ডিজিটাল তদারকির আওতায় আসবে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

 


অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনারোধে বাংলাদেশ রিসার্চ অ্যান্ড এডুকেশন নেটওয়ার্কের (বিডিআরইএন) মাধ্যমে সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়কেডিজিটাল তদারকি সিস্টেমের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 


১ মার্চ বুধবার সংসদে নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকারি দলের সংসদ সদস্য মোরশেদ আলমের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিডিআরইএন-এর মাধ্যমে পাইলট ভিত্তিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও চট্টগ্রাম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ডিজিটাল তদারকি ব্যবস্থা জোরদার করার জন্য সিসি ক্যামেরা ও একসেস কন্ট্রোল ডিভাইস স্থাপন করা হচ্ছে। অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনারোধে এ ব্যবস্থা কার্যকর প্রমাণিত হলে বাকি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতেও তা চালু করা হবে।’

স্বল্প আয়ের মানুষের আবাসন সমস্যা সমাধানের জন্যে সরকার ৪৯৪টি আবাসন প্লট এবং ৪ হাজার ৫১১টি ফ্ল্যাট নির্মাণ কার্যক্রম গ্রহণ করেছে বলেও সংসদে এক প্রশ্নেরে উত্তরে জানান শেখ হাসিনা।

তিনি জানান, দেশের ১৮টি জেলায় ৪৫টি প্রকল্পের মাধ্যমে এসব প্লট ও ফ্ল্যাট নির্মাণ কাজ বাস্তবায়িত হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদের আবাসন সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে বর্তমানে বিদ্যমান আবাসন সুবিধা ৮ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৪০ শতাংশে উন্নীত করেছে। দেশের প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদের আবাসন সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে ঢাকার লালমাটিয়া ও মিরপুরে পরিকল্পিত ৯০২টি আবাসিক ফ্ল্যাট বরাদ্দ প্রাপ্তদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ঢাকার লালমাটিয়ায় ১৫৩টি, মিরপুর ১৫ নম্বর সেকশনে ৫২০টি, ৯ নম্বর সেকশনে ১ হাজার ৪০টি এবং মোহাম্মদপুরে ৯শ’টিসহ বিভিন্ন আয়তনের আবাসিক ফ্ল্যাটের বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে বলেও জানান শেখ হাসিনা।

অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনারোধে বাংলাদেশ রিসার্চ অ্যান্ড এডুকেশন নেটওয়ার্কের (বিডিআরইএন) মাধ্যমে সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়কেডিজিটাল তদারকি সিস্টেমের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।