওয়াইফাই দিতে পারছি না; কারণ অনেক জায়গাতে অবকাঠামো প্রস্তুত না। তবে এ বছরের মধ্যে আমরা দুই হাজার ৫ শত জায়গায় ওয়াইফাই সংযুক্ত করতে চাই।

 এই সলিউশন বিক্রিতে গ্রাহকদের সাড়া কেমন পাচ্ছেন?

মুনতাসির আহমেদ: গ্রাহকদের সাড়া আশানুরূপ। আপনি জানেন ইলেক্ট্রনিক ডিভাইসে অনেক সমস্যা থাকে। সারাদেশে আমাদের এখন পর্যন্ত ৪৫টি 'উই কেয়ার সেন্টার' রয়েছে। গ্রাহকদের থেকে আমাদের গড়ে হ্যান্ডসেটের সমস্যা দেখে গেছে ১ থেকে ২ শতাংশ। আমাদের সার্ভিস সেন্টারে আমাদের যেসব কর্মীরা রয়েছেন তাদের গত এক বছরে খুব বেশি কিছু করার মতো ছিল না। আগামী কিছুদিনের মধ্যেই আমরা সার্ভিস সেন্টার নিয়ে নতুন কিছু করতে যাবো। সার্ভিস সেন্টারের সাথে 'কাস্টমার এক্সপেরিয়ান্স জোন' তৈরি করতে যাচ্ছি।

 এখন আপনাদের ৪৫টি সার্ভিস সেন্টার রয়েছে। যেসব এলাকায় সার্ভিস সেন্টার নেই সেখানে কিভাবে গ্রাহকসেবা দিচ্ছেন?

মুনতাসির আহমেদ: যেখানে আমাদের সার্ভিস সেন্টার নেই সেখানে আমরা কালেকশন পয়েন্ট করেছি। বাংলাদেশের শীর্ষ মোবাইল ব্র্যান্ডের একটি যাদের মোট সার্ভিস সেন্টার রয়েছে ২৬/২৭টি। সেখানে আমাদের ইতিমধ্যেই ৪৫টি হয়ে গেছে। এছাড়া প্রতি মাসেই আমরা ৩/৫টা করে সার্ভিস সেন্টার দিচ্ছি। আগামী আগস্টের মধ্যে আমাদের ৬৪টি সার্ভিস সেন্টার হয়ে যাবে।

 গত এক বছরে কতগুলো হ্যান্ডসেট নিয়ে এসেছেন? সবচেয়ে ভাল চলছে কোনটা?

মুনতাসির আহমেদ: এক বছরে আমরা মোট ১২টি ডিভাইস নিয়ে এসেছি। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়েছে 'এওয়ান' নামের একটি ডিভাইস। এই প্রোডাক্টটি বেশি বিক্রি হওয়ার কারণে এর দাম অনেক কম এবং কোয়ালিটি অনেক ভাল। যার দাম ৩ হাজার টাকার নিচে। তবে আমরা সবচেয়ে বেশি সাড়া পেয়েছি 'এক্সওয়ান' এবং 'বিটু'-এর জন্য। আমরা আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরুর সময় থেকেই 'এক্সওয়ান' নিয়ে এসেছিলাম। গত ৪/৫ মাস আগে এটার সব কপি বিক্রি হয়ে গেছে। তবে এখনও এই ডিভাইসের জন্য মানুষের আগ্রহ দেখতে পাই। আর 'বিটু' আমাদের ৪ হাজার এমএইচ ব্যাটারি বলে অনেকেই এটার ব্যাপারে বেশি আগ্রহ দেখিয়েছেন। সাড়ে তিন মাস আগে এটা মার্কেটে দেওয়ার পর এখন পর্যন্ত তৃতীয়বার আমাদের রিঅর্ডার করতে হয়েছে।

 গত এক বছরে লোকাল ব্র্যান্ড হিসেবে কি কি চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছেন?

