বেকিং সোডার ব্যতিক্রম ১০ ব্যবহার

বেকিং সোডার ব্যতিক্রম ১০ ব্যবহার 


কেক, বিস্কুট বিভিন্ন মজাদার খাবার তৈরিতে ব্যবহৃত হয় বেকিং সোডা। রান্না ছাড়াও রান্নার থালা বাসন পরিষ্কার করার কাজেও ব্যবহার করতে পারেন এই বেকিং সোডা! ময়লা, নোংরা থালা বাসন পরিষ্কার করতে সাধারণত ডিটারজেন্ট ব্যবহার করা হয়। কিন্তু তারপরও ময়লা থেকে যায়। এই ময়লা গন্ধ সম্পূর্ণ ভাবে দূর করে দেবে বেকিং সোডা। বেকিং সোডার এমন কিছু ব্যতিক্রম ব্যবহার জানতে পারবেন এই ফিচার থেকে।

১। সিংক ও বেসিনের ড্রেন পরিষ্কারে

প্রথমে ড্রেনের মধ্যে এক কাপ বেকিং সোডা দিন। এরপর এর মধ্যে সাদা ভিনেগার দিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন। গরম পানি দিয়ে পুরো ড্রেন ধুয়ে ফেলুন। এরপর দুই কাপ বরফ ও লবণ ড্রেনে ঢেলে দিন। এরপর লেবুর রস মেশানো পানি ঢেলে দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে ড্রেনের স্যাঁতসেঁতে ভাব দূর হবে এবং গন্ধও থাকবে না।

২। দাঁত সাদা করতে

একটি স্ট্রবেরীর পেস্ট এবং আধা চা চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে নিন। এবার এটি দাঁতে পাঁচ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। তারপর দাঁত ব্রাশ করে ফেলুন। এটি সপ্তাহে এক থেকে দুইবার করুন। এর বেশি ব্যবহারে এটি দাঁতের এনামেল নষ্ট করে দেবে।

৩। পোকার কামড় সারাতে

বেকিং সোডা এবং পানি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই মিশ্রণটি পোকার কামড়ের স্থানে লাগিয়ে নিন।

৪। বুক জ্বালাপোড়া রোধে

বুক জ্বালাপোড়া, বদ হজম দূর করতে বেকিং সোডা অনেক কার্যকর। ১/২ চা চামচ বেকিং সোডা এবং আধা গ্লাস পানিতে মিশিয়ে নিন। এটি দুই ঘন্টা পর পর পান করুন। তবে একদিনে এভাবে সাতবারের বেশি বেকিং সোডা খাওয়া উচিত নয়। বয়স্কের ক্ষেত্রে কিছুটা সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত। তিনবারের বেশি বয়স্কদের খাওয়ানো উচিত নয়।

৫। কার্পেটের দাগ দূর করতে

কার্পেটের দাগ সহজে যেতে চায় না। এই সমস্যার সমাধানে সাদা ভিনেগারের সঙ্গে দুই টেবিল চামচ লবণ মিশিয়ে দাগের ওপর দিন। এরপর শুকিয়ে গেলে ভ্যাকুইম ক্লিনার দিয়ে পরিষ্কার করে ফেলুন।

৬। শিশুর ডায়াপার র‍্যাশ দূর করতে

শিশুর গোসলের পানিতে দুই টেবিল চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি দিয়ে শিশুকে গোসল করান। এটি ডায়াপারের র‍্যাশ দূর করতে সাহায্য করবে।

৭। ফ্রিজ পরিষ্কার করে

ভিনেগার ফ্রিজ পরিষ্কারে বেশ কার্যকরী। একটি কাপড় বা তোয়ালে ভিনেগার দিয়ে ভিজিয়ে পুরো ফ্রিজ মুছে নিন। এতে ফ্রিজের দাগ, ব্যাকটেরিয়া ও গন্ধ সব দূর হয়ে যাবে।

৮। মেঝে পরিষ্কার

১/২ কাপ বেকিং সোডা কুসুম গরম পানিতে মিশিয়ে নিন। এই পানি দিয়ে মেঝে পরিষ্কার করুন।

৯। ওভেন পরিষ্কার করতে

ওভেনের ভিতর কিছু পরিমাণ বেকিং সোডা ছিটিয়ে নিন। তারপর একটি স্প্রে বোতল দিয়ে পানি ছিটিয়ে দিন। এভাবে সারারাত রাখুন। পরের দিন শুকনো কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন। এটি ওভেন নিমিষে পরিষ্কার করে দেবে।

১০। কার্পেট পরিষ্কার করতে

কার্পেটের উপর কিছু পরিমাণ বেকিং সোডা ছিটিয়ে রাখুন। এটি সারারাত রাখুন। তারপর ভ্যাকিউম ক্লিনার ব্যবহার করুন।

কেক, বিস্কুট বিভিন্ন মজাদার খাবার তৈরিতে ব্যবহৃত হয় বেকিং সোডা। রান্না ছাড়াও রান্নার থালা বাসন পরিষ্কার করার কাজেও ব্যবহার করতে পারেন এই বেকিং সোডা! ময়লা, নোংরা থালা বাসন পরিষ্কার করতে সাধারণত ডিটারজেন্ট ব্যবহার করা হয়। কিন্তু তারপরও ময়লা থেকে যায়। এই ময়লা গন্ধ সম্পূর্ণ ভাবে দূর করে দেবে বেকিং সোডা। বেকিং সোডার এমন কিছু ব্যতিক্রম ব্যবহার জানতে পারবেন এই ফিচার থেকে।