অভিযোগ ৩১৩টি, ফেসবুক জবাব দিয়েছে ১৬৭টি

দীর্ঘদিন নীরব থাকলেও অবশেষে বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন বিষয়ের জবাব দিচ্ছে সামাজিক যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম ফেসবুক। এমনকি কিছু কিছু বিষয়ের সমাধানও পাওয়া যাচ্ছে ফেসবুক থেকে।


জানা গেছে, গত তিন বছরে সরকারের পক্ষ থেকে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করা হয়েছিল ৩১৩টি। সাড়া মিলেছে ১৬৭টির। ফেসবুকের এই জবাব দেওয়ার হার ২৬ শতাংশ থেকে বর্তমানে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৯ শতাংশে। ভবিষ্যতে এ হার আরও বাড়বে বলে আশা প্রকাশ করেছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিমন্ত্রী।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম জানান, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের সঙ্গে দু’তিন বছর আগে আমাদের যোগাযোগ তেমন একটা ছিল না। কিন্তু বিভিন্ন চেষ্টার কারণে এখন সাড়া পাচ্ছি। এ বিষয়ে যে পরিসংখ্যান দিতে পারি সেটা হল- ২০১৪ এবং ২০১৫ সালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের (ফেসবুক) কাছে আমরা অনুরোধ পাঠিয়েছিলাম ৬৪টি। তখন তারা সাড়া দিয়েছিল মাত্র ১৭টি অভিযোগের।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘২০১৫-১৬তে তাদের সঙ্গে আমরা যোগাযোগ বৃদ্ধি করলে সুফল পেতে শুরু করি। যেমন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আমরা বিটিআরসির মাধ্যমে অনুরোধ পাঠিয়েছিলাম ২০৩টি, এগুলোর মধ্যে ব্যবস্থা গৃহীত হয় ১১৪টি। যা ৫৬.১৬ শতাংশ। তারপর আমরা ২০১৭ সালের মার্চ পর্যন্ত আমরা অনুরোধ পাঠিয়েছি ৪৬টি এবং সাড়া মিলেছে ৩৬টি। শতাংশের হিসেবে এটা ৭৯ শতাংশ।’

বৃহস্পতিবার বিকালে নিজ মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত এক ব্রিফিংয়ে প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ‘এতে স্পষ্টই বোঝা যায় ২০১৪ সাল থেকে আমরা যতটা অভিযোগ বা অনুরোধ পাঠাচ্ছি, সে বিষয়ে ক্রমাগত ফেসবুকের সাড়া দেওয়ার হার বাড়ছে এবং ইতিবাচক সাড়া পাচ্ছি।’

দীর্ঘদিন নীরব থাকলেও অবশেষে বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন বিষয়ের জবাব দিচ্ছে সামাজিক যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম ফেসবুক। এমনকি কিছু কিছু বিষয়ের সমাধানও পাওয়া যাচ্ছে ফেসবুক থেকে।