মুনতাসির আহমেদ: আমরা এটাকে চ্যালেঞ্জ না বলে অপরচুনিটি হিসেবে দেখেছি। অ্যাপল-স্যামসাং থেকে শুরু করে লোকাল সকল ব্র্যান্ড চায়না থেকে প্রোডাক্ট নিয়ে আসছে। এখানেই আমাদের প্রতিযোগিতা। ভাল প্রোডাক্ট গ্রাহকের কাছে পৌঁছে দেওয়া এবং নিজেদের ব্যতিক্রমী হিসেবে উপস্থাপন করা। এ জন্য গত বছর আমরা সরকারের সহায়তায় যশোরের হাইটেক পার্কে একটি বড় স্পেস নিয়েছি। আশা করছি আগামী দেড় মাসের মধ্যেই সেখানে লোকাল অ্যাপস এবং ওএস ডেভেলপমেন্ট নিয়ে কাজ শুরু করতে পারবো। অ্যান্ড্রয়েডের জন্য বাংলা ভার্সন করার চেষ্টা করবো। লোকাল কনটেন্ট নিয়ে কাজ করতে চাই। লোকাল কনটেন্ট বাড়লে ডেটা ইউজেস বাড়বে, ঠিক একইভাবে আমাদের ডিভাইসও বিক্রি ও ব্যবহার বাড়বে।

 মোবাইল হ্যান্ডসেট আমদানীতে 'ট্যাক্স' একটা বড় ইস্যু, এ ব্যাপারে কি বলবেন?

মুনতাসির আহমেদ: 'ট্যাক্স' অবশ্যই বড় একটি ইস্যু। 'ট্যাক্স' আরেকটু কমাতে পারলে আমরা প্রান্তিক পর্যায়ে আরও বেশি স্মার্টফোন নিয়ে যেতে পারবো। সরকার এ জন্য অনেক কাজ করছে। আমাদের ট্যাক্সের বিষয়টি সরকারের নজরে আছে। আমরা সরকারের নীতিনির্ধারক পর্যায়ে বসেছি। তারা আমাদের এ ব্যাপারে কিছু প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। সরকার এর বাইরেও অনেক কাজ করছে। যেমন আগে গ্রে মার্কেটে অবৈধ বা ট্যাক্সছাড়া অনেক প্রোডাক্ট আসতো। সরকার এ বিষয়টি সমাধান করেছেন। এখন এই অবৈধ চ্যানেল অনেকটা কমে এসেছে। আশা করি ট্যাক্স ইস্যুটিও সরকার গুরুত্বের সাথে দেখে এই ইন্ডাস্ট্রিকে আরও বেশি প্রসারে সহয়তা করবেন।

 কিছুদিন আগে আমরা জেনেছি 'উই' বাংলাদেশের বাইরে হ্যান্ডসেট ব্যবসা শুরু করতে যাচ্ছে। সেটার এখন কি অবস্থা?

মুনতাসির আহমেদ: খুব শিগগির এ বিষয়ে সু-সংবাদ দিতে পারবো। আমাদের দেশের মতো অন্য দেশেও হ্যান্ডসেট ব্যবসা শুরু করতে গেলে অনেক প্রক্রিয়া শেষ করে যেতে হয়। এখন সেসব বিষয় নিয়ে কাজ চলছে। বাংলাদেশে মোবাইল হ্যান্ডসেট ইন্ডাস্ট্রিতে নতুন একটি ধারা শুরু করতে যাচ্ছে। এটা যেমন আমাদের গর্ব তেমন সাড়া দেশের গর্ব।

 আগামীর পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে চাই।

মুনতাসির আহমেদ: উন্নতমানের এবং সাধ্যের মধ্যে ক্রয় করা যাবে এমন ডিভাইস নিয়ে আমরা কাজ করতে চাই। প্রচুর বাংলাদেশি ভাই-বোনেরা বিদেশে বসবাস করেন তাদের জন্য আমরা কাজ করতে চাই। বাংলাদেশি ব্র্যান্ড হিসেবে বিদেশে কাজ করতে চাই। আমরা এ ব্যাপারে খুব আশাবাদী কারণ রেগুলেটরি, সরকার ও মন্ত্রী মহাদয় থেকে অনেক সহযোগিতা পাচ্ছি।

 Yummy-and-healthy-rajama-Masala



ইদানিং অনেক ভিনদেশি খাবারই বেশ পরিচিত হয়ে উঠছে আমাদের কাছে। ব্রকোলি, বিটরুট, লেটুসপাতা, বেবি কর্ন, ক্যাপসিকাম এগুলো দিয়ে রান্না করা হচ্ছে হরহামেশাই। এমন আরেকটি খাবার যা অনেকের কাছেই পরিচিত, তা হচ্ছে রাজমা বা রেড কিডনি বিন। অনেকেই সিমের মতো স্বাস্থ্যকর খাবার খেতে চান, তেমনি খাবারই হলো এই রাজমা। তবে এই খাবারটি কী করে রান্না করবেন তা অনেকে বুঝে উঠতে পারেন না। তাদের জন্যই অনেকটা দেশি ধাঁচে রাজমা রান্নার উপায় নিয়ে এলাম আজ। চলুন দেখে নিই সহজ রেসিপিটি।


উপকরণ
- ১ কাপ কিডনি বিন অর্থাৎ রাজমা (৬-৮ ঘন্টা পানিতে ভিজিয়ে রেখে এরপর সেদ্ধ করে নেওয়া)
- ১ টেবিল চামচ তেল
- ১/২টি কাঁচামরিচ মিহি কুচি
- আধা কাপ পিঁয়াজ-আদা-রসুন বাটা
- ১ চা চাম জিরা গুঁড়ো
- দেড় চা চামচ ধনে গুঁড়ো
- ১ চা চামচ মরিচ গুঁড়ো
- ১ কাপ টাটকা টমেটো পিউরি
- লবণ স্বাদমতো
- দেড় কাপ রাজমা সেদ্ধ করা পানি
- ১ চা চামচ গরম মশলা গুঁড়ো
- পরিবেশনের জন্য ধনেপাতা কুচি

প্রণালী
১) একটি বড় নন-স্টিক সসপ্যানে তেল গরম করে নিন। এতে কাঁচামরিচ, মশলা বাটা দিয়ে সাঁতলে নিন যাতে মশলা লালচে বাদামি হয়ে আসে।
২) এতে জিরা গুঁড়ো, ধনে গুঁড়ো এবং মরিচ গুঁড়ো দিন। মিশিয়ে সাঁতলে নিন ১ মিনিট। এরপর টমেটো পিউরি এবং লবণ দিয়ে ভুনে নিন। তেল ওপরে উঠে আসা পর্যন্ত ভুনতে থাকুন।
৩) রাজমা দিয়ে দিন এতে। মিশিয়ে নিন। এতে রাজমা সেদ্ধ করা পানি দিন। মিশিয়ে রান্না হতে দিন ৫/৭ মিনিট। এরপর গরম মশলা দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। আঁচ থেকে নামিয়ে ফেলুন।

ওপরে ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

Using-contact-lenses 


ফ্যাশন সচেতনরা চশমার পরিবর্তে কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহার করে থাকেন। বর্তমানে শুধুমাত্র চশমার বিকল্প হিসেবে নয়, স্টাইল ও ফ্যাশনের জন্য অনেকেই কন্টাক্ট লেন্স পরে থাকেন। পোশাকের রং এর সাথে কিংবা পছন্দের রঙ অনুযায়ী  চোখের মনির রাঙাতে কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহার করা হয়। যাদের চোখের পাওয়ারে সমস্যা আছে তারা কন্টাক্ট লেন্স ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যবহার করতে পারেন। কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহারে থাকতে হয় কিছুটা সচেতন। অসাবধানতা বা ছোট ভুলের জন্য হয়ে যেতে পারে দৃষ্টিহানির মত কঠিন সমস্যা বা অন্যান্য চোখের রোগ। কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহারে নিজের অজান্তে কিছু ভুল করে থাকেন। এই ভুলগুলো এড়িয়ে যাওয়া প্রত্যেক ব্যবহাকারীর উচিত। 


১। দীর্ঘসময় কন্টাক্ট লেন্স চোখে ব্যবহার করা

দীর্ঘসময় (১০ থেকে ১২ ঘন্টা) চোখে কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহার করা উচিত নয়। এটি চোখের জন্য ক্ষতিকর। এটি চোখের কর্নিয়ায় অক্সিজেন পৌঁছাতে বাঁধা প্রদান করে। যার কারণে খুব সহজে চোখ জীবাণু দ্বারা আক্রান্ত হতে পারে।

২। হাত না ধোয়া

অনেকে সময় স্বল্পতার জন্য অথবা আলসেমি করে লেন্স পরা বা খোলার সময় হাত ভালো ভাবে ধুয়ে নিতে চান না। আর এভাবে নিজেই নিজের চোখের ক্ষতি করছেন। ভালোভাবে হাত না ধোয়া হলে এই জীবাণু হাতের মাধ্যমে লেন্সে চলে যায় এবং পরবর্তীতে চোখের সমস্যা তৈরি করে। সুতরাং লেন্স ধরার আগে ভালোভাবে হাত ধুয়ে নেয়া প্রয়োজন।

৩। কন্টাক্ট লেন্স পরে ঘুমানো

ভুলেও কন্টাক্ট লেন্স পরে ঘুমাতে যাবেন না। এটি চোখের ভেতর ইনফেকশন সৃষ্টি করে। লেন্স পরার কারণে কর্নিয়ায় অক্সিজেন প্রবেশ করতে পারে না যার কারণে খুব সহজে জীবাণু দ্বারা আক্রান্ত হয়ে পড়ে।

৪। লেন্স পরে পানিতে যাওয়া

পানিতে প্রচুর পরিমাণে ব্যাকটেরিয়া থাকে। তাই সাঁতার কাটার সময় লেন্স খুলে পানিতে নামা ভালো।

৫। লেন্সে সাধারণ পানি ব্যবহার করা

লেন্সে সরাসরি পানি দেয়া উচিত নয়। পানিতে অনেক মাইক্রো অরগানিজম থাকে যা পরবর্তীতে চোখের ক্ষতি করতে পারে।

৬। চোখ ব্যথা করলেও লেন্স ব্যবহার করা

চোখে কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহার করে যদি চোখ ব্যথা করে তবে সাথে সাথে তা খুলে ফেলুন। চোখকে কষ্ট দিয়ে লেন্স ব্যবহার করবেন না।

৭। চোখ পরীক্ষা না করা

কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহারের আগে একবার কোনো চিকিৎসক দ্বারা চোখ পরীক্ষা করে নিন। লেন্স ব্যবহারে চোখে জ্বালাপোড়া, চুলকানি, লাল হয়ে যাওয়া ইত্যাদি সমস্যা হতে পারে।

 

 মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা জানিয়েছে, পৃথিবীর আকৃতির সাতটি গ্রহের সন্ধান পেয়েছে নাসার বিজ্ঞানীরা। পৃথিবী থেকে প্রায় ৪০ আলোকবর্ষ দূরে অবস্থিত ওই নক্ষত্রকে ঘিরে গ্রহগুলোর সন্ধান একটি বিরল আবিষ্কার। আর এই বিরল আবিষ্কারকে সার্চ জায়ান্ট গুগল ডুডলের মাধ্যমে উদযাপন করছে।


সাতটি গ্রহ আবিষ্কারকে অ্যানিমেটেড ডুডল তৈরি করেছে গুগল। গুগলের হোমপেজে গেলে প্রথমেই লোগোর জায়গায় ‘প্লে’ বাটনযুক্ত ডুডলটি  ক্লিক করলেই আসছে মজার ছোটগল্প।

বর্তমান ডুডলে দেখা যাচ্ছে, জ্যোতির্বিদের ভূমিকায় রয়েছে পৃথিবী। পৃথিবী বিশাল বড় এক টেলিস্কোপে চোখ লাগিয়ে মহাকাশ জুড়ে কী যেন খুঁজছে। আর পাশেই দাঁড়িয়ে আছে চাঁদ। খুঁজতে খুঁজতে হঠাৎ করে পৃথিবী দেখতে পেল অনেকটা তার মতোই দেখতে আরেকটি গ্রহ একা দাঁড়িয়ে আছে। দেখতে দেখতে সঙ্গে জুটল আরও ছ’টি গ্রহ। সবাই-ই টেলিস্কোপে উঁকি দিচ্ছে। পৃথিবী তাদের দেখতে পেয়েছে বলে তারা খুব খুশি। হাত নেড়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করছে সাতজনই।

গবেষকদের বিশ্বাস, টিআরএপিপিআইএসটি-১ এফ প্রাণধারণের জন‌্য সবচেয়ে উপযুক্ত। এটি পৃথিবীর চেয়ে কিছুটা শীতল। সঠিক বায়ুমণ্ডল ও পর্যাপ্ত গ্রিন হাউজ গ‌্যাসসহ এটা প্রাণের জন‌্য উপযুক্ত হতে পারে।

Sony-has-released-the-world-s-fastest-SD-card 



জাপানি প্রতিষ্ঠান সনি বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুততম এসডি কার্ড উন্মুক্ত করেছে। প্রতিষ্ঠানটির দাবি, এসএফ-জি সিরিজের এই এসডি কার্ডের রাইটিং স্পিড ২৯৯ এমবিপিএসের বেশি। রাইটিং স্পিড বাদেও এই কার্ডের রিড স্পিড ৩০০ এমবিপিএসের বেশি।


সনি জানিয়েছে, এই এসডি কার্ড পানি, তাপমাত্রা এবং এক্স-রে প্রতিরোধী। এছাড়াও এই স্পিডে অনেক বড় আকারের ফাইল খুব দ্রুততার সঙ্গে কম্পিউটারে স্থানান্তর করা যাবে। ৩২ জিবি, ৬৪ জিবি এবং ১২৮ জিবির সংস্করণে পাওয়া যাবে এই কার্ড। তবে এই এসডি কার্ড কিনতে কত খরচ হতে পারে সে বিষয়ে কিছু জানায়নি প্রতিষ্ঠানটি।

এক ব্লগ পোস্টে সনি জানিয়েছে, এই এসডি কার্ড, বিশেষ করে ডিএসএলআর এবং মিররলেস ক্যামেরা ব্যবহারকারী এবং প্রফেশনাল ফটোগ্রাফারদের বাড়তি সুবিধা দেবে। এছাড়া এর দ্রুত রাইট স্পিড ডিজিটাল ইমেজ সেবায় সর্বাধিক কার্যদক্ষতা সমর্থন করবে।

Telenor-India-s-Bharti-Airtel-Acquisition 



টেলিনর ইন্ডিয়াকে অধিগ্রহণ করতে যাচ্ছে ভারতী এয়ারটেল। ২৩ ফেব্রুয়ারি, বৃহস্পতিবার এক ঘোষণায় এমনটাই জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এর আগে ভারতী এয়ার টেল জানিয়েছিলো, অধিগ্রহণ চুক্তি সম্পন্ন হলে ভারতে টেলিনরের প্রায় দেড় হাজার কোটি রুপি ঋণের বোঝা টানতে হবে ভারতী এয়ারটেলকে।


বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, একবারেই সস্তায় ভারতের বাজার মাতানো রিলায়েন্স জিও এর সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকতেই ভারতী এয়ারটেল টেলিনর ইন্ডিয়াকে কিনে নিচ্ছে। টেলিনর কিনে নেওয়ার মাধ্যমে ভারতের ছয়টি রাজ্যে নরওয়ে ভিত্তিক অপারেটরটির বিস্তৃত নেটওয়ার্ক নিজের আওতায় আনতে চায় ভারতী এয়ারটেল। তবে এই অধিগ্রহণের মূল্য এখনও জানায়নি প্রতিষ্ঠানটি।

গত কয়েক বছর ধরে ভারতে টেলিনরের ব্যবসা ভালো যাচ্ছে না। ফলে তারা বেশ আগে থেকেই শেয়ার বিক্রি কিংবা ভারতে সমগ্র ব্যবসা বিক্রির জন্য ক্রেতার সন্ধানে ছিলো।

প্রসঙ্গত, টেলিনরের ডিসেম্বর ২০১৬ পর্যন্ত ৩.৯ শতাংশ মার্কেট শেয়ার এবং ৩৮ মিলিয়ন সক্রিয় ব্যবহারকারী রয়েছে। অন্যদিকে ভারতী এয়ারটেল ২৬.১ শতাংশ মার্কেট শেয়ার নিয়ে বাজারে শীর্ষে রয়েছে।

টেলিনর কেনার ঘোষণার পর পরই বেড়ে গেছে ভারতীয় এয়ারটেলের শেয়ার দর। মুম্বাইতে এয়ারটেলের শেয়ারের দর বেড়েছে ৫.৫ শতাংশ।

Instagram allows you to upload multiple photos together 



সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক মালিকানাধীন ইন্সটাগ্রাম জানিয়েছে, এই প্ল্যাটফর্মে এখন থেকে একসাথে দশটি পর্যন্ত ছবি এবং ভিডিও আপলোড করা যাবে। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই বিশ্বব্যাপী আইওএস এবং অ্যান্ড্রয়েডে এই সুবিধা চালু করা হবে।


একাধিক পোস্ট ছোট ছোট আইকন দিয়ে চিহ্নিত করা যাবে। এই ছবিগুলো আলাদা আলাদাভাবে এডিট করা যাবে অথবা একসঙ্গে সবগুলো ফিল্টার করা যাবে। পুরো অ্যালবামে একটি ক্যাপশনও দেওয়া যাবে। তবে ছবির সাইজগুলো অবশ্যই স্কয়ার সাইজের হতে হবে।

এ বিষয়ে ইন্সটাগ্রামের একজন মুখপাত্র প্রযুক্তি বিষয়ক সংবাদমাধ্যমভেঞ্চারবিট-কে বলেন, অনেক সময়ই আপনি যেকোনো স্মরণীয় অভিজ্ঞতার সবচেয়ে ভালো ছবিগুলো এবং ভিডিও বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে চাইবেন। আর তাই ইন্সটাগ্রামের এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

৬ বছর আগে উন্মুক্ত হওয়া ইন্সটাগ্রামে শুরু থেকেই বেশ কিছু সীমাবদ্ধতা রয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে, সবসময় স্কয়ার, ছোট এবং লো-রেজলিউশনের ছবি সমর্থন করে। বর্তমানে ইন্সটাগ্রামে মাসিক ৬০০ মিলিয়ন সক্রিয় ব্যবহারকারী রয়েছে।

Step-into-the-home-automatic-wireless-charging 


স্মার্টফোনে চার্জিং ব্যবস্থা নিয়ে নানা গবেষণা চলছেই। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি ডিজনি রিসার্চের একদল বিজ্ঞানী এমন এক যন্ত্র তৈরি করেছেন, যার মাধ্যমে কোনো ঘরে থাকা বিভিন্ন যন্ত্রে তারহীন প্রযুক্তির মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে চার্জ দেওয়া যাবে।


ডিজনির এই গবেষণায় বিজ্ঞানীরা দেয়াল, মেঝে ও ছাদ অ্যালুমিনিয়ামের পাত দিয়ে আবৃত ঘর তৈরি করেছেন। এই ঘরের কেন্দ্রে মেঝে থেকে ছাদ পর্যন্ত লম্বালম্বি দুই ইঞ্চি পুরু তামার পাইপ যুক্ত থাকবে। এ পাইপের মধ্য দিয়েই ঘরের মেঝে, ছাদ ও দেয়ালে প্রতি সেকেন্ডে প্রায় ১৩ লাখবার বিদ্যুৎ প্রবাহিত হয়। ফলে ঘরের মধ্যে তড়িৎ চৌম্বকক্ষেত্রের সৃষ্টি হয়। আর এই পরিমাণ বিদ্যুৎ ৩২০টি ইউএসবিভিত্তিক যন্ত্র চার্জ দেওয়ার জন্য যথেষ্ট।

তবে ঘরের কেন্দ্রে মেঝে থেকে ছাদ পর্যন্ত লম্বালম্বি তামার পোলের আশেপাশে কি ধরনের নিরাপত্তা সতর্কতা প্রয়োজন সে বিষয়ে স্পষ্ট কিছু বলা হয়নি।

এতদিন তারহীন প্রযুক্তি ব্যবহার করে সহজেই বাড়ি, আবাসিক হোটেল, রেস্তোরাঁ বানানো একসময় শুধু কল্পনা মনে হলেও এ আবিষ্কারের মাধ্যমে এখন বাস্তবেও তা সম্ভব বলেও মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।

Starting-in-April-Apple-Park 


আগামী এপ্রিলেই চালু করা হচ্ছে টেক জায়ান্ট অ্যাপলের ক্যালিফোর্নিয়ার কুপার্টিনোর নতুন কার্যালয় ‘অ্যাপল পার্ক’। এটির পরিকল্পনা ও তৈরির কাজ শুরু হয়েছিল বেশ কয়েকবছর আগে। সব প্রস্তুতি শেষে এপ্রিলে চালু হতে যাচ্ছে অ্যাপল পার্ক এবং নতুন এই ক্যাম্পাসেই কাজ করবেন প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা।


তবে এপ্রিল থেকে ক্যাম্পাসটি চালু হলেও পুরোপুরিভাবে অ্যাপল পার্ক চালু হতে আরও প্রায় ছয় মাস লেগে যাবে। অ্যাপলের দৃষ্টিনন্দন এই নতুন ক্যাম্পাসে থাকছে স্টিভ জবস থিয়েটার নামে এক হাজার সিটের অডিটরিয়াম। থাকছে অ্যাপল স্টোর, ক্যাফে এবং দর্শনার্থী কেন্দ্র। এগুলো সবার জন্য উন্মুক্ত রাখার কথাও জানানো হয়েছে।

নতুন এই ক্যাম্পাস ১৭ মেগাওয়াটের রুফটপ সৈার প্যানেলের মাধ্যমে শতভাগ নবায়নযোগ্য সৌরশক্তি দিয়ে চলবে। আর এটিই হবে বিশ্বের সর্ববৃহৎ সৌরশক্তি স্থাপন।
Blogger দ্বারা পরিচালিত.