অবশেষে মুখ খুলেছেন যৌন হয়রানির শিকার ছয় নারী প্রযুক্তি উদ্যোক্তা (ভিডিও)

অবশেষে মুখ খুলেছেন যৌন হয়রানির শিকার ছয় নারী প্রযুক্তি উদ্যোক্তা (ভিডিও 


যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালির ৬ জন নারী উদ্যোক্তা তাদের সাথে হওয়া যৌন হয়রানির বিষয়ে অবশেষে সংবাদ মাধ্যম সিএনএন এর কাছে মুখ খুলেছে। ওই নারী উদ্যোক্তারা তাদের স্টার্টআপে বিনিয়োগের জন্য বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে যৌন হয়রানির শিকার হয়ে আসছিলেন এবং ভবিষ্যতে প্রযুক্তি শিল্পে এই ধরনের চর্চা বন্ধে তারা বিষয়টিকে সামনে নিয়ে আসেন বলে জানান।


চলতি মাসের শুরুতে নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, সিলিকন ভ্যালির উদ্যোক্তা ডেভ ম্যাকক্লুর কে যৌন হয়রানির দায়ে পদত্যাগ করতে হয় আর এরপরেই সিলিকন ভ্যালিতে নারীদের যৌন হয়রানির বিষয়টি নানা গনমাধ্যমে আসে। আর একাধিক নারী তাদের যৌন হয়রানি বিষয়ে নিজেদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেন।

সিসিলিয়া পাগকালিনাভান ডটকম ক্র্যাশের একজন উদ্যোক্তা। ২০০১ সালে তার জন্য ছিল একটা কঠিন সময়। প্রতিষ্ঠানের জন্য তিনি তখন অর্থ সংগ্রহ করবেন নাকি তার ২৬ জন কর্মীকে ছেড়ে দিবেন? এমতবস্থায় সিসিলিয়া নিউ ইয়র্কের সবচেয়ে বড় ভেঞ্চার ক্যাপিটালিস্টের সাথে বৈঠক করেন তার স্টার্ট আপে বিনিয়োগ করবেন এই আশায়।

সিসিলিয়ার ভাষায়, ওই বিনিয়োগকারি খুবই ব্যয়বহুল এক হোটেলে মিটিং নির্ধারণ করেন। এবং সিসিলিয়া সেখানে পৌঁছালে সে ৫ হাজার ডলারের ওয়াইন এর বোতল অর্ডার করেন। এবং সিসিলিয়া পান করেন না জানালে ওই বিনিয়োগকারী তার প্রশ্নের উত্তর দিতে অসম্মতি জানায়। এবং সিসিলিয়া মনে করতে পারছেন না কতবার তিনি তার মদের গ্লাস পুর্ন করেছিলেন এবং তার পায়ে স্পর্শ করতে চেয়েছিলেন।

এক দশকেরও বেশি সময় এ নিয়ে তিনি চুপ করে ছিলেন। তবে অবস্থার পরিবর্তনের আশায় তিনি বিষয়টিকে এতদিন পর সামনে আনেন। আর সিসিলিয়ার মতোই উদ্যোক্তা বিয়া আর্থুর, সিওয়ার্কস এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা লিসা ওয়াং, ট্রাভেল স্টার্টআপ জার্নির সহ-প্রতিষ্ঠাতা সুসান হো এবং লিটি হুসু, নারীদের গুরুত্ব দিয়ে তৈরি ব্রাভা ইনভেস্টমেন্টের সহ-প্রতিষ্ঠাতা নাথালি মলিনা নিনো তাদের এমন যৌন হয়রানির কথা জানিয়েছেন।

সিসিলিয়া জানিয়েছেন যৌন হয়রানীর ১৬ বছর পর এই হয়রানি খুব অল্পই পরিবর্তন হয়েছে জেনে তিনি খুব হতাশ হয়েছেন এবং অবাকও হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালির ৬ জন নারী উদ্যোক্তা তাদের সাথে হওয়া যৌন হয়রানির বিষয়ে অবশেষে সংবাদ মাধ্যম সিএনএন এর কাছে মুখ খুলেছে। ওই নারী উদ্যোক্তারা তাদের স্টার্টআপে বিনিয়োগের জন্য বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে যৌন হয়রানির শিকার হয়ে আসছিলেন এবং ভবিষ্যতে প্রযুক্তি শিল্পে এই ধরনের চর্চা বন্ধে তারা বিষয়টিকে সামনে নিয়ে আসেন বলে জানান।