সবচেয়ে বেশি মিলিওনিয়ার আছেন যে ১৮ টি দেশে

 সবচেয়ে বেশি মিলিওনিয়ার আছেন যে ১৮ টি দেশে

এক মিলিয়ন ডলারের মালিক হওয়া অসাধারণ কৃতিত্বের বিষয় বৈকি। এটি অপরিমেয় সম্পদের একটি চিহ্ন এবং এই সংখ্যাটি ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। অতি সম্প্রতি গ্লোবাল অয়েলথ ডাটাবুকে প্রকাশিত ক্রেডিট স্যুইস এর হিসাব অনুযায়ী, সারা পৃথিবীতে ৩৩ মিলিয়ন সৌভাগ্যবান মানুষ আছেন যাদের সম্পদের পরিমাণ ১ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি। 

 
যুক্তরাস্ট্র একাই দাবী করে যে তাদের দেশে ১৩.৬ মিলিয়ন পূর্ণ বয়স্ক মানুষ আছেন যাদের সম্পদের পরিমাণ ১ মিলিয়ন ডলারের বেশি। এটি সারা পৃথিবীর মিলিওনিয়ারদের মধ্যে ৪১ শতাংশ যা পরবর্তী ৮ টি দেশের সমন্বয়ের চেয়েও বেশি।
সুইজারল্যান্ডের রাজধানীতে সবচেয়ে বেশি মিলিওনিয়ার বাস করে যদি শহরের দিক থেকে হিসাব করা হয়। সেখানের পূর্ণবয়স্কদের ১২ শতাংশই মিলিওনিয়ার অথবা প্রতি ৮.৬ জনে ১ জন মিলিয়নিয়ার।
কোন দেশে মিলিওনিয়ার বেশি থাকাই যে সেই দেশকে সমৃদ্ধশালী হিসেবে নির্দেশ করে সেটা জরুরী নয়। ২ লক্ষেরও বেশি মিলিয়নিয়ার বাস করে যে ১৮ টি দেশে সে দেশগুলো জার্মানি, সুইডেন ও চীনের চেয়ে নিম্ন মধ্যম সম্পদের দেশ।
বিজনেস ইনসাইডার বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মিলিওনিয়ার সমৃদ্ধ যে ১৮ টি দেশের তালিকা তৈরি করেছে সেগুলো জেনে আসি চলুন।
১। যুক্তরাস্ট্র
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ১৩,৫৫৪,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক - ২৪৫.৯৭ মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ - ৪৪,৯৭৭ ডলার
যুক্তরাস্ট্র।
২। জাপান
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ২,৮২৬,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ১০৪.২২ মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ১২০.৪৯৩ ডলার  
৩। যুক্তরাজ্য
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ২,২২৫,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ৪৮.৯৯  মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ১০৭, ৮৬৫ ডলার  
৪। জার্মানি 
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ১,৬৩৭,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ৬৭.০৭ মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ৪২,৮৩৩ ডলার  
৫। ফ্রান্স
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ১,৬১৭,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ৪৮,৬৬ মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ৯৯.৯২৩ ডলার
৬। চীন
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ১,৫৯০,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ১.০২৩ বিলিয়ন  
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ৪,৮৮৫ ডলার
৭। ইতালি
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ১,১৩২,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ৪৯.৩ মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ১০৪,১০৫ ডলার
ইতালি।

৮। কানাডা
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ১,১১৭,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ২৮  মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ –  ৯৬,৬৬৪ ডলার
৯। অস্ট্রেলিয়া
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ১,০৬০,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ১৭.১২ মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ১৬২.৮১৫ ডলার 

অস্ট্রেলিয়া।

১০। সুইজারল্যান্ড  
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ৭১৬,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ৬.১৯ মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ২৪৪,০০২ ডলার
১১।  দক্ষিণ কোরিয়া
মিলিয়নিয়ারের সংখ্যা  - ৬৭৯ জন
পূর্ণবয়স্ক – ৩৯.২৬  মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ৬৪.৬৩৬ ডলার
১২।  স্পেন
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ৩৮৬,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ৩৭.৭৯ মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ৫৬,৫০০ ডলার
১৩। তাইওয়ান
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ৩৫৬,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ১৮.৫১ মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ৬৩,১৩৪ ডলার
১৪। বেলজিয়াম
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ৩০৭,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ৮.৪৭ মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ১৫৪,৮১৫ ডলার
১৫। নেদারল্যান্ড
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ২৮৭,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ১৩.০৮ মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ৮১,১১৮ ডলার
১৬। সুইডেন
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ২৮৫,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ৭.৪১ মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ৩৯,৬৯২ ডলার
১৭। ডেনমার্ক
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ২৪০,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ৪.২৪ মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ৫২,২৭৯ ডলার
১৮। অষ্ট্রিয়া
মিলিওনিয়ারের সংখ্যা  - ২১৭,০০০ জন
পূর্ণবয়স্ক – ৬.৮৪ মিলিয়ন
প্রতি পূর্ণবয়স্কদের মধ্যে মধ্যম সম্পদের পরিমাণ – ৫২,৫১৯ ডলার
অষ্ট্রিয়া।

এক মিলিয়ন ডলারের মালিক হওয়া অসাধারণ কৃতিত্বের বিষয় বৈকি। এটি অপরিমেয় সম্পদের একটি চিহ্ন এবং এই সংখ্যাটি ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। অতি সম্প্রতি গ্লোবাল অয়েলথ ডাটাবুকে প্রকাশিত ক্রেডিট স্যুইস এর হিসাব অনুযায়ী, সারা পৃথিবীতে ৩৩ মিলিয়ন সৌভাগ্যবান মানুষ আছেন যাদের সম্পদের পরিমাণ ১ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি।