ঈদে অতিথি আপ্যায়নে গরুর মাংসের গ্লাসি

Most-earning-actresses-in-Forbess-list 
 

ভোজন রসিকদের কাছে গরুর মাংসের গ্লাসি একটি লোভনীয় নাম। আর এক ঘেয়ে গরুর রান্না কতো ভালো লাগে? তাই মাঝে মধ্যে পরিচিত স্বাদ থেকে একটা বিরতি নেয়াই যায়। গরুর মাংস প্রেমীদের জন্য আজ থাকছে চমৎকার গরুর মাংসের গ্লাসি রেসিপি। গ্লাসি নামটা ইংরেজি হলেও এটি একটি বাংলা রেসিপি। খাবারের মধ্যে নতুনত্ব আনতে চাইলে গরুর মাংসের গ্লাসি অনন্য। ঈদে অতিথি আপ্যায়নের জন্য গরুর মাংসের গ্লাসি করবে আরো আনন্দময়।


উপকরণ :

দেড় কেজি গরুর মাংস
পেঁয়াজবাটা ১/২ কাপ
আদাবাটা ২ টেবিল-চামচ
রসুনবাটা ১ চা-চামচ
ধনেবাটা ১ চা-চামচ
পোস্তবাটা ১ টেবিল-চামচ
দুধ ১ কাপ
কাঁচা মরিচ ১০টি
সাদা গোলমরিচের গুঁড়া ১ চা-চামচ
টকদই ১ কাপ
পরিমাণম তো লবণ
ঘি ১ কাপ
মাওয়া ২ টেবিল-চামচ
এলাচি ৪টা
দারচিনি ৪ টুকরা
তেজপাতা ২টা
মিষ্টি দই ২ টেবিল-চামচ
পেঁয়াজকুচি ২ কাপ
জয়ত্রী-জায়ফলগুঁড়া আধা চা-চামচ
গরম মসলা গুঁড়ো ১ চা-চামচ
গোলাপজল ১ চা-চামচ

প্রণালি :

জয়ত্রী-জয়ফল, আদা, রসুনবাটা, ধনেবাটা, পেঁয়াজবাটা, সাদা গোল মরিচ গুঁড়ো, সিকি কাপ টকদই ও ঘি একটি পাত্রে ভালো মতো মাখিয়ে নিয়ে চুলায় এক ঘণ্টা রাখুন। এবার লবণ, দারচিনি, এলাচি, তেজপাতা দিন। অন্য একটি পাত্রে এক কাপ ঘি গরম করে পেঁয়াজ বাদামি করে ভেজে মসলা মাখানো মাংস দিয়ে ভালোভাবে কষিয়ে নিন। দেখে নিন, মাংস সেদ্ধ হলো কি না। এবার কাঁচা মরিচ ও গরম মসলা মাংসের ওপর ছড়িয়ে দিয়ে কিছুক্ষণ চুলায় রেখে নামিয়ে ফেলুন। হয়ে গেল গরুর মাংসের গ্লাসি। এবার গরম গরম পরিবেশন করুন।

ভোজন রসিকদের কাছে গরুর মাংসের গ্লাসি একটি লোভনীয় নাম। আর এক ঘেয়ে গরুর রান্না কতো ভালো লাগে? তাই মাঝে মধ্যে পরিচিত স্বাদ থেকে একটা বিরতি নেয়াই যায়। গরুর মাংস প্রেমীদের জন্য আজ থাকছে চমৎকার গরুর মাংসের গ্লাসি রেসিপি। গ্লাসি নামটা ইংরেজি হলেও এটি একটি বাংলা রেসিপি। খাবারের মধ্যে নতুনত্ব আনতে চাইলে গরুর মাংসের গ্লাসি অনন্য। ঈদে অতিথি আপ্যায়নের জন্য গরুর মাংসের গ্লাসি করবে আরো আনন্দময়।