১৫৭ কল সেন্টারের লাইসেন্স বাতিল

157-call-center-license-canceled 

 নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কল সেন্টারের  লাইসেন্স নবায়ন না করায় দেশে সেবা দেওয়া ১৫৭টি প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স বাতিল করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। এর ফলে দেশে এখন শুধু ৪৬টি বৈধ লাইসেন্সধারী কল সেন্টার তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে।


গত রোববার লাইসেন্স বাতিলের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিটিআরসির লিগ্যাল অ্যান্ড লাইসেন্সিং বিভাগের পরিচালক এমএ তালেব হোসেন।

বিটিআরসির হিসাব অনুযায়ী, দেশে লাইসেন্সপ্রাপ্ত মোট কল সেন্টারের সংখ্যা ২০৩টি। এর মধ্যে ১৬০টি কল সেন্টারের লাইসেন্স নবায়ন করার জন্য গত বছর ২৭ সেপ্টেম্বর একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে কমিশন।

ওই প্রজ্ঞাপনে এমএ তালেব হোসেন বলেছিলেন, 'নিয়ম অনুযায়ী পাঁচ বছর পরপর কল সেন্টারের লাইসেন্স নবায়ন করার কথা। কিন্তু এসব প্রতিষ্ঠান মেয়াদপূর্তির পরও নবায়নের আবেদন করেনি। লাইসেন্সের সময় অতিক্রান্ত হওয়ায় এই কল সেন্টারগুলোর কোনো বৈধতা নেই। আগামী ৩০ দিনের মধ্যে প্রতিষ্ঠানগুলো লাইসেন্স নবায়নের আবেদন না করলে পরে আর নবায়নের সুযোগ থাকবে না এবং লাইসেন্স বাতিল করা হবে।'

নবায়ন না করায় এসব কল সেন্টারের অধীনে সব কার্যক্রম অবৈধ এবং বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইনের আওতায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছিল। তবে প্রজ্ঞাপন জারির ৩০ দিনের মধ্যে শুধু তিনটি লাইসেন্স নবায়ন করেছে। অন্যগুলো নবায়ন না করার কারণে প্রায় পাঁচ মাস অপেক্ষা করার পর তাদের লাইসেন্স বাতিল করা হয়।

এর আগে ২০০৮ সালে দেশে কল সেন্টারের লাইসেন্স দেওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। তার কয়েক মাসের মধ্যেই পাঁচ শতাধিক প্রতিষ্ঠানকে লাইসেন্স দেওয়া হয়েছিল।

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কল সেন্টারের লাইসেন্স নবায়ন না করায় দেশে সেবা দেওয়া ১৫৭টি প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স বাতিল করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। এর ফলে দেশে এখন শুধু ৪৬টি বৈধ লাইসেন্সধারী কল সেন্টার তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে।