বেজেলহীন বাজারের সেরা ৫ স্মার্টফোন

The-best-5-smartphone-in-the-unbaked-market 


বেজেলহীন স্মার্টফোনের জনপ্রিয়তা এখন তুঙ্গে। শাওমি মি মিক্সের সফলতা দেখে অন্যান্য স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানও বেজেলহীন স্মার্টফোন তৈরিতে মনযোগী হয়েছে। এ বছর দক্ষিণ কোরীয় প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্যামসাংও বেজেলহীন স্মার্টফোন বাজারে ছেড়েছে।


এলজি জি৬ এবং স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৮ স্মার্টফোনের বেজেলহীন ডিজাইন বলে দেয় প্রযুক্তিটি কতটুকু জনপ্রিয়তা পেয়েছে। তা ছাড়া আসন্ন আইফোন ৮ স্মার্টফোনেও সরু বেজেল থাকবে বলে শোনা যাচ্ছে। স্মার্টফোন বাজারে বেজেলহীন ডিজাইন যে বিপ্লব সৃষ্টি করবে তা যথেষ্ট অনুমেয়। প্রিয়.কমের পাঠকদের জন্য বর্তমানে বাজারের সেরা ৫টি বেজেলহীন স্মার্টফোনের যাবতীয় তথ্যাদি প্রকাশ করা হলো।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৮


স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৮ ফ্ল্যাগশিপ বেজেলহীন করে ছাড়া হয়েছে। স্যামসাংয়ের অন্য কোন স্মার্টফোনে স্ক্রিন-টু-বডি অনুপাত এতো কম ছিল না। স্মার্টফোনটিতে ১৪৪০x২৯৬০ পিক্সেল রেজ্যুলেশনের ৫.৮ ইঞ্চি কোয়াড এইচডি ডিসপ্লে বিদ্যমান। কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫/এক্সিনোজ ৮৮৯৫ সিস্টেম অন চিপসহ ফোনটিতে আছে ৪জিবি র‌্যাম। এতে আছে ৬৪জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। ওআইএস এবং এফ/১.৭ অ্যাপার্চারসহ ফোনটিতে ১২ মেগাপিক্সেল রিয়ার ও ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা বিদ্যমান। কোয়ালকম কুইক চার্জ প্রযুক্তিযুক্ত স্মার্টফোনটিতে ৩,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি বিদ্যমান। ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ন্যুগাট অপারেটিং সিস্টেমে চলে।

এলজি জি৬


এলজি জি৬ একেবারে বেজেলহীন নয়। তবে এটি প্রতিষ্ঠানটির প্রথম এজ-টু-এজ বেজেলহীন ডিসপ্লে। স্মার্টফোনটি শুধুমাত্র এর বেজেলহীনতা নয়, মানসম্মত মেটাল বডির জন্যও জনপ্রিয়তা পেয়েছে। এক হাত দিয়ে খুব সহজে ফোনটি ধরা যায়। ফোনটির স্ক্রিন-টু-বডি অনুপাত ১৮:৯। ফোনটিতে ১৪৪০x২৮৮০ পিক্সেল রেজ্যুলেশনসহ ৫.৭ ইঞ্চি কোয়াড এইচডি ডিসপ্লে বিদ্যমান। কোয়াড-কোর কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮২১ প্রসেসরসহ এতে আছে ৪জিবি র‌্যাম। ফোনটিতে ৩২/৬৪জিবি উভয় ভ্যারিয়েন্টই আছে। ফোনটিতে ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ও ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা আছে। অ্যান্ড্রয়েড ন্যুগাট অপারেটিং সিস্টেম চালিত স্মার্টফোনটিতে ৩,৩০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি বিদ্যমান।

শাওমি মি মিক্স


বেজেলহীন স্মার্টফোন মি মিক্স তৈরি করে সাড়া ফেলেছে শাওমি। স্মার্টফোনটির স্ক্রিন-টু-বডি অনুপাত ৯০ শতাংশ। মি মিক্সের ওজন ২০৮ গ্রাম। মি মিক্সে ৬.৪ ইঞ্চি ১০৮০x২০৪০ পিক্সেল রেজ্যুলেশনের ওএলইডি ডিসপ্লে বিদ্যমান। ফোনটির রিয়ার ক্যামেরা ১৬ মেগাপিক্সেল অন্যদিকে ফ্রন্ট ক্যামেরা ৫ মেগাপিক্সেল। মি ইউজার ইন্টারফেস ৮ ভিত্তিক অ্যান্ড্রয়েড মার্শম্যালো অপারেটিং সিস্টেম চালিত স্মার্টফোনটিতে ৪,৪০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি বিদ্যমান। কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮২১ সিস্টেম অন চিপযুক্ত হ্যান্ডসেটটিতে ৪জিবি/৬জিবি র‌্যাম বিদ্যমান।

এসেনসিয়াল ফোন


অ্যান্ড্রয়েডের প্রতিষ্ঠাতা অ্যান্ডি রুবিন উদ্ভাবিত এসেনসিয়াল ফোন পিএইচ-১ বেজেলহীন স্মার্টফোন। শুধুমাত্র বেজেলহীনতাই নয় মড্যুলের দিক থেকেও ফোনটি সেরা। পিএইচ-১ স্মার্টফোনটির স্ক্রিন-টু-বডি অনুপাত ৮৪.৯ শতাংশ। ফোনটিতে ২৫৬০x১৩১২ পিক্সেল রেজ্যুলেশনের ৫.৭১ ইঞ্চি এলসিডি ডিসপ্লে বিদ্যমান। ফোনটিতে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫ সিস্টেম অন চিপ আছে। সিস্টেম অন চিপে ৪জিবি র‌্যাম এবং ১২৮জিবি নেটিভ স্টোরেজ আছে। ফোনটিতে ১৩ মেগাপিক্সেল ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা এবং ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা আছে। কোয়ালকম কুইক চার্জ প্রযুক্তিসহ ফোনটিতে ৩,০৪০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি বিদ্যমান।

জেডটিই নুবিয়া জি১৭


বেজেলহীন ডিজাইনে নুবিয়া জি১৭ স্মার্টফোন বের করে জেডটিই। নুবিয়া জি১১ স্মার্টফোনের জনপ্রিয়তার পরই নতুন এ ফোন বের করা হয়। ডিভাইসটি ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা এবং ৮জিবি র‌্যাম আছে। ফুল এইচডি রেজ্যুলেশনের ফোনটিতে ৫.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে আছে। কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫ প্রসেসরসহ এতে আছে আদ্রেনো ৫৪০ চিপসেট।

বেজেলহীন স্মার্টফোনের জনপ্রিয়তা এখন তুঙ্গে। শাওমি মি মিক্সের সফলতা দেখে অন্যান্য স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানও বেজেলহীন স্মার্টফোন তৈরিতে মনযোগী হয়েছে। এ বছর দক্ষিণ কোরীয় প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্যামসাংও বেজেলহীন স্মার্টফোন বাজারে ছেড়েছে।