লাইটেনিং পোর্ট থাকছে না নতুন আইফোনে

The-new-iPhone-will-not-be-the-lightning-port 


গত কয় দিনে অনেকগুলো ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন প্রকাশিত হতে দেখা গেছে। কিন্তু বড় একটি ঘোষণা এখনও প্রযুক্তি দুনিয়ার মানুষগুলোকে অপেক্ষায় রেখেছে।


আর তা হলো অ্যাপলের আসন্ন আইফোন, যেটা সাধারণত আইফোন ৮ নামেই ডাকা হচ্ছে। আবার কখনও কখনও আইফোনের ১০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুযায়ীও নাম ধরা হচ্ছে। তবে যে নামেই ডাকা হোক, এখনও কিন্তু আসলে এর নাম কি হচ্ছে তা জানা যায়নি।

প্রযুক্তি বিষয়ক সংবাদ মাধ্যম প্রতিবেদনগুলোতে বলা হচ্ছে, অ্যাপলের নতুন এই আইফোনে প্রতিষ্ঠানটির নিজস্ব লাইটেনিং পোর্টের পরিবর্তে ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট থাকবে। সংশ্লিষ্ট কিছু সুত্র থেকে তথ্যটি প্রাপ্ত বলেও উল্লেখ করা হয় সেই প্রতিবেদনে।

তাই এখন আলোচকরা মন্তব্য করছেন, খবরটি যদি সত্যি হয়ে থাকে তাহলে অ্যাপলের এই লাইটেনিং ফিচারটি সরিয়ে ফেলার সিদ্ধান্ত খুব সাধারণভাবে স্মার্টফোন শিল্পের মান বজায় রাখবে।

ভিত্তিহীন এমন খবরের পরিপ্রেক্ষিতে এখন সামনে আসছে সেই ২০১২ সালে টিম কুকের আনুষ্ঠানিকভাবে লাইটেনিং ফিচারটি পরিচয় করে দেয়ার বিষয়টি। যখন ৩০ পিনের কানেক্টর বাদ দিয়ে লাইটেনিং পোর্ট বসানো হয়। সেই হিসাবে এটি অ্যাপলের দ্বিতীয় পরিবর্তন হতে যাচ্ছে।

এই তথ্যের পাশাপাশি কার্ভড বা বাকানো ওলেড ডিসপ্লের কথাও বলা হয়েছে, তবে থাকবে না হোম বাটন। সম্প্রতি এ তথ্যটি নিয়ে বহু গুজবও বের হয়েছে। সেই গুজবে বলা হয়, নতুন আইফোনে ৫.৮ ইঞ্চির ওলেড ডিসপ্লে থাকবে এবং হোম বাটন সরিয়ে ফেলা হবে। আর স্থানটি ‘ফাঙ্কশন এরিয়া’ হবে।

যেহেতু এগুলো কেবল গুজব, তাই সম্পূর্ণভাবে এসব বিশ্বাস করাটা্ ঠিক না যতক্ষণ না নির্মাতা প্রতিষ্ঠান থেকে কোনো তথ্য নিশ্চিত না করা হচ্ছে।

গত কয় দিনে অনেকগুলো ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন প্রকাশিত হতে দেখা গেছে। কিন্তু বড় একটি ঘোষণা এখনও প্রযুক্তি দুনিয়ার মানুষগুলোকে অপেক্ষায় রেখেছে।