প্রযুক্তি নেশা থেকে সন্তানদের দূরে রেখেছেন স্টিভ জবস, বিল গেটস

নিজেদের অপ্রাপ্ত বয়স্ক সন্তানদেরকে অতিমাত্রায় প্রযুক্তি ব্যবহার করতে দেননি বিল গেটস দম্পতি। মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা গেটসের আগেই নিজের সন্তানদেরকে খুব বেশিমাত্রায় প্রযুক্তি নেশায় আক্রান্ত হতে দেননি অ্যাপলের প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবস।
বিল গেটস জানিয়েছেন, তার সন্তানরা অন্য সময়বয়সীদের মতো মোবাইল ফোনের বায়না করতো। তবে তিনি ও তার স্ত্রী মেলিন্ডা সন্তানদের বয়স ১৪ হওয়ার আগে সেসব বায়নায় কান দেননি।
ডেইলি মিররকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বিল গেটস বলেন, ‘আমরা ওদের জন্য বাসায় কম্পিউটার-টিভির স্ক্রিন কতক্ষণ খোলা রাখা যাবে এমন নির্দেশনা দিয়েছি। ওরা যাতে সঠিক ও প্রয়োজন মাফিক সময়ে ঘুমায় সে ব্যাপারে বাসায় একটা নিয়ম মেনে চলার চেষ্টা করেছি।’
তিনি আরও বলেন, ‘খাবার টেবিলে আমরা মোবাইল ফোন নিতাম না। ওদের ১৪ বছর না হওয়া পর্যন্ত ওদের হাতে মোবাইল ফোন দেইনি। অবশ্য অন্য সময়বয়সীরা হাতে মোবাইল ফোন পেয়েছে এমনটা জানিয়ে ওদের অভিযোগ শুনতে হয়েছে অনেকবার।’
স্টিভ জবসের সঙ্গে অনেক ব্যাপারে বিল গেটসের অমিল ছিল। তবে অপ্রাপ্তবয়স্ক সন্তানদেরকে প্রযুক্তি নেশা থেকে দূরে রাখার ব্যাপারে দু’জনের মিল স্পষ্ট।
প্রযুক্তি জায়ান্ট অ্যাপলের প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবসও কমবয়সী সন্তানদেরকে রেখেছিলেন প্রযুক্তির অতিনাগালের বাইরে। অ্যাপলের আইপ্যাড বাজারে ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ডিভাইসটি নিজের সন্তানদেরকে সেগুলোতে আটকে থাকার সুযোগ দেননি প্রয়াত স্টিভ জবস। বাসায় অতিমাত্রায় প্রযুক্তির ব্যবহার হতে দেননি তিনি।
স্টিভ জবসের জীবনীর লেখক ওয়াল্টার আইজ্যাকসন জানান, প্রতি সন্ধ্যায় স্টিভ ডিনারের টেবিলে সন্তানদের সঙ্গে বই, ইতিহাস কিংবা অন্য অনেক বৈচিত্রপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করতেন। তখন কেউ আইপ্যাড কিংবা অন্য কোন ডিভাইস বের করতো না