বাংলালিংকের ফোরজি ইন্টারনেটের প্রস্তুতি

Banglalinks-mobile-internet-preparation 

বাংলাদেশের অন্যতম ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বাংলালিংক উন্নত ও আধুনিক ফোরজি নেটওয়ার্ক স্থাপনের মাধ্যমে সকলের কাছে চতুর্থ প্রজন্মের ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে প্রস্তুতি নিচ্ছে। গ্রাহকদের কাছে উচ্চমাত্রার ইন্টারনেট ও নিরবিচ্ছিন্ন যোগাযোগ সেবা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে বাংলালিংক অবিরতভাবে কাজ করে যাচ্ছে এবং নেটওয়ার্ক ক্রমাগত উন্নয়নের মাধ্যমে তা নিশ্চিত করছে।


সম্প্রতি ঢাকা সফরকালে এক সংবাদ সম্মেলনে ভিওনের সিইও জন- ইভস্‌ সার্লিয়ার আগামী ৩ বছরে বাংলাদেশে ১ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন, যার মধ্যে প্রায় অর্ধেক বিলিয়ন ডলার ব্যয় হবে শুধু নেটওয়ার্ক উন্নয়নের জন্য। এর ফলস্বরূপ আরও বেশি নতুন ডিজিটাল সার্ভিস, গ্রাহকদের সন্তুষ্টি ও সত্যিকার অর্থে ডিজিটাল জীবনযাপন বাস্তবায়ন করা যাবে।

ডিজিটাল জীবনযাপন আগামী দিনের বাস্তবতা। স্মার্টফোন ও নির্ভরযোগ্য ইন্টারনেট ব্যবহারের কারণে এখন সমগ্র বিশ্ব একজন ব্যক্তির হাতের মুঠোয় চলে এসেছে। ইন্টারনেটের ব্যবহার দ্রুত বৃদ্ধির ক্ষেত্রে সমগ্র বিশ্বে বাংলাদেশ অন্যতম। বর্তমানে দেশের ৩০% মানুষ স্মার্টফোন ব্যবহার করছে এবং এই সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে বেড়ে চলেছে।

বাংলালিংক দ্রুতগতির ও সাশ্রয়ী মূল্যের ইন্টারনেট সেবা দেওয়ার লক্ষ্য নিয়ে সামনে এগিয়ে চলছে। প্রতিষ্ঠানটির এই উদ্যোগের ফলে নতুন সুযোগের সৃষ্টি হবে এবং এটি ডিজিটাল ইকোনমি, ডিজিটাল হেলথ, ডিজিটাল এডুকেশন ও অন্যান্য অনেক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে বাংলাদেশকে তথ্য, জ্ঞান ও ডিজিটাল সেবা ভিত্তিক মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করতে সাহায্য করবে।

গ্রাহক সেবা ও বাংলাদেশ সরকারের ডিজিটাল ভিশনকে সামনে রেখে বাংলালিংক একটি শক্তিশালী ফোরজি নেটওয়ার্ক চালু করতে প্রস্তুত। গত বছর বাংলালিংকের নেটওয়ার্কে ফোরজি সেবার পরীক্ষা সফলভাবে সম্পন্ন হয়। এছাড়া নেটওয়ার্ক আধুনিকীকরণের জন্য অভিনব উদ্যোগ নেওয়া এবং সম্প্রতি সিমগুলোকে ফোরজিতে রূপান্তর করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এছাড়াও দ্রুতগতির থ্রিজি সেবা প্রদানের লক্ষ্যে নেটওয়ার্কের কাভারেজ আরো বিস্তৃত ও উন্নত করার লক্ষ্যে নেটওয়ার্কে বিনিয়োগ করা অব্যাহত রয়েছে। বর্তমানে ৯০% এর বেশি সাইট থ্রি-জি কাভারেজের আওতায় আনা হয়েছে এবং এই বছরের মধ্যে বাকি অংশও আপগ্রেড করা হবে।

বাংলালিংকের চিফ টেকনোলজি অফিসার পিয়েরে বউট্রস ওবেইদ বলেন, ‘সর্বাধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে গ্রাহকদের চাহিদা পূরণ করার ক্ষেত্রে বাংলালিংক অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। আমরা বিশ্বাস করি, ডিজিটাল সেবা প্রদানের মাধ্যমে ভবিষ্যতের দ্বার উন্মোচিত হবে এবং ফোরজি প্রযুক্তি আমাদেরকে এই সার্ভিস প্রদান করতে সক্ষম করে তুলবে। সকলের জন্য সার্বিকভাবে ডিজিটাল জীবনযাপন নিশ্চিত করার জন্য সর্বোৎকৃষ্ট ফোরজি নেটওয়ার্ক প্রদানে আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।’

প্রযুক্তির মাধ্যমে জীবনযাত্রাকে পরিবর্তন করার ক্ষেত্রে একটি দৃষ্টান্তমূলক ভূমিকা রেখে গত বারো বছর ধরে বাংলাদেশে কার্যক্রম পরিচালনা করছে বাংলালিংক। শুধু টেলিকম ইন্ডাসট্রিকে এগিয়ে নেওয়াই নয়, বাংলাদেশ সরকারের ডিজিটাল ভিশন বাস্তবায়নের ক্ষেত্রেও সহায়ক ভূমিকা পালন করছে বাংলালিংক।

বাংলাদেশের অন্যতম ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বাংলালিংক উন্নত ও আধুনিক ফোরজি নেটওয়ার্ক স্থাপনের মাধ্যমে সকলের কাছে চতুর্থ প্রজন্মের ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে প্রস্তুতি নিচ্ছে। গ্রাহকদের কাছে উচ্চমাত্রার ইন্টারনেট ও নিরবিচ্ছিন্ন যোগাযোগ সেবা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে বাংলালিংক অবিরতভাবে কাজ করে যাচ্ছে এবং নেটওয়ার্ক ক্রমাগত উন্নয়নের মাধ্যমে তা নিশ্চিত করছে।