ফেসবুকের নতুন অফিসে যা থাকবে

ফেসবুকের নতুন অফিসে যা থাকবে  

 অফিস নয় কর্মীদের জন্য গ্রাম তৈরি করছে ফেসবুক। নতুন এ গ্রামে বাড়ি-ঘর, রিটেইল স্টোর, হোটেলসহ প্রতিষ্ঠানটির হেডকোয়ার্টার থাকবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের মেনলো পার্কের কর্পোরেট ক্যাম্পাসে নতুন এ প্রকল্প চালুর ঘোষণা দিয়েছে ফেসবুক।


ফেসবুক সদর দফতরের অপর পাশে ৪০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দিয়ে ৫৬ একর জমি কিনেছিল প্রতিষ্ঠানটি। ফেসবুকের নতুন এই গ্রামটি সেখানেই হবে। এখানে ১.৬ মিলিয়ন স্কয়ার ফুটের বাড়ি-ঘর হবে। ফেসবুক এক ব্লগ পোস্টে জানায় গ্রামটিতে প্রতিষ্ঠানটির কর্মীদের জন্য বাসস্থান, উন্নত যাতায়াত ব্যবস্থাসহ সব ধরণের সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে। ফেসবুক জানায়, ‘কর্মীদের সুযোগ-সুবিধা প্রদানে মুদি দোকান, ফার্মেসীসহ ১ লক্ষ ২৫ হাজার ফুটের রিটেইলার স্থাপন করার পরিকল্পনা করছি আমরা।’

গ্রামটিতে হোটেল থাকবে বলেও এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে সিলিকন ভ্যালি বিজনেস জার্নাল। তবে পরিকল্পনার সাথে জড়িত থাকা এক ব্যক্তি জানিয়েছেন, নতুন এ গ্রাম স্থাপন করতে এক দশক লাগবে। ফেসবুক এক ব্লগ পোস্টে জানায়, ২০২১ সালের মধ্যে গ্রামের প্রাথমিক কাজ হিসেবে বাড়ি এবং মুদিঘর তৈরি করা হবে। পরবর্তীতে প্রতি দুই বছর অন্তর অন্তর পরিকল্পনামাফিক অন্যান্য স্থাপনা তৈরি করা হবে।

ফেসবুকের কর্মকর্তারা বেশিরভাগ বাড়ি ভোগ দখলের সুযোগ পাবেন। বাড়ির ইউনিটগুলোর দাম সচারচর বাজারমূল্যের থেকে কম হবে। ব্লগ পোস্টে বলা হয়, সদর দফতরের পাশে কর্মীদের আবাসন নিশ্চিত করার মাধ্যমে ওই এলাকায় ট্রাফিক জ্যামও কমে যাবে। ফেসবুকের কর্মকর্তাদের নিয়ে একটি সম্প্রদায় গড়ে তুলতে কাজ করে যাচ্ছে। ফেসবুক পরিকল্পনাটি সদর দফতরে উপস্থাপন করেছে। তবে কাজ গড়াতে আরও দুই বছর সময় লাগবে বলে আশা করা হচ্ছে। পরিকল্পনা অনুযায়ী একটি ভিডিও তৈরি করেছে ফেসবুক।

অফিস নয় কর্মীদের জন্য গ্রাম তৈরি করছে ফেসবুক। নতুন এ গ্রামে বাড়ি-ঘর, রিটেইল স্টোর, হোটেলসহ প্রতিষ্ঠানটির হেডকোয়ার্টার থাকবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের মেনলো পার্কের কর্পোরেট ক্যাম্পাসে নতুন এ প্রকল্প চালুর ঘোষণা দিয়েছে ফেসবুক।