বিয়ের উপযুক্ত বয়স কখন?



আমাদের দেশের অনেকেই খুব তাড়াতাড়ি বিয়ে করে ফেলেন আবার অনেকেই দেরি করে বিয়ে করেন। কিন্তু আসলে বিয়ে করার উপযুক্ত বয়স আছে, যা আট বছর ধরে এক গবেষণা শেষে এ কথা জানানো হয়েছে। সম্প্রতি টিএনএন এবং ডিএনএ ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, ‘যুক্তরাষ্ট্রের উচাহ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক নিকোলাস এইচ উলফিঙ্গার এক গবেষণায় দেখিয়েছেন, বিবাহের জন্য আদর্শ বয়স ২৮ থেকে ৩২ বছরের মধ্যে।’ 


কারণ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেছেন, এ সময়ের মধ্যে যারা বিয়ে করেন, দাম্পত্য জীবনে তাদের বিচ্ছেদের ঝুঁকি অনেক কম। গবেষণায় দেখা গেছে, এই বয়সের মধ্যে বিয়ে করলে, নারী ও পুরুষের মধ্যে বিচ্ছেদের আশঙ্কা কম থাকে।গবেষণা অনুযায়ী, ৩২ বছরের পর থেকে ৪০ বছরের মধ্যে বিয়ে করলে বিচ্ছেদের আশঙ্কা অনেক বেড়ে যায়। উলফিঙ্গারের মতে, ৩২ বছরের পর বা তার থেকে বেশি বয়সে যারা বিবাহ করেছেন, তাদের মধ্যে বিচ্ছেদের আশঙ্কা প্রতি বছর গড়ে ৫ শতাংশ হারে বৃদ্ধি পায়। 

অথচ যারা বিয়ে করতে ৩০ বছর পর্যন্ত অপেক্ষা করেছেন, তাদের অনেকেই মনে করেন, তারা অন্যদের তুলনায় ভালো করছেন। তিনি বলেন, যারা দেরিতে বিয়ে করেন, তাদের জীবনে সাফল্যও দেরিতে আসে। এমনকি সন্তান নেওয়ার ক্ষেত্রে জটিলতা দেখা দেয়।


আমাদের দেশের অনেকেই খুব তাড়াতাড়ি বিয়ে করে ফেলেন আবার অনেকেই দেরি করে বিয়ে করেন। কিন্তু আসলে বিয়ে করার উপযুক্ত বয়স আছে, যা আট বছর ধরে এক গবেষণা শেষে এ কথা জানানো হয়েছে। সম্প্রতি টিএনএন এবং ডিএনএ ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, ‘যুক্তরাষ্ট্রের উচাহ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক নিকোলাস এইচ উলফিঙ্গার এক গবেষণায় দেখিয়েছেন, বিবাহের জন্য আদর্শ বয়স ২৮ থেকে ৩২ বছরের মধ্যে।’ 


কারণ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেছেন, এ সময়ের মধ্যে যারা বিয়ে করেন, দাম্পত্য জীবনে তাদের বিচ্ছেদের ঝুঁকি অনেক কম। গবেষণায় দেখা গেছে, এই বয়সের মধ্যে বিয়ে করলে, নারী ও পুরুষের মধ্যে বিচ্ছেদের আশঙ্কা কম থাকে।গবেষণা অনুযায়ী, ৩২ বছরের পর থেকে ৪০ বছরের মধ্যে বিয়ে করলে বিচ্ছেদের আশঙ্কা অনেক বেড়ে যায়। উলফিঙ্গারের মতে, ৩২ বছরের পর বা তার থেকে বেশি বয়সে যারা বিবাহ করেছেন, তাদের মধ্যে বিচ্ছেদের আশঙ্কা প্রতি বছর গড়ে ৫ শতাংশ হারে বৃদ্ধি পায়। 

অথচ যারা বিয়ে করতে ৩০ বছর পর্যন্ত অপেক্ষা করেছেন, তাদের অনেকেই মনে করেন, তারা অন্যদের তুলনায় ভালো করছেন। তিনি বলেন, যারা দেরিতে বিয়ে করেন, তাদের জীবনে সাফল্যও দেরিতে আসে। এমনকি সন্তান নেওয়ার ক্ষেত্রে জটিলতা দেখা দেয়।