মোবাইল ইন্টারনেট গতিতে বাংলাদেশ ১২০তম, ব্রডব্যান্ডে ৭৮


মোবাইল ইন্টারনেটের গতিতে বিশ্বের ১২২টি দেশের র‌্যাংকিং এবং ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের গতিতে বিশ্বের ১৩৩টি দেশের র‌্যাংকিং প্রকাশ করেছে, ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট গতি পরীক্ষাকারী বিশ্বের শীর্ষ প্রতিষ্ঠান ‘ওকলা’।

প্রকাশিত র‌্যাংকিংয়ে দেখা গেছে, মোবাইল ইন্টারনেটের গতিতে ১২২টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১২০তম এবং ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের গতিতে ১৩৩টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ৭৮তম।

দেশে মোবাইল ইন্টারনেটের ডাউনলোড গতি প্রতি সেকেন্ডে ৫.১৭ মেগাবাইট এবং ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের ডাউনলোড গতি প্রতি সেকেন্ডে ১৫.৯১ মেগাবাইট।

ইন্টারনেটের গতি পরীক্ষার ওয়েবসাইট স্পিডটেস্টে প্রত্যেকটি দেশের মোবাইল ইন্টারনেটের এবং ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের ডাউনলোড এবং আপলোড গতির তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

মোবাইল ইন্টারনেটের গতিতে বিশ্বে প্রথম স্থানে রয়েছে নরওয়ে। তাদের ডাউনলোড গতি সেকেন্ডে ৫২.৫৯ মেগাবাইট। মাত্র ১৩ মাসে মোবাইল ইন্টারনেট গতিতে ১১তম স্থান থেকে প্রথম স্থানে পৌঁছেছে দেশটি। নরওয়েজিয়ানদের মোবাইল ইন্টারনেটের গতি গতবছরে গড়ে ৬৯ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। নরওয়ের অন্যতম প্রধান টেলিকম অপারেটর ‘টেলিনর’ এক্ষেত্রে অবদান রেখেছে। টেলিটর তাদের প্রত্যেক গ্রাহকের জন্য উচ্চগতির মোবাইল ইন্টারনেট সুবিধা এনেছে। মোবাইল ইন্টারনেটের গতিতে নরওয়ের অবস্থান বিশ্বের প্রথম হলেও, ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের গতিতে দেশটির অবস্থান ১৯তম।

মোবাইল ইন্টারনেটের গতিতে বিশ্বে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে নেদারল্যান্ড এবং তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে হাঙ্গেরি। ৫.১৭ ডাউনলোড গতি নিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান ১২০তম। ১২১তম অবস্থানে রয়েছে কোস্টারিকা (ডাউনলোড গতি ৩.৭৯ মেগাবাইট) এবং ১২২তম অবস্থানে রয়েছে ইরাক (ডাউনলোড গতি ৩.০৩ মেগাবাইট)।

অন্যদিকে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের গতিতে বিশ্বে প্রথম স্থানে রয়েছে সিঙ্গাপুর। দেশটিতে ব্রডব্রান্ড ইন্টারনেটের ডাউনলোড গতি বিশ্বে সর্বোচ্চ, ১৫৪.৩৮ মেগাবাইট। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া এবং তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে হংকং। বাংলাদেশের অবস্থান ৭৮তম (ডাউনলোড গতি ১৫.৯১ মেগাবাইট)।

পুরো তালিকাটি দেখা যাবে www.speedtest.net/global-index থেকে।