২০১৬ সালে আমদানি হয়েছে ৩ কোটি ১০ লাখ মোবাইল ফোন

 


২০১৬ সালে বাংলাদেশে মোট ৩ কোটি ১০ লাখ মোবাইল ফোন আমদানি করা হয়েছে। আর এতে ব্যয় হয়েছে প্রায় ৮ হাজার কোটি টাকা। মোবাইল আমদানিকারকদের সংগঠন বাংলাদেশ মোবাইল ফোন ইম্পোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিবেদনে এ তথ্য বেরিয়ে এসেছে।


সংগঠনের তথ্য অনুযায়ী, উত্তরোত্তর সম্প্রসারিত এই বাজারে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন ব্র্যান্ড এসে প্রতিযোগিতা করছে। বাংলাদেশ ইতোমধ্যেই বড় বড় বাজার তৈরি করেছে। এখন এই বাজারের একটি বড় অংশ হয়েছে স্মার্টফোনের বাজার। যা মোট হ্যান্ডসেটের ৩০ শতাংশ।

প্রযুক্তিবিদরা বলছেন, তথ্য ও প্রযুক্তির প্রতি মানুষের অতিরিক্ত আগ্রহের কারণে মোবাইল ফোন আমদানি বেড়েছে।  চলতি অর্থবছরে বাজেটে সরকার কম্পিউটার, ল্যাপটপ ও ট্যাব উৎপাদনে ব্যবহার হয় এমন প্রায় ৫০টি পণ্যে আমদানি শুল্ক কমিয়ে অভিন্ন ১ শতাংশ করেছে।

অন্যদিকে, বিদেশ থেকে আমদানি করার ক্ষেত্রে শুল্ক ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১০ করা হয়েছে। সুতরাং, হ্যান্ডসেট আমদানি বেশি না বাড়লেও দেশিয়ভাবে এ বাজার আরও দ্রুত সম্প্রসারিত হবে বলেও।

২০১৬ সালে বাংলাদেশে মোট ৩ কোটি ১০ লাখ মোবাইল ফোন আমদানি করা হয়েছে। আর এতে ব্যয় হয়েছে প্রায় ৮ হাজার কোটি টাকা। মোবাইল আমদানিকারকদের সংগঠন বাংলাদেশ মোবাইল ফোন ইম্পোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিবেদনে এ তথ্য বেরিয়ে এসেছে।