এবার Valentines Day তে ডেটিং করতে গিয়ে ধরা পড়লেই বিয়ে!

সারা বিশ্ব মেতেছে ভ্যালেনটাইনস ডে (Valentines Day) সেলিব্রেশনে। বাধা কাটিয়ে, ভয় ঘুচিয়ে আজ প্রেম উদযাপন করার দিন। কিন্তু ভয়ে ভয়েই থাকবেন ওড়িশার প্রেমিক প্রেমিকারা। কেননা তাদের উপর জোর হুমকি, প্রেম করছে দেখতে পেলেই ধরে বিয়ে দিয়ে দেয়া হবে।

 


ভ্যালেনটাইনস ডে (Valentines Day) যদিও স্রেফ কিশোর প্রেমিক প্রেমিকাদের জন্য নয়, চিরন্তন ভালোবাসাকে উদযাপনের দিনও। কিন্তু হরেদরে পুরো দিনটা যেন তরুণ যুগলদের জন্যই তুলে রাখা থাকে।

এদিকে বজরঙ্গ দলের আবার এসব একেবারেই না-পছন্দ। কেননা, তারা মনে করে, ভ্যালেনটাইনস ডে (Valentines Day) ভারতীয় সভ্যতা ও সংস্কৃতির পরিপন্থী। তাছাড়া ভ্যালেনটাইনস ডে (Valentines Day) উদযাপনের নামে অল্পবয়সি প্রেমিক প্রেমিকারা নানারকম ‘কুকর্ম’ করে থাকে বলেও তাদের অভিযোগ। আর তাই ভ্যালেনটাইনস ডে (Valentines Day) উদযাপনে একেবারে দাঁড়ি টানতে চেয়েছে তারা।

প্রতিবছরই ভ্যালেনটাইনস ডে (Valentines Day) এর প্রাক্কালে এই ইস্যুতে সরব হয় দলটি। এবারও তার ব্যতিক্রম নয়। যুগলদের হুমকি দিয়ে জানানো হয়েছে, প্রেম করছে এই অবস্থায় হাতেনাতে ধরতে পারলে, যুগলের মা-বাবার সামনেই তাদের বিয়ে দিয়ে দেয়া হবে। পার্ক থেকে শপিং মল রেহাই নেই কোথাও।

যদিও প্রেমে পড়া বা প্রেম করা কোনোটাই অপরাধ নয়। বরং নির্দিষ্ট বয়স না হলে বিয়ের পিঁড়িতে বসা গর্হিত। তাহলে কেন এ ধরনের হুমকি? তার অবশ্য উত্তর নেই। তবে দেশের সংস্কৃতির হাল ফেরাতে ভ্যালেনটাইনস ডে (Valentines Day) সেলিব্রেশন যে বন্ধ হওয়া উচিত, এ ব্যাপারে কোনো দ্বিমত নেই বজরঙ্গ দলের।

প্রতিবছরই ভ্যালেনটাইনস ডে (Valentines Day)র প্রাক্কালে এই ইস্যুতে সরব হয় দলটি। এবারও তার ব্যতিক্রম নয়। যুগলদের হুমকি দিয়ে জানানো হয়েছে, প্রেম করছে এই অবস্থায় হাতেনাতে ধরতে পারলে, যুগলের মা-বাবার সামনেই তাদের বিয়ে দিয়ে দেয়া হবে। পার্ক থেকে শপিং মল রেহাই নেই কোথাও।