ডিজিটাল বিশ্বের গেটওয়ে হবে বাংলাদেশ: পলক

Bangladesh-will-be-the-gateway-to-digital-world-Pollock 

 বৈশ্বিক প্রযুক্তি খাতে সম্পৃক্ত করার মতো পর্যাপ্ত জনবল থাকার কারণে বাংলাদেশই ভবিষ্যতে ডিজিটাল বিশ্বের গেটওয়ে হবে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। তিনি বলেন, ‘আমাদের তরুণ প্রজন্মের বেশিরভাগই প্রযুক্তিসেবী। এই তরুণ প্রজন্মকে কেন্দ্র করেই আমরা সব কৌশল নির্ধারণ করছি। ইন্টারনেট অব থিংস, অ্যানালাইটিকস, সোস্যাল মিডিয়া ম্যানেজমেন্ট, ক্লাউড, মোবাইল প্রযুক্তি, রোবোটিকস, নলেজ প্রসেস আউটসোর্সিং (কেপিও) ইত্যাদি খাত বিশ্বব্যাপী প্রসার পাচ্ছে। আর এসব খাতে সম্পৃক্ত করার মতো প্রয়োজনীয় লোকবলও আমাদের আছে। এ কারণেই বাংলাদেশ প্রযুক্তিবিশ্বের গেটওয়ে হয়ে উঠবে।’


সোমবার (৩১ জুলাই) রাতে রাজধানীর এক হোটেলে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অধীন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) লিভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ, এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড গভর্ন্যান্স (এলআইসিটি) প্রকল্প আয়োজিত ‘স্ট্র্যাটেজিক সিইও আউটরিচ প্রোগ্রামে’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পলক এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়িক নেতাদের দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ এরই মধ্যে নিম্নমধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। অর্থনৈতিক উন্নয়নের এ ধারা বজায় রাখতে তথ্যপ্রযুক্তিই হলো সবচেয়ে সহজ ও দ্রুততম নিয়ামক। সরকারও এই খাতে গুরুত্ব দিচ্ছে। সেই অনুযায়ী দেশে গড়ে উঠছে আইসিটি ইকোসিস্টেম।’

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তথ্যপ্রযুক্তি সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরী বলেন, ‘দেশের বিকাশমান আইটি খাতের জন্য বিনিয়োগ বাড়ানো ও কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি— দু’টোই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই দুই বিষয়সহ আইটি খাতের উন্নয়নে এলআইসটি প্রকল্প থেকে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক খ্যাতিমান প্রতিষ্ঠান বিসিজিকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আমরা আশা করছি, সিইও আউটরিচ প্রোগ্রামের মাধ্যমে দেশের আইটি খাত আরও বিকশিত হবে।’

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বিসিজি আগামী দু’বছর দেশের আইটি প্রতিষ্ঠান ও এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের (সিইও) সঙ্গে বিদেশের আইটি প্রতিষ্ঠান ও সিইওদের যোগাযোগ, সম্পর্ক ও ব্যবসায়িক উন্নয়ন ঘটিয়ে আইসিটি খাতে বিনিয়োগ বাড়ানো ও কর্মসংস্থান তৈরির লক্ষ্যে কাজ করবে।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অথরিটির (বিডা) চেয়ারম্যান কাজী আমিনুল ইসলাম, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান, বাংলাদেশ ব্যাংক, শিল্প প্রতিষ্ঠান ও আইটি খাত সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান ও শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়িক সংগঠনের প্রতিনিধি এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈশ্বিক প্রযুক্তি খাতে সম্পৃক্ত করার মতো পর্যাপ্ত জনবল থাকার কারণে বাংলাদেশই ভবিষ্যতে ডিজিটাল বিশ্বের গেটওয়ে হবে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। তিনি বলেন, ‘আমাদের তরুণ প্রজন্মের বেশিরভাগই প্রযুক্তিসেবী। এই তরুণ প্রজন্মকে কেন্দ্র করেই আমরা সব কৌশল নির্ধারণ করছি। ইন্টারনেট অব থিংস, অ্যানালাইটিকস, সোস্যাল মিডিয়া ম্যানেজমেন্ট, ক্লাউড, মোবাইল প্রযুক্তি, রোবোটিকস, নলেজ প্রসেস আউটসোর্সিং (কেপিও) ইত্যাদি খাত বিশ্বব্যাপী প্রসার পাচ্ছে। আর এসব খাতে সম্পৃক্ত করার মতো প্রয়োজনীয় লোকবলও আমাদের আছে। এ কারণেই বাংলাদেশ প্রযুক্তিবিশ্বের গেটওয়ে হয়ে উঠবে।’