শেষ জন্মদিনে নায়করাজ, ..

 

গত ২১ আগস্ট চিকিৎসারত অবস্থায় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন নায়করাজ রাজ্জাক। তাঁর প্রয়াণে শোকের ছায়া নেমে আসে অভিনয় অঙ্গন ছাড়াও জনসাধারণের মনে। পরদিন, ২২ আগস্ট তাঁর মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হয়েছিল এফডিসিতে। সেখানে তাঁর জানাজা শেষে এই কীর্তিমানের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করতে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। সেখানে তাকে শ্রদ্ধা জানান সর্বসাধারণ। অতঃপর গতকাল বাদ আছর বিকাল পাঁচটার দিকে গুলশান আজাদ মসজিদে নায়করাজের দ্বিতীয় দফা জানাজা সম্পন্ন করা হয়েছে। কিন্তু তাঁর মেঝো ছেলে রওশন হোসেন বাপ্পী কানাডা থাকায় পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল দাফনের সময়। গতকালই বাপ্পী কানাডা থেকে বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে রওনা হন। বাপ্পী আজ সকালে কানাডা থেকে দেশে ফেরার পর সকাল ১০টা ২০ মিনিটে বনানী কবরস্থানে রাজ্জাকের দাফন সম্পন্ন হয়।


নায়করাজ রাজ্জাক রাজ্জাক ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার টালিগঞ্জে ১৯৪২ সালের ২৩ জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করেছিলেন। নায়করাজ রাজ্জাকের শেষ জন্মদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নায়িকা নূতন ও অঞ্জুঘোষ। তাঁরা বেশ ফুর্তি করে আমোদিত করে তুলেছিলে নায়করাজের জন্মদিন, ও তাঁর মনকে। এমন দৃশ্য, এমন ভিডিওয়ের অবতারণা এই পৃথিবীতে আর দ্বিতীয়বার হবে না। আমাদের নায়করাজ আমাদের মাঝে নেই। শুধু রয়ে গিয়েছে তাঁর স্মৃতি। 

গত ২১ আগস্ট চিকিৎসারত অবস্থায় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন নায়করাজ রাজ্জাক। তাঁর প্রয়াণে শোকের ছায়া নেমে আসে অভিনয় অঙ্গন ছাড়াও জনসাধারণের মনে। পরদিন, ২২ আগস্ট তাঁর মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হয়েছিল এফডিসিতে। সেখানে তাঁর জানাজা শেষে এই কীর্তিমানের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করতে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। সেখানে তাকে শ্রদ্ধা জানান সর্বসাধারণ। অতঃপর গতকাল বাদ আছর বিকাল পাঁচটার দিকে গুলশান আজাদ মসজিদে নায়করাজের দ্বিতীয় দফা জানাজা সম্পন্ন করা হয়েছে। কিন্তু তাঁর মেঝো ছেলে রওশন হোসেন বাপ্পী কানাডা থাকায় পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল দাফনের সময়। গতকালই বাপ্পী কানাডা থেকে বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে রওনা হন। বাপ্পী আজ সকালে কানাডা থেকে দেশে ফেরার পর সকাল ১০টা ২০ মিনিটে বনানী কবরস্থানে রাজ্জাকের দাফন সম্পন্ন হয়।