ফেসবুকে ‘এনগেজমেন্ট’ বাড়ানোর সহজ কৌশল



পরস্পরের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষার মাধ্যম হিসেবে ফেসবুক দারুণ, তেমনি ব্যবসা সম্প্রসারণেও। ধরুন, আপনার একটা ফেসবুক পেজ আছে। সেখানে শখের নকশিকাঁথা বিক্রি করেন। তাই আপনাকে নিয়মিত পেজের ফ্যানদের এনগেজ করার দরকার পড়ে। আপনি আরও চান। ফ্যান নয় কিন্তু ফেসবুকে আছে, তারা আপনার নকশিকাঁথা সম্পর্কে জানুক। কীভাবে জানাবেন? বিজ্ঞাপন! ওরে বাবা, সেটা তো ম্যালা টাকা-পয়সার ব্যাপার। সেরা উপায় হলো, কনটেন্ট তৈরির মাধ্যমে ফ্যানদের এনগেজ করা। এনগেজমেন্ট হলো ফেসবুকে লাইক, কমেন্ট ও শেয়ারের সামষ্টিক ফলাফল। এনগেজমেন্টের সহজ ১০টি কৌশল জানানো হলো:


১. ব্যক্তিত্বের পরিপূর্ণ প্রকাশ ঘটান

ফেসবুক কিন্তু পাড়ার মোড়ের চায়ের দোকানের আড্ডার মতোই। পাড়ার সবকিছু নিয়ে সেখানে আলোচনা হয়। তাই আপনার ব্যবসায়িক পেজে যাই কিছু পোস্ট করেন না কেন, সেখানে ব্র্যান্ড পার্সোনালিটির ঠিক ঠিক প্রকাশ ঘটান। যাতে ব্যবহারকারী বুঝতে পারে আপনার ব্র্যান্ড বা পণ্য কেমন।


২. প্রশ্ন করুন

এনগেজমেন্ট বাড়ানোর একটি ভালো উপায় হলো ফ্যান-ফলোয়ারদের কাছে প্রশ্ন রাখা। এজন্য আপনি ফিল ইন ব্ল্যাঙ্ক ধরনের প্রশ্ন করতে পারেন। আবার পপআপ টাইপের প্রশ্ন করতে পারেন। যেমন একটা উদাহরণ দিই। লাক্সারি গাড়ির কথা মনে হলে, আপনার কোন গাড়ির কথা প্রথমে মাথায় আসে? ফ্যানদের কাছে এরকম প্রশ্ন করুন। দেখবেন, তারা আপনার পোস্টে কমেন্ট করতে শুরু করেছে।



৩. ছবি ব্যবহার করুন

কথায় আছে, এক হাজার শব্দের চেয়ে একটি ছবি উত্তম। কারণ, একটি ছবি অনেক কিছু বলে দেয়। তাই আপনি যদি আপনার পোস্টে বেশি এনগেজমেন্ট পেতে চান, তাহলে ছবি ব্যবহার করুন। ছবির সঙ্গে অবশ্য প্রাসঙ্গিক তথ্য জুড়ে দেবেন।



৪. কোম্পানির তথ্য দিন

ফেসবুককে মার্কেটিং টুলস হিসেবে ব্যবহার করতে চান? চমৎকার। তবে, ফেসবুক-কে শুধু পণ্য বিক্রির মাধ্যম বানাবেন না! আপনি আপনার কর্মীদের ছবি দিন। ক্রেতারা আপনার পণ্য ব্যবহার করে কি বলে, সেটা তুলে ধরুন। যে শহরে আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সেখানকার কিছু কিছু বিষয় তুলে আনুন। দেখবেন, এনগেজমেন্ট অনেক বেড়ে গেছে।



৫. সুনির্দিষ্ট উদ্দেশ্যে স্থির থাকুন

ছোট্ট একটা গবেষণা করুন। আপনার দেওয়া আগের পোস্টগুলো দেখুন। সেখানে দেখুন কোন পোস্টগুলো লোকজন লাইক দিয়েছে, কমেন্ট করেছে, শেয়ার দিয়েছে। সেই ধরনের পোস্ট বেশি করে দিন। ফেসবুক অ্যালাগারিদম আপনাকে বেশি বেশি অর্গানিক রিচ এনে দেবে।


৬. ফ্যান কনটেন্ট ব্যবহার করুন

সামাজিক মাধ্যমে হলো সুখ-দুঃখ, আনন্দ-বেদনা, হাসি-কান্না সবকিছু ভাগাভাগি করে নেওয়ার জায়গা। এর মাধ্যমে ফ্যানদের মাধ্যমে একটা চমৎকার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তাই ফ্যানদের কনটেন্ট যেটা আপনার ব্যবসার উদ্দেশ্যের সঙ্গে যায়, সেগুলো শেয়ার দিন।



৭. পোস্ট সিম্পল রাখুন

সব সময় লম্বা পোস্ট দেওয়ার দরকার নাই। ফ্যানদের অল্প কথায় আপডেট দিন। এগুলো এনগেজমেন্টে বেশ ভালো ভূমিকা রাখবে। অনেক সময় ছবি, লিংক ও ভিডিওর চেয়ে সিম্পল একটি লেখা পোস্টই বেশি এনগেজমেন্ট এনে দেয়।



৮. লক্ষ্যে অবিচল থাকুন

লাক্সের বিজ্ঞাপন নিশ্চয়ই দেখেছেন। সেই বিজ্ঞাপনে একটি বিষয় খেয়াল করেছেন? সবসময় তারা একই বিষয় কমিউনিকেট করছে- লাক্স হলো তারকাদের সাবান। হাল আমলের বিদ্যা সিনহা মিম থেকে ২০-৩০ বছর আগের সুবর্ণা, মিমি, বিপাশাদের করা বিজ্ঞাপনেও একই মেসেজ পাবেন। তাই আপনার ব্র্যান্ডকে সবাই যেমন জানে, সেভাবেই থাকার চেষ্টা করুন।



৯. ফ্যান-ফলোয়ারদের ভালোবাসুন

ফ্যান-ফলোয়ার হলো আপনার পেজের প্রাণভোমরা। তারাই আপনার পেজকে সচল রাখবে। ব্র্যান্ডকে অন্য সবার কাছে নিয়ে যাবে। তাই যারা আপনার পেজেকে অন্য সবার কাছে নিয়ে যাচ্ছে, তাদের স্বীকৃতি দিন।



১০. মজা করুন

আপনার পেজের কোনও পোস্ট ভাইরাল হলে নিশ্চয় আপনার ভালো লাগে। কেননা, এটা আপনার পেজের এনগেজমেন্ট অনেক বাড়িয়ে দেয়। তাই মজার কিছু বানানোর চেষ্টা করুন। ফ্যানদের প্রাসঙ্গিক প্রশ্ন জিজ্ঞেস করুন। এতে আপনার পেজের এনগেজমেন্ট বাড়বে। যার ফল পাবেন পরবর্তী পোস্টগুলোতে।

সূত্র: পোস্টপ্ল্যানার ডট কম