পাঁচ লাখ টাকা ফেরত দেবেন বাপ্পি

Bappi-five-million-will-refundচলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির আহ্বানে গোপন সংকেত ছবির চুক্তির সময় পারিশ্রমিকের আংশিক নেওয়া পাঁচ লাখ টাকা ফেরত দিতে রাজি হয়েছেন বািপ্প


শিডিউল ফাঁসানোর অভিযোগ এনে ছবির নায়ক বাপ্পীর বিরুদ্ধে সম্প্রতি চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতিতে অভিযোগ করেন গোপন সংকেত ছবির পরিচালক তাজুল ইসলাম। সেই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে গত মঙ্গলবার পরিচালক সমিতির নেতারা সমাধানের জন্য উভয় পক্ষকেই ডাকেন। দীর্ঘ আলোচনা শেষে পারিশ্রমিক বাবদ নেওয়া পাঁচ লাখ টাকা বাপ্পীকে ৩০ মার্চের মধ্যে পরিচালক সমিতির সভাপতির হাতে ফেরত দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

এ ব্যাপারে ছবির পরিচালক তাজুল বলেন, ‘বাপ্পীর বিরুদ্ধে আমার একটাই অভিযোগ, শিডিউল ফাঁসানো। দুই দিন কাজ করার পর থেকেই টালবাহানা শুরু করেন। বাধ্য হয়েই পরিচালক সমিতিতে অভিযোগ করেছি আমি

তবে বিষয়টির সঙ্গে একমত নন বাপ্পী। তাঁর কথা, ছবিতে চুক্তির সময়ই আমি বলেছিলাম মাহি অথবা পরীকে ছবিতে নেওয়া হলে কাজ করব। তাতে রাজি হয়েই তাঁরা এই ছবির জন্য আমাকে চুক্তিবদ্ধ করেন। কিন্তু পরে সেই কথা রাখেননি ছবির প্রযোজক-পরিচালক কেউ।’

বাপ্পী বলেন, প্রথমে রাফিয়া তিশা, তারপর পিয়া বিপাশা, এরপর আলভিরা ইমুকে ছবিতে নেওয়া হয়। তারপরও নতুন নায়িকা নিয়ে গত ১০ ফেব্রুয়ারি থেকে শুটিং শুরু করেন তিনি।

এই অভিনেতা বলেন, ‘দুই দিন কাজ করার পর দেখলাম এই নায়িকার সঙ্গে কাজ করলে আমার ইমেজের ক্ষতি হবে। তারপরও কাজটি করতে চেয়েছিলাম। এরপর অসুস্থ হয়ে পড়ার কারণে তৃতীয় দিন থেকে শুটিংয়ে অংশ নিতে পারিনি। কিন্তু ছবির পরিচালক তা বিবেচনা না করেই আমার বিরুদ্ধে পরিচালক সমিতিতে মিথ্যা-বানোয়াট অভিযোগ দিয়েছেন।’

এদিকে পাঁচ লাখ টাকা ফেরত দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন বলেন, ‘অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতেই তাঁদের ডাকা হয়েছিল। কিন্তু আলোচনা করতে গিয়ে দেখা গেল একে অন্যের বিরুদ্ধে অভিযোগগুলোর কোনো দালিলিক প্রমাণ নেই। দুই পক্ষেরই দোষ আছে। তাই কোনো আলাদা জরিমানা করা হয়নি। তবে আমরা বলেছি, পরবর্তী সময়ে এমন পরিস্থিতি হলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। যেহেতু ওই ছবিতে বাপ্পী আর থাকছেন না। তাই সবার সম্মতিক্রমে চুক্তির সময় নেওয়া পাঁচ লাখ টাকা বাপ্পীকে ফেরত দিতে বলা হয়েছে।’

চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির আহ্বানে গোপন সংকেত ছবির চুক্তির সময় পারিশ্রমিকের আংশিক নেওয়া পাঁচ লাখ টাকা ফেরত দিতে রাজি হয়েছেন বািপ্প