অনলাইনে কেনাকাটায় সাবধানতা অবলম্বন করুন

 অনলাইনে কেনাকাটায় সাবধানতা অবলম্বন করুন

বর্তমানে অনলাইনে অনেক বেশী কেনাকাটা করা হচ্ছে৷ Google উপভোক্তাদের বিভিন্ন উপায়ে পণ্যসমূহ খুঁজে পেতে সহায়তা করছে। এবং যখন ওয়েব সামগ্রীর উপর আমাদের নিয়ন্ত্রণ থাকে না, আমরা উপভোক্তাদের নিরাপদে অনলাইনে কেনাকাটা করতে সহায়তা করতে চাই৷ কোনো সমস্যা ছাড়াই অনলাইনে একটি বড় অংশের লেনদেন সম্পন্ন হয়, কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে ঝুঁকি থাকে, এবং সেই কারণেই কিছু দরকারি টিপস আপনার জেনে রাখা দরকার। তাই নিয়ে আজকে আমাদের আয়োজন। যাতে আপনি অনলাইনে কেনাকাটা করার সময়ে কিছু সাবধানতা অবলম্বন করতে পারেন।

সুরক্ষা টিপ্স
একই সামগ্রী অন্যত্র বিক্রি হওয়ার ক্ষেত্রে সেটির মূল্য তুলনা করুন৷ যদি মূল্য উল্লেখযোগ্যভাবে ভিন্ন হয়, সাবধানতা অবলম্বন করুন। বিক্রেতার সম্পর্কে অনুসন্ধান করা নিশ্চিত করুন এবং আইটেমের অবস্থা সম্পর্কে প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করতে ভুলবেন না৷ যখন কোনো সাইটে পণ্যের উপর খুব বেশী ছাড় দেওয়া হয়, খারাপ ব্যাকরণ ও ভুল বানান যুক্ত থাকে এবং ব্র্যান্ড মালিক-এর অফিসিয়াল সাইটে নিম্ন গুণমানের চিত্র ব্যবহার করা হয়, তখন এই সাইটটি জাল পণ্য বিক্রি করতে পারে৷ সতর্ক হন, কিছু সাইট লেআউটের নকল করে এবং একই রকম চিত্র ব্যবহার বা ব্র্যান্ডের ডোমেন নাম ব্যবহার করে ব্র্যান্ড মালিকের সাইটের অনুকরণে জাল পণ্য বিক্রি করছে৷ 

যদি আপনি কোনো বণিকের কাছ থেকে পূর্বে কেনাকাটা না করে থাকেন, তাহলে তারা বৈধ কি না সেই বিষয়ে আগে নিশ্চিত হন৷ উদাহরণস্বরূপ, তাদের ব্যবসার ইতিহাস সম্পর্কে আরো জানতে এবং এই বিক্রেতার সাথে অন্যান্য ক্রেতাদের অভিজ্ঞতার পর্যালোচনা দেখার জন্য একটি ওয়েব অনুসন্ধান করুন৷ বৈধ বণিকদের যোগযোগের তথ্য অবশ্যই দেওয়া উচিত যাতে আপনি লেনদেন সংক্রান্ত কোনো প্রশ্ন বা সমস্যার বিষয়ে তাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন৷ যা প্রকৃত ঠিকানার অস্তিত্ব সাপেক্ষে, যোগাযোগের ফোন নম্বর অথবা ইমেল ঠিকানা সহকারে হতে পারে৷ জাল পণ্য বিক্রি করে এমন অনেক সাইটের অফিসিয়াল URL থাকতে পারে যা [brand]onsale.com বা official [brand].com -এর মতো বাক্যাংশ দিয়ে হতে পারে৷ সাইটের সম্পূর্ণ তথ্য পরীক্ষা করাই একমাত্র উপায় হতে পারে, যে ডোমেনের মালিকানা কার নামে আছে৷ 


ক্রেতা সুরক্ষার সাথে অর্থপ্রদানের একটি পদ্ধতি ব্যবহার করুন: অনেক ক্ষেত্রে, ক্রেডিট কার্ড কোম্পানীগুলো অনলাইনে কেনাকাটার ক্ষেত্রে আপনার দায় সীমিত করে জালিয়াতি আটকানোর জন্য৷ অতিরিক্ত সুরক্ষা দিতে কিছু অনলাইন অর্থপ্রদান ব্যবস্থা আপনার ক্রেডিট কার্ডের সম্পূর্ণ নম্বর বিক্রেতাদের সাথে ভাগ করে না৷ 
গুরুত্বপূর্ণ তথ্যসমূহ পড়ুন : ক্রয় করার আগে, আপনি বিক্রেতার শিপিং, ওয়ারেন্টি, এবং ফেরৎ নীতির সাথে পরিচিত আছেন তা নিশ্চিত করুন৷ কিছু স্টোর সম্পূর্ণ ফেরৎ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়, যেখানে অন্যরা পুনরায় স্টক করার জন্য পারিশ্রমিক ধার্য করে এবং শুধুমাত্র স্টোর ক্রেডিটই প্রদান করে৷ 

লেনদেনের রেকর্ড রাখুন : বড় লেনদেনের ক্ষেত্রে ডিজিটাল বা কাগজের প্রতিলিপি রাখলে, আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে অননুমোদিতভাবে অর্থ কেটে নেওয়ার জন্য প্রতিবাদ করতে বা আপনার ফেরৎ দেওয়ার প্রয়োজন হলে তা আপনাকে সহায়তা করতে পারবে৷ 

হ্যাক করা সাইটগুলোকে এড়িয়ে যান এবং ব্রাউজারের ঠিকানা দণ্ডের উপর নজর রাখুন৷ যদি আপনি একটি লিঙ্কে ক্লিক করার সাথেসাথেই তা আপনাকে পুনঃনির্দেশিত করে, তাহলে এই সাইটটি হ্যাক করা হয়ে থাকতে পারে এবং তাতে মালওয়ের থাকতে পারে৷ মালওয়ের হল, ভাইরাস, ওয়ার্ম, ট্রোজান হর্সের মতো সমতুল্য, যা নিঃশব্দে আপনার কম্পিউটারে অবাঞ্ছিত সফ্টওয়্যার ইনস্টল করতে পারে৷ কিছু হ্যাক করা সাইট স্বয়ংক্রিয়ভাবে একটি ভিন্ন পৃষ্ঠায় আপনাকে পুনঃনির্দেশিত করতে পারে না, কিন্তু পৃষ্ঠায় অপ্রাসঙ্গিক এবং স্প্যামযুক্ত সামগ্রী রাখতে পারে৷ যে লিঙ্কে আপনি ক্লিক করেছেন সেটিই আপনি পেয়েছেন কি না সেই বিষয়ে সতর্ক হতে ঠিকানা দণ্ডের উপর নজর রাখুন৷ 


আপনার ব্রাউজারের ঠিকানা দণ্ডে সংবেদনশীল ওয়েব ঠিকানাসমূহ লিখুন: একটি লিঙ্কে ক্লিক করে বা প্রতিলিপি করে এবং ঠিকানায় আটকিয়ে সংবেদনশীল অ্যাকাউন্টকে নেভিগেট করবেন না৷ পরিবর্তে, ওয়েব ঠিকানাটি নিজে লিখুন৷ কিন্তু নিশ্চিত করুন যে আপনি সঠিক ঠিকানা লিখেছেন; কিছু টাইপোস্কুয়াটিং সাইট সম্পূর্ণভাবে সত্যিকারের সাইটের মতো দেখতে লাগে, যা আপনার অ্যাকাউন্টের তথ্য ফাঁস করার জন্যই তৈরি করা হয়েছে৷ 
সন্দেহজনক সাইটে ব্যক্তিগত তথ্য দেওয়া থেকে বিরত থাকুন৷ যদি কোনো সাইট কোনো পণ্য ক্রয় করা বা পরিষেবা গ্রহণ করার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্যের বাইরে ব্যক্তিগত তথ্য জানতে চায় (যেমন, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের তথ্য, নিরাপত্তামূলক প্রশ্নের উত্তর বা পাসওয়ার্ড), তাহলে তা আপনার অ্যাকাউন্টের তথ্য ফাঁস করার জন্য চেষ্টা করতে পারে, তারই ইঙ্গিত দেয়৷ একই রকম লোগো এবং টেক্সট সমেত কিছু সাইট, কোনো অফিসিয়াল সাইটের একটি কার্বন কপি হতে পারে, কিন্তু আপনার ব্যক্তিগত তথ্য পাওয়ার একমাত্র উদ্দেশ্যেই জালিয়াতরা এই সকল সাইটের সেট আপ করে৷ জালিয়াত সাইটগুলি কে এড়িয়ে যেতে বা তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন করতে এখানে কিছু পরামর্শ দেওয়া রয়েছে৷ 
আপনার পাসওয়ার্ডগুলো শক্তিশালী কি না, তা নিশ্চিত করুন : অনেকগুলো অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে একই পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন না, এবং তা পর্যায়ক্রমে পরিবর্তন করার কথা মনে রাখবেন, বিশেষ করে যখন আপনার মনে হয় যে আপনার অ্যাকাউন্টটি ঝুঁকিতে পড়তে পারে৷ কীভাবে একটি স্মার্ট পাসওয়ার্ড চয়ন করবেন তার জন্য আরো পরামর্শ দেখুন৷ 
শুধুমাত্র নিরাপদ সংযোগের মাধ্যমেই তথ্য প্রেরণ করুন: যখন ক্রেডিট কার্ড বা ব্যাঙ্ক নম্বরের মতো কোনো সংবেদনশীল তথ্য প্রেরণ করবেন, তখন ঠিকানা দণ্ডে https:// সংযোগ (এবং আপনি যদি Google Chrome বা Internet Explorer ব্যবহার করছেন, তাহলে ঠিকানা দণ্ডে প্যাডলক আইকন) খুঁজুন ৷ আর্থিক অ্যাকাউন্ট অ্যাক্সেস করার সময়ে, ওয়েবসাইটটিতে একটি শংসাপত্রের প্রসারিত বৈধতা আছে কি না তা পরীক্ষা করুন। অনেক আধুনিক ব্রাউজারে URL বা ওয়েবসাইটের নাম URL দণ্ডে সবুজ রংয়ের দেখানো উচিত, এর মানে, যে সংস্থা এই ওয়েবসাইটটি অপারেট করছে, সেটি বৈধ রয়েছে৷ 
সর্বজনীন কম্পিউটারে আর্থিক লেনদেন পরিচালনা করা এড়িয়ে চলুন : সর্বজনীন বা ভাগ করা কম্পিউটারে সংবেদনশীল আর্থিক তথ্য (যেমন ব্যাংক বা ক্রেডিট কার্ডের অ্যাকাউন্ট বা কমার্স ওয়েবসাইটগুলো) সম্বলিত অ্যাকাউন্ট লগ ইন করবেন না৷ আপনি যদি এমন কোনো সর্বজনীন বা ভাগ করা কম্পিউটার অ্যাক্সেস করেন, তাহলে আপনার কাজ সম্পন্ন হওয়ার পরে আপনার ব্রাউজার উইন্ডোটি বন্ধ করা এবং অ্যাকাউন্টটি সম্পূর্ণ ভাবে সাইন আউট করার বিষয়ে মনে রাখবেন৷ 
আপনি কি কারণে অর্থ প্রদান করছেন তা নিশ্চিত করুন : একবার আপনি আইটেম গ্রহণ করলে, সবকিছু যেমন থাকা উচিত তা ঠিক আছে কি না সেই বিষয়ে নিশ্চিত হন৷ যত তাড়াতাড়ি আপনি জুয়াচুরির বিষয়টি নির্ধারণ করতে পারবেন, তত তাড়াতাড়ি আপনি এটিকে ইতিবাচকভাবে সমাধান করার সুযোগ পাবেন৷  
অতিরিক্ত সহায়তার জন্য আপনি কোথায় যেতে পারেন?
উপভোক্তাদের প্রতিবেদন এবং অভিযোগের সমাধানে সহায়তা করার জন্য এখানে বেশ কিছু সংস্থা আছে : দ্য বেটার বিজনেস ব্যুরো এবং জাতীয় উপভোক্তা লীগ উভয়েই তথ্যের প্রস্তাব দেয়৷ http://www.bbb.org/pittsburgh/migration/bbb-news-releases/2012/12/counteract-counterfeiting-and-shoddy-knock-offs-on-the-internet/ এবং www.fraud.org 
দ্য ফেডারেল ট্রেড কমিশন (FTC) প্রতারণামূলক বা অসাধু ব্যবসায়িক অনুশীলন সম্পর্কিত অভিযোগ পরিচালনা করে৷ একটি অভিযোগ জমা দিতে, http://www.ftc.gov/ftc/contact.shtm ঘুরে দেখুন 
যদি আপনার অভিযোগ একটি বিদেশি দেশের কোম্পানির বিরুদ্ধে হয়, তাহলে আপনি http://www.econsumer.gov/ -এ অভিযোগের্ প্রতিবেদন করতে পারেন৷ 
ইউরোপীয়ান ইউনিয়ানে, ইউরোপীয় উপভোক্তা সেন্টার এর নেটওয়ার্ক উপভোক্তাদের সীমানা অতিক্রম করে কেনাকাটা সম্পর্কিত সমস্যার সমাধান খুঁজে পেতে সহায়তা করে৷http://ec.europa.eu/consumers/ecc/index_en.htm

বর্তমানে অনলাইনে অনেক বেশী কেনাকাটা করা হচ্ছে৷ Google উপভোক্তাদের বিভিন্ন উপায়ে পণ্যসমূহ খুঁজে পেতে সহায়তা করছে। এবং যখন ওয়েব সামগ্রীর উপর আমাদের নিয়ন্ত্রণ থাকে না, আমরা উপভোক্তাদের নিরাপদে অনলাইনে কেনাকাটা করতে সহায়তা করতে চাই৷ কোনো সমস্যা ছাড়াই অনলাইনে একটি বড় অংশের লেনদেন সম্পন্ন হয়, কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে ঝুঁকি থাকে, এবং সেই কারণেই কিছু দরকারি টিপস আপনার জেনে রাখা দরকার। তাই নিয়ে আজকে আমাদের আয়োজন। যাতে আপনি অনলাইনে কেনাকাটা করার সময়ে কিছু সাবধানতা অবলম্বন করতে পারেন।