যান চলাচল শুরু

 


 টানা ৩৩ ঘণ্টার পরিবহন ধর্মঘটের পর বুধবার বিকেল সাড়ে তিনটার পর যান চলাচল স্বাভাবিক হতে শুরু করে। গাবতলী, সায়েদাবাদ, মহাখালী বাসস্ট্যান্ড থেকে দূরপাল্লার গাড়ি ছেড়ে যেতে শুরু করেছে।আন্তঃজেলা বাস চলাচল রাতে পুরোপুরি শুরু হবে বলে জানিয়েছেন বাস চালক ইউনিয়নের নেতারা।


এর আগে দুপুরে মতিঝিলের পরিবহন ভবনে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে এ সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি ও  নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান। এরপর বেলা আড়াইটায় সড়ক পরিবহন শ্রমিকদের কর্মবিরতির কারণে সৃষ্ট অচলাবস্থায় দুঃখ প্রকাশ করে তিনি শ্রমিকদের কাজে ফেরার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘আমাদের বিশ্বাস, এ অনুরোধের ফলে সড়ক যোগাযোগ স্বাভাবিক হবে।’

গাবতলী এলাকাঘুরে দেখা যায়, এরপরও সিদ্ধান্ত অমান্য করে যান চলাচলে বাধা দিচ্ছেন কিছু শ্রমিক। তারা গাবতলীতে থেকে বাস ছেড়ে যেতে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করছে। যদিও ঢাকা জেলা বাস চালক ইউনিয়নের কার্যনির্বাহী সদস্য জাহাঙ্গীর আলম  বলেন, ‘তারা পরিবহন শ্রমিক নন। বিনা কারণে তারা বাধা দিচ্ছেন।’ এ সময় ঢাকা জেলা যানবাহন মালিক সমিতির সভাপতি আব্বাস উদ্দিন বলেন, ‘প্রত্যাহারের মেসেজ সবার কাছে পৌঁছায়নি। তাই এমনটি হয়েছে। আশা করি আধা ঘণ্টার মধ্যে স্বাভাবিক যান চলাচল শুরু হবে।’

মানিকগঞ্জে তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীরসহ পাঁচজন নিহতের ঘটনায় এক বাস চালকের যাবজ্জীবন সাজা হওয়ায় ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে খুলনা বিভাগের দশ জেলায় পরিবহন ধর্মঘট চলছিল। অন্যদিকে সাভারে ট্রাকচাপা দিয়ে এক নারীকে হত্যার দায়ে আদালত ২৭ ফেব্রুয়ারি চালকের ফাঁসির দণ্ড দিলে ধর্মঘট অনির্দিষ্টকালের জন্য দেশব্যাপী পালন শুরু করে তারা।

মেহেবুব রশিদ মঙ্গলবার থেকে অপেক্ষা করছেন ঢাকা ছাড়বেন। ধর্মঘটের কারণে তিনি গন্তব্যে যেতে না পারলেও টেলিভিশনে ধর্মঘট প্রত্যাহারের খবর শুনে দুপুর থেকে মহাখালী বাসস্ট্যান্ডে এসে অপেক্ষা করছিলেন। তিনি বলেন, ‘কত মানুষ ঢাকায় আটকে গিয়েছিল, সেই খবর কেউ রাখে না। অযৌক্তিক দাবি নিয়ে আন্দোলন করলে সেটি জনগণের ভোগান্তিই বাড়ায়, জনগণের সমর্থন সেখানে থাকে না।’

সাজাহান খানের ঘোষণার পরপরই শ্রমিকরা ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নিয়ে যান চলাচল শুরু করে। এর সঙ্গে-সঙ্গে রাজধানীর ব্যস্ততম মতিঝিল এলাকায় চব্বিশ ঘণ্টা পর প্রাণ ফিরে আসে। এর আগে সকালে ধর্মঘটের কারণে গণপরিবহন না থাকায় স্কুল কলেজ অফিসগামীরা ভোগান্তির শিকার হন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে বেলা সাড়ে ১০টার দিকে সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের দফতরে পরিবহন ধর্মঘট ইস্যুতে আরেকটি রুদ্ধদ্বার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, নৌমন্ত্রী শাজাহান খান, পল্লীউন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙা, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ও পরিবহন মালিক এবং বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েতুল্লাহ খান।

টানা ৩৩ ঘণ্টার পরিবহন ধর্মঘটের পর বুধবার বিকেল সাড়ে তিনটার পর যান চলাচল স্বাভাবিক হতে শুরু করে। গাবতলী, সায়েদাবাদ, মহাখালী বাসস্ট্যান্ড থেকে দূরপাল্লার গাড়ি ছেড়ে যেতে শুরু করেছে।আন্তঃজেলা বাস চলাচল রাতে পুরোপুরি শুরু হবে বলে জানিয়েছেন বাস চালক ইউনিয়নের নেতারা।