‘মেইকআপ’ সামগ্রীর বিকল্প ব্যবহার

রূপচর্চাবিষয়ক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জানানো হয় মেয়াদোত্তীর্ণ মেইকআপ ফেলে না দিয়ে বরং বিকল্পভাবেও ব্যবহার করা যায়।

মাস্কারা: মেয়াদ সাধারণত তিন থেকে ছয় মাস থাকে। তবে এটি ফেলে দেওয়ার ক্ষেত্রে অনেকেরই আপত্তি থাকে। সেক্ষেত্রে পুনরায় ভিন্নভাবে ব্যবহার করা যায়।
মেয়াদোত্তীর্ণ মাস্কারার ব্রাশ ভ্রু আঁচড়াতে এমনকি মাথায় দুয়েকটা পাকা চুল দেখা দিলে, সেগুলো কালো করতে পুরানো মাস্কারা ব্যবহার করা যায়।
তাছাড়া ঠোঁট স্ক্রাব করতেও মাস্কারার ব্রাশ ব্যবহার করতে পারেন। নরম কোমল ঠোঁট পেতে মাস্কারার ব্রাশে কয়েক ফোঁটা প্রাকৃতিক তেল নিয়ে তা ঠোঁটে ঘষুন।   
আই শ্যাডো: প্রতি এক বছর পর পর আইশ্যাডো পরিবর্তন করা বুদ্ধিমানের কাজ। পুরানো আই শ্যাডো ফেলে না দিয়ে, রংহীন নেইলপলিশের সঙ্গে মেশান। বিভিন্ন রংয়ের আই শ্যাডো এভাবে মিশিয়ে নিজের পছন্দ মতো নেইলপলিশ দিয়ে নখ রাঙাতে পারবেন।  
স্কিন টোনার: অধিকাংশ টোনারেই অনেক পরিমাণে অ্যালকোহল মেশানো থাকে। তাই এর মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে ফেলে না দিয়ে কাঁচ, আয়না এমনকি মোবাইলের স্ক্রিনও পরিষ্কার করতে পারবেন।
লিপ বাম: শুধু ঠোঁটের যত্নেই নয়, পাশাপাশি পায়ের ফোস্কা ও নখের কিউটিকেল পরিষ্কার করতেও ব্যবহার করতে পারেন।
ফেইস অয়েল: মুখে ব্যবহার করার তেল বেশ ব্যয়বহুল।, তাই এর যথার্থ ব্যবহার করাই উচিত। এই তেলের সঙ্গে কিছুটা চিনি মিশিয়ে ‘এক্সফলিয়েটর’ হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। 
লিপস্টিক: মেয়াদোত্তীর্ণ লিপস্টিক শীতকালে লিপ বাম হিসেবে ব্যবহার করা যায়। ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করার জন্য লিপস্টিক গরম করে নিন। এরপর ভ্যাসলিন বা পেট্রোলিয়াম জেলির সঙ্গে মেশান। ফলে নিজের পছন্দের রংয়ের লিপবামও পেয়ে যাবেন।