কলড্রপ ও ক্ষতিপূরণের তথ্য প্রতি মাসে জানাতে হবে: তারানা হালিম


এখন থেকে প্রতি মাসে কলড্রপের হার ও গ্রাহককে প্রদত্ত ক্ষতিপূরণের পরিমাণ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা, বিটিআরসিকে পাঠাতে মোবাইল অপারেটরদের নির্দেশ দিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। 


সোমবার বিকেলে সচিবালয়ে মোবাইল অপারেটরদের সঙ্গে এক বৈঠকে তিনি এ নির্দেশ দেন। বৈঠকে ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব ফয়জুর রহমান চৌধুরী, গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা  পিটার ফারবার্গ, রবির ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ, বাংলালিংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও এরিক অস, টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গিয়াস উদ্দিন আহমেদ এবং সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের প্রতিমন্ত্রী বলেন, গ্রাহক পর্যায় থেকে কলড্রপের অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্নভাবে পাওয়া অভিযোগ বৈঠকে অপারেটরদের সামনে তুলে ধরা হয়। গ্রাহকদের অভিযোগ মূল্যায়ন করেই অপারেটরদের প্রতিমাসে আর্ন্তজাতিক টেলিকম ইউনিয়ন, আইটিইউ নির্ধারিত মানের বাইরে কি পরিমাণ কলড্রপ হচ্ছে, কতটি কলড্রপের ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়েছে, এসএমএসের মাধ্যমে গ্রাহককে জানানো হয়েছে কি'না, এসব বিষয়ে বাধ্যতামূলকভাবে বিটিআরসিতে প্রতিবেদন দিতে অপারেটরদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  

তিনি আরও বলেন, অপারেটররা যে কাগজপত্র দেখিয়েছেন এবং  বিটিআরসির মতামত ধর্তব্যে নিয়ে দেখা যায়,আইটিইউর  নির্ধারিত কলড্রপের যে মান আছে তার নিচেই কলড্রপ হচ্ছে। এরপরও এর অতিরিক্ত কলড্রপ হলে অপারেটররা ক্ষতিপূরণ দিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন এবং গ্রাহককে এসএমএস এর মাধ্যমে অবগত করার কথাও জানিয়েছেন। তাদের এ তথ্যের সত্যতা যাচাই এবং মান সম্পন্ন সেবা নিশ্চিত হচ্ছে কি'না তা পর্যবেক্ষণে রাখতেই তাদের প্রতি মাসে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।