অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়ার খরচ যোগাতে না পেরে গাড়িতে বাস করছেন ফেসবুক কর্মী

Facebook-employees-are-living-in-the-car-without-spending-the-cost-of-apartment-rentals 


যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালিতে অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়া খুবই ব্যয়বহুল। আর উচ্চমূল্যের অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়ার খরচ যোগাতে না পেরে পিংকি পারশা নাম ফেসবুকের একজন কর্মী বাধ্য হয়েছেন নিজের গাড়িতে বসবাস করতে। ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে এই খবর প্রকাশ করা হয়।


পারশার পিংক  রঙের চুল, পিংক কার এবং পিংক রঙের কুকুরের জন্য অপ্রকাশ্যে তিনি ‘পিংকি’ নামে পরিচিতি পেয়েছেন। পিংকি জানান, তিনি এপ্রিল মাস থেকে গাড়িতে থাকছেন। কেননা সিলিকন ভ্যালিতে এক বেডরুমের অ্যপার্টমেন্টের মাসিক ভাড়া ২ হাজার ৩০০ মার্কিন ডলার। আর পিংকির মেডিকেল বিল এবং ‘স্টুডেন্ট লোন’ শোধ করতে গিয়ে তাকে এতোবড় সোশ্যাল মিডিয়ায় কাজ করেও গাড়িতে দিন কাটাতে হচ্ছে।

পারশা বলেন, আমি সবসময় মানুষকে বলি, মানুষ কী পাচ্ছে এবং বাইর থেকে কী দেখা যাচ্ছে সেগুলো দেখা বন্ধ করুন। কারণ এগুলো সঠিক নয়। তবে তিনি লোকলজ্জার কারণে এতদিন বিষয়টি প্রকাশ করেননি। পিংকির মতে, প্রতিষ্ঠানগুলোর উচিত তাদের কর্মীদের বেতনের দিকে নজর দেওয়া। এবং কর্মীরা এই বেতনে জীবন যাপন করতে পারেন কিনা সেটা তাদের জানাটা খুবই জরুরি বলেও মনে করেন তিনি।

এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে ফেসবুক বলছে, পারশা ফেসবুকের সরাসরি কোনো কর্মী নয় আর যারা কন্ট্রিবিউটর হিসেবে কাজ করেন তাদের জন্য প্রতিষ্ঠানটি কয়েক মাসের জন্য ২ কোটি ডলার বরাদ্দ করে রেখেছে। এবং ফেসবুক সবসময় প্রত্যেক কর্মীর জন্য সমান সুযোগ সৃষ্টিতে বিশ্বাসী।

পিংকি পারশা সাবেক একজন অভিনেত্রী এবং দুই সন্তানের জননী। তিনি চুক্তিভিত্তিক কন্ট্রিবিউটর হিসেবে ফেসবুকে দুইমাস আগে যোগ দিয়েছে।


যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালিতে অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়া খুবই ব্যয়বহুল। আর উচ্চমূল্যের অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়ার খরচ যোগাতে না পেরে পিংকি পারশা নাম ফেসবুকের একজন কর্মী বাধ্য হয়েছেন নিজের গাড়িতে বসবাস করতে। ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে এই খবর প্রকাশ করা হয়।