ক্যাপচা থেকে সরে আসছে গুগল

Captcha coming away from Google 


ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা মোটামুটি সবাই কমবেশি ক্যাপচার সাথে পরিচিত আছেন। ইন্টারনেটে স্বয়ংক্রিয় রোবট এবং কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন কম্পিউটার প্রোগ্রামকে ঠেকাতে ব্যবহৃত হয় এই ক্যাপচা।


যাতে ওয়েব ভিত্তিক কোন সেবায় ঢুকতে গেলে সিস্টেমটি বুঝতে পারে যিনি ঢুকছেন তিনি একজন সত্যিকারের মানুষ।

কিন্তু এই ক্যাপচা প্রায় সময়ই চরম বিরক্তির কারণ হয়ে দাড়ায় ব্যবহারকারীদের জন্য। তাই এবার সত্যিকারের মানুষ বোঝার জন্য এতদিন ব্যবহৃত হয়ে আসা ক্যাপচা থেকে সরে আসছে সার্চ জায়ান্ট গুগল।

২০০৯ সালে রি-ক্যাপচা কেনার পর ২০১৩ সালে এই ক্যাপচা পদ্ধতি সর্বক্ষেত্রে ব্যবহার শুরু করেছিল গুগল। যেখানে ‘আই এম নট এ রোবট’ চেক বক্সে টিক দিয়ে তারপর নানা ধরণের ক্যাপচা দেয়ার প্রচলন ছিল।

তবে গুগল জানিয়েছে, তারা বহু দিন ধরে লক্ষ্য করে দেখেছে যে, এই ক্যাপচা পদ্ধতি মানুষ এবং যন্ত্র দুটোর জন্যই ঝামেলাপূর্ণ হয়ে দাড়াচ্ছিলো।
ক্যাপচা উঠে গেলেও নিরাপত্তার ইস্যুতে কিন্তু আপোষ করছে না গুগল। বরং এবার তারা ক্যাপচার থেকেও আরও আধুনিক এবং সময়োপযোগী পদ্ধতি নিয়ে আসছে।

এই পদ্ধতিতে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদেরকে ক্যাপচার পরিবর্তে বরং তাদের দৈনন্দিন ইন্টারনেট ব্যবহারের ইতিহাস থেকে চিহ্নিত করা হবে যে সে সত্যিকারের মানুষ কিনা। পুরো কাজটি করা হবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন প্রযুক্তির সাহায্যে।

তাই নতুন প্রযুক্তি পুরনো প্রযুক্তির তুলনায় কতটা কার্যকরভাবে কাজ করতে পারবে তা দেখতে নিশ্চয়ই অপেক্ষায় আছেন এখন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা।

ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা মোটামুটি সবাই কমবেশি ক্যাপচার সাথে পরিচিত আছেন। ইন্টারনেটে স্বয়ংক্রিয় রোবট এবং কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন কম্পিউটার প্রোগ্রামকে ঠেকাতে ব্যবহৃত হয় এই ক্যাপচা।