মজাদার কালারফুল ব্রোকেন গ্লাস পুডিং

 

পুড়িং খেতে আমরা সবাই পছন্দ করি। ঘরোয়া পরিবেশে কিংবা কোন অনুষ্ঠানে পুড়িং এর যেন জুড়ি নেই। একই রকম পুডিং তো আমারা খেয়েই যাচ্ছি। কিন্তু পুডিং এ যদি একটু ভিন্নতা নিয়ে আসতে পারেন তাহলে দেখতে যেমন সুন্দর লাগবে তেমনি খেতেও দারুণ। আজ আপনাদের জন্য রয়েছে ব্রোকেন গ্লাস পুডিং তৈরির দারুণ রেসিপি। এটি একটি ভিন্ন ধরনের কালারফুল পুডিং। বিভিন্ন ফ্লেবার ও বিভিন্ন কালারে তৈরী বলে একে ব্রোকেন গ্লাস পুডিং বলা হয়। তবে যে যাই বলুক না কেন, খেতে কিন্তু দারুণ। চলুন জেনে নিই রেসিপি।


উপকরণ :
দুধ আধা লিটার
গুঁড়ো দুধ আধা কাপ
চিনি ১ কাপ
চায়না গ্রাস ১২ গ্রাম (বাজারে/ডিপার্টমেন্টাল স্টোরে পাবেন)
যে কোনো তিন রংয়ের জেলো পাউডার


প্রাণালি :
তিন রংয়ের জেলো তিনটি বাটিতে প্যাকেটের গায়ের নিয়ম অনুযায়ী বানিয়ে ফ্রিজে রেখে দিন। না হলে ঠিক মতো জমবে না আর ভেঙে যাবে। (একটা পরামর্শ, প্যাকেটের গায়ে যে পরিমাণ পানি দেওয়ার কথা লেখা থাকে, চাইলে অর্ধেক পানি ব্যবহার করতে পারেন। তাহলে জেলো ভালো জমবে আর ঘন হবে।) চায়না গ্রাস ছোট টুকরা করে কেটে নিন। চুলায় দুধ দিন আর চায়না গ্রাসগুলো দিয়ে দিন। দুধ গরম হতে থাকলে মাঝে মাঝে নেড়ে দিন যেন পুড়ে না যায়। এবার গুঁড়ো দুধ এর মধ্যে দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে দিন। যতক্ষণ পর্যন্ত চায়না গ্রাসগুলো ভালো করে গলে না যাবে ততক্ষণ দুধ গরম করতে থাকুন। জ্বাল দিতে দিতে দুধ বেশ ঘন করুন। এখন এই দুধ থেকে এক চামচ পরিমাণ নিয়ে একটা প্লেটে ঢালুন আর কয়েক মিনিট অপেক্ষা করুন। যদি দেখেন এটা পুডিংয়ের মতো হয়েছে তাহলে চুলায় রাখা পুডিং মিশ্রণটি তৈরি। এবার চিনি দিয়ে আরও কয়েক মিনিট চুলায় রেখে নামিয়ে নিন। মিশ্রণটি নেড়ে ঠাণ্ডা করুন।

এবার ফ্রিজে রাখা রঙিন জেলিগুলো বের করে কিউব করে কাটুন। একটা যে কোনো আকারের বাটি নিন, কিউব করা জেলিগুলো অর্ধেকের কম পরিমাণ নিয়ে বাটিতে ছড়িয়ে দিন। এবার পুডিং মিশ্রণটি কিছু পরিমাণ ঢালুন। তারপর আবার জেলি দিন। এভাবে আরও দুটি লেয়ার তৈরি করুন।

এভাবেই হয়ে গেলো মাজাদার কালারফুল ব্রোকেন গ্লাস পুডিং। ফ্রিজে কমপক্ষে ৩০ মিনিটের জন্য রেখে দিন। যে কোন সময় বের করে সুন্দর করে কেটে পরিবেশন করুন।

পুড়িং খেতে আমরা সবাই পছন্দ করি। ঘরোয়া পরিবেশে কিংবা কোন অনুষ্ঠানে পুড়িং এর যেন জুড়ি নেই। একই রকম পুডিং তো আমারা খেয়েই যাচ্ছি। কিন্তু পুডিং এ যদি একটু ভিন্নতা নিয়ে আসতে পারেন তাহলে দেখতে যেমন সুন্দর লাগবে তেমনি খেতেও দারুণ। আজ আপনাদের জন্য রয়েছে ব্রোকেন গ্লাস পুডিং তৈরির দারুণ রেসিপি। এটি একটি ভিন্ন ধরনের কালারফুল পুডিং। বিভিন্ন ফ্লেবার ও বিভিন্ন কালারে তৈরী বলে একে ব্রোকেন গ্লাস পুডিং বলা হয়। তবে যে যাই বলুক না কেন, খেতে কিন্তু দারুণ। চলুন জেনে নিই রেসিপি।