আপনার স্কিন কেয়ার প্রোডাক্ট কী পরিবর্তন করা উচিৎ?

 

যখন ব্যায়ামের কথা আসে তখন ভালো ফলাফল পাওয়ার জন্য আপনার ফিটনেস রুটিনটিকে সমন্বয় করার প্রয়োজনীয়তার কথাও চলে আসে। । কিন্তু আপনার কসমেটিক পণ্যের  ক্ষেত্রে কী করেন আপনি? আপনি কী একই ধরনের কসমেটিক পণ্য সব সময় ব্যবহার করেন? তাহলে এই বিষয়ে একজন ডারমাটোলজিস্ট এর পরামর্শ জেনে নিই চলুন। 


একই ধরনের কসমেটিক পণ্য দীর্ঘদিন যাবৎ ব্যবহার করলে কোন সমস্যা নেই যদি সেটা আপনার ত্বকের জন্য উপযোগী হয়। বয়স, হরমোনের পরিবর্তন এবং স্ট্রেসের কারণে আপনার ত্বক পরিবর্তিত হতে পারে। তাই আপনার ত্বকের প্রয়োজনীয়তার উপর নির্ভর করে আপনার ত্বকের যত্নের রুটিনেও পরিবর্তন আনতে হবে। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, নির্দিষ্ট কয়েক মাস আপনার ত্বক শুষ্ক বা তৈলাক্ত থাকতে পারে অন্য মাসের চেয়ে। তাই যখন আপনার ত্বক শুষ্ক থাকবে তখন আপনি ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে পারেন আপনার শুষ্ক ত্বকের মোকাবেলায়। যদি পরিবর্তনের কারণে আপনার ত্বকের সমস্যা হয়, আপনার ত্বকে যদি পণ্যটি কাজ না করে তাহলে আপনি সেটা বুঝতে পারবেন। আপনার সেই পণ্যটি পরিবর্তন করার সময় এসেছে বুঝতে পারবেন আপনি।

আপনার ত্বকের পরিচর্যার পণ্য খুব ঘন ঘন পরিবর্তন করা উচিৎ নয়। যদি কোন পণ্য আপনার ত্বকের জন্য উপযুক্ত না হয় তাহলে ত্বকে যন্ত্রণা হতে পারে বা ত্বক শুষ্ক হয়ে যেতে পারে। ত্বকে কোন ধরনের সমস্যা দেখা দিলে একজন চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের সাথে যোগাযোগ করা প্রয়োজন। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক আপনার ত্বক পরীক্ষার মাধ্যমে ও উপসর্গ দেখে আপনার সমস্যা শনাক্ত করবেন এবং সে অনুযায়ী আপনাকে পরামর্শ দেবেন যাতে আপনি অপ্রয়োজনীয় কসমেটিকস এর পরিবর্তে ত্বকের উপযোগী কসমেটিক ব্যবহার করতে পারেন।

পরিশেষে বলা যায় যে, একই পণ্য সব সময় ব্যবহার করলে তা আপনার জন্য উপকারী নাও হতে পারে যদি না আপনি আপনার ত্বকের প্রয়োজনীয়তার উপর নির্ভর করে আপনার কসমেটিকগুলোর প্রয়োজনীয় সমন্বয় না করেন। এটাও মনে রাখবেন যে, কোন জিনিসই অতিরিক্ত করা ভালো নয়। গাদা গাদা রাসায়নিক ফেস প্যাক ব্যবহার করলে এবং স্ক্রাব করলে ত্বকের ক্ষতিই শুধু হবে।

যখন ব্যায়ামের কথা আসে তখন ভালো ফলাফল পাওয়ার জন্য আপনার ফিটনেস রুটিনটিকে সমন্বয় করার প্রয়োজনীয়তার কথাও চলে আসে। । কিন্তু আপনার কসমেটিক পণ্যের ক্ষেত্রে কী করেন আপনি? আপনি কী একই ধরনের কসমেটিক পণ্য সব সময় ব্যবহার করেন? তাহলে এই বিষয়ে একজন ডারমাটোলজিস্ট এর পরামর্শ জেনে নিই চলুন।