আসছে সমুদ্রের তেল শুষে নেবার অভিনব পদ্ধতি

 



সাগর থেকে তেল উত্তোলনের সময়ে প্রচুর পরিমাণে তেল পানিতে ছড়িয়ে পড়তে পারে বিভিন্ন দুর্ঘটনায়। মিলিয়িন মিলিয়ন গ্যালন তেলের কিছুটা সাগরের পৃষ্ঠে উঠে আসে যেখানে এটাকে ছেঁকে নেওয়া হয় অথবা পুড়িয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু অনেক তেল পানির পৃষ্ঠের নিচেই ভেসে থাকে। এগুলোকে পানি থেকে অপসারণের পদ্ধতি আবিষ্কার হলো সম্প্রতি।


ইউএস ডিপার্টমেন্ট অফ এনার্জি (DOE) আর্গন ন্যাশনাল ল্যাবোরেটরি অলিও স্পঞ্জ নামের একটি ফোম আবিষ্কার করেছে যা পানিতে ছড়িয়ে পড়া তেলের সমস্যাটি দূর করতে সক্ষম। এই পদার্থটি যে শুধু পানি থেকে তেল আলাদা করে শুষে নেয় তাই নয়, বরং এটাকে বার বারই ব্যবহার করা যায়। আর এটা পানির গভীর থেকেও তেল শুষে নিতে পারে, শুধু পৃষ্ঠ থেকে নয়। তেল এবং পেট্রোলিয়াম জাতীয় পদার্থের ক্ষেত্রে এটি কার্যকর। ব্যবহারের পর তেল চিপে বের করে নিয়ে আবারও একে কাজে লাগানো যায়।

এই স্পঞ্জ ব্যবহারে রয়েছে অনেক সম্ভাবনা, জানান একজন উদ্ভাবক সেথ ডার্লিং। তিনি আর্গন সেন্টার ফর ন্যানোস্কেল ম্যাটেরিয়ালস এর একজন বিজ্ঞানী এবং ইউনিভার্সিটি অফ শিকাগোর ইন্সটিটিউট ফর মলিকুলার এঞ্জিনিয়ারিং এর একজন ফেলো।

ইতোমধ্যেই অনেক স্পঞ্জ আছে যা তেল শুষে নিতে পারে, কিন্তু এগুলোর ব্যবহারিক প্রয়োগ তেমন ভালো নয়। গবেষকেরা সাধারণ পলিইউরেথ্রিন ফোম দিয়েই কাজ শুরু করেন। এগুলো আমাদের ঘরোয়া কুশন, ম্যাট্রেস হিসেবে ব্যবহার হয়। এগুলোর ভেতরে তেল ধরে রাখার অনেক জায়গা আছে। কিন্তু এটা যাতে তেল বেশ করে শুষে নিতে পারে তার জন্য এতে পরিবর্তন আনেন গবেষকেরা। কিছু গবেষণার পর ফোমের ওপর একটি সূক্ষ্ম স্তরে মেটাল অক্সাইডের “প্রাইমার” প্রলেপ দেওয়া হয়। এর ওপরে অয়েল-লাভিং মলিকুল এক প্রলেপ দেওয়া হয়, যে একদিক দিয়ে মেটাল অক্সাইডের সাথে যুক্ত থাকে, আরেকদিক দিয়ে সে পানি থেকে তেলের অণু ধরে রাখে। এটাই হলো অলিও স্পঞ্জ। এই টেকনোলজি ব্যবহার করে অন্যান্য পদার্থ পরিষ্কারের ক্ষেত্রেও কাজে লাগানো যেতে পারে বলেন গবেষকেরা।

সাগর থেকে তেল উত্তোলনের সময়ে প্রচুর পরিমাণে তেল পানিতে ছড়িয়ে পড়তে পারে বিভিন্ন দুর্ঘটনায়। মিলিয়িন মিলিয়ন গ্যালন তেলের কিছুটা সাগরের পৃষ্ঠে উঠে আসে যেখানে এটাকে ছেঁকে নেওয়া হয় অথবা পুড়িয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু অনেক তেল পানির পৃষ্ঠের নিচেই ভেসে থাকে। এগুলোকে পানি থেকে অপসারণের পদ্ধতি আবিষ্কার হলো সম্প্রতি